Author Topic: প্রভাবশালী নেতৃত্বের সাতটি বৈশিষ্ট্য  (Read 489 times)

Offline sadia.ameen

  • Sr. Member
  • ****
  • Posts: 266
  • Test
    • View Profile
নিঃসন্দেহে বলা যায় বর্তমান পৃথিবীর অনেক কাজই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের উপর নির্ভরশীল। এর ফলে কাজের ধরণ, খেলাধুলা, বন্ধুত্ব, ব্যবসা, প্রণয় সবকিছু পরিবর্তিত হয়েছে। এখন প্রশ্ন হল, কোথা থেকে শুরু করতে হবে?

লিডারদের জন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম একটি অনন্য বস্তু। এটি যোগাযোগের ক্ষেত্রে নতুন মাত্রা স্থাপন করছে। জনগন ও প্রতিষ্ঠানের কর্ণধারদের মধ্যে সম্পর্ক স্থাপন করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। এর মাধ্যমে সংলাপ ও ফোরাম তৈরী হয় এবং একই সাথে উৎপাদন, একতা ও মুনাফা বৃদ্ধি পায়।

আশ্চর্যকর বিষয় হচ্ছে শতকরা ৭০-৮০ ভাগ লিডার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করেন না। যা কিনা এক হাত পেছনে বাঁধা অবস্থায় টেনিস খেলার মত। আর বাকি যারা আছেন তাদের বেশির ভাগই আংশিকভাবে এতে সক্রিয়। আসুন দেখা যাক, প্রভাবশালী নেতৃত্বের বৈশিষ্ট্যগুলো আসলে কেমন।
আত্মপরিচয়

আপনার পক্ষে কখনোই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিশেষ ব্যক্তি হওয়া সম্ভব না যদি আপনি সত্য পরিচয় প্রকাশ না করেন। পরিচয় গোপন রেখে আপনার সহকর্মী ও কর্মকর্তাদের সাথে ভাল সম্পর্ক গড়ে তোলা অসম্ভব । সুতরাং মুক্তমনা ও স্বচ্ছ হোন। আপনার পক্ষে সর্বোচ্চ যা হওয়া সম্ভব তাই হয়ে উঠুন। মনে রাখবেন মূল্যবোধ অমূল্য বস্তু।
তথ্য আদান প্রদান

সবার কাছে সবকিছু বলা আপনার পক্ষে সম্ভব না, তারপরও সবার সংস্পর্শে গিয়ে আপনার কথাকে হালকা করারও মানে হয় না। কিন্তু লোকজন যখন আপনার কোন লেখা পড়বে তারা অনেক কিছু শিখবে, উৎসাহিত হবে এবং তাদের শক্তি বৃদ্ধি পাবে।
পরিমাণের চেয়ে মানকে গুরুত্ব দিন

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সবার পোস্ট আমরা পড়তে চাই না, কারণ সবার কাছ থেকে ভাল শিখা যায় না। দুপুরের খাবারে কি মেন্যু ছিল এমন পোস্ট যারা দেন নিশ্চয় তাদের পোস্ট গুরুত্বপূর্ণ নয়। আপনার প্রতিটি পোস্ট যেন গুরুত্বপূর্ণ হয় তা নিশ্চিত করুন। খুব ঘন ঘন পোস্ট দেয়ার চেয়ে মাঝে মাঝে খুব ভাল পোস্ট দেয়াই উত্তম।
একটি সঠিক আলোচনা শুরু করুন

সামাজিক যোগাযোগের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে তা কর্মকর্তাদের অন্তর্দৃষ্টি ও সম্যক ধারণা বাড়িয়ে তোলে। একজনের চিন্তা অন্যজনের সাথে শেয়ারের মাধ্যমে সবার মধ্যে বিরাট চিন্তার উদ্ভব ঘটতে থাকে। তাই, যোগ্য নেতারা সঠিক আলোচনা শুরু করেন সামাজিক মাধ্যমে।
আপনার সাইটে বিনিয়োগ করুন

আমরা এমন অনেক সাইট দেখি যেগুলো ক্লান্ত ও ধীরগতির এবং বন্ধুভাবাপন্ন নয়। এ ধরণের সাইট কর্মপরিবেশ ধ্বংস করে। কাজের সুষ্ঠ পরিবেশের জন্য আপনার সাইটটিকে গতিসম্পন্ন ও সবার জন্য উন্মুক্ত রাখতে হবে।
পোস্ট দেয়ার আগে ভাবুন

সবাইকে উজ্জীবিত করার জন্য আপনি চেষ্টা করে চলেছেন। দুর্বল কিংবা সন্দেহজনক কিংবা অস্পষ্ট কোন পোষ্ট দেয়া যাবে না। অন্যান্য শক্তিশালী মাধ্যমের মত এখান থেকেও বড় কোন ভুলের জন্ম নিতে পারে। সবসময় খোলাখুলি ও স্বতঃস্ফূর্ত থাকুন কিন্তু কাজ করার আগে অবশ্যই ভাবুন।
ফূর্তিময় হয়ে উঠুন

সবকিছুই গতানুগতিক, তাই নয় কি? গতানুগতিক হতেও পারে নাও হতে পারে তবে মেধাবী ও ফলপ্রসু লিডাররা যা করেন তা ভালবাসা দিয়েই করেন। খেলাচ্ছলে তারা কাজকে হাসিল করে নেয়। সফলতার মধ্য দিয়েই সবকিছু বিস্ফোরিত হয়ে ওঠে।