Author Topic: Venture Capital (ভেঞ্চার ক্যাপিটাল) কি?  (Read 1660 times)

Offline Md. Rashadul Islam

  • Newbie
  • *
  • Posts: 29
  • Test
    • View Profile
Venture Capital (ভেঞ্চার ক্যাপিটাল) কি?
একজন উদ্যোক্তার মাথায় যখন ব্যবসায়িক বুদ্ধি আসে, তখন নিজের সাধ্যমত অর্থ দিয়ে তিনি ব্যবসা শুরু করেন৷ তার পর হাত পাতেন পরিবার, বন্ধুবান্ধব এবং আত্মীয় স্বজনদের কাছে৷ এর পর চড়াই উত্‍রাই পার করার পর ব্যবসায় সাফল্য এলে উদ্যোক্তা আগ্রহী হন ব্যবসাটাকে বাড়ানোর জন্য৷ কিন্তু এখন এই অর্থের যোগান আসবে কোথা থেকে? কে দেবে এই অর্থ? অনেকের কাছেই যেতে হয় অর্থের যোগানের জন্য কিন্তু হতাশার বাণী ছাড়া আর কিছুই মেলেনা৷ শেষ ভরসা ব্যাংক৷ কিন্তু ব্যাংক যখন দেখে, এখনো ব্যবসা লাভের মুখ দেখিনি আবার ব্যবসার বয়স এখনো দুই বছর পার হয়নি, তখন উদ্যোক্তাকে কোন আশার বাণী শোনাতে পারেনা৷ ব্যাংক এবং লিজিং কোম্পানির সাথে ভেঞ্চার ক্যাপিটাল ফার্মের মধ্যে সবচেয়ে বড় পার্থক্য হল; তারা ঋণ দেয় না৷ তারা কোম্পানির অংশীদার হিসেবে কাজ করে; এমনকি অনেক ক্ষেত্রে তার কোম্পানি পরিচালনায় অংশ গ্রহন করে যাতে কোম্পানি লোকসানের মুখে না পড়ে৷ যেহেতু কোম্পানির সাফল্য মানে ভেঞ্চার ক্যাপিটাল ফার্মের সাফল্য সেহেতু কোম্পানিকে লাভজনক করারার জন্য চেষ্টার কোন ত্রুটি  থাকেনা৷ ভেঞ্চার ক্যাপিটাল বিনিয়োজিত কোম্পানিতে চিরদিন অংশীদার হিসেবে থাকার জন্য আসেনা৷

ভেঞ্চার ক্যাপিটাল কি ভাবে কাজ করে?
ভেঞ্চার ক্যাপিটাল ফার্ম বা কোম্পানি নির্দিষ্ট উদ্দেশে তহবিল বা ফান্ড উত্তোলন করে৷ সাধারণত বিত্তশালীদের এই ফান্ডে বিনিয়োগ করার জন্য উত্‍সাহিত করা হয়৷ ঝুঁকি বেশী থাকার কারণে সাধারণ এবং খুচরা ব্যবসায়ীদের আহ্বান করা হয়না৷ যেহেতু ফান্ড বা তহবিল সংগ্রহ করে বিনিয়োগের জন্য, এজন্য তারা ব্যবস্থাপনা ফি নিয়ে থাকে৷ ভেঞ্চার এর মেয়াদ ৫ থেকে ১০ বছর পর্যন্ত হয়৷ ভেঞ্চার ফান্ডে যারা বিনিয়োগ করে তাদের লিমিটেড পার্টনার বা এলপি বলে; আর যারা ফান্ড ব্যবস্থাপনা ও বিনিয়োগ করে , তাদের জেনারেল পার্টনার বা জিপি বলে৷ ভেঞ্চার ফার্ম বিনিয়োগের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়৷ এই বিনিয়োগ সাধারণত ৩ থেকে ৮ বছর পর্যন্ত হয়ে থাকে৷ বিনিয়োগ পার্টনারশীপের মাধ্যমে হয় তাই মেয়াদ উত্তীর্ণ হলে সুবিধাজনক সময়ে ফার্ম সে শেয়ার বিক্রি করে বা সমঝোতার মাধ্যমে ভেঞ্চার ক্যাপিটালকে পে-করে একক মালিকানা বা অন্য কোন ব্যক্তি বা ফার্মের সাথে আবার পার্টনারশীপ করতে পারে৷ শেয়ার সবসময় যে লাভজনক হবে তা কিন্তু নয়; অনেক সময় লসেও শেয়ার বিক্রি করতে হয়৷ ফান্ড খরচ এবং ব্যবসা পরিচালনার ক্ষেত্রে  উদ্যোক্তাই নিজেই সিন্ধান্ত  নিবে৷ তবে যেহেতু ভেঞ্চার ক্যাপিটাল ফার্ম পার্টনার সেহেতু তার সাথে পরামর্শ করেও সে ব্যবসায় খরচের এবং পরিচালনা করতে পারে৷ যেহেতু উদ্যোক্তার % শেয়ার বেশি তাই তাকেই বেশি প্রাধান্য দেয়া হবে৷

