Author Topic: মেসি-ইনিয়েস্তাদের গায়ে ‘মেড ইন বাংলাদেশ’  (Read 275 times)

Offline nafees_research

  • Sr. Member
  • ****
  • Posts: 279
  • Test
    • View Profile
মেসি-ইনিয়েস্তাদের গায়ে ‘মেড ইন বাংলাদেশ’

দিন কয়েক পরই রাশিয়ায় বসছে ‘দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ’, বিশ্বকাপ ফুটবল। এই ফুটবলযুদ্ধে স্বভাবতই নেই ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়ে ১৯৭তম দল বাংলাদেশ। তবে বাংলাদেশ না থেকেও থাকবে লিওনেল মেসি, মেসুত ওজিল, আন্দ্রেস ইনিয়েস্তাদের সঙ্গে। বিশ্বের এই সেরা ফুটবলাররা পরবেন ‘মেড ইন বাংলাদেশ’ লেখা জ্যাকেট।

হ্যাঁ, বিশ্বকাপে বাংলাদেশে তৈরি জ্যাকেট পরবেন বিশ্বের নামী ফুটবলাররা। চট্টগ্রামের কেইপিজেডের একটি পোশাক কারখানায় বাংলাদেশি শ্রমিকদের হাতে তৈরি হয়েছে আর্জেন্টিনা, জার্মানি, স্পেন, বেলজিয়াম, কলম্বিয়া, মেক্সিকো, স্বাগতিক রাশিয়া দলের অফিশিয়াল জ্যাকেট।



এই দেশগুলোর জ্যাকেট, জার্সিসহ অন্যান্য জিনিসপত্র স্পনসর করেছে খ্যাতনামা খেলার সামগ্রী প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান অ্যাডিডাস। তবে বাংলাদেশ থেকে কেবল দলগুলোর জ্যাকেট তৈরি করে নিয়েছে অ্যাডিডাস। এই জ্যাকেট তৈরি হয়েছে চট্টগ্রামের কেইপিজেডের ইয়াংওয়ানের অধিভুক্ত প্রতিষ্ঠান কর্ণফুলী শু ইন্ডাস্ট্রিজের একটি কারখানায়।

অ্যাডিডাস বাংলাদেশের মার্চেন্ডাইজার ব্যবস্থাপক এ এস এম রিফাত হক প্রথম আলোকে বলেন, অ্যাডিডাস আর্জেন্টিনা, জার্মানি, স্পেন, বেলজিয়াম, কলম্বিয়া, মেক্সিকো, স্বাগতিক রাশিয়া দলের অফিশিয়াল স্পনসর। সে সুবাদে বাংলাদেশে এই দলগুলোর কিছু জ্যাকেট তৈরি হয়েছে। এ ছাড়া জার্সি, মোজাসহ অন্যান্য সামগ্রী অন্যান্য দেশে তৈরি হয়েছে। অফিশিয়াল এই জ্যাকেট পরেই খেলার সময় সাইড বেঞ্চে থাকবেন ফুটবলার ও কর্মকর্তারা।

এসব জ্যাকেটের কলারের নিচে ট্যাগ লাগানো রয়েছে ‘মেড ইন বাংলাদেশ’। গত বছরের আগস্ট থেকে এই পোশাক তৈরি শুরু হয়। ডিসেম্বর থেকে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এসব পোশাকের জাহাজীকরণ শেষ হয়। অত্যন্ত গোপনীয়তার মাধ্যমে এসব কাজ করা হয়।

এই জ্যাকেটগুলোর কিছু বৈশিষ্ট্য রয়েছে। যেমন চারবারের চ্যাম্পিয়ন জার্মান দলের জ্যাকেটের বাঁ পাশে চারটি তারকাচিহ্ন ও দুবারের চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা দলের জ্যাকেটের বাঁ পাশে দুটি তারকাচিহ্ন রয়েছে। একটি তারকাচিহ্ন রয়েছে স্পেনের জ্যাকেটে।

দলগুলোর কাছে পৌঁছানোর আগে যেন এসব জ্যাকেট বাজারে না যায়, সে ব্যাপারে সতর্ক থাকে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলো। শ্রমিক থেকে শুরু করে কোনো কর্মকর্তা এ বিষয়ে মুখ খুলতে নারাজ। তবে বিশ্বকাপের দলগুলোর পোশাক তৈরি করে বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠানটি খুব উচ্ছ্বসিত।

কর্ণফুলী শু ইন্ডাস্ট্রিজের উপমহাব্যবস্থাপক (প্রশাসন ও নিরাপত্তা) স্কোয়াড্রন লিডার (অব.) মো. শামসুর রহমান বলেন, ‘বাংলাদেশ বিশ্বকাপে নেই। তবে বিশ্বকাপের অনেক ফুটবল দল এখানকার তৈরি পোশাক পরবে, সেটা অনেক গর্বের। ওই পোশাক আমাদের প্রতিষ্ঠান তৈরি করেছে। আমাদের শ্রমিকেরাও যখন সেটা দেখবেন, তখন তাঁদেরও ভালো লাগবে।’

বিশ্বের কোটি কোটি দর্শকের মতো এ দেশের মানুষও বিশ্বকাপের জন্য মুখিয়ে রয়েছেন। বাংলাদেশে দর্শকদের অনেকেই আর্জেন্টিনা, জার্মানি, স্পেনের মতো দলের সমর্থক। এসব দলের পোশাক তৈরির সঙ্গে জড়িত শ্রমিকেরাও খুবই খুশি। এক শ্রমিক নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ‘আমি আর্জেন্টিনা দলের সমর্থক। মেসি, আগুয়েরোরা আমাদের তৈরি পোশাক পরে খেলবেন, সেটা খুবই আনন্দের।’

Source: http://www.prothomalo.com/bangladesh/article/1497676/%E0%A6%AE%E0%A7%87%E0%A6%B8%E0%A6%BF-%E0%A6%87%E0%A6%A8%E0%A6%BF%E0%A7%9F%E0%A7%87%E0%A6%B8%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BE%E0%A6%A6%E0%A7%87%E0%A6%B0-%E0%A6%97%E0%A6%BE%E0%A7%9F%E0%A7%87-%E2%80%98%E0%A6%AE%E0%A7%87%E0%A6%A1-%E0%A6%87%E0%A6%A8-%E0%A6%AC%E0%A6%BE%E0%A6%82%E0%A6%B2%E0%A6%BE%E0%A6%A6%E0%A7%87%E0%A6%B6%E2%80%99
Nafees Imtiaz Islam
Deputy Director
Research Centre (Office of the Chairman, BoTs, DIU) and Institutional Quality Assurance Cell (IQAC)
​​Daffodil International University (DIU)
​​Telephone: 9138234-5 (Ext.: 387)
e-mail:nafees-research@daffodilvarsity.edu.bd
Web: www.daffodilvarsity.edu.bd