Author Topic: Should not talk about seven with co-workers.  (Read 473 times)

Offline M H Parvez

  • Full Member
  • ***
  • Posts: 109
  • Learning to Learn
    • View Profile
Should not talk about seven with co-workers.
« on: September 19, 2013, 07:20:18 PM »
অফিস বা ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের অনেক সহকর্মীই আপনার বন্ধু হয়ে উঠতে পারেন। ছোট, বড় বা সমবয়েসীদের সঙ্গে সম্পর্ক গড়াতে পারে নানা পর্যায়ে। তবুও পেশাগত জীবনে আপনাকে পেশাদার হতে হবে। তাই সহকর্মীদের সাথে চলাফেরার বিষয়ে কিছু সাবধানতা অবলম্বন করাটাই উচিত। কর্মস্থলের পরিচিত মানুষগুলোর মধ্যে সম্পর্কের মাত্রা কী হতে পারে তা নিয়ে সূক্ষ্ম গবেষণা করেছেন বিশেষজ্ঞরা। তাদের মতে, পারিবারিক জীবনের সঙ্গে পেশাগত জীবনকে গুলিয়ে ফেলা যাবে না। অফিসপাড়ার নিয়মকানুনের বাইরে না গিয়ে সহকর্মীদের সাথে চমৎকার সম্পর্ক বজায় রাখার জন্যে অনেক কিছুই করার আছে। কিন্তু বিশেষজ্ঞরা সাতটি বিষয় তুলে ধরেছেন আপনাদের সামনে, যেগুলো নিয়ে সহকর্মীদের সাথে আলোচনা করাটা মোটেই ভাল কাজ হবে না। তাই এই সাতটি বিষয় এড়িয়ে চলুন। নয়তো জড়িয়ে পড়বেন নানা সমস্যায়।

তালিকার প্রথমেই 'সেক্স লাইফ'কে রেখেছেন বিশেষজ্ঞরা। সহকর্মীদের সাথে নিজের সেক্স লাইফ নিয়ে আলোচনা করবেন না। এসব আলোচনা সবচাইতে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে ফেলতে পারে আপনাকে। বিশেষ করে নারীদের জন্যে এ আলোচনা রীতিমতো বিপদজনক হয়ে উঠতে পারে। এ কাজটির পরিণাম জন্ম দিতে পারে যৌন নিপীড়নের মতো মারাত্মক অপরাধের।

দ্বিতীয়ত, অফিসে কারো দায়িত্বহীনতা অন্যের কাছে তুলে ধরবেন না। সবারই নিজ নিজ দায়-দায়িত্ব সম্পর্কে সচেতন থাকা দরকার। অন্যের ব্যাপারে নিজের ব্যক্তিগত নেতিবাচক মতামতগুলো প্রকাশ করার প্রয়োজন নেই। এর ফলাফল খুব বাজেভাবে আসতে পারে। একই ঘটনা আপনার ক্ষেত্রেও ঘটতে পারে।

তৃতীয় অবস্থানে আছে বসে বসে গাল-গপ্পো করা। অবসর থাকলেও এ কাজটি করা ঠিক নয়। পেশার জায়গায় যারা একটু বেশি বেশি গল্প করেন, তাদেরকে কর্মোদ্যমী হিসেবে দেখা হয় না। এদের দিয়ে কাজের কাজ একটু কমই হয় বলে মনে করা হয়।

চার নম্বরের বিষয়টি হলো, আপনি ছুটির দিনটিতে কী কী করলেন তা উর্ধ্বতনকে বলতে যাবেন না। বিশেষ করে, ছুটিটা খুব আরাম-আয়েশে কাটিয়েছেন- এমন যদি বলেন, তাহলে বসদের মনে হতে পারে যে, অফিসের কাজের সময় হয়তো আপনি এভাবেই আয়েশে কাটান।

পঞ্চমত, হঠাৎ একদিন দেখলেন আপনার সহকর্মী কিছুটা হতাশাগ্রস্ত। মন ভাল না থাকলে তার আচরণে কিছুটা অসৌজন্যতা প্রকাশ পেতে পারে। এমন হলে আপনি একটু সাবধান হয়ে যান। তার আচার-আচরণ বুঝে তার সাথে কথা বলুন। এক্ষেত্রে আপনার কৌশলী হতে হবে।

ছয় নম্বরে আছে নিজের জীবনের ব্যক্তিগত ব্যাপার। আপনার জীবনের বড় কোনো ভুল নিয়ে কখনোই সহকর্মীদের সঙ্গে আলাপ করবেন না। আপনার পরিবারের কারো সাথে বা বন্ধুদের সাথে এটা করা যায়। কিন্তু পেশাগত জীবনে সহকর্মীদের সাথে তা করা অনুচিত।

সবার শেষে সাত নম্বরেও আপনার ব্যক্তিগত বিষয় চলে এসেছে। আপনার জীবনের বড় কিছু, তা ভাল বা খারাপ যাই হোক না কেনো, এগুলো নিয়ে কথা না বলাই ভাল। বড় সমস্যা না থাকলেও এসব প্রকাশভঙ্গিতে ভুল থাকলে বাজে পরিস্থিতির উদ্রেক হতে পারে।


ইন্টারনেট থেকে
« Last Edit: September 20, 2013, 01:24:31 PM by Badshah Mamun »
M M Hasan Parvez
Officer, Dept. of GED
Research Scholar (PhD), KIIT University
Daffodil Tower
Daffodil International University
​Cell: +88 01847 140011, Ext: 347

Offline Yousuf.Chy

  • Full Member
  • ***
  • Posts: 242
    • View Profile
Re: Should not talk about seven with co-workers.
« Reply #1 on: November 26, 2013, 12:22:14 PM »
Yes, this should be followed, it will help to build professionalism.
Yousuf Chowdhury
Student Counselor,
Daffodil International University
Member, DIUAA
Cell: +880 01713493051.
E-mail: yousuf.chy@daffodilvarsity.edu.bd