Show Posts

This section allows you to view all posts made by this member. Note that you can only see posts made in areas you currently have access to.


Topics - Anuz

Pages: [1] 2 3 ... 27
1
গত মাসেই অ্যান্ড্রয়েড সাম্প্রতিক সংস্করণের (অ্যান্ড্রয়েড ৮.০) আনুষ্ঠানিক নাম ঘোষণা করেছে গুগল। এর নাম ওরিও। চলতি বছরের মে মাসে বার্ষিক ডেভেলপার সম্মেলন আইও ২০১৭ উপলক্ষে এই অপারেটিং সিস্টেম উন্মুক্ত করে গুগল। পিক্সেল ২ ও পিক্সেল এক্সএল ২-এর সঙ্গে এই অপারেটিং সিস্টেম থাকবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ইতিমধ্যে ওরিও সংস্করণটির ওটিএ হালনাগাদ পিক্সেল ও নেক্সাস স্মার্টফোনে দিয়েছে গুগল। অ্যান্ড্রয়েডের নতুন এই সংস্করণটিকে অ্যাপলের সর্বশেষ মোবাইল অপারেটিং সিস্টেম আইওএস ১১-এর প্রতিদ্বন্দ্বী মনে করা হয়। দুটি অপারেটিং সিস্টেমেই বেশ কিছু আকর্ষণীয় ফিচার আছে। অ্যান্ড্রয়েড ওরিও সংস্করণটির কয়েকটি আকর্ষণীয় ফিচার সম্পর্কে জেনে নিন:

পিকচার ইন পিকচার মোড: ওরিওতে পিকচার ইন পিকচার মোড নামের ফিচারটি দিয়ে কোনো স্মার্টফোন বা ট্যাবে একই সঙ্গে দুটি কাজ করা যায়। ফিচারটি ব্যবহার করে কোনো ভিডিও কল বা ভিডিও দেখার সময়েও ব্যাকগ্রাউন্ডে একই সময়ে অন্য অ্যাপ ব্যবহার করা যায়।

স্মার্ট টেক্সট সিলেকশন: গুগলের উন্নত মেশিন লার্নিং পদ্ধতি ব্যবহার করায় ওরিওতে টেক্সট নির্বাচনে বিশেষ সুবিধা পাওয়া যায়। টেক্সট নির্বাচন, ঠিকানা, মেইল অ্যাড্রেস, ফোন নম্বর শনাক্ত করার পাশাপাশি এগুলো কাজে লাগানোর বিষয়ে অপশন পাওয়া যাবে।

পিন অ্যাপ শর্টকাট: অ্যাপ শর্টকাট পিন করে রাখার সুবিধা এসেছে ওরিওতে। শর্টকাট তৈরিতে নতুন অপশনও এতে এসেছে।

নতুন নকশার ইমোজি: গত মে মাসে গুগলের কর্মকর্তারা অ্যান্ড্রয়েড ও’র সঙ্গে নতুন ইমোজির বিষয়টি নিশ্চিত করেছিলেন। প্রায় দেড় বছর ধরে নতুন ইমোজি নিয়ে কাজ করার পর ব্যবহারবান্ধব ইমোজি সেট ওরিওতে উন্মুক্ত করছে গুগল।

নোটিফিকেশন চ্যানেলস: অনেক অপ্রয়োজনীয় নোটিফিকেশনে বিরক্ত হতে পারেন স্মার্টফোন ব্যবহারকারী। নোটিফিকেশন যাতে সহজে ব্যবস্থাপনা করা যায়, এর সুবিধা আছে ওরিওতে। সব ধরনের অ্যাপ থেকে যাতে নোটিফিকেশন না আসে, সে সুবিধা আছে এতে।

পাসওয়ার্ড অটোফিল: ওরিওতে গুগলের পাসওয়ার্ড ব্যবস্থাপনার বিশেষ সুবিধা এসেছে। ব্যবহারকারীরা তাঁদের ফিঙ্গারপ্রিন্ট ব্যবহার করলে অটোফিল ফ্রেমওয়ার্ক আইডি-পাসওয়ার্ড পূরণ করে দেবে। ডেভেলপারদের ক্ষেত্রে অবশ্য তাদের অ্যাপে অটোফিল এপিআই দিয়ে রাখতে হবে।

জায়গা না থাকলেও আপডেট: স্মার্টফোনে জায়গা শেষ হলেও ওটিএ আপডেট পাওয়া যাবে। অর্থাৎ হালনাগাদের সময়েও ডিভাইস ব্যবহার করা যাবে।

এটা ওয়াই-ফাই: ওরিওচালিত স্মার্টফোনে অবস্থানের ভিত্তিতে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ওয়াই-ফাইতে যুক্ত হওয়া বা বন্ধ হওয়ার সুবিধা আছে। এতে জিপিএস চালু থাকা প্রয়োজন পড়বে।

2
স্মার্টফোন অ্যাপ্লিকেশন (অ্যাপ) নির্ভর ট্যাক্সি পরিবহনসেবা উবারের জন্য বেশ কিছুদিন ধরেই প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার (সিইও) খোঁজ করছিলেন প্রতিষ্ঠানটির বোর্ড কর্মকর্তারা। অবশেষে মার্কিন ট্রাভেল কোম্পানি এক্সপেডিয়ার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা দারা খোশরোশাহীকে সিইও হিসেবে নির্বাচন করেছেন তাঁরা। ব্যবসা ও প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট বিজনেস ইনসাইডারকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উবারের সূত্র। তবে উবারের পক্ষ থেকে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়নি। আর খোশরোশাহীও আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব নেওয়ার কথা জানাননি।

