Show Posts

This section allows you to view all posts made by this member. Note that you can only see posts made in areas you currently have access to.


Messages - Nazmul Hasan

Pages: [1] 2 3 ... 5
1
It's helpful for better sleeping but I can't maintain all of those.

2
Life Style / Re: Variation of Taste in Coffee
« on: March 06, 2016, 11:23:29 AM »
Mixing of different ingredients in Coffee, may bring a great taste.

3
Cricket / T-20 Performance of Bangladesh in Asia Cup 2016
« on: February 29, 2016, 10:36:17 AM »
টি-টোয়েন্টিতেও বাংলাদেশ: নতুন যুগের সূচনা
হাত থেকে বলটা যখন ছিটকে বেরিয়ে গেল, সেকেন্ডের ভগ্নাংশের জন্য কি হৃৎস্পন্দন থেমে গিয়েছিল সাকিবের? দ্বিতীয় চেষ্টায় বলটিকে ক্যাচ বানানোর আগে নিমেষের জন্য কি মনে হয়েছিল, ‘থামিল কালের চিরচঞ্চল গতি’!
ভারতের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে রোহিত শর্মার ক্যাচ ফেলার পর চারপাশ থেকে সমালোচনার তির এসে বিঁধেছে গায়ে। সেই ক্যাচ ফেলার তাৎপর্য বুঝতে সময় লেগেছিল। এটির ক্ষেত্রে সেই সমস্যা ছিল না। তখনই বলে দেওয়া যেত, ক্যাচ নয়, ম্যাচটিই হাত থেকে ফেলে দিলেন সাকিব।
বাংলাদেশ আর জয়ের মাঝখানে দাঁড়িয়ে তখন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস। সেই ম্যাথুসের ক্যাচ। যেটির আগ পর্যন্ত ম্যাচের সমীকরণ—বল বাকি ১৮টি, শ্রীলঙ্কার চাই ৪৬ রান। সাকিবের হাত থেকে ক্যাচ, থুড়ি ম্যাচটা ছিটকে বেরিয়ে যাচ্ছিল। পড়িমরি করে তা ধরে ফেললেন। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে প্রথম জয়ের গল্পটাও আসলে লেখা হয়ে গেল তখনই।
আল আমিন যখন শেষ ওভারটি করতে এলেন, সেটি শুধুই আনুষ্ঠানিকতা। বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি ইতিহাস এমন নিরুদ্বিগ্ন শেষ ওভার আর কখনো দেখেনি। কাগজে-কলমে তখনো শ্রীলঙ্কা ম্যাচে আছে। তবে ৬ বলে ৩২ রান শুধু গাণিতিকভাবেই সম্ভব, মাঠের খেলায় নয়। সেই ওভারে একটা ছক্কা খেলেন আল আমিন, তাতে কি আসে যায়! ওই ছক্কা নয়, তিনি বরং মনে রাখবেন বোনাস হিসেবে পেয়ে যাওয়া দুটি উইকেট।
বাংলাদেশ যেমন এই ম্যাচটা মনে রাখবে টি-টোয়েন্টির নতুন যুগের সূচনা হিসেবে। ওয়ানডেতে প্রবল শক্তি হিসেবে আবির্ভূত হয়েও টি-টোয়েন্টিতে নেহাতই হরিজন মাশরাফির দলে এখন ছড়িয়ে যাবে এই বিশ্বাস, ‘ছোট ক্রিকেটেও এখন আর আমরা ছোট দল নই।’
মেলবোর্নে বিশ্বকাপের ম্যাচের প্রায় এক বছর পর আবার দেখা দুদলের। এই শ্রীলঙ্কা একটু অচেনাই। শ্রীলঙ্কা মানেই তো ক্যান্ডির এক বাঁহাতির অত্যাচার। সঙ্গে এক ডানহাতির ব্যাটে রেশমি পরশ। সেই সাঙ্গাকারা ও জয়াবর্ধনে এখন ক্রিকেট-অতীতের অ্যালবামে স্থির ছবি। হাঁটুর চোট এই ম্যাচে দর্শক বানিয়ে রাখল লাসিথ মালিঙ্গাকেও।