উদ্যোক্তা উন্নয়নে ভেঞ্চারের ভূমিকা কি?
ভেঞ্চারের বিনিয়োগের পদ্ধতিটা ব্যাংক বা অন্য কোন লিজিং কোম্পানী থেকে সম্পূর্ণ আলাদা৷ যেহেতু ভেঞ্চার ক্যাপিটাল ফার্ম উদ্যোক্তার লস (লোকসান) এবং প্রফিট (লাভ) দুটোই সমানভাবে শেয়ার করে সেহেতু বিনিয়োগের ধরণ কিছুটা ব্যবসার পরিধি বা আইডিয়ার উপর নির্ভর করে৷ যেমন: ১৷ একটি আইডিয়া উদ্যোক্তার মাথায় আছে কিন্তু বাস্তবায়ন করার জন্য কিছু ফাইন্যান্স দরকার৷ ২৷ ব্যবসার প্রাথমিক পর্যায় পার করে ফেলেছে কিন্তু বিপনণ বা বিক্রি শুরু করতে পারেনি৷ ৩৷ শুরু করেছে এবং বিক্রিও করছে কিন্তু লাভের মুখ এখনো দেখেনি৷ ৪৷ সর্বশেষ ধাপে আপনার আইডিয়া পরিক্ষিত, ভালো আয় করছে, ব্রেক ইভেন হয়েছে বা কাছাকাছি তখনো আপনার ব্যবসাকে ফাইন্যান্স করা হয়

কিভাবে আমরা ব্যাংক থেকে আলাদা?
ব্যাংক সাধারণত নতুন উদ্যোক্তাদের ফাইন্যান্স করতে পারেনা৷ ব্যাংক যখন কোন উদ্যোক্তাকে ফাইন্যান্স করবে তখন তার পূর্বের ব্যবসায়িক রেকর্ড চেক করার পাশাপাশি ব্যবসাটি লাভজনক কিনা, জামানত দিতে পারবে কিনা, স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি কি পরিমাণে আছে এবং ট্রেড লাইসেন্সের বয়স নূন্যতম ২ বছর হয়েছে কিনা তা যাচাই করবে৷ সেক্ষেত্রে ভেঞ্চার ক্যাপিটাল ফার্ম-ই একমাত্র ভরসা৷ শুধু তাই নয় ব্যাংক থেকে টাকা নেয়ার ২ বা ৩ মাস গ্রেস পিরিয়ড পার হলেই সুদ সহ ঋণ পরিশোধ করতে হবে৷ অপরদিকে ভেঞ্চার ক্যাপিটাল বিনিয়োজিত কোম্পানীর লাভ-লোকসান সমানভাবে % অব শেয়ার অনুযায়ী বহন করে৷ এজন্যই বিয়োজিত কোম্পানিতে ভেঞ্চার ক্যাপিটাল ফার্ম অনেক বেশি জড়িত থাকে৷

Exit Point (এক্সিট পয়েন্ট) কি?
ভেঞ্চার ক্যাপিটালেরও বিনিয়োগকারী আছে তাই নির্দিষ্ট সময় পর শেয়ার বিক্রি করে বিনিয়োগকারীকেও টাকা ফেরত দিতে হয়৷ ভেঞ্চার ক্যাপিটাল কোম্পানি সাধারণত তিনভাবে বিনিয়োজিত কোম্পানি থেকে বেরিয়ে আসেঃ ১৷ উদ্যোক্তার কাছে শেয়ার বিক্রি করে, ২৷ তৃতীয় কোন পক্ষের কাছে কোম্পানির শেয়ার বিক্রি করে ও ৩৷ কোম্পানির শেয়ার আইপিওতে ছেড়ে, লকইন পিরিয়ড শেষ, সেকেন্ডারি বাজারে বিক্রি করে৷ যদিও আইপিওর প্রক্রিয়াটি জটিল ও সময়সাপেক্ষ , কিন্তু লাভ অনেক বেশি হতে পারে৷

