Show Posts

This section allows you to view all posts made by this member. Note that you can only see posts made in areas you currently have access to.


Messages - najnin

Pages: 1 ... 3 4 [5] 6 7 ... 9
61
Teaching & Research Forum / Re: My research article
« on: March 03, 2014, 06:10:19 PM »
congrates sir!

62
Telecom Forum / Mobile messenger WhatsApp to add voice calls
« on: March 02, 2014, 05:40:02 PM »

WhatsApp will add free voice-call services for its 450 million customers later this year, laying down a new challenge to telecom network operators just days after Facebook Inc scooped it up for $19 billion.

The text-based messaging service aims to let users make calls by the second quarter, expanding its appeal to help it hit a billion users, WhatsApp CEO Jan Koum said at the Mobile World Congress in Barcelona on Monday.

Buying WhatsApp has cemented Facebook's involvement in messaging, which for many people is their earliest experience with the mobile Internet. Adding voice services moves the social network into another core function on a smartphone.

On Monday, Chief Executive Mark Zuckerberg defended the price paid for a messaging service with negligible revenue. He argued that rival services such as South Korea's KakaoTalk and Naver's LINE are already "monetizing" at a rate of $2 to $3 in revenue per user per year, despite being in the early stages of growth.

Media reports put WhatsApp's revenue at about $20 million in 2013.

"I actually think that by itself it's worth more than 19 billion," Zuckerberg told the Mobile World Congress. "Even just independently, I think it's a good bet."

"By being a part of Facebook, it makes it so they can focus for the next five years or so purely on adding more people."

WhatsApp's move into voice calls is unlikely to sit well with telecoms carriers.

WhatsApp and its rivals, like KakaoTalk, China's WeChat, and Viber, have won over telecom operators' customers in recent years by offering a free option to text messaging. Telecom providers globally generated revenue of about $120 billion from text messaging last year, according to market researcher Ovum.

Adding free calls threatens another telecom revenue source, which has been declining anyway as carriers' tweak tariffs to focus on mobile data instead of calls.

WITH, NOT AGAINST

Since the advent a decade ago of Skype's voice over Internet service, which Microsoft Corp has acquired, and the rise of Internet service providers like Google Inc, telecom bosses have gotten used to facing challengers whose services piggyback on their networks. But carriers complain that the rivals are not subject to the same national regulations.

Mats Granryd, the CEO of Swedish mobile operator Tele2, said he was happy to partner with the likes of WhatsApp because of the additional data traffic they generate. But he shared the concerns of other network operators that they must operate under strict national regulations that Internet companies are not subject to.

"They (Internet firms) need to be regulated a little bit more and we need to be regulated a little bit less," said Jo Lunder, who heads Russian mobile network operator VimpelCom.

Reference:

1. http://www.reuters.com/article/2014/02/24/us-mobile-world-whatsapp-idUSBREA1N0PT20140224

63
Library of DIU / Re: Regarding Library Management Software (koha)
« on: February 26, 2014, 02:26:58 AM »
nice features.

64
Telecom Forum / Re: Disadvantages of Mobile Phones
« on: February 25, 2014, 11:55:34 AM »
hmm, need to prevent frequent use of mobile.

65
Telecom Forum / Software Defined Radio Technology -- Part 2
« on: February 19, 2014, 02:18:35 AM »
Benefits of SDR:

The benefits of SDR are compelling.

For Radio Equipment Manufacturers and System Integrators, SDR Enables:

A family of radio “products” to be implemented using a common platform architecture, allowing new products to be more quickly introduced into the market.

• Software to be reused across radio "products", reducing development costs dramatically.
• Over-the-air or other remote reprogramming, allowing "bug fixes" to occur while a radio is in service, thus reducing the time and costs associated with operation and maintenance.

For Radio Service Providers, SDR Enables:

• New features and capabilities to be added to existing infrastructure without requiring major new capital expenditures, allowing service providers to quasi-future proof their networks.
• The use of a common radio platform for multiple markets, significantly reducing logistical support and operating expenditures.
• Remote software downloads, through which capacity can be increased, capability upgrades can be activated and new revenue generating features can be inserted.

For End Users - from business travelers to soldiers on the battlefield, SDR technology aims to:
 
• Reduce costs in providing end-users with access to ubiquitous wireless communications – enabling them to communicate with whomever they need, whenever they need to and in whatever manner is appropriate.