উবারের একজন মুখপাত্র বলেছেন, সিইও নির্বাচনের ব্যাপারে বোর্ড সদস্যরা ভোট দিয়েছেন। তাঁদের সিদ্ধান্তের কথা আগে প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের জানানো হবে।
গত জুন মাসে বোর্ড সদস্যদের চাপে বিশ্বের সবচেয়ে দামি স্টার্টআপ উবারের সহপ্রতিষ্ঠাতা ট্রাভিস কালানিককে প্রধান নির্বাহীর পদ থেকে সরে যেতে হয়। নতুন প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা খুঁজে বের করতে অনেকের সঙ্গে আলাপ করেন বোর্ড সদস্যরা। শেষ পর্যন্ত তিনজনকে তালিকায় রাখা হয়। শেষ তিনে ছিলেন জেনারেল ইলেকট্রিকের সাবেক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জেফ ইমেল্ট। তবে গতকাল রোববার তিনি সরে দাঁড়ান। শীর্ষ তিনজনের মধ্যে ছিলেন হিউলেট প্যাকার্ডের (এইচপি) প্রধান নির্বাহী মেগ হুইটম্যান। উবারের সিইও হবেন না বলে গত মাসে সরাসরি ঘোষণা দেন তিনি। তবে তিনি উবারের বোর্ড কর্মকর্তাদের সঙ্গে কয়েক দিন আগে সাক্ষাৎ করেন।

3
Be a Leader / এত ফেলের পরও কত সফল!
« on: September 12, 2017, 11:25:54 AM »
এশিয়ার সবচেয়ে ধনী ব্যক্তির নাম নিশ্চয়ই জানেন? তিনি চীনের জ্যাক মা। অনলাইনভিত্তিক পৃথিবীর অন্যতম বড় কোম্পানি আলিবাবা ডটকমের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান তিনি। বর্তমানে তাঁর সম্পদের পরিমাণ ৩ হাজার ৮৩০ কোটি মার্কিন ডলার। জ্যাক মার আসল নাম মা ইয়ুন, জন্ম চীনের জিজিয়াং প্রদেশে ১৯৬৪ সালের ১০ সেপ্টেম্বর। সে হিসেবে আজ তাঁর বয়স ৫৩ বছর পূর্ণ হলো। জ্যাক মার জন্মদিনে তাঁর সম্পর্কে বিশেষ কয়েকটি তথ্য জেনে নিন।

গণিতে পেয়েছিলেন ১
ফেল করা কাকে বলে সবচেয়ে ভালো জানেন জ্যাক মা। ২০১৫ সালের ২ ফেব্রুয়ারি হংকংয়ে অনুষ্ঠিত ‘অ্যান ইভিনিং উইথ জ্যাক মা’ অনুষ্ঠানে তরুণ উদ্যোক্তাদের উদ্দেশে বক্তব্য দিয়েছিলেন তিনি। সেখানে তিনি বলেন, আজকালকার তরুণদের যেসব যোগ্যতা থাকে, আমার সেসবের কিছুই ছিল না। লোকে আমাকে বলত, ‘কী যোগ্যতা আছে তোমার? তুমি কখনো অ্যাকাউন্টিং শেখনি, ম্যানেজমেন্ট শেখনি। এমনকি কম্পিউটার সম্পর্কেও তেমন কিছু জানো না। তুমি কেন ব্যবসা করবে?’ সবাই জানে, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় প্রথমবার গণিতে আমি ১ পেয়েছিলাম। তিনবার পরীক্ষা দিয়েও ভালো কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পাইনি। শেষ পর্যন্ত যে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছি, সেটার তেমন কোনো নাম ছিল না—হ্যাংঝোউ নরমাল ইউনিভার্সিটিকে তখন ‘চতুর্থ শ্রেণির’ বিশ্ববিদ্যালয় ধরা হতো।

মারামারিতে ওস্তাদ
সহপাঠীদের সঙ্গে তাঁর প্রায়ই বেধে যেত। হ্যাংলা-পাতলা ছিলেন বলেই অন্যদের সঙ্গে মারামারি বেধে যেত তাঁর। জ্যাক মার বরাত দিয়ে লিউ শিয়িং ও মার্থা অ্যাভারির লেখা ‘আলীবাবা’ বইতে বলা হয়েছে, তার চেয়ে বড়সড় কারও সঙ্গে মারামারি বাধাতে ভয় পেতেন না তিনি।

ঝিঁঝিপোকা সংগ্রহ

একেক মানুষের শখ একেক রকম। ছোটবেলা থেকে জ্যাক মার শখ ছিল ঝিঁঝিপোকা সংগ্রহ করা। আলীবাবাতে জ্যাক মার ব্যক্তিগত সহকারী চেন উই তাঁর ‘জ্যাক মা: ফাউন্ডার অ্যান্ড সিইও অব দ্য আলীবাবা গ্রুপ’ বইতে লিখেছেন, ঝিঁঝিপোকা সংগ্রহ আর তাদের মধ্যে মারামারি বাধানোর শখ ছিল মার। তিনি এতটাই ঝিঁঝিপোকা বিশারদ হয়ে উঠেছিলেন যে এর শব্দ শুনে আকার বলে দিতে পারতেন।

জ্যাক নামটি পর্যটক বন্ধুর দেওয়া
মা ইয়ুন হিসেবে পরিচিত জ্যাক ইংরেজি শেখানোর বদলে নিজ শহর হ্যাংঝুতে পর্যটকদের ঘুরিয়ে দেখানোর প্রস্তাব দিতেন। সে রকম এক পর্যটকের সঙ্গে বন্ধুত্ব গড়ে তোলেন তিনি। সেই বন্ধুই তাঁকে জ্যাক নাম দেন।

কলেজে ভর্তি পরীক্ষায় ফেল
হাইস্কুলের গণ্ডি কোনোমতে পার করতে পারলেও উচ্চশিক্ষার জন্য কলেজে ভর্তি হতে গিয়ে বিপদে পড়েন জ্যাক। দুই-দুইবার ভর্তি পরীক্ষায় ব্যর্থ হন। তৃতীয়বারে কোনো রকমে পাস করে হ্যাংঝু টিচার্স ইনস্টিটিউটে ভর্তি হন।

চাকরিতে ফেল
১৯৮৮ সালে স্নাতক শেষ করতে পারলেও প্রায় ৩০টি চাকরির পরীক্ষায় ফেল করেন তিনি। যে চাকরির জন্যই আবেদন করেছেন, সেখানেই প্রত্যাখ্যাত হয়েছেন। চীনে যখন প্রথম ফাস্ট ফুড চেইন কেএফসি চালু হয়, তাতে যে ২৪ জন আবেদন করেছিল, তাঁদের মধ্যে জ্যাক মা ছিলেন। সেই ২৪ জনের মধ্যে ২৩ জনের চাকরি হলেও জ্যাক মার চাকরি হয়নি। তবে স্থানীয় এক বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংরেজির শিক্ষক হিসেবে চাকরি হয় তাঁর।


