Author Topic: চোখে জল নিয়েও ড্রেসিং রুম পরিষ্কার করেছেন জাপানিরা  (Read 98 times)

Offline mosharraf.xm

  • Jr. Member
  • **
  • Posts: 54
    • View Profile
এমন একটা শিরোনাম দেখেই হয়তো অনেকেই আন্দাজ করে নিয়েছেন বিষয়টা কি কারন জাপানীদের ব্যাপারে এটা অনেকেরই জানা। ইতোমধ্যে তারা এমন অনেক নজির সৃষ্টি করেছে এবং করে যাচ্ছে। যারা গত ০৩ জুলাই ২০১৮ এর ডেইলি স্টারের বাংলা অনলাইন সংস্করন পড়েছেন, খেলার পাতায় হয়তো বিস্তারিত জেনে থাকবেন।

এমন একট সংবাদ কি আমরা দেখেই, পড়েই তা শিকেয় তুলে রেখে দেব? যদিও আমরা তাই করি। ভাল জিনিস আমরা সহজে শিখতে চাইনা, মন্দ গুলোর দিকেই আমাদের বেশি ঝোঁক। পুরো দেশই এখন বিশ্বকাপ দেখায় মাতোয়ারা। আনেক তর্ক, বিতর্ক একে অপরকে একটু দেখে নেয়া পছন্দের দলেয় জয়ে কিন্তু তার মাঝেও এমন একটা সংবাদ দেখে আমাদের ভ্রূ একটু কুঁচকায় কিন্তু পরক্ষনেই মিলিয়ে যায়। সমস্যা ওই মিলিয়ে যাওয়াতেই।

আমাদের দেশ এমনিতেই খুব একটা পরিচ্ছন্ন নয়। ঢাকা নিয়েই বলছি যেহেতু এখানেই থাকা হয়। জলাবদ্ধতা খুব সাধারন একটা সমস্যা। কারনগুলোও আমাদের জানা। কিন্তু তার সমাধানে ব্যক্তি পর্যায়ে সচাতনতা খুব একটা দেখা যায়না। হোটেলে নাস্তা করতে গেলাম, নাস্তা সেরে মামার কাছে থেকে টিস্যু নিয়ে হাত মুছে বিল কত জিজ্ঞেস করতে করতে তা ছুঁড়ে ফেলি রাস্তায় অথচ হয়তো পাশেই রাখা আছে ময়লার ঝুড়িটা। তাহলে সমস্যা কোথায়, সমস্যা আমাদের মানসিকতায়। আমরা অলস একটা জাতি। আরেকজনের ফেলে যাওয়া ময়লা তো পরিস্কার করা দূরে থাক নিজেরটা নিজেই করতে চাইনা।

মাঝে মাঝে খুব কৌতুহল হয় জানতে, আমরা আমাদের নিজ নিজ বাসায় কি চিপ্স খেয়ে তার প্যাকেটটা ঘরের মেঝেতেই ফেলে দি এই মনে করে যে বাসার কাজের লোক তা পরিস্কার করবে, বা বাদাম খেলে তার খোসাটুকু কি আমরা কোন বাটিতে ফেলি যেন ঘর নোংরা না হয়। আমার মনে হয় এমন মানুষ হাতে গুনে কিছু পাওয়া যাবে, তাহলে শহরের রাস্তা বা পাব্লিক প্লেস গুলোর ক্ষেত্রে আমাদের এত্ত অনীহা বা আসচেতনতা কেন? আপনার ফেলে যাওয়া কলার খোসায় কেউ যদি পা পিছলে মাথা ফাটিয়ে ফেলে তাহলে কি আপনার বিবেক আপনাকে দংশন করবেনা? সিনেমা হল, শপিং মল, ফুটপাত, ইউনিভার্সিটির খেলার মাঠ, পিকনিক স্পট এসব জায়গায় গেলে দেখা যায় আমরা জাতি হিসেবে কতটা সভ্য।

চোখ উপরের দিকে থাকলেই উপরের দিকে যাওয়া সম্ভব। জাপানের মত একটা দেশের ফুটবল টিম বিশ্বকাপের মত একটা আসরে ড্রেসিং রুম যদি একটু ময়লা করে রেখেও যায় তার জন্য তাদেরকে কোন দোষই দেয়া যাবেনা কারন সেগুলো পরিস্কার করার জন্য লোক আছে। কিন্তু তারা কেন কাজটা করল, বিশেষ করে নক আঊট পর্বের ম্যাচ হেরে যাবার পর? কারন তারা সভ্য, কারন তারা পরিশ্রমী, কারন তারা জানে কিভাবে সম্মান অর্জন করতে হয়। তাদের দায়িত্ববোধ আসামান্য। আমার কারনে অপরিস্কার হওয়া একটা জায়গা কেন আরেকজন ব্যবহার করবে এমনটাই হয়তো তাদের ভাবনা আর আমরা সেখানে একটা পাবলিক টয়লেটে গিয়ে পানি ব্যবহার না করেই বের হয়ে চলে আসি। তাহলে আমাদের দেশ পরিচ্ছন্ন থাকবে কেন।

এখান থেকে শেখার আছে, আছে অনুপ্রেরনা। একটু ইচ্ছা শক্তি কিন্তু এই পরিবর্তনটা আনতে পারে। নিজেই শুরু করি, নিজেই ঠিক করি যে আজ থেকে নিজের কারনে যেন রাস্তায় একটা কাগজের টুকরো না পড়ে, পানি খেয়ে পানির বোতলটা যেন রাস্তায় ছুঁড়ে না ফেলি, চিপ্সের প্যাকেটটা পকেটে করে নিয়ে কাছেই কোন ডাস্টবিনে ফেলে দিই।

সম্ভব।

সংবাদের লিংকঃ https://bit.ly/2IS1B5q
« Last Edit: July 04, 2018, 04:10:06 PM by mosharraf.xm »
Md. Mosharraf Hussain
Senior Assistant Controller of Examinations
Office of the Controller of Examinations
Daffodil International University
Email: mosharraf.exam@daffodilvarsity.edu.bd
Cell: 01847140069