Adoptation:

Examples of SDR adoption illustrating the transition to the mainstream are abundant:
• Thousands of software defined radios have been successfully deployed in defense applications
• Cellular infrastructure systems are increasingly using programmable processing devices to create “common platform” or “multiband multiprotocol” base stations supporting multiple cellular infrastructure standards
• Cellular handsets are increasingly utilizing System on Chip (SoC) devices that incorporate programmable “DSP Cores” to support the baseband signal/modem processing
• Satellite “modems” in the commercial and defense markets make pervasive use of programmable processing devices for intermediate frequency and baseband signal processing
       
Reference:

1. http://www.wirelessinnovation.org/what_is_sdr

2. SDR with MATLAB simulink

 

66
Telecom Forum / Software Defined Radio Technology -- Part 1
« on: February 19, 2014, 01:59:54 AM »
A radio is any kind of device that wirelessly transmits or receives signals in the radio frequency (RF) part of the electromagnetic spectrum to facilitate the transfer of information. In today's world, radios exist in a multitude of items such as cell phones, computers, car door openers, vehicles, and televisions.

Traditional hardware based radio devices limit cross-functionality and can only be modified through physical intervention. This results in higher production costs and minimal flexibility in supporting multiple waveform standards. By contrast, software defined radio technology provides an efficient and comparatively inexpensive solution to this problem, allowing multimode, multi-band and/or multi-functional wireless devices that can be enhanced using software upgrades.
 
Joseph Mitola coined the term ‘Software Radio’. In an introduction of reconfigurable logic and the coining of the term SDR, the dominant implementation architecture used for RF Front-Ends (FEs) was the super-heterodyne architecture. The SDR is a radio communication system, which provides software control for a variety of modulation method, filtering, wideband or narrowband operations, spread spectrum techniques and waveform requirements etc.  The frequency bands are still constrained at the RF Front-Ends.

Fig 1 Block Diagram of SDR

The development of an SDR system implies to achieve two main goals:
1.   To move the border between the analog and digital world (in Tx and Rx Paths) as much as possible toward radio frequency (RF) by adopting analog-digital (A/D) and digital-analog (D/A) conversion as near ar possible to the antenna.
2.   To replace the application specific integrated circuits (ASICS) dedicated hardware, with the re-configurable computing (FPGA) for baseband signal processing.
The FPGAs are mainly used in SDR RF Front-Ends (FEs) to improve the performance of DSP-chip-based systems. There is currently a wide range of FPGA products bring offered by many semiconductor vendors; Xilinx, Altera, Atmel and AT&T etc. The architecture approaches used in these FPGAs are as diverse as their manufacturers. The obvious benefits of wireless transmission have led to a number of radio systems.

SDR Hardware Platforms:
The hardware aspects of a SDR platform consist of the radio-frequency (RF) parts, communications links to the software-based signal processing elements (mostly a Host-PC). The rest may consist one or more of the following:
•   ASICs (application-specific integrated circuits)
•   FPGAs (field-programmable gate arrays)
•   DSPs (digital signal processors)
•   GPPs (general-purpose processors)
Table 1 shows details survey of existing SDR hardware platforms and their performance.

Table 1
 

Universal Software Radio Peripheral 2 (USRP2) is a brainchild of Matt Ettus. The USRP family of products has been nominated “Technology of the Year” award from the Wireless Innovation Forum, 2010. The KUAR hardware employs a Xilinx Virtex II Pro P30 FPGA along with 1.4 GHz Pentium M processor. It has been promoted through the defense advanced research projects agency (DARPA) next generation (XG) program. The complete system was developed in Simulink, implemented in Xilinx VHDL, by generating the VHDL code from Simulink model(s) using a Modelsim of Mentor Graphics.

SDR Software Platforms:
GNU Radio: is an open source software development toolkit that provides the signal processing runtime and processing blocks to implement software radios. The radio applications are written in Python, while the performance-critical signal processing components, implemented in C++ using processor floating point extensions where available. In GNU Radio Python (gr.flow_graph) library of signal processing blocks is used to tie together the signal processing blocks of the waveforms. GNU Radio Companion (GRC) is a graphical tool for creating signal flow graphs and generating flow-graph source code.

Open-Source SCA Implementation-Embedded (OSSIE): The OSSIE is an object-oriented SCA operating environment, where signal processing components are written in C++. The operating environment, often referred to as the core framework, implements the management, configuration, and control of the radio system.

