Daffodil International University

IT Help Desk => Cyber Security => Ethics in Cyber Security and Cyber Law => Topic started by: shafayet on March 21, 2017, 03:46:45 AM

Title: ই–কমার্সে ক্রেতাকে খুশি রাখার কৌশল
Post by: shafayet on March 21, 2017, 03:46:45 AM
ই–কমার্সে ক্রেতাকে খুশি রাখার কৌশল

ইন্টারনেটের মাধ্যমে পণ্য বিকিকিনি করেন যাঁরা, তাঁদের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ক্রেতার আস্থা অর্জন। গ্রাহকই ই–কমার্স সাইটের সফলতার নিয়ামক। ই-কমার্সে কীভাবে গ্রাহক বা ক্রেতার মন জয় করা যায়, তার কিছু পরীক্ষিত বিষয় রয়েছে। যাঁরা ই-কমার্স সাইট পরিচালনা করেন বা ই-কমার্স উদ্যোগ নিতে চান তাঁরা কিছু িনয়ম মেনে চলতে পারেন।
সময়মতো সাড়া
ক্রেতা যখন ফেসবুক পেজ, ওয়েবসাইট অথবা ফোনের মাধ্যমে আপনার সঙ্গে যোগাযোগ করতে চাইবেন, তখনই আপনাকে সাড়া দিতে হবে। তাহলে ক্রেতা আপনার সাইটের প্রতি প্রাথমিক সন্তুষ্টি পেয়ে যাবেন।

আন্তরিক ব্যবহার
আমাদের দেশে অনেক বিক্রেতাই ক্রেতার সঙ্গে খুব একটা ভালো ব্যবহার করেন না। পণ্য কেনার পর ‘চিনি না’—এ রকম একটা অবস্থা। কিন্তু একজন ক্রেতাই আপনাকে আরও ২০ জন ক্রেতা তৈরি করে দেবেন। আপনার ভালো ও আন্তরিক ব্যবহার এবং সুন্দর বাচনভঙ্গি ক্রেতার আস্থা অর্জনে অনেক কাজে দেবে। ক্রেতা যেন আপনার ব্যবহার ও আন্তরিকতায় মুগ্ধ হয়ে যান। জিজ্ঞাসা করুন, ‘কীভাবে আপনাকে সহায়তা করতে পারি?’ ক্রেতাকে কোনো কারণে আপনার সেবা বা পণ্য দিতে না পারলে ‘সরি’ বলুন। এতে আপনার প্রতি ক্রেতার বিশ্বাস আরও বেড়ে যাবে।

ভালো পণ্যের সরবরাহ
গ্রাহক চাহিদার প্রতি সম্মান দেখানো এবং ভালো মানের পণ্য সরবরাহ করতে হবে। নিম্নমানের পণ্য বাজারজাত করে আপনি সাময়িকভাবে লাভবান হতে পারেন, কিন্তু এটা পরে আপনার ব্যবসার স্থায়ী ক্ষতি করে দেবে। আসল পণ্য ছাড়া কোনো কিছুই বিক্রি করবেন না।

ক্রেতার পর্যালোচনা
অনলাইন দোকানে গ্রাহকসেবার গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো গ্রাহকের পর্যালোচনা (রিভিউ)। ক্রেতাদের মতামত আপনার ব্যবসায়ের উন্নতিতে দারুণ ভূমিকা রাখতে পারে। পণ্য বা সেবা কেমন হয়েছে? ভালো লেগেছে কি না? এগুলো জানতে চাইতে হবে। এতে ক্রেতা সন্তুষ্ট হন। ক্রেতার কাছে পরামর্শ চাইবেন, জানতে চাইবেন যে ঠিক কোন ধরনের পদক্ষেপ নিলে ক্রেতাদের আরও সুবিধা হয়? কীভাবে সেবাকে আরও মানসম্মত করা যেতে পারে? ইত্যাদি জানার আগ্রহ দেখান। এতে ক্রেতা নিজেকে সম্মানিত মনে করবেন। ই-কমার্স সাইটের প্রতি একটা আলাদা টান অনুভব করবে। এতে ক্রেতা বারবার আপনার সাইটে যেতে চাইবেন।

সততা
পণ্যের মান ও মূল্য সম্পর্কে নিজের সততা প্রমাণ করুন। আপনার সেবা যে ভালো, তা প্রমাণ করুন। কথা আর কাজের সঙ্গে মিল রাখুন। আপনার সততাই আপনার ব্যবসাকে এগিয়ে নেবে। সততার সঙ্গে ব্যবসা করলে রেফারেন্স থেকেই প্রচুর অর্ডার পাবেন।

বিনা খরচে সরবরাহ
বিনা খরচে পণ্য ক্রেতার ঠিকানায় পৌঁছে দিলে ক্রেতা খুশি হয়ে থাকেন। তাই আপনার পণ্যের দামের সঙ্গে ডেলিভারি চার্জ আলাদা না ধরে পণ্যের দামের সঙ্গে ডেলিভারি চার্জ যোগ করে পুরো দাম একসঙ্গে দেখাবেন। সরবরাহের খরচ ধরেই পণ্যের মূল্য নির্ধারণ করুন। এতে আপনার বিক্রি বাড়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি।

পণ্য ফেরত দেওয়ার সুযোগ দিন
অনলাইন দোকানে যদি সম্ভব হয় তাহলে পণ্য ফেরত দেওয়ার ব্যবস্থা রাখুন। এতে পণ্য কেনার বেলায় ক্রেতা বাড়তি নিরাপত্তা বোধ করবেন।

সম্ভব হলে দোকান
ই-কমার্স করতে গিয়ে একটি ছোট আকারের হলেও দোকান রাখা দরকার। দোকান থাকলে ক্রেতারা পণ্য কিনতে বেশি আগ্রহ দেখাবেন।

ক্রেতার ঠিকানা লিখে রাখা
সম্ভব হলে ক্রেতার ঠিকানা ডায়েরিতে লিখে রাখুন। যাতে ক্রেতার সঙ্গে পরবর্তী সময়ে যোগাযোগ করতে পারেন। মাঝে মাঝে কোনো ছাড় বা উপহার থাকলে ফোন করে বা মেসেজ দিয়ে জানাতে পারেন। এমনটা করলে ক্রেতা খুশি হয়ে থাকেন।

ক্রেতার সঙ্গে ভালো সম্পর্ক
আপনার অনলাইন শপ থেকে যাঁরা পণ্য ক্রয় করে থাকেন, তাঁদের সঙ্গে সুসম্পর্ক তৈরি করুন। মাঝে মাঝে বড় ক্রেতাকে কিছু উপহার দিন। কোনো একটা উৎসবের আয়োজন করুন। ক্রেতাকে উৎসবে নিমন্ত্রণ পাঠান। তাতে ক্রেতা অনেক খুশি হবেন। এতে ক্রেতা আপনার সাইট থেকে পণ্য কিনতে আগ্রহী হবেন।
লেখক: অনলাইনভিত্তিক উদ্যোক্তা এবং ওয়েব ডেভেলপার