হার্ভার্ডেও প্রত্যাখ্যাত
২০১৬ সালে ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামে জ্যাক মা বলেছিলেন, দশবার চেষ্টা করেও যুক্তরাষ্ট্রের হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে পারেননি।

নতুন কিছু শেখার আগ্রহ
যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণের সময় প্রথম ইন্টারনেটের সঙ্গে পরিচয় ঘটে তাঁর। এর আগে তিনি একটি অনুবাদ সেবার ব্যবসা শুরু করেছিলেন। ১৯৯৫ সালে ওই ব্যবসার সূত্র ধরে যুক্তরাষ্ট্রে ভ্রমণে যান তিনি। দেশে ফিরে ইন্টারনেটভিত্তিক ব্যবসায় মনোযোগী হন।

প্রথম কোম্পানি ফেল
যুক্তরাষ্ট্র থেকে ফিরে ইন্টারনেটভিত্তিক নতুন কোম্পানি তৈরি করলে তা-ও ব্যর্থ হয়। তিনি চায়না পেজেস নামে ইন্টারনেটে বিভিন্ন চীনা কোম্পানির ডিরেক্টরি চালু করেছিলেন। চায়না পেজ ব্যর্থ হলেও দমে যাননি তিনি। এর চার বছর পরেই শুরু করেন আলীবাবা।

সিইও পদ ছেড়ে নির্বাহী চেয়ারম্যান পদে
আলীবাবাকে সফলভাবে দাঁড় করানোর পর ২০১৩ সালে তিনি প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার পদ ছেড়ে দেন। এরপর থেকে তিনি প্রতিষ্ঠানটির নির্বাহী চেয়ারম্যান পদে কাজ করে যাচ্ছেন।

4
চ্যাম্পিয়নস লিগে আরেকটি বার্সেলোনা-জুভেন্টাস ম্যাচ আজ। ন্যু ক্যাম্পের সমর্থকেরা অপেক্ষায় আছেন, মেসিই জিতিয়ে দেবেন বার্সেলোনাকে। গত মৌসুমে শেষ আটে জুভেন্টাসের কাছে হারের চরম প্রতিশোধ নেবেন। সেবার প্রথম লেগে জোড়া গোল করে জুভেন্টাসকে ৩-০ গোলের জয় এনে দিয়েছিলেন পাওলো দিবালা। ওদিকে জুভ সমর্থকেরা আবারও তরুণ এই আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডকে ঘিরেই ম্যাচ জয়ের স্বপ্ন দেখছে।

এমন একটি ম্যাচের আগে মেসি-দিবালার মনে কী চলছে? প্রতিপক্ষের রক্ষণে ত্রাস ছড়াতে আর্জেন্টিনা দলের আক্রমণভাগে জুটি বাঁধেন তাঁরা। ভাগ্য আজ আবারও তাঁদের মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে দিয়েছে! পেশাদারিতে আবেগের জায়গা কোথায়! জাতীয় দলের বন্ধুত্ব ভুলে যে যাঁর দলকে জেতাতে নিঃসন্দেহে নিজেদের উজাড় করে দেবেন। রোমাঞ্চকর একটি দ্বৈরথের অপেক্ষায় থাকতেই পারে ফুটবল-বিশ্ব।

দুজনের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সও সেই কথাই বলছে। চলতি মৌসুমে বার্সার হয়ে ৫ ম্যাচে ৬ গোল মেসির। গত শনিবার লা লিগায় এসপানিওলের বিপক্ষে করেছেন হ্যাটট্রিক। মেসির মুখে ফিরে এসেছে পরিচিত সেই হাসি। ইতালিতে দিবালাও গোল করে যাচ্ছেন। ৪ ম্যাচে ৭ গোল করেছেন। এর মধ্যে সিরি ‘আ’তে ৩ ম্যাচ খেলে ৫ গোল। চলতি মৌসুমের পরিসংখ্যানে মেসি-দিবালার পার্থক্য সামান্যই। দুই দলের মুখোমুখি লড়াইতে অতটুকু পার্থক্যও নেই, একেবারে সমানে সমান। ৯ ম্যাচে তিনটি করে জয়, তিনটি করে ড্র, তিনটি করে হার! মেসি-দিবালার দ্বৈরথটাই প্রধানতম। তবে এ ম্যাচে আরও দুই আর্জেন্টাইন সতীর্থের দ্বৈরথ আছে—জুভেন্টাসের গঞ্জালো হিগুয়েইন এবং বার্সার হাভিয়ের মাচেরানো।

5
Football / ৭৭ দিনেই বরখাস্ত কোচ
« on: September 12, 2017, 11:14:27 AM »
খেলোয়াড়ি জীবনে ফ্রাঙ্ক ডি বোর মনে রাখার মতো কোনো রেকর্ড গড়েছেন বলে শোনা যায়নি। কাল কোচ বোরের একটি রেকর্ড হয়ে গেল! যে রেকর্ডটি মনে রাখতে চাইবেন না সাবেক এই ডাচ ফুটবলার! ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে চার ম্যাচ পরই তাঁকে বরখাস্ত করেছে ক্রিস্টাল প্যালেস। ইংল্যান্ডের সর্বোচ্চ লিগে সবচেয়ে কম ম্যাচ দায়িত্বে থাকা কোচ হয়ে গেছেন হল্যান্ডের সাবেক ডিফেন্ডার। সময়ের হিসাবে এটা তৃতীয় সংক্ষিপ্ততম (৭৭ দিন)।

ডি বোরকে বরখাস্ত করবে নাই-বা কেন প্যালেস! তাঁর ৭৭ দিনের অভিযানে লিগে চারটি ম্যাচ খেলে দল হেরেছে চারটিতেই। গোল পায়নি একটিও। বছরে ২০ লাখ পাউন্ড হিসাবে ডি বোরের সঙ্গে তিন বছরের চুক্তি ছিল প্যালেসের। মেয়াদ শেষের আগে বরখাস্ত করায় চুক্তি অনুযায়ী ৫০ লাখ পাউন্ড দিতে হয়েছে তাঁকে। মাত্র ৮৫ দিন দায়িত্ব পালন করে পর গত নভেম্বরে ইন্টার মিলান থেকে বরখাস্ত হয়েছিলেন ডি বোর।