Wireless Open-Access Research Platform for Network (WARPnet): is an SDR framework that is built around client-server architecture in Python. With WARPLab, one can interact with WARP nodes directly from the MATLAB workspace and signals generated in MATLAB can be transmitted in real-time over-the-air using WARP nodes.

67
Telecom Forum / SDR: Software Defined Radio and its varieties
« on: February 19, 2014, 01:38:51 AM »
Software Defined Radio - Defined:

A number of definitions can be found to describe Software Defined Radio, also known as Software Radio or SDR. The SDR Forum, working in collaboration with the Institute of Electrical and Electronic Engineers (IEEE) P1900.1 group, has worked to establish a definition of SDR that provides consistency and a clear overview of the technology and its associated benefits.
 
Simply put Software Defined Radio is defined as:

"Radio in which some or all of the physical layer functions are software defined"
A radio is any kind of device that wirelessly transmits or receives signals in the radio frequency (RF) part of the electromagnetic spectrum to facilitate the transfer of information. In today's world, radios exist in a multitude of items such as cell phones, computers, car door openers, vehicles, and televisions.

Traditional hardware based radio devices limit cross-functionality and can only be modified through physical intervention. This results in higher production costs and minimal flexibility in supporting multiple waveform standards. By contrast, software defined radio technology provides an efficient and comparatively inexpensive solution to this problem, allowing multimode, multi-band and/or multi-functional wireless devices that can be enhanced using software upgrades.

Software Defined Radio - Related Technologies

SDR can act as a key enabling technology for a variety of other reconfigurable radio equipments commonly discussed in the advanced wireless market.

While SDR is not required to implement any of these radio types, SDR technologies can provide these types of radio with the flexibility necessary for them to achieve their full potential, the benefits of which can help to reduce cost and increase system efficiencies:
 
Adaptive Radio

Adaptive radio is radio in which communications systems have a means of monitoring their own performance and modifying their operating parameters to improve this performance. The use of SDR technologies in an adaptive radio system enables greater degrees of freedom in adaptation, and thus higher levels of performance and better quality of service in a communications link.
 
Cognitive Radio

Cognitive radio is radio in which communication systems are aware of their internal state and environment, such as location and utilization on RF frequency spectrum at that location. They can make decisions about their radio operating behaviour by mapping that information against predefined objectives.

Cognitive radio is further defined by many toutilize Software Defined Radio, Adaptive Radio, and other technologies to automatically adjust its behaviour or operations to achieve desired objectives. The utilization of these elements is critical in allowing end-users to make optimal use of available frequency spectrum and wireless networks with a common set of radio hardware.

As noted earlier, this will reduce cost to the end-user while allowing him or her to communicate with whomever they need whenever they need to and in whatever manner is appropriate.

Figure 1

Intelligent Radio

Intelligent radio is cognitive radio that is capable of machine learning. This allows the cognitive radio to improve the ways in which it adapts to changes in performance and environment to better serve the needs of the end user.

These types of radio – adaptive radio, cognitive radio and intelligent radio – do not necessarily define a single piece of equipment, but may instead incorporate components that are spread across an entire network.
   

68
IT Forum / Re: জিমেইলের অজানা ৯ ফিচার
« on: February 09, 2014, 04:46:41 PM »
কাজের পোস্ট!

69
IT Forum / Re: ইউটিউবের গোপন ১০ ফিচার
« on: February 09, 2014, 12:46:41 PM »
চমতকার পোস্ট!

70
ভাল টেকনোলজি!

71
Positive Bangladesh / Re: Lets Set up a New Trend
« on: December 03, 2013, 04:07:51 PM »
Good Idea!  :)

72
কয়েকমাস আগে নীলক্ষেতে পুরাতন বই-এর দোকানে পেয়ে গেলাম ডঃ সিকান্দার আলি ইব্রাহীমের ‘রিপোর্টস অন ইসলামিক এডুকেশান এন্ড মাদ্রাসা এডুকেশান ইন বেঙ্গল’ বইটির পঞ্চম খন্ড। সেখানে অন্যান্য খন্ডগুলোতে কি কি আছে তাও বলা আছে। মোট পাঁচখন্ডে ১৮৬১ সাল থেকে ১৯৭৭ সাল পর্যন্ত ইসলামিক শিক্ষা নিয়ে বিভিন্ন সরকারের মোট ৪০টি শিক্ষা কমিশনের রিপোর্ট সন্নিবেশিত করা হয়েছে।

