Author Topic: স্মার্টফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপ বৃদ্ধির কিছু কৌশল  (Read 72 times)

Offline sisyphus

  • Sr. Member
  • ****
  • Posts: 304
  • RAM
    • View Profile
স্মার্টফোন চালানোর সময় একটা ব্যাপার সবার মনেই কড়া নাড়ে। সেটা হচ্ছে এর ব্যাটারি লেভেল। অনেকে আছেন যারা ব্যাটারির চার্জ ফুরানোর ভয়ে ফোনের ব্রাইটনেস এত কমিয়ে রাখেন যে, স্ক্রিনে কিছু দেখাই কঠিন হয়ে দাঁড়ায়। এই সবকিছুই করা হয় শুধুমাত্র একটু বেশি সময় ব্যাটারি ব্যাকআপ পাওয়ার আশায়। কিন্তু আরও অনেক কৌশল আছে যেগুলো অনুসরণ করলে স্মার্টফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপ অভাবনীয়ভাবে বৃদ্ধি পায়। চলুন জেনে নিই সেগুলো।

নেটওয়ার্ক
দুর্বল নেটওয়ার্ক পরিষেবা ফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপের জন্য ক্ষতিকর। যেসব স্থানের নেটওয়ার্ক আপনার ফোনের নেটওয়ার্ক সামর্থ্যের থেকে খারাপ, সেসব স্থানে ইন্টারনেট ও ভয়েস কল সেবা ব্যবহারে ব্যাটারির শক্তি অতিরিক্ত পরিমাণে বেশি ব্যবহৃত হয়। কারণ, এটি বার বার রিকানেক্ট হয়। যদি আপনার ফোনে চার্জ কম থাকে, তবে এসব জায়গায় ফোনের ফ্লাইট মুড চালু করে রাখলে ব্যাটারি বেঁচে যাবে। যদিও, ফ্লাইট মুড চালু করলে মোবাইল ফোনের নেটওয়ার্ক একেবারেই বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়, ফলে এই অবস্থায় আপনার ফোনে কোনো কল আসবেনা এবং মোবাইল ডেটাও ব্যবহার করা যাবেনা। আপনার যখন দরকার হবে, তখন ফ্লাইট মুড বন্ধ করলে আবার ফোনে নেটওয়ার্ক চলে আসবে। অবশ্য ফ্লাইট মুডে ফোনের ওয়াই-ফাই কাজ করে।


নোটিফিকেশন
আপনার ফোনের বিভিন্ন অ্যাপ হয়ত আপনাকে বিভিন্ন কারণে নোটিফিকেশন দেয়। ফেসবুক কমেন্ট, মেসেঞ্জারের মেসেজ বা ইমো’র মিসড কল প্রভৃতি নোটিফিকেশনের কারণে ফোনের ব্যাটারির চার্জ খরচ হয়। এ ধরনের অ্যাপ্লিকেশনগুলো নির্দিষ্ট সময় পরপর নতুন বার্তা দেখানোর জন্য ব্যাকগ্রাউন্ডেই রিফ্রেশ হয়। তাই আপনি যদি ব্যাটারি ব্যাকআপ বেশি পেতে চান, তাহলে ফোনের এসব অ্যাপের নোটিফিকেশন সেটিংসে গিয়ে যত কম সম্ভব নোটিফিকেশন পাওয়ার ব্যবস্থা করুন।


ব্যাকগ্রাউন্ড অ্যাপ
ফেসবুক, স্কাইপ, মেসেঞ্জার, ইমো, হোয়াটসঅ্যাপ প্রভৃতি অ্যাপ্লিকেশন ব্যাকগ্রাউন্ডেও চলতে থাকে। আপনি যদি এদের নোটিফিকেশন না পেতে চান, তাহলে এগুলোর ব্যাকগ্রাউন্ড রিফ্রেশ বা অটো-স্টার্ট পারমিশন বন্ধ করে রাখতে পারেন।


জিপিএস, ব্লুটুথ, ওয়াইফাই
ব্লুটুথ বা জিপিএস এর মত যেকোনো সার্ভিস চালু রাখলে আপনার ফোনের ব্যাটারির শক্তি ব্যবহৃত হয়। তাই অপ্রয়োজনীয়ভাবে কখনোই জিপিএস, ব্লুটুথ বা ওয়াইফাই চালু রাখবেন না।


তথ্যসূত্রঃ http://banglatech24.com
Rafi Al Mahmud
Lecturer
Department of Development Studies
Daffodil International University