শ্রীলঙ্কাকে হারানোর এমন সুবর্ণ সুযোগ হাতছাড়া করলে তা বড় দুঃখের ব্যাপার হতো। ম্যাচের শুরুটা অবশ্য সেই দুঃখগাথার সূচনা বলেই মনে হচ্ছিল। প্রায় ৩৮ মাস পর শ্রীলঙ্কার পক্ষে টি-টোয়েন্টিতে ম্যাথুসের টস করতে নামা। সেটিরই উদ্যাপন প্রথম ওভারেই উইকেট নিয়ে। অধিনায়কত্বের সঙ্গে অবশ্য এটা মেলানো ঠিক হলো না। একসময় ওয়ানডেতে যেমন ছিলেন চামিন্ডা ভাস, টি-টোয়েন্টিতে তেমনি ম্যাথুস। প্রথম ওভারেই উইকেট নেওয়াটা যিনি অভ্যাস বানিয়ে ফেলেছেন। কাল দশমবারের মতো শুরুতেই উইকেট। যেখানে প্রতিদ্বন্দ্বী তাঁর নিজের দলেই। কাল নতুন বলে তাঁর সঙ্গী নুয়ান কুলাসেকারা। তাঁরও প্রথম ওভারেই উইকেট। ক্যারিয়ারে নবমবারের মতো।
ম্যাচের বয়স দেড় ওভার, স্কোরবোর্ডে ২/২। দুই ওপেনারই শূন্য রানে আউট। ৩ ওভার শেষে স্কোর ২ উইকেটে ৬। সাব্বির সিদ্ধান্ত নিলেন, এবার কিছু একটা না করলে শ্রীলঙ্কানরা আরও ঘাড়ে চেপে বসবে। কুলাসেকারার ওভারের প্রথম চারটি বল ছুটে গেল মাঠের চার কোণে, দ্বিতীয়টি হাওয়ায় ভেসে। যে ৬৫ মিনিট উইকেটে ছিলেন, মুগ্ধতা ছড়ানো সব শটে ছড়িয়ে দিলেন বার্তাটা—এটি বোধ হয় বাংলাদেশেরই রাত!
৬ ওভারের পাওয়ার প্লে শেষে বাংলাদেশের স্কোর ৪১, এর ৩৫-ই সাব্বিরের ব্যাট থেকে। ২০ ওভার শেষেও বাংলাদেশের ইনিংস একই রকম সাব্বিরময়। ৫৪ বলে তাঁর ৮০ রান। অতিরিক্ত ধরেও দলের বাকি সাত ব্যাটসম্যানের যেখানে ৬৬ বলে ৬৭।
ছেলেমানুষি ভুলে মুশফিকুরের রান আউটে বাংলাদেশ যখন ৩ উইকেটে ২৬, সাব্বির সঙ্গী পেলেন সাকিবকে। এই ‘সা-সা’ জুটিতেই নিকষ অন্ধকার থেকে উজ্জ্বল আলোতে উদ্ধার। আলো তখন গ্যালারিতেও।
গত কিছুদিন মিরপুরে দর্শকেরা এক নতুন খেলায় মেতেছেন। হঠাৎই সবার হাতে হাতে মোবাইলের বাতি জ্বলে উঠে যেন সহস্র তারায় সেজে ওঠে গ্যালারি। সাব্বিরের ব্যাটেও কাল এমনই তারার ঝিকিমিকি। ছক্কা মেরে ফিফটি, আউটও ছক্কা মারতে গিয়েই। চামিরার আগের বলেই ছক্কা মেরেছিলেন। ছক্কা মারার নেশায় পেয়ে না বসলে একটা অপূর্ণতা ঘুচিয়ে দিতে পারতেন সাব্বির। টেস্ট খেলুড়ে দেশগুলোর মধ্যে একমাত্র বাংলাদেশেরই এখনো টি-টোয়েন্টিতে সেঞ্চুরি নেই। সাব্বির আউট হওয়ার সময় চার ওভার বাকি, এর অর্ধেকও থাকতে পারলে সাব্বিরকে সেঞ্চুরিবঞ্চিত করার সাধ্য ছিল না শ্রীলঙ্কার এই বোলিংয়ের।
বিরতির সময় টেলিভিশন সাক্ষাৎকারে সাকিব বললেন, রানটা ১৬০ হলে ভালো হতো। এই উইকেটে এটা ‘পার’ স্কোর। সেই ‘পার’ স্কোরকেই শ্রীলঙ্কার জন্য অগম্য এক বন্দর বানিয়ে ফেললেন বাংলাদেশের বোলাররা। সেটির নেতৃত্বেও সাকিব। প্রথম বলেই ফেরালেন শ্রীলঙ্কার এই দলের সবচেয়ে বিপজ্জনক ব্যাটসম্যান তিলকরত্নে দিলশানকে। শেহান জয়াসুরিয়া যখন আরেক জয়াসুরিয়ার কথা একটু-আধটু মনে করিয়ে দিচ্ছেন, ফেরালেন তাঁকেও। উদ্যাপনের ভঙ্গিই বুঝিয়ে দিল, গত কিছুদিনের ‘অসাকিবীয়’ পারফরম্যান্সে ভেতরে ভেতরে কেমন ফুঁসছিলেন!
সাকিব পুরোভাগে থাকতে পারেন, তবে এই জয় সম্মিলিত বোলিং পারফরম্যান্সের। নতুন বলে দুর্দান্ত তাসকিন ও আল আমিন। ভারতের বিপক্ষে বিবর্ণ মুস্তাফিজ আবারও আবির্ভূত সেই রহস্যময় বোলার হয়ে। উইকেট ১টি, কিন্তু ৪ ওভারে রান দিলেন মাত্র ১৯।
তাসকিনের প্রথম ওভারেই স্লিপে ক্যাচ ফেলেছিলেন সৌম্য। সেটি ভুলিয়ে দিলেন মিড অফ থেকে বাউন্ডারির দিকে দৌড়ে নেওয়া অসাধারণ এক ক্যাচে। ওই ক্যাচেই দিলশানের মৃত্যু।
পেছন ফিরে তাকিয়ে মনে হচ্ছে, টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের নতুন যুগে প্রবেশও!