মূল ইতিহাসটা এরকম। বৃটিশরা আসার পর মাদ্রাসাশিক্ষা তুলে দিতে চেয়েছিল বেঙ্গল সরকারের ডিরেক্টর। কিন্তু ভারত সরকার কর্তৃক নিযুক্ত প্রিন্সিপাল লি এর বিপরীতে ছিলেন। ১৮৫৮ সাল থেকে ১৮৬০ সাল পর্যন্ত নানা বিতর্ক হয়েছিল এ নিয়ে। শেষ পর্যন্ত ১৮৬১ সালে এসে তারা সবাই সমঝোতায় পৌঁছালেন যে মাদ্রাসা শিক্ষা থাকবে, কিন্তু সেখানে আধুনিক শিক্ষাও সন্নিবেশিত হবে। এছাড়াও অবলুপ্ত হলো ফার্সি, চালু হলো ইংরেজী। বৃটিশ কোম্পানী কর্তৃক শাসিত ভারতে তারা নতুনভাবে শিক্ষাব্যবস্থাকে ঢেলে সাজিয়েছে এমনভাবে যার মূল উদ্দেশ্য হলো ‘ভারতীয় রক্ত-মাংসের মানুষ, কিন্তু রুচি, চিন্তা-চেতনায় হবে ইংরেজ’ এমন এক জাতি। বলাই বাহুল্য, যেকোন দেশের শিক্ষাব্যবস্থাই ঠিক করে দেবে সেদেশের মানুষগুলো কেমন হবে। বৃটিশরা ঠিক সেই কাজটিই করেছে এবং তাতে যে তারা ১০০শতভাগ সফল এটা বলার আর কোন অপেক্ষা রাখে না। কারণ, ১৯৩৫ সালের ভারত শাসন আইনের কাঠামোতেই তৈরি হয়েছে স্বাধীন ভারত বা পাকিস্তানের শাসনব্যবস্থা, শিক্ষাব্যবস্থা। সেই সুবাদে বর্তমান বাংলাদেশেও তাই। এজন্যে আমরা এখনো রক্ত মাংসে বাঙালী, কিন্তু রুচি, চিন্তা-চেতনায় বৃটিশ বা ইউরোপীয়ান। হাল আমলে যুক্ত হয়েছে আমেরিকান সংস্কৃতি, এছাড়াও রয়েছে ভারতের আঞ্চলিক হিন্দী সংস্কৃতির প্রভাব। নিজেদের যেটুকু বাঙ্গালীত্ব বা মুসলমানিত্ব বা হিন্দুত্ব তা দিনে দিনে কেবল খুইয়েই চলেছি। আমরা এখনো আমাদের নিজস্ব হতে পারিনি।