ডি বোরের জায়গায় ইংল্যান্ডের সাবেক কোচ রয় হজসনকে কালই নিয়োগ দেওয়ার কথা ছিল প্যালেসের।

6
নেইমার-অ্যাসেনসিও। মেসি-রোনালদোর পর ফুটবলের পরবর্তী দ্বৈরথ এটা! কয়েক দিন আগে কথাটা বলেছেন রিয়াল মাদ্রিদের পর্তুগিজ তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। লিওনেল মেসিকে জিজ্ঞেস করলে নেইমারের সঙ্গে কার কথা বলবেন, কে জানে। তবে জুভেন্টাসের কোচ মাসিমিলিয়ানো অ্যালেগ্রি বলছেন, মেসির জাতীয় দলের সতীর্থ পাওলো দিবালার কথা।

৯৮ ম্যাচে ৪৯ গোল, গোল করিয়েছেন ১৬টি। এই পরিসংখ্যানই বলছে জুভেন্টাসে পাওলো দিবালা ফুল ফোটাচ্ছেন। আর্জেন্টিনার এই ফরোয়ার্ডে মুগ্ধ তো হবেনই অ্যালেগ্রি। গত পরশুও সিরি ‘আ’তে কিয়েভোর বিপক্ষে দলকে ৩-০ গোলে জেতাতে রেখেছেন বড় ভূমিকা। ৫৪ মিনিটে বদলি হিসেবে নেমে গঞ্জালো হিগুয়েইনকে দিয়ে একটি গোল করিয়েছেন। এরপর দলের তৃতীয় গোলটি করেছেন নিজে। ম্যাচ শেষের সংবাদ সম্মেলনে অ্যালেগ্রিও দিবালাকে নিয়ে খুলে দিয়েছেন তাঁর প্রশংসার ঝাঁপি, ‘মেসি আর রোনালদো অবসর নেওয়ার পর নেইমারের সঙ্গে সেরা দুই খেলোয়াড়ের একজন হওয়ার সব রসদই ওর আছে।’ বয়স মাত্র ২৩। এখনো উন্নতি করার সময় আছে দিবালার। কোচ হিসেবে খুব কাছ থেকে তাঁকে দেখেছেন। দিবালা উন্নতিটা খুব দ্রুতই করছেন বলে মনে হচ্ছে অ্যালেগ্রির, ‘টেকনিক্যাল বা শারীরিক দুই দিক থেকেই ও দারুণ উন্নতি করছে। ও যা করছে, তাতে আমি খুশি। ওর কোচ হতে পেরে নিজেকে ভাগ্যবান মনে হচ্ছে।’

জাতীয় দলের হয়ে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের দুটি ম্যাচ খেলে সদ্যই ইতালিতে ফিরেছেন। তবে ভ্রমণক্লান্তি পেছনে ফেলে দলের জন্য যা করতে পেরেছেন, সেটা নিয়ে খুশি দিবালাও, ‘আমি কিছুটা ক্লান্ত ছিলাম। কিন্তু গোল করে আমি খুশি। দল জয়ের পথে ছিল। তাই নিজের মতো খেলতে পেরেছি। কোচ আমাকে মাঠে নামানোর পর কৌশল পরিবর্তন করেছি আমরা। ’দিবালাই যে ম্যাচে পার্থক্য গড়ে দিয়েছেন, সেটা বলেছেন প্রতিপক্ষ কিয়েভোর কোচ রোলানদো মারানও, ‘নিশ্চিত করেই দিবালা নেমে জুভেন্টাসে প্রাণের সঞ্চার করেছে। দিবালা মাঠে নামার আগ পর্যন্ত জুভেন্টাস আমাদের চেয়ে বেশি সুযোগ তৈরি করতে পারেনি।’

7
বিজ্ঞানীরা প্রথমবারের মতো সফলভাবে মানবভ্রূণ থেকে ত্রুটিপূর্ণ ডিএনএ অপসারণ করতে সক্ষম হয়েছেন। অপসারণ করা ডিএনএটি বংশানুক্রমিক হৃদ্রোগ বহনের জন্য দায়ী বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। তাঁরা মনে করছেন, এই সফলতার সূত্র ধরেই বংশানুক্রমিক এমন আরও ১০ হাজার ত্রুটি দূর করার ব্যাপারে সম্ভাবনার দরজা খুলে গেছে।
যুক্তরাষ্ট্রের ওরেগন হেলথ অ্যান্ড সায়েন্স ইউনিভার্সিটি ও সল্ক ইনস্টিটিউট এবং দক্ষিণ কোরিয়ার ইনস্টিটিউট ফর বেসিক সায়েন্সের একদল বিজ্ঞানী এই সাফল্য পেয়েছেন। বিজ্ঞানবিষয়ক সাময়িকী নেচার এ বিষয়ে বিস্তারিত প্রকাশ করেছে।
গবেষকেরা মূলত হাইপারট্রফিক কার্ডিওমায়োপ্যাথি নিয়ে গবেষণা করেছেন। কোনো কারণ ছাড়াই হৃদ্পেশির কোনো অংশ বেড়ে যাওয়া এবং তার কারণে হৃদ্যন্ত্রের কার্যক্রম বাধাগ্রস্ত হওয়াই হলো এ রোগের বৈশিষ্ট্য। প্রতি পাঁচ শ জনের মধ্যে একজন এই সমস্যায় আক্রান্ত হন। ত্রুটিযুক্ত একটি মাত্র জিনের কারণে এই সমস্যায় আক্রান্ত হয় মানুষ। মা-বাবার কেউ হাইপারট্রফিক কার্ডিওমায়োপ্যাথিতে আক্রান্ত হলে তাঁদের সন্তানদেরও একই সমস্যায় আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা ৫০ শতাংশ।
গবেষণার সময় রোগটি আক্রান্ত এক ব্যক্তির শুক্রাণু দিয়ে একটি স্বাস্থ্যবান ডিম্বাণুকে নিষিক্ত করেন বিজ্ঞানীরা। এর আগে সিআরআইএসপিআর প্রযুক্তির মাধ্যমে শুক্রাণুর ত্রুটি সংশোধন করা হয়। এই পদ্ধতিতে শতভাগ সাফল্য না পেলেও ৭২ শতাংশ ক্ষেত্রে নিষিক্ত ডিম্বাণু থেকে ত্রুটিমুক্ত ভ্রূণ সৃষ্টি হতে দেখা গেছে।
গবেষক দলের গুরুত্বপূর্ণ একজন সদস্য ড. শৌখ্রাত মিতালিপভ বলেন, এই কৌশল অবলম্বনের মাধ্যমে উত্তরাধিকারসূত্রে পাওয়া রোগের বোঝা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব।
২০১৫ সাল থেকে মানবভ্রূণ সম্পাদনা করার চেষ্টা করছেন বিজ্ঞানীরা। চীনের বিজ্ঞানীরা কয়েক দফায় কাছাকাছিও চলে গিয়েছিলেন। তাঁরাও সিআরআইএসপিআর প্রযুক্তি ব্যবহার করেছিলেন। কিন্তু তাঁদের গবেষণায় সবগুলো কোষই ত্রুটিমুক্ত করা সম্ভব হয়নি। ফলে সম্পাদনা করা ভ্রূণ পরবর্তী সময়ে স্বাস্থ্যবান ও রোগাক্রান্ত কোষের ‘মোজাইক’-এ পরিণত হয়। তবে ওই গবেষণাগুলোয় যে বাধাগুলোর সৃষ্টি হয়েছিল, সেগুলোর অভিজ্ঞতাই সাম্প্রতিকতম এই গবেষণার পথপ্রদর্শকে পরিণত হয়।