4
Is the fact real?? I have confusion over this issue...

5
লো প্রেসার আমাদের আশে পাশের অনেকের্ একটি প্রচলিত সমস্যা। হঠাত লো প্রেসার হয়ে গেলে কি কি করতে হবে সেগুলো সকলের জানা থাকা  দরকার। 

6
Teaching & Research Forum / Re: green tea with honey
« on: January 21, 2016, 09:12:14 AM »
with the passage of time the people are becoming conscious of health as the environment is deteriorating also.

7
Cricket / How many ways batsman can get out in cricket
« on: January 19, 2016, 04:30:22 PM »
How many ways batsman can get out in cricket = 10

Cricket is a batsman's game. or is it? a bowler can bowl the worst ball of his life, yet he gets another chance whereas one bad shot from a batsman might end the match for him.

Often I wonder whether batsman (or bats they use) in world cricket have evolved lot more than the bowlers over the years. Even when there are 10 total ways in which a batsman can be dismissed in a cricket match, bowlers are failing to device methods to bring about a batsman's dismissal.

Now that we've made a note of the fact, in following, I repeat & explain all the 10 modes of dismissals there are in a game of cricket. read carefully all you bowlers out there..

01. Caught
Fielders can't get hold of (aka catch) the ball hit by batsman before it hits the ground. if it happens ~ batsman is out. The fielder can be anyone among the 11 players standing in playing area, including the wicket keeper.

02. Bowled
When the ball, as it comes out of bowlers hand - strikes the stumps. This can also happen after an edge off a batsman's bat.

03. Leg before wicket (lbw)
batsman are not allowed to block a delivery off their pad or other body parts.. if they do, with no use of bat and umpire feels the ball was going on to hit the stumps - that LBW - leg before wicket = out.

04. Run out
Both batsman have to be at opposite ends, within the marked crease. While a ball is in play, and fielders break the stumps with no batsman in that crease - that's a run out!

Consider both batsman run to the same crease as fielders break stumps at opposite end.. which batsman is out? answer is the batsman who second reached the crease.

05. Stumped
Batsman have to play the ball while keeping some part of his body inside the batting crease. not that he can't go out to hit a ball - if the wicket-keeper gathers the ball & breaks the stumps - that's dismissal 'stumped'.

06. Handling the ball
Batsman cannot touch a ball with this hand while it's in play. they can use their bat to deflect it, but not through hands.. otherwise they'll be out 'Handling the ball'.

07. Timed out
Once one batsman is dismissed, next batsman should come & take strike within 3 minutes. not a single batsman has been given out timed out in International cricket, ever!

