Author Topic: এ যুগের ‘হবস’ !!!  (Read 171 times)

Offline habib

  • Full Member
  • ***
  • Posts: 109
  • Test
    • View Profile
এ যুগের ‘হবস’ !!!
« on: July 16, 2016, 10:11:13 AM »
এ যুগের ‘হবস’

 
রেকর্ডভাঙা ইনিংসের পথে মিসবাহর একটি পুল l

ইমরান খানের মতো গ্ল্যামারাস তিনি নন। শহীদ আফ্রিদির মতো হেয়ার স্টাইল তাঁর নেই। রমিজ রাজার মতো ইংরেজি বাচনভঙ্গিও আয়ত্ত করতে পারেননি। সত্যি কথা বলতে, পাকিস্তানি ক্রিকেটার বললে সাধারণত যেমন ছবি চোখে ভাসে, মিসবাহ-উল-হককে তার সঙ্গে খুব বেশি মেলানো যায় না। ব্যাট হাতে এমনভাবে মাঠে নামেন, যেন শরীরে শক্তি বেশি অবশিষ্ট নেই। দেখে মনে হয়, জগতের কোনো কিছুতেই তাঁর আগ্রহ নেই। আর এককথায় তাঁর খেলা—‘বিরক্তিকর’।

তারপরও কী কারণে তিনি পাকিস্তানের টেস্ট অধিনায়ক? কেনই-বা তিনি অবসর নিতে গেলে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) অনুরোধ করে আরও কটা দিন খেলে যেতে?
এসব প্রশ্নের উত্তর পরশু লর্ডসে আরও একবার দিলেন মিসবাহ। চল্লিশ পেরোলেই চালশে কথাটাকে আগেই ভুল প্রমাণ করেছেন অনেকবার। এবার ৪২ বছর ৪৭ দিন বয়সে টেস্ট সেঞ্চুরি করে আরেকবার বিস্মিত করলেন অনেককে। গত বছর নভেম্বরে এই ইংল্যান্ডের বিপক্ষেই সিরিজ শেষে ক্রিকেট ছেড়ে দিতে চেয়েছিলেন। পরে আরও কিছুদিন খেলে যেতে রাজি হয়েছেন পিসিবির অনুরোধে।

ক্যারিয়ারের এই অতিরিক্ত সময়টাও কী দারুণভাবে কাজে লাগাচ্ছেন পাকিস্তান অধিনায়ক। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে লর্ডস টেস্টের প্রথম ইনিংসেই করেছেন ১১৪ রান।
টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে মিসবাহ একটি নতুন দাগ কেটেছেন পরশু প্রথম দিনেই। তাঁর চেয়ে বেশি বয়সে সেঞ্চুরি করতে পারেননি আর কোনো অধিনায়ক! মিসবাহ পেছনে ফেলেছেন সাবেক অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক ববি সিম্পসনকে।

টেস্ট ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি বয়সে টেস্ট সেঞ্চুরির দুটি রেকর্ডই জ্যাক হবসের। একটি ১৯২৮ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে, ৪৫ বছর ২৩৯ দিন বয়সে। পরের বছর নিজের গড়া সেই রেকর্ড ভেঙে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সেঞ্চুরি করেন ৪৬ বছর ৮২ দিন বয়সে। স্যার হবসের ১৫ সেঞ্চুরির আটটিই চল্লিশ পেরোনোর পর! মিসবাহ যেন এ কালের হবস। ৪০ পেরিয়ে পাঁচটি সেঞ্চুরি করে ফেলেছেন। সবগুলোই অধিনায়ক হিসেবে। চল্লিশ পেরোনোর পর তিনটির বেশি সেঞ্চুরি নেই আর কোনো অধিনায়কের। বয়সের সীমাটাকে আর অল্প একটু বাড়ান‍—৩৯ পেরিয়ে মিসবাহর সেঞ্চুরি সাতটি!

শুধু ব্যাটসম্যান হিসেবেই টেস্ট ইতিহাসে মিসবাহর চেয়ে বেশি বয়সে সেঞ্চুরি আছে মাত্র আটটি, করেছেন পাঁচজন। জ্যাক হবসেরই আছে চার সেঞ্চুরি। এ ছাড়াও মিসবাহর ওপরে আছেন ইংল্যান্ডের প্যাটসি হেনড্রেন, অস্ট্রেলিয়ার ওয়ারেন বার্ডসলি, দক্ষিণ আফ্রিকার ডেভ নার্স ও ইংল্যান্ডের ফ্র্যাঙ্ক উলি।

ক্যারিয়ারের প্রায় শেষ পর্যায়ে এসে সুযোগ মিলল ইংল্যান্ডের মাটিতে খেলার, প্রথম টেস্টটাই ক্রিকেট-তীর্থে। তারপর এই রেকর্ড গড়া সেঞ্চুরি। সেটিকে উদ্‌যাপনেও কী দারুণভাবে স্মরণীয় করে রাখলেন মিসবাহ! সেঞ্চুরির পর হেলমেট খুলে প্রথমে সতীর্থদের জানালেন স্যালুট। এরপর সবাইকে অবাক করে মাটিতে নুয়ে একের পর এক দিলেন বুক ডন! যেন বোঝাতে চাইলেন, ৪২ পেরোলেও তাঁর চালশে হয়নি।