8
দৈনন্দিন কাজে প্লাস্টিকের ব্যবহারে টাইপ টু ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপের মতো সমস্যা হতে পারে। তাই পুরুষদের প্লাস্টিক পণ্য ব্যবহারে সতর্ক করেছেন গবেষকেরা। অস্ট্রেলিয়ার অ্যাডিলেড বিশ্ববিদ্যালয়, সাউথ অস্ট্রেলিয়ান হেলথ অ্যান্ড মেডিকেল রিসার্চ ইনস্টিটিউটের গবেষকেরা ১ হাজার ৫০০ পুরুষের ওপর গবেষণা করেছেন। তাঁরা পুরুষের শরীরে প্যাথ্যালেট নামক রাসায়নিকের উপস্থিতি নির্ণয়ে এ গবেষণা করেন। প্যাথ্যালেটের সঙ্গে হৃদ্‌রোগ ও ডায়াবেটিসের সঙ্গে সম্পর্ক রয়েছে। সংবাদ সংস্থা সিনহুয়ার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্লাস্টিকে ব্যবহৃত ক্ষতিকর রাসায়নিক ও ক্যানসার সৃষ্টিকারী উপাদান পরিবেশের যেমন ক্ষতি করে, তেমনি স্বাস্থ্যের জন্যও ক্ষতিকর। চিকিৎসক ও পরিবেশবিদেরা প্লাস্টিকের ব্যাগ ও কনটেইনার ব্যবহার বন্ধের কথা বলছেন। এর আগে অনেক গবেষণায় স্বাস্থ্যের ওপর প্লাস্টিকের ক্ষতিকর প্রভাবের বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে। সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়ার গবেষকেরা দৈনন্দিন কাজে ব্যবহৃত প্লাস্টিকে রাসায়নিকের ক্ষতিকর বিষয়টি নিয়ে গবেষণা করেন।

গবেষক জুমিন শি বলেন, ‘৩৫ বছরের বেশি বয়সী প্রায় প্রত্যেক ব্যক্তি (৯৯ দশমিক ৬ শতাংশ) প্লাস্টিক পণ্যে রাখা খাবার খাওয়ায় তাদের মূত্র পরীক্ষায় প্যাথ্যালেট পাওয়া গেছে। যাঁদের প্যাথ্যালেটের মাত্রা বেশি পাওয়া গেছে, তাঁদের হৃদ্‌রোগ, টাইপ টু ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকি বাড়তে দেখা গেছে। তবে শুধু প্যাথ্যালেটের সঙ্গে এ রোগগুলোর সম্পর্কের প্রকৃত কারণ আমরা এখনো বুঝতে পারিনি। তবে এনডোক্রিন সিস্টেমে এ রাসায়নিকের প্রভাব বোঝা গেছে।’ এর আগের গবেষণায় দেখা গেছে, যাঁরা কোমল পানীয় পান করেন এবং প্যাকেটজাত খাবার খান, তাঁদের প্যাথ্যালেটের মাত্রা বেশি থাকে।

9
অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটে সুস্থিতি ফেরায় নির্ভার বোধ করছেন স্টিভেন স্মিথ। প্রায় দুই মাস ব্যাট-বল ছাড়া ‘বেকার’ বসে থাকায় স্মিথদের হাতে খিঁচ ধরে গিয়েছিল। শেষ পর্যন্ত সিএ-এসিএর বিরোধ মিটে যাওয়ায় গলেছে বরফ। খুলেছে ক্রিকেটের দ্বার। স্মিথরা এখন তৈরি হচ্ছেন বাংলাদেশ সফরের জন্য। দুই টেস্টের সিরিজ খেলতে আগামী ১৮ আগস্ট ঢাকায় আসবে স্টিভেন স্মিথের দল। তার আগে প্রতিপক্ষ দল সমন্ধে অস্ট্রেলিয়া টেস্ট অধিনায়কের কণ্ঠে ঝরে পড়ল সমীহ, ‘তারা অবশ্যই বিপজ্জনক দল।’