08. Double hit
Once a batsman has played their shot - made some kind of contact with the ball - they can't hit it again!

09. Hit Wicket
Hit the ball, don't hit the wickets with your bat or any other body part!

10. Obstructing the field
Batsmen are not allowed to deliberately come in way of a fielder catching or fielding a ball.


Source: http://www.fastcricket.com/entry/703/

8
Life Style / Variation of Taste in Coffee
« on: January 19, 2016, 04:14:37 PM »
কফিতে ভিন্ন স্বাদ:

এক কাপ কফি মানেই নিমিষে নিজেকে চাঙ্গা করে তোলার জাদুর পেয়ালা। আমরা সাধারণত চিনি বা ক্রিম দিয়ে কফি খাই। অনেকের ব্ল্যাক কফিও পছন্দ। চিনি বা ক্রিম বাদে কফির সঙ্গে মেশানো যায় আরও কিছু উপাদান। যাতে এই কফির স্বাদ কয়েক গুণ বেড়ে যাবে? শুধু স্বাদ নয়, এই কফি হবে স্বাস্থ্যকরও।

এলাচ:
কফির মধ্যে এলাচ দিলে এর স্বাদ একেবারেই বদলে যায়। মধ্যপ্রাচ্যে এর প্রচলন অনেক বেশি। কফি খেলে শরীরের যে ক্ষতি হয়, তার মাত্রা অনেকাংশে কমিয়ে দেয় এলাচ। গরম এক কাপ কফির মধ্যে ছোট একটি এলাচই যথেষ্ট।

মাখন:
মাখন দিয়ে তৈরি কফিকে 'বুলেটপ্রুফ কফি' বলা হয়। এই কফি আপনার কার্যক্ষমতাকে কয়েক গুণ বাড়িয়ে দেবে। কেউ কেউ সকালের নাশতার পরিবর্তে মাখন মেশানো কফি খেতে পছন্দ করেন।

দারুচিনি:
যদি আপনি কফির ক্যালরি কমাতে চান, তাহলে এর সঙ্গে সামান্য দারুচিনির গুঁড়া মিশিয়ে নিন। মেক্সিকোর কফিতে আস্ত দারুচিনি ব্যবহার করা হয়।

ভেনিলা এক্সট্র্যাক্ট:
চিনির পরিবর্তে আপনি চাইলে কফিতে কয়েক ফোটা ভেনিলা এক্সট্র্যাক্ট মিশিয়ে নিতে পারেন। এটি আপনার কফির স্বাদকে বদলে দেবে। এ ছাড়া আপনি আমন্ড এক্সট্র্যাক্টও ব্যবহার করতে পারেন।

নারকেলের দুধ:
স্বাদে ভিন্নতা আনতে নারকেলের দুধের তৈরি কফি খেতে পারেন। এটি স্বাস্থ্যসম্মত এবং খেতেও ভীষণ সুস্বাদু হয়ে থাকে।

আইসক্রিম:
কফির ওপর আইসক্রিম! এর স্বাদ বলে বোঝানো সম্ভব নয়। এই কফি জার্মানিতে বেশ জনপ্রিয়। যেকোনো ফ্লেভারের আইসক্রিমই আপনি কফির সঙ্গে খেতে পারেন।

Courtesy: http://www.somoynews.tv

9
Fashion / Re: ঘাড় ব্যথায় কাহিল?
« on: January 19, 2016, 10:20:58 AM »
I have been encountered with the problem. Think these initiative will help to lessen the problem.
Thanks for extracting the information.  :)

10
Fashion / Hairfall Defence at Residence
« on: January 19, 2016, 10:15:22 AM »
চুল পড়া কমাতে ঘরোয়া পদ্ধতি

নানারকম চিকিৎসা, প্রসাধনী, ঘরোয়া পদ্ধতি সব ধরনের চেষ্টাই চালিয়ে থাকেন ভুক্তোভুগিরা। তবে হাতের নাগালেই রয়েছে সহজ সমাধান। চুল পড়া রোধে দারুণ কার্যকর একটি উপাদান হল পেঁয়াজ, জানিয়েছেন অ্যারোমা থেরাপিস্ট শিবানী দে। তিনি বলেন, “পেঁয়াজের রস মাথায় নতুন চুল গজাতেও সাহায্য করে। মাথার ত্বকে রক্ত সঞ্চালন বাড়ায় এবং জীবাণুমুক্ত রাখতে সাহায্য করে।” একটি বড় পেঁয়াজ ভালো করে পিষে ছাঁকনি দিয়ে ছেঁকে রস বের করে নিতে হবে। তারপর এই রস পুরো মাথার ত্বক ও চুলে লাগিয়ে এক ঘণ্টা অপেক্ষা করার পরামর্শ দেন শিবানী।