গত কয়দিন ধরে পড়ছিলাম চাণক্য সেনের উপন্যাস ‘পিতা পুত্রকে ‘। বইটিতে ১৯৩০ সাল থেকে ১৯৪৭ সালের ভারতের রাজনীতির অনেক কথাই উঠে এসেছে পুত্রকে বলা পিতার বয়ানে। পিতা সেখানে ততকালীন বৃটিশ-ভারতীয় পত্রিকা স্টেটসম্যানের একজন সাংবাদিক। পরবর্তীতে অন্য একটি পত্রিকার সম্পাদক। বইটির শেষ পৃষ্ঠায় একটি গুরুত্বপুর্ণ ইতিহাসবিষয়ক মন্তব্য ছিল। বিশ্বের স্বাধীন দেশগুলোর মধ্যে একমাত্র আমেরিকাই পেরেছিল মাদার কান্ট্রির কৃষ্টি-কালচার বদলিয়ে নিজের মতো শিক্ষাব্যবস্থা, সংস্কৃতি গড়ে তুলতে। অন্যান্য আর অনেক স্বাধীন রাষ্ট্রের মতো আমরা ভারত-পাকিস্তান-বাংলাদেশও পারিনি বৃটিশ ধারা থেকে বেরোতে। ইন ফ্যাক্ট আমরা সেটা চাইনি, আজো চাইনা। আজো আমরা কতটা ইংরেজ হতে পারবো, কতটা পশ্চিমা ধ্যান-ধারণা ধারণ করতে পারবো তারই প্রতিযোগিতা করি এবং এক্ষেত্রে এগিয়ে যাওয়াদের করতালি দেই, পুরষ্কৃত করি। ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনের পর আমরা বাংলা ভাষাতে সবকিছু ট্র্যান্সলেট করতে চেয়েছি, কিন্তু কোন বাঙালী সিস্টেম চালু করার চিন্তা করিনি, চালু হয়নি কোন বাংলা আইন। মুসলিম আইন কেবল পারিবারিক বিষয়েই সীমাবদ্ধ হয়ে গেল। আজকাল সম্পত্তির বিষয়েও আমরা বৃটিশ বা আমেরিকানদের অনকরণ করতে চাইছি। আমাদের বাঙালী পরিচয়ের বাইরে যে মুসলিম বা হিন্দু পরিচয় আছে সেটা খুব বেশি মাত্রাতেই উপেক্ষিত। হ্যাঁ, এটাই সত্যি। বৃটিশরা চালু করেছিল সেকুলার এবং ইসলামিক নামক দুটো শিক্ষাব্যবস্থা। আমরা ১৯৪৭ সালের পর থেকে ২০১৩, প্রায় ৬৫ বছর পরেও দুটো ভিন্ন ধারার শিক্ষাব্যবস্থার উপরেই আছে। স্বাধীনতার পরে ১৯৭২-৭৪ সালে করা ডঃ কুদরত-ই খুদা শিক্ষা কমিশনে মাদ্রাসা শিক্ষা ব্যবস্থাকে সীমাবদ্ধ হিসেবে উল্লেখ করে তাকে সাধারণ সেকুলার শিক্ষাব্যবস্থায় সংস্কার করার প্রস্তাব করা হয়েছে, ধর্মীয় শিক্ষাকে মাধ্যমিক স্তরে ঐচ্ছিক করার সুপারিশ করা হয়েছে, কিন্তু বাংলা, ইংরেজি, গণিতকে আবশ্যিক করা হয়েছে। প্রাথমিক স্তরে সাধারণ স্কুল, মাদ্রাসা সবখানেই সাধারণ স্কুলের প্রাথমিক সিলেবাসকেই অনুসরণ করার সুপারিশ করা হয়েছে। অথচ সেই সাধারণ শিক্ষার সিলেবাসে ধর্মীয় স্পিরিচুয়াল শিক্ষার অনুপস্থিতি খুবই প্রকট। কেবল দুনিয়াবী শিক্ষাটার উপরেই জোর দেয়া হয়েছে, এবং মাদ্রাসাগুলোর ধর্মীয় শিক্ষাকে কেবল বৃত্তিমূলক শিক্ষা হিসেবে চালু রাখার সুপারিশ করা হয়েছে। এটা যে পুরোমাত্রায় সেকুলার শিক্ষাপদ্ধতি তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। এদিকে ওআইসির পক্ষ থেকে মুসলিম রাষ্ট্রগুলোতে ইসলামিক শিক্ষাব্যবস্থা চালুর উপর জোর তাগিদ দেয়া হচ্ছিল। সব মুসলিম দেশের নেতারা বুঝতে পারছিল তাদের শিক্ষাব্যবস্থার ত্রুটি সম্বন্ধে। এই শিক্ষাব্যবস্থা যে ইসলামের মূল স্পিরিট থেকে মুসলিম মননকে আলাদা করে দিচ্ছে এটা সবাই বুঝতে পারছিল। সে সুবাদে ১৯৭৭ সালে ডঃ বারীর শিক্ষা কমিশন প্রয়াত প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের পরামর্শে মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলো দেখে যে রিপোর্ট দেয়, সে অনুযায়ী গঠন করা হয় কুষ্টিয়ার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়। সেখানে অনার্স লেভেলে ফ্যাকাল্টি অফ ইসলামিক স্টাডিজের অধীনে পূর্নাংগ কুরআন হাদীস শেখানো, চর্চা এবং এ নিয়ে গবেষণা করার উদ্যোগ নেয়া হয়। ফ্যাকাল্টি অফ আর্টস-এর অধীনে ইসলামি ইতিহাস ও সংস্কৃতি, ইসলামী অর্থনীতি, মুসলিম প্রশাসনসহ লোক প্রশাসন চালু আছে। এছাড়া বিজ্ঞান ফ্যাকাল্টিসহ প্রতিটি ফ্যাকাল্টির যেকোন বিষয়ের ছাত্র-ছাত্রীদেরকে প্রথম বর্ষে আরবী ভাষা, বাংলা এবং আরবী ব্যাতীত অন্য যেকোন ভাষা এবং ইসলামী আকীদা-আখলাক এরকম তিনটি বিষয় সম্পন্ন করতে হবে। মোদ্দাকথা, পার্থিব শিক্ষার সাথে ধর্মীয় নৈতিক শিক্ষার একটা সমন্বয় গড়ে তোলার চেষ্টা করা হয়েছে।