বাংলাদেশ সফরের জন্য ডারউইনে আগামীকাল থেকে সাত দিনের অনুশীলন ক্যাম্প শুরু করেছে অস্ট্রেলিয়া দল। এ ক্যাম্প শেষে তারা উড়াল দেবে বাংলাদেশের পথে। পূর্ণশক্তির স্কোয়াড নিয়েই মুশফিকুর রহিমের দলের মুখোমুখি হবেন স্মিথ। তাঁর স্কোয়াডে রয়েছেন ডেভিড ওয়ার্নার, অ্যাশটন অ্যাগার, উসমান খাজা, ম্যাথু রেনশদের মতো পরীক্ষিত ব্যাটসম্যান। জস হ্যাজেলউড, প্যাট কামিন্স, জ্যাকসন বার্ড, নাথান লায়নদের নিয়ে স্মিথের বোলিং স্কোয়াডও দারুণ শক্তিশালী।
সফরের আগে ফক্স স্পোর্টসে এক কলামে স্মিথ লিখেছেন, ‘গত কয়েক বছরে তারা উল্লেখযোগ্য উন্নতি করেছে। বিশেষ করে ঘরের মাঠে। গত বছর ঘরের মাঠে টেস্টে তারা ইংল্যান্ডকে পর্যুদস্ত করেছে।’
স্মিথ এখন তাঁর দল নিয়ে ফিটনেস ও মনঃসংযোগের কাজ করছেন। পারিশ্রমিক নিয়ে বোর্ড-খেলোয়াড় দ্বন্দ্ব মিটে যাওয়ায় ভীষণ স্বস্তিবোধ করছেন স্মিথ। পেশাদারি ক্যারিয়ার শুরুর পর তিনি কখনো এত দীর্ঘ সময় ক্রিকেটের বাইরে থাকেননি। স্মিথ বলেন, ‘প্রায় দুই মাস ব্যাট হাতে নিইনি, এটা আমার ক্ষেত্রে বিরল। কখনো এতটা দীর্ঘ সময় ক্রিকেটের বাইরে ছিলাম না, এ কারণে ব্যাট ধরতে মুখিয়ে আছি।’

10
টেস্ট অভিষেকেই ৫ উইকেট! দারুণ এক অর্জন। কিন্তু এই ৫ উইকেট যদি কোনো বোলার প্রথম বোলিংয়ে আসার প্রথম ৫ ওভারের মধ্যেই পেয়ে যান, তবে তো সেটি রীতিমতো রূপকথা! ক্রিকেট ইতিহাসে এমন রূপকথারই জন্ম দিয়েছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের পেসার লেস্টার কিং। ১৯৬১-৬২ সালে ভারতের বিপক্ষে বল করার সুযোগ পাওয়ার ৫ ওভারের মধ্যেই তুলে নিয়েছিলেন ৫ উইকেট।

ওল্ডট্রাফোর্ড টেস্টে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে অভিষেকেই ৫ উইকেট পেয়েছিলেন ইংলিশ পেসার টোবি-রোল্যান্ড জোন্স। তাঁর আফসোস হতেই পারে। ১৬.৪ ওভারেই ৫ উইকেট নিয়ে প্রোটিয়াদের ধসিয়ে দিলেও ৫৫ বছর আগের লেস্টার কিংয়ের সেই রেকর্ড থেকে দূরেই ছিলেন।

লেস্টারের বিধ্বংসী বোলিংয়ে ৫৫ বছর আগে ধসে গিয়েছিল ভারতের ব্যাটিং। ২৬/৫-এ পরিণত হওয়া মনসুর আলী খান পতৌদির ভারত ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে হেরেছিল ১২৩ রানে। দুঃখজনক ব্যাপার হচ্ছে, অভিষেকেই নিজেকে দারুণভাবে মেলে ধরা লেস্টার টেস্ট খেলতে পেরেছিলেন আর মাত্র একটি। চোটে পড়ে পরের টেস্টেই বসে যেতে হয় তাঁকে। ক্রিকেটের সর্বোচ্চ পর্যায়ে পা রাখতে তাঁকে অপেক্ষা করতে হয় আরও সাত বছর। ১৯৬৭-৬৮ সালে জর্জটাউনে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে একটি টেস্ট খেলার সুযোগ মিলেছিল তাঁর।

11
রিয়াল মাদ্রিদ-ভক্তদের জন্য সুখবর, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের বিপক্ষে আজ উয়েফা সুপার কাপ ম্যাচে রিয়ালের ২৩ সদস্যের স্কোয়াডে আছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। ৩ জুন জুভেন্টাসের বিপক্ষে চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনালের পর আজই প্রথম রিয়ালের জার্সিতে রোনালদোকে দেখতে পাওয়ার কথা। মাঝে প্রাক-মৌসুম প্রস্তুতিতে রিয়াল যুক্তরাষ্ট্রে গেল, চারটি ম্যাচও খেলল, কিন্তু রোনালদো নেই। জুনেই পর্তুগালের হয়ে কনফেডারেশনস কাপ খেলায় অন্যদের চেয়ে রিয়াল কোচ জিনেদিন জিদানের কাছ থেকে একটু বাড়তি ছুটিই পেয়েছেন পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড। অনুশীলনে যোগ দিয়েছেন গত শনিবার।

তাঁর নিজেরও কি মাঠে ফেরার তাড়া কোনো অংশে কম? ইউনাইটেড তাঁর সাবেক ক্লাব বলে এমনিতেই এই ম্যাচটা রোনালদোর জন্য বিশেষ। তার ওপর এই গ্রীষ্মটা মাঠের বাইরের ঘটনায় যে রকম অস্বস্তিতে কেটেছে, তাতে নিশ্চয়ই ফুটবলে ফিরে সব ভুলে থাকতে চাইবেন পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড। ১ কোটি ৪৭ লাখ ইউরো কর ফাঁকির অভিযোগে (প্রায় ১৪০ কোটি টাকা) তাঁর বিরুদ্ধে মামলা করেছে স্প্যানিশ কর কর্তৃপক্ষ। মামলায় বিরক্ত রোনালদো রিয়াল ও স্পেন ছাড়তে চাওয়ার গুঞ্জনও ছড়ায় মাস দুয়েক আগে, যে গুঞ্জনে তাঁর সম্ভাব্য গন্তব্যের তালিকায় বেশি শোনা গেছে ইউনাইটেডের নাম। কদিন আগে মামলার শুনানিতে আদালতে রোনালদো নিজেও নাকি বলেছেন, ‘ইংল্যান্ডে এ ধরনের কোনো (কর-সংক্রান্ত) ঝামেলায় পড়িনি। আমি ইংল্যান্ডেই ফিরতে চাই!’