ভেঞ্চার ক্যাপিটালের সাফল্য:
পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ ভেঞ্চারের মাধ্যমে দেশের অর্থনৈতিক ধারার আমূল পরিবর্তন নিয়ে এসেছে৷ আমেরিকাতে ভেঞ্চার ক্যাপিটালের রমরমা অবস্থা৷ মাইক্রোসফট, স্টারবাক্স, অ্যাপেল, ফেসবুক, গুগল, অ্যামাজন ইত্যাদি অনেক কোম্পানি আজ দুনিয়াতে তার সাফল্যের চূড়ায় বসে আছে শুধুমাত্র ভেঞ্চার ক্যাপিটালের সহায়তার কারনেই৷

ROI (আর.ও.আই):
কোন ব্যবসাতে ইনভেষ্ট করার আগে ভেঞ্চার ক্যাপিটাল ফার্ম লাভ বা খতির পরিমাপের জন্য আগে থেকেই ক্যালকুলেশান করে দেখে নিয়ে নিশ্চিত হতে চায় যে ইনভেষ্টমেন্ট থেকে কি পরিমান ফেরত বা রিট্রান আসতে পারে৷ ফাইন্যান্স এর ভাষায় এই প্রক্রিয়াকে রিটার্ন অন ইনভেষ্টমেন্ট বলে৷ আর.ও.আই সাধারণত শতকরা হিসেবে প্রকাশ করা হয় এবং ব্যবসায়িক আর্থিক সিদ্ধান্তের জন্য বা ব্যবসায়িক মুনাফা তুলনা বা বিনিয়োগের দক্ষতা তুলনার জন্য ব্যবহৃত হয়৷

Idea (আইডিয়া) চুরি ঠেকাতে কি করতে হবে?
আপনি যদি মনে করেন আপনার Idea Unique এবং এখন পর্যন্ত কেউ এই ধরনের প্রজেক্ট নিয়ে কাজ করেনি তখন আপনি সরাসরি আপনার আইডিয়া বা প্রোডাক্ট নিয়ে পেটেন্ট, ডিজাইন এবং ট্রেডমার্ক অধিদপ্তরে যোগাযোগ করতে পারেন৷ এই লিংক (http://www.dpdt.gov.bd/) থেকে আপনি আপনার প্রয়োজনীয় প্রশ্নের উত্তরগুলোও পেতে পারেন৷

অর্থ-ই কি ব্যবসার সব?
না৷ সবার কিন্তু উদ্যোক্তা হওয়ার জন্য অর্থ বা ফান্ড প্রাথমিক পর্যায়ে দরকার নেই৷ কারো কারো শুধু সাহস বা motivation দরকার৷ আবার কারো কারো শুধু একটু সাহায্য দরকার যেমন: ব্যবসা শুরু করে দিয়েছে এখন একটু বসার জায়গা বা অফিস দরকার৷ আমরা ভেঞ্চার ক্যাপিটাল ফার্ম থেকে একটি উদ্যোগ গ্রহণ করেছি- যারা নতুন উদ্যোক্তা হিসেবে আমাদের সাথে আত্নপ্রকাশ করতে চায় তাদের জন্য বসে আলাপচারিতা করার জন্য অথবা তাদের ব্যবসার জন্য অফিসের ব্যবস্থা আমরা আমাদের বিজনেস ইনকিউবেটর (Business Incubator) থেকে করবো৷

Business Incubator (বিজনেস ইনকিউবেটর) কি?
সাধারণত ছোট বা নতুন উদ্যোক্তা প্রায় সময়ই তাদেও স্বল্প পুঁজির কারণে তাদের অফিস এবং অন্যান্য আনুষ্ঠানিক স্থাপনা করতে পারে না৷ এই ধরনের উদ্যোক্তারা Bussiness Incubator এর মাধ্যমেই তারা ব্যবসা শরু করতে পারে৷ একটি Bussiness Incubator সাধারণত সব রকমের office furniture, phone, fax, PC, email, mail box, reception centre, conference room, library, waiting room, discussion room ইত্যাদি সমন্বয়ে একটি Bussiness Incubator স্থাপিত হয়ে থাকে৷ পৃথিবীর সব দেশে এটি একটি জনপ্রিয় ব্যবস্থা৷