কিন্তু এই প্রচেষ্টা ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় নামে আলাদাই থাকা গেছে, বাংলাদেশের সকল বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতেএরপরে কোন সমন্বিত পার্থিব-ইসলামী শিক্ষাব্যবস্থা চালু হয়নি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আরবী ভাষা, ইসলামী ইতিহাস এসব কিছু বিষয়ে অনার্স, মাস্টার্স চালু থাকলেও সেখানে সার্বজনীনভাবে চর্চা হয় সেকুলারিজমের। অন্যান্য পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতেও একই অবস্থা। স্কুল-কলেজ-মাদ্রসাগুলোতে এখনো পর্যন্ত আলাদা আলাদা শিক্ষাব্যবস্থাই চালু রয়েছে। এ সরকারের আমলে কম্পিউটার-বিজ্ঞান-গণিত শিক্ষার উপরে জোর দেয়া হলেও ধর্মীয় শিক্ষা সেই ডঃ কুদরত-ই-খুদা কমিশনের মতোই ঐচ্ছিক করে দেয়া হয়েছে। আবার কওমী শিক্ষাব্যবস্থার সংস্কারের দাবী উঠছে। কিন্তু সাধারণ শিক্ষাব্যবস্থায় যে ধর্মীয় শিক্ষা আরো বেশি বেশি করে চালু করা দরকার, অন্তত শিক্ষাজীবনের প্রথম বার বছরের মধ্যে বাংলা-ইংরেজীর পাশাপাশি আরবী ভাষায় বেশ ভালরকমের ব্যুতপত্তি অর্জনের প্রয়োজন রয়েছে এটা আমাদের সরকারগুলো এখনো ভালভাবে অনুধাবন করেনি। আমাদের সকল বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ইসলামী অর্থনীতি, সমাজনীতি, রাষ্ট্রনীতি, ইসলামী আইন, ইসলামী লোকপ্রশাসনব্যবস্থা এসব চালু হয়নি, যার ফলশ্রতিতে আমাদের রাষ্ট্রিয়-সামাজিক ব্যবস্থায়, চিন্তা-চেতনায় এখনো বৃটিশ ভাবধারা বা হাল আমলে আমেরিকান ভাবধারা বা নতুনভাবে সাংস্কৃতিকভাবে হিন্দীর প্রভাব খুব সহজেই আমাদেরকে গ্রাস করছে। এজন্যে আমাদের শিশুরা অনায়াসেই মিথ্যা বলা, অন্যায় চিন্তা করা, ভুল সংস্কৃতির ধারক-বাহক হয়ে উঠছে, অপসংস্কৃতিতে অভ্যস্ত হয়ে উঠছে বা আকৃষ্ট হচ্ছে, শিক্ষিত সার্টিফিকেটধারী হচ্ছে, কিন্তু ঘুষ-দূর্নীতি-অনৈতিকতায় অভ্যস্ত জাতি হিসেবে গড়ে উঠছে। মোদ্দাকথা সকল মুসলিম বা হিন্দু বাঙালী সবাই সঠিক আত্ম-পরিচয়হীনভাবে গড়ে উঠছে। এ অবস্থা দিনের পর দিন চলতে পারে না, স্বাধীনতার ৪৩ বছর পরেও আমরা আমাদের নিজস্ব কৃষ্টি-কালচারের একটি পূর্ণাংগ ইসলামিক-আধুনিক শিক্ষাব্যবস্থা গড়ে তুলতে পারিনি, এ ব্যর্থতা আমাদের সবার, বিশেষ করে সকল বাঙালী শিক্ষিত বুদ্ধিজীবিদের, শিক্ষকদের, রাজনীতিবিদদের।

75
Telecom Forum / Re: Superchannel: Ethernet Speed Beyond 100 Gb/s!
« on: August 17, 2013, 04:15:58 PM »
Remaining Figures,

Pages: 1 ... 3 4 [5] 6 7 ... 9