ইংল্যান্ডে না হলেও আপাতত তিনি মাঠে ফিরছেন। মাত্র চার দিন আগে অনুশীলনে যোগ দিয়েছেন বলে মেসিডোনিয়ার স্কোপিয়েতে আজ রোনালদো শুরু থেকেই খেলবেন না। তাঁকে ছাড়া রিয়াল কেমন করে, সেটি অবশ্য একটা প্রশ্ন। প্রাক-মৌসুম প্রস্তুতিতে যে এবার একটা ম্যাচেও জেতেনি রোনালদো-বিহীন রিয়াল (এমএলএস অলস্টার্সের সঙ্গে একমাত্র জয়ও টাইব্রেকারে)। একটু দুশ্চিন্তাও আছে জিদানের, ‘টানা চার ম্যাচেই যখন আপনি জিতবেন না, তার মানে তো কিছু একটা ভুল হচ্ছেই।’ দুশ্চিন্তার উল্টো পিঠে জিদানের জন্য প্রেরণা, গত মৌসুমে সেভিয়ার সঙ্গে উয়েফা সুপার কাপেও রোনালদোকে ছাড়াই ৩-২ গোলে জিতেছিল রিয়াল।

আর মরিনহোর প্রেরণা? এক, ক্যারিয়ারে কখনো উয়েফা সুপার কাপটা জেতা হয়নি পর্তুগিজ কোচের। আর দুই, রিয়াল মাদ্রিদ তাঁর সাবেক ক্লাব, যেখান থেকে তাঁর বিদায়টা ঠিক সুন্দর হয়নি। ইউনাইটেড কোচ অবশ্য ‘রিয়ালকে দেখিয়ে দেওয়ার’ প্রসঙ্গটাকে পাত্তাই দিচ্ছেন না, ‘(২০০৪ সালে) পোর্তো ছাড়ার দুই মাস পরই চ্যাম্পিয়নস লিগে ওদের বিপক্ষে খেলেছি। (গত বছর) চেলসি ছাড়ার কয়েক মাস পর ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে ওদের মুখোমুখি হয়েছি। ব্যাপারটাকে কখনো “সাবেক ক্লাব” হিসেবে দেখি না। রিয়াল মাদ্রিদকেও সেভাবেই দেখছি—বড় ক্লাব, ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়ন। ওদের সঙ্গে খেলা আমার জন্য বড় প্রেরণা।’

12
রাজধানীতে গৃহস্থালি কাজে ব্যবহৃত পানির দাম বৃদ্ধি করছে ঢাকা ওয়াসা। হঠাত পানির দাম বৃদ্ধি করার পেছনে সেবা প্রদানকারী এই প্রতিষ্ঠান দাবি করছে- উৎপাদন খরচ, পরিচালনা ব্যয় ও মুদ্রাস্ফীতি সঙ্গে আংশিক সামঞ্জস্য করার কারণে পানির দাম বৃদ্ধি করা হচ্ছে।
রোববার ওসার ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, পানির দাম ৫ শতাংশ হারে আগামী ১লা আগস্ট থেকে কার্যকর হবে।
ঢাকা ওয়াসার বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ রয়েছে, ১ অগাস্ট থেকে গৃহস্থালিতে প্রতি এক হাজার লিটার পানির দাম ১০ টাকার বদলে এখন ১০ টাকা ৫০ পয়সা এবং বাণিজ্যিক গ্রাহকদের প্রতি হাজার লিটার পানির জন্য ৩২ টাকার পরিবর্তে ৩৩ টাকা ৬০ পয়সা দিতে হবে।
বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, মিটার বিহীন হোল্ডিং, গভীর নলকূপ, নির্মাণাধীন ভবন ও নূন্যতম করসহ সকল (পানি ও পয়ঃ) ক্ষেত্রে কার্যকর হবে। ওয়াসা আইন ১৯৯০ এর ২৩ ধারা অনুযায়ী এই বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে ঢাকা ওয়াসা।

13
ভূমিকম্পে ঢাকা এবং চট্টগ্রামে ৮০ মিলিয়ন মানুষের জীবন ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। এছাড়াও ময়মনসিংহ, সিলেট এবং রংপুর এলাকায় ২৮ মিলিয়ন মানুষের জীবন মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। বাংলাদেশের অভ্যন্তরেই ১২টি ভূমিকম্প ফাটল আছে৷ এ সব জায়গায় ৭.৫ মাত্রার ভূমিকম্প হতে পারে৷ ঢাকার অদূরে মধুপুর ফাটল খুব বিপজ্জনক৷ প্রতি ১০০ বছর পর পর ফাটল থেকে বড় আকারের ভূমিকম্প হয়৷ ১৮২২ এবং ১৯১৮ সালে বাংলাদেশে বড় ভূমিকম্প হয়েছে৷ তাই আরেকটি বড় ভূমিকম্পের দ্বারপ্রান্তে রয়েছে বাংলাদেশ।

রিখটার স্কেলে ৭ মাত্রার বেশি ভূমিকম্প হলে আর তার কেন্দ্র ঢাকার চারপাশের এলাকা হলে রাজধানীর ৭২ হাজার ভবন পুরোপুরি ধসে পড়বে, ধারণা বিশেষজ্ঞদের৷ তাঁদের মতে, এমন ঝুঁকি থাকলেও ক্ষয়ক্ষতি মেকাবেলায় পর্যাপ্ত প্রস্তুতি নেই৷ শুধু বিল্ডিং কোড মেনে ভবন করলেই হবে না, যেই মাটিতে ভবন নির্মাণ করা হবে সেই মাটিও সহনীয় হতে হবে। কারণ অনেকেই জলাশয় ভরাট করে ভবন নির্মাণ করে। এটা ঠিক নয়। কারণ ওই জলাশয়ের উপর ভবন নির্মাণ করলে ভূমিকম্প হলে এটি ঝুঁকির মধ্যে থেকে যায়। তাই প্রস্তুতি এবং বিল্ডি কোড মেনে ভবন নির্মাণ করলে অনেক ঝুঁকি থেকে রক্ষা পাওয়া যায়। ২০০৯ সালে ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের মধ্যে ভবনগুলো নিয়ে জরিপ করা হয়৷ তাতে দেখা যায় যে, আগামীতে যদি ৭.৫ মাত্রার ভূমিকম্প হয় তাহলে তিন লাখ ২৬ হাজার ভবনের মধ্যে ৭২ হাজার ভবন তাৎক্ষণিকভাবে ধসে পড়ব৷ একেবারে অক্ষত থাকবে খুব কম সংখ্যক ভবন৷ এছাড়া গ্যাস, বিদ্যুৎ ও পানির লাইনে বিস্ফোরণ ঘটে এক ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি হবে৷ ঘটবে মানবিক বিপর্যয়ও৷