বিনিয়োগ নিশ্চিত করার জন্য কি কি প্রস্তুতি প্রয়োজন?
ব্যাংক, লিজিং কোম্পানি, ভেঞ্চার ক্যাপিটাল সহ অন্যান্য আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো বিনিয়োগের আগে বেশ কিছু কাগজ পরীক্ষা করে৷ আর সেই বিষয়গুলো একজন উদ্যোক্তাকে অবশ্যই পালন করতে হবে বিনিয়োগ নিশ্চিত করার আগে৷ ১৷ ব্যবসায়িক পরিকল্পনা (Business Proposal) তৈরি করা ২৷ ব্যবসার ধরণ বা প্রকৃতি নির্ধারণ করা ৩৷ ব্যক্তি মালিকানা/যৌথ উদ্যোগ/কোম্পানি হবে তা নির্ধারণ করা ৪৷ ব্যবসার একটি সুন্দর, সহজ এবং যুতসই নাম ঠিক করা ৫৷ ব্যবসায়ের স্থান নির্ধারণ করা ৬৷ বাণিজ্যিক লাইসেন্স এবং অন্যান্য দলিলপত্রাদি তৈরি করা ৭৷ ব্যাংক অ্যাকাউন্ট এবং ব্যবসায়িক TIN (Tax Identification Number) সংগ্রহ করা

Work-order (ওয়ার্ক অর্ডার) দিয়ে কি লোন পাওয়া যায়?
জীবনে চলার পথে যত বেশি সমস্যা আসবে তত বেশি শেখার সুযোগ থাকবে৷ ব্যবসার ক্ষেত্রে  তাই৷ অনেকে জানতে চেয়েছে Work-order থাকলে ব্যাংক বা লিজিং কোম্পানি থেকে লোন পাওয়া যাবে কিনা? আসলে এটি নির্ভর করে আপনি কোন প্রতিষ্ঠানের কার্যাদেশ পেয়েছেন৷ সেক্ষেত্রে  আলোচনার মাধ্যমে আপনাকে ব্যাংক বা লিজিং কোম্পানি এবং যেই প্রতিষ্ঠানে কার্যাদেশ পেয়েছেন, দুই পর্বের সাথেই আলাপ করে নিতে হবে যে আপনি কি ভাবে প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন করবেন৷ সরকারি বা বেসরকারী যে প্রতিষ্ঠানই হোক, সে আপনার ব্যাংক বা লিজিং কোম্পানিকে চিঠি দিয়ে আপনার সম্পর্কে যাচাই বাছাই করার পর তারা আপনার ওয়ার্ক অর্ডার অনুযায়ী কাজ শেষ করার পর আপনার পেমেন্টটা ব্যাংক বা লিজিং কোম্পানিকে দিয়ে দিবে৷ তার আগে তারা ব্যাংক এবং উদ্যোক্তাকেও এই বিষয়টি চিঠি দিয়ে জানাবে যে আমরা আপনাদের পেমেন্ট যথাসময়ে করবো৷

Trade License (ট্রেড লাইসেন্স) কি এবং কিভাবে পাবো?
ট্রেড লাইসেন্স সাধারণত সিটি কর্পোরেশন, মিউনিসিপ্যাল অফিস অথবা স্থানীয় সরকার কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে নিবন্ধন ফর্ম পূরনের মাধ্যমে করতে হবে৷ ব্যবসা শুরুর জন্য ইতোমধ্যে আপনি যে এলাকা নির্বাচন করেছেন সেই এলাকাটি যে কর্তৃপক্ষের অধীনে তার কাছ থেকেই আপনাকে ট্রেড লাইসেন্স নিতে হবে৷ ব্যবসাকে যথাযথভাবে এবং নির্ভুলভাবে পরিচালনা করার জন্য সিটি কর্পোরেশন একটি ভালো গাইডের ভূমিকা পালন করতে পারে৷ ট্রেড লাইসেন্স আপনার ব্যবসার স্বীকৃতি প্রদান করবে৷ আপনার ব্যবসা যদি পৌর এলাকার মধ্যে হয় তাহলে আপনাকে পৌরসভা কর্তৃপক্ষের নিকট হতে ট্রেড লাইসেন্স সংগ্রহ করতে হবে৷ ব্যবসায়ীক এলাকাটা যদি সিটি কর্পোরেশন বা পৌরসভার বাহিরে হয় তবে আপনাকে ইউনিয়ন কাউন্সিল /উপজেলা কাউন্সিল থেকে ট্রেড লাইসেন্স নিতে হবে৷

