Daffodil International University

Art of Living (AoL) => Parents, Life and Living => Topic started by: Niger on June 25, 2019, 06:49:33 PM

Title: ঘরে শরীরচর্চা করার সুবিধা বেশি
Post by: Niger on June 25, 2019, 06:49:33 PM
                                                          ঘরে শরীরচর্চা করার সুবিধা বেশি
  লাইফস্টাইল ডেস্ক,  বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
(http://)

Published: 24 Jun 2019 04:27 PM BdST Updated: 24 Jun 2019 04:27 PM BdST


ব্যায়ামাগারে অর্থ অপচয় না করে ঘরেই ব্যায়াম শুরু করা উচিত।
সুন্দর সুঠাম দেহ প্রতিটি মানুষেরই কাঙ্ক্ষিত। সেই আকাঙ্ক্ষা পূরণ করতে যোগ দেওয়া হয় ব্যায়ামাগারে। তবে কয়েক মাস পরেই সময়ের অভাব, আলসেমি ইত্যাদি নানান অজুহাতে সিংহভাগ মানুষ রণে ভঙ্গ দেন। ফলে সুঠাম দেহ পাওয়া তো হয়ই না, বরং ব্যায়ামেগারে দেওয়া অর্থ অপচয় হয়।

তাই ঘরেই শরীরচর্চা শুরু করা বুদ্ধিমানের কাজ হবে। আর গবেষণা বলছে, ঘরে শরীরচর্চা সময়, অর্থ সাশ্রয়ের পাশাপাশি বাড়ায় শরীরচর্চার প্রতি শ্রদ্ধা ও আগ্রহ।

স্বাস্থ্যবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে জানা যায় এই গবেষণার আরও তথ্য।

‘দ্য জার্নাল অফ সাইকোলজি’তে প্রকাশিত হয়েছে এই গবেষণা। ‘হোম-বেইজড হাই-ইনটেনসিটি ইন্টারভাল ট্রেইনিং (হোম-এইচআইটি)’ নামক এক অনুশীলনে যোগ দেন এই গবেষণায় অংশগ্রহনকারী ৩২ জন স্থূলকায় মানুষ, যাদের হৃদরোগের ঝুঁকি ছিল আশঙ্কাজনক পর্যায়ে। আর গবেষক বিবেচনা করেন তাদের এতে কী উপকার হচ্ছে।

সময় কিংবা আর্থিক সামর্থের অভাব ইত্যাদি বাধার মুখে ঘরে ব্যায়াম করা একটি কার্যকর বিকল্প হতে পারে কি না সেটা জানাই ছিল গবেষকদের উদ্দেশ্য।

গবেষণার লেখক, যুক্তরাজ্যের ’লিভারপুল জন মুর্স ইউনিভার্সিটি’র স্যাম স্কট বলেন, “‘হোম-এইচআইটি’য়ের মতো একটি শরীরচর্চার অনুশীলন সময়, আর্থিক সমস্যা, ব্যায়ামগার ব্যবহারের সুযোগের অভাব ইত্যাদি বাধা দূর করে। আর এসব বাধার কারণে যাদের শরীরচর্চার আগ্রহ নষ্ট হয়ে গিয়েছিল তাদের আগ্রহের মাত্রাও বাড়ায় এই অনুশীলন। ফলে অসংখ্য মানুষের সুস্বাস্থ্য রক্ষার উপায় হতে পারে এ ধরনের অভ্যাস।”

৩২ জন স্থূল ব্যক্তির ওপর করা ঘরে ব্যায়ামের এই অনুশীলনের ব্যপ্তি ছিল ১২ সপ্তাহ। পুরো সময়টায় কয়েক ধরনের স্বাস্থ্যগত অবস্থা পরিমাপক ব্যবহার করেন গবেষকরা যেমন, ‘বডি কম্পোজিসন’, হৃদরোগের ঝুঁকি, শর্করা নিয়ন্ত্রণের ক্ষমতা ইত্যাদি।

৩২ জনকে তিন ভাগে ভাগ করেন গবেষকরা। একদল পরীক্ষাগার ভিত্তিক এবং নিয়ন্ত্রিত পরিবেশে যান্ত্রিক সাইকেল চালিয়েছেন, একদল যুক্তরাজ্যে সরকারের পরামর্শ মাফিক ১৫০ মিনিট ব্যায়াম করেছেন।

আর একদল ‘হোম-বেইজড এইচআইটি’ অনুশীলনের সাধারণ ‘বডি ওয়েট’ ব্যায়াম করেছেন।

এই বিশেষ অনুশীলন হল তাদের জন্য যাদের স্বাস্থ্যের অবস্থা দূ্র্বল, নড়াচড়া করতে সমস্যা হয়। আর এই ব্যায়ামের জন্য কোনো ব্যায়ামের উপকরণ প্রয়োজন হয় না।

দেখা যায়, স্থূলকায় মানুষের জন্য যুক্তরাজ্য সরকারের পরামর্শকৃত ১৫০ মিনিটের ব্যায়ামের অনুশীলন এবং নিয়ন্ত্রিত পরীক্ষাগার ভিত্তিক ব্যায়ামের তুলনায় ‘হোম-বেইজড এইচআইটি’ বেশি কার্যকর।
https://bangla.bdnews24.com/lifestyle/article1636593.bdnews