২০১০ সালের জানুয়ারিতে হাইতি সাত দশমিক শূন্য মাত্রার ভূমিকম্প হয়। তাতে তিন লাখ মানুষ প্রায় হারায়। একই বছরের ফেব্রুয়ারিতে চিলিতে ৮ দশমিক ৮ মাত্রার ভূমিকম্প হয়। কিন্তু সেখানে মাত্র ৫৬২ জন মানুষ প্রাণ হারায়। পরিকল্পিত ভবন নির্মাণের কারণেই চিলিতে মানুষ মুত্যু অনেক কম হয়। কারণ ১৯৬০ সালে চিলিতে ৮ দশমিক ৬ মাত্রার ভূমিকম্প হয়েছিল। সেই থেকে তারা মাস্টার প্লান করে বিল্ডিং কোড মেনে ভবন নির্মাণ করেছে। এ কারণে হাইতির চেয়ে অনেকগুণ কম মানুষ মারা গেছে। এভাবে আমরাও যদি প্রস্তুতি না নেই তাহলে ঝুঁকি থেকে যাবে।

14
আজ ৮১ বছরে পা দিলেন গ্যারি সোবার্স। অনেকের চোখেই যিনি শুধু সর্বকালের সেরা অলরাউন্ডারই নন, সর্বকালের সেরা ক্রিকেটারও। জীবনের ইনিংসটা তিন অঙ্কে রূপ দিতে পারবেন কি না, সেটি বলার উপায় নেই। তবে সর্বকালের সেরা এই অলরাউন্ডারের কিছু মজার তথ্য নিশ্চয়ই বলা যায়—

* সোবার্স জন্মেছিলেন দুই হাতে ছয় আঙুল নিয়ে। ছেলেবেলায় এক দুর্ঘটনায় এক হাতের অতিরিক্ত আঙুলটি পড়ে যায়। কৈশোরে অন্য হাতের আঙুলটি কেটে ফেলা হয়!

* ঘরোয়া ক্রিকেটে প্রথম ছয় বলে ছক্কা মারার রেকর্ড সোবার্সের। ক্যারিবীয় কিংবদন্তি তখন নটিংহামশায়ারের অধিনায়ক। ১৯৬৮ গ্লামারগনের বিপক্ষে মেরেছিলেন সোবার্স।

* ভারতীয় অভিনেত্রী আঞ্জু মাহেন্দ্রুর সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন সোবার্স। তবে পরিণয় আর বিয়েতে পরিণত হয়নি। ক্যারিবীয় কিংবদন্তি পরে বিয়ে করেছেন এক অস্ট্রেলীয় মেয়েকে।

* সোবার্স কেন সর্বকালের সেরা অলরাউন্ডার, সেটি বোঝাতে পরিসংখ্যান আছে। তবে তিনি কতটা সব্যসাচী ছিলেন, সেটি জানা যাবে এই তথ্যে—মিডিয়াম পেস করতে পারতেন, পারতেন বাঁহাতি স্পিন। আর করতেন চায়নাম্যান বোলিংও!

* সোবার্সের শৈশবটা ছিল ভীষণ কষ্টের। জাহাজ দুর্ঘটনায় যখন তাঁর বাবা মারা যান, তাঁর বয়স মাত্র পাঁচ।

15
তাঁর স্বপ্ন ছিল রিয়াল মাদ্রিদের জার্সি গায়েই ক্যারিয়ার শেষ করা। রিয়ালের একাডেমিতে বেড়ে ওঠা একজন খেলোয়াড়ের কাছ থেকে সমর্থকেরাও এটাই আশা করে। কিন্তু ভক্ত-সমর্থক কিংবা আলভারো মোরাতা—কারও স্বপ্নই পূরণ হচ্ছে না। কাল চেলসি জানিয়ে দিয়েছে, এবার লন্ডনেই দেখা যাবে এই স্ট্রাইকারকে। বিদায়বেলায় নিজের স্বপ্নভঙ্গের কথাও জানিয়ে দিলেন মোরাতা, বলে দিলেন রিয়ালে ফেরার চিন্তা আর মাথায় আনতে চান না।

মোরাতার জন্য চেলসির কত খরচ হচ্ছে, সেটা এখনো নিশ্চিতভাবে জানা যায়নি। স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যমের দাবি, ৮০ মিলিয়ন ইউরো। আর ইংলিশ পত্রপত্রিকায় সে অঙ্কটা কমে যাচ্ছে ৬৫ থেকে ৬৭ মিলিয়নে। যেটাই হোক, অঙ্কটা কোনো স্প্যানিশ খেলোয়াড়ের দলবদলের রেকর্ড ভেঙে ফেলছে। তবে রিয়াল-সমর্থকদের এ নিয়ে ভাবতে বয়েই গেছে, তারা যে মোরাতাকে হারানোর দুঃখ নিয়েই ব্যস্ত।

মোরাতাকে এর আগেও রিয়ালের বাইরে দেখা গেছে। গত মৌসুমে রিয়ালে ফেরার আগে দুই বছর জুভেন্টাসে কাটিয়ে এসেছেন। তাই আরও একবার তাঁকে ফিরে পাওয়ার আশা করতেই পারেন সমর্থক দল। কিন্তু মোরাতা সে সম্ভাবনা উড়িয়ে দিয়েছেন, ‘তৃতীয়বার...না, আমার মনে হয় না আমি আর মাদ্রিদে ফিরব। এটা খুব কঠিন হবে এবং বর্তমানে এ নিয়ে ভাবতে রাজি নই আমি।’

Pages: [1] 2 3 ... 27