বাংলাদেশ ভেঞ্চার ক্যাপিটাল লিঃ সর্বোচ্চ কত টাকা বিনিয়োগ করতে পারে?
আসলে বিনিয়োগের ব্যাপারটি পুরোপুরি নির্ভর করবে আপনার ব্যবসায়ীক আইডিয়া বা ইনোভেটিভ প্রোডাক্টের উপর৷ তবে ভেঞ্চার ক্যাপিটাল সাধারণত ছোট ছোট প্রজেক্টগুলোতে বিনিয়োগ করতে বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে৷ আপনার আইডিয়া বা প্রোডাক্ট যদি আমাদের কাছে মনে হয় এটি বাজারে একটি অভাবনীয় পরিবর্তন আনবে বা আনতে সক্ষম হচ্ছে সেক্ষেত্রে বিনিয়োগের পরিমান বড় আকারেও হতে পারে৷

কিভাবে Project Proposal/Business Proposal (প্রজেক্ট বা বিজনেস পরিকল্পনা) তৈরি করবো?
এটি একটি কমন প্রশ্ন যা আমরা সচরাচর সব জায়গায় শুনতে পাই কি ভাবে এটি তৈরি করবো৷ প্রথমত আপনাকেই খুঁজে বের করতে হবে কিভাবে এটি করা যায়৷ এতটুকু কাজ করার কৌশল আপনি আয়ত্ব করতে না পারলে সামনের পথচলাটা কঠিন হয়ে পড়বে৷ আপনার কাজ আপনাকেই করতে হবে৷ হ্যা!! শুরুতেই হয়তো ভাল কোন বিজনেস পরিকল্পনা করতে পারবেননা তবে চেষ্টা করলে কি না হয়৷ আপনি আপনার ব্যাংকার কোন বন্ধু বা আত্মীয়ের কাছ থেকে সাহায্য নিতে পারেন৷ অথবা আপনি কোন প্রফেশনাল লোককে দিয়েও আপনার এই কাজটা করাতে পারেন, তাতে করে আপনাকে বেশ কিছু টাকা খরচ করতে হবে৷ তার চেয়ে ভাল, আপনি ইচ্ছা করলেই বিজনেস পরিকল্পনার উপর একটি প্রশিক্ষণ নিয়ে নিতে পারেন৷ এতে করে আপনার ব্যবসা সম্পর্কে বাস্তবিক জ্ঞানটা বাড়বে এবং পরবর্তীতে আপনি নিজে নিজেই আপনার প্রজেক্ট/বিজনেস পরিকল্পনা সুন্দরভাবে তৈরি করতে পারবেন৷ আপনাকে আর মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরতে হবে না৷ এই লিংক থেকে আপনি আপনার প্রশিক্ষণের  যাবতীয় তথ্য পেতে পারেন: http://www.sciti-sme.gov.bd/ , http://www.dhakachamber.com/dbi

উদ্যোক্তা হতে চাই, কিভাবে?
অনেকেই আমাদের কাছে জানতে চায়, আমি কি ভাবে উদ্যোক্তা হতে পারি৷ উদ্যোক্তা হতে হলে আপনার নিজেকে নিজেই তৈরি করতে হবে এবং নিজেকেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে- আপনি কি হতে চান বা কি করতে চান৷ আপনি জনাব সবুর খান, চেয়ারম্যান ড্যাফোডিল গ্রুপ এবং বাংলাদেশ ভেঞ্চার ক্যাপিটাল লিঃ, এর লেখা "উদ্যোক্তা উন্নয়ন নির্দেশিকা" বইটি সংগ্রহ করতে পারেন৷ এই বইটি থেকে আপনি আপনার ব্যবসা ও উদ্যোক্তা উন্নয়ন সংক্রান্ত সকল প্রকার প্রশ্নের উত্তর পেতে পারেন৷
« Last Edit: May 17, 2015, 12:13:56 PM by Md. Rashadul Islam »
Md. Rashadul Islam
Sr. Administrative Officer
Brand & Marketing Section