পেঁয়াজের গন্ধ বেশ তীব্র, যদি সহ্য না হয় তবে পেঁয়াজের রসের সঙ্গে গোলাপ জল মেশানো যেতে পারে। এক ঘণ্টা পর মাথা শ্যাম্পু দিয়ে ভালোভাবে পরিষ্কার করে নিতে হবে। চুল পড়ার পরিমাণের উপর নির্ভর করে সপ্তাহে দুইবার পেঁয়াজের রস ব্যবহার করা যাবে। ক্ষতিগ্রস্ত ও দুর্বল চুলে পুষ্টি যোগাতে সাহায্য করে কলা। কলা একটি প্রাকৃতিক উপাদান যা চুলের গোড়ার ক্ষতি রোধ করার মাধ্যমে গোড়া শক্ত করতে সাহায্য করে। এটি চুলের দুর্বল গোড়ায় শক্তি যোগায় এবং শক্ত হয়ে বেড়ে উঠতে সাহায্য করে। এছাড়া এতে থাকা আয়রন ও ভিটামিন চুলে যোগায় পুষ্টি, জানান শিবানী দে।

একটি কলা এবং এক টেবিল চামচ মধু দিয়ে চুলে পুষ্টি যোগানোর একটি প্যাক তৈরি করে নেওয়া যায়। প্রথমে একটি অতিরিক্ত পাকাকলা ভালোভাবে চটকে নিতে হবে। এরপর এতে এক টেবিল-চামচ মধু মিশিয়ে চুলে লাগাতে হবে। বিশেষ করে চুলের গোড়ায়। মাস্কটি ১৫ থেকে ২০ মিনিট রেখে হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।


চুল পড়া কমানোর জন্য রয়েছে আরও কিছু ঘরোয়া পদ্ধতি:

- এক কাপ সরিষার তেলের সঙ্গে চার চামচ মেহেদি পাতা সিদ্ধ করুনবে। এই তেল ঠাণ্ডা করে বোতলে সংরক্ষণ করতে হবে। প্রতিদিন চুলে এবং তালুতে এই তেল হালকাভাবে মালিশ করে কিছুক্ষণ পর চুল ধুয়ে ফেলতে হবে। এই তেল চুলের গোড়া মজবুত করতে সাহায্য করে।

- প্রতিদিন চুলের গোড়া বা মাথা হালকা হাতে মালিশ করলে মাথার তালুতে রক্ত চলাচল বৃদ্ধি পায়। আর এটি চুলের স্বাস্থ্যের জন্য বেশ উপকারী।

- মাথার যে অংশে চুলের পরিমাণ কম, সেখানে এক টুকরা পেঁয়াজ নিয়ে ঘষতে হবে। এর উপর মধু দিতে হবে। এটি চুলের গোড়া মজবুত করার একটি প্রাকৃতিক উপায়।

- একটি ডিমের কুসুমের সঙ্গে খানিকটা মধু ভালোভাবে মিশিয়ে চুলের গোড়ায় লাগাতে হবে। আধা ঘণ্টা অপেক্ষা করে ধুয়ে ফেলতে হবে।

- ১০০ গ্রাম পরিমাণ আমলা, রিঠা ও শিকাকাই নিয়ে দুই লিটার পানিতে জ্বাল দিতে হবে যতক্ষণ না পানির পরিমাণ অর্ধেকে নেমে আসে। এই পানি ঠাণ্ডা করে চুল ধোয়ার জন্য ব্যবহার করতে হবে। এটি চুল পড়া রোধের একটি প্রাকৃতিক উপায়।


সূত্র: বিডিনিউজ

11
Use of Forum / Re: Daffodil International University Forum (User Guideline)
« on: December 20, 2015, 09:50:08 AM »
Everyone is requested to avoid post like "Good post/thank you/smiley/informative post" by the administrator.
That's good but maximum people post with copying and pasting where the keyboard is just useless. Sometimes it is happened that person posts topic with copying from the webpage just reading the headline. Surely he/she won't be able to brief what the writings contain.

12
Guidelines for writing CV / Re: Smart Cover Letter Format
« on: December 17, 2015, 09:13:06 AM »
Cover Letter depends on job contexts. It varies from position to position.

Most important things to mention in the cover letter is that to feel interest for the company/institution.

13
Amnesia is not always a disease.
But frequent happenings are subjected to be disease.
Proper diet and maintaining daily routine may lessen the problem.

14
Things surrounded us have the capacity to prevent diseases.

But we don't know how to utilise.
It was unknown to me various utilities of raisin.
Now I'm known. Thanks, Sir...   

15
That's a very good initiative for the idle persons unwilling to look up dictionary....  ;)

Pages: [1] 2 3 ... 5