পরে সংবাদ সম্মেলনে অবশ্য বুক ডনের রহস্য ফাঁস করেছেন। ইংল্যান্ড সফরের আগে অ্যাবোটাবাদের সেনানিবাসে অনুশীলন করেছিল পাকিস্তান দল। সেখানে সবার শারীরিক সামর্থ্যের বড় একটা পরীক্ষাও হয়। সৈন্যদের কাছে একটা প্রতিজ্ঞা করেছিলেন মিসবাহ, ‘আমি সৈন্যদের কথা দিয়েছিলাম সেঞ্চুরি করতে পারলে বুক ডন দেব। ক্যাম্পে একটা নিয়ম ছিল দশটা করে বুক ডন দেওয়ার। আমি তখন বলেছিলাম সেঞ্চুরি করতে পারলেই এটা করব। আর স্যালুট দিয়েছি পতাকাকে।’

ক্রিকেটের তীর্থে সেঞ্চুরি করে রোমাঞ্চিত মিসবাহ, ‘লর্ডসে খেলা তো স্বপ্নের মতোই ব্যাপার। তারপর যদি আপনি সেঞ্চুরি পেয়ে যান, অনার্স বোর্ডে নাম ওঠে, তাহলে তো কথাই নেই। এটাকে টেস্ট ক্রিকেটে আমার অন্যতম সেরা ইনিংস বলব।’ এএফপি।

সবচেয়ে বেশি বয়সে টেস্ট সেঞ্চুরি

                               রান      বয়স                       প্রতিপক্ষ           মাঠ                 তারিখ         

জ্যাক হবস (ইংল্যান্ড)          ১৪২    ৪৬ বছর ৮২ দিন    অস্ট্রেলিয়া       মেলবোর্ন       ৮ মার্চ ১৯২৯

জ্যাক হবস (ইংল্যান্ড)          ১৫৯    ৪৫ বছর ২৩৯ দিন  ওয়েস্ট ইন্ডিজ    ওভাল          ১১ আগস্ট ১৯২৮

প্যাটসি হেনড্রেন (ইংল্যান্ড)    ১৩২    ৪৫ বছর ১৫১ দিন   অস্ট্রেলিয়া       ম্যানচেস্টার      ৬ জুলাই ১৯৩৪

জ্যাক হবস (ইংল্যান্ড)          ১০০    ৪৩ বছর ২৪১ দিন   অস্ট্রেলিয়া       ওভাল          ১৪ আগস্ট ১৯২৬

ওয়ারেন বার্ডসলি (অস্ট্রেলিয়া) ১৯৩*  ৪৩ বছর ২০২ দিন   ইংল্যান্ড         লর্ডস           ২৬ জুন ১৯২৬

জ্যাক হবস (ইংল্যান্ড)          ১১৯    ৪৩ বছর ১৯২ দিন   অস্ট্রেলিয়া       লর্ডস           ২৬ জুন ১৯২৬

ডেভ নার্স (দক্ষিণ আফ্রিকা)    ১১১     ৪২ বছর ২৯১ দিন   অস্ট্রেলিয়া       জোহানেসবার্গ  ১২ নভেম্বর ১৯২১

ফ্র্যাঙ্ক উলি (ইংল্যান্ড)          ১৫৪    ৪২ বছর ৬১ দিন     দক্ষিণ আফ্রিকা  ম্যানচেস্টার      ২৭ জুলাই ১৯২৯

মিসবাহ-উল-হক (পাকিস্তান)   ১১৪      ৪২ বছর ৪৭ দিন       ইংল্যান্ড            লর্ডস               ১৪ জুলাই ২০১৬

জ্যাক হবস (ইংল্যান্ড)          ১১৯    ৪২ বছর ৩১ দিন     অস্ট্রেলিয়া       অ্যাডিলেড      ১৬ জানুয়ারি ১৯২৫

মিসবাহর রেকর্ড



মিসবাহই সবচেয়ে বেশি বয়সে সেঞ্চুরি করা টেস্ট অধিনায়ক। পেছনে পড়ে গেছেন অস্ট্রেলিয়ার ববি সিম্পসন। ১৯৭৮ সালে ভারতের বিপক্ষে অ্যাডিলেড টেস্টে সাবেক অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক সেঞ্চুরি করেন ৪১ বছর ৩৫৯ দিন বয়সে।



চল্লিশ পেরিয়ে সবচেয়ে বেশি পাঁচ টেস্ট সেঞ্চুরি, সবগুলোই করলেন অধিনায়ক হিসেবে। অধিনায়ক হিসেবে আগে তিনটি সেঞ্চুরিই ছিল সর্বোচ্চ।



পাকিস্তানের অধিনায়ক হিসেবে আটটি সেঞ্চুরি মিসবাহর। পেরিয়ে গেছেন ইনজামাম-উল-হকের সাত সেঞ্চুরির রেকর্ড।



ইংল্যান্ডের মাটিতে প্রথম টেস্টেই সেঞ্চুরি পাওয়া তৃতীয় পাকিস্তানি অধিনায়ক। আগে এই কীর্তি ছিল শুধু হানিফ মোহাম্মদ ও জাভেদ মিয়াঁদাদের।



লর্ডসে মিসবাহর চেয়ে বেশি বয়সে সেঞ্চুরি করেছেন মাত্র দুজন—অস্ট্রেলিয়ান ওপেনার ওয়ারেন বার্ডসলি ও ইংল্যান্ডের জ্যাক হবস। ১৯২৬ সালের অ্যাশেজের এক টেস্টে বার্ডসলি সেঞ্চুরি করেন ৪৩ বছর ২০২ দিন বয়সে, হবস ৪৩ বছর ১৯২ দিন।
Md. Habibur Rahman (Habib)
Assistant Officer (F&A)
Daffodil International University (DIU)
Corporate Office, Daffodil Family
Phone: +88 02 9138234-5 (Ext: 140)
Cell: 01847-140060, 01812-588460