Show Posts

This section allows you to view all posts made by this member. Note that you can only see posts made in areas you currently have access to.


Messages - mosharraf.xm

Pages: 1 [2] 3 4
16
Common Forum/Request/Suggestions / Re: Tips for professional email
« on: April 05, 2019, 10:38:06 PM »
Thanks

17
রাউটার এর ফার্মওয়ার আপডেট করলে কি সেটিং আবার কন্ফিগার করতে হবে?
ওয়াইফাই নেটওয়ার্ক কিভাবে অপগ্রেড করে?
দয়া করে জানবেন।

ধন্যবাদ।

18
The bitter truth is we do have all the rules but most of those don't get implemented either due to political diplomacy or power of the anarchy. As a nation we have been corrupted to the core of our heart. We need to be out of this, we need to become humane one more time, we need to care about every living soul.

Recently one post has become viral on social media about fire extinguishing ball by RFL. It didn't explode in the fire. So where are we? We are buying fire fighting equipments which are not up to the mark. Horrendous. Still I hope and believe humanity will restore and we'll strike back.

19
বিকাশ সত্যিই প্রশংসনীয় কাজ করছে। তবে মোবাইল ফোন সংস্থা গুলোর নিজস্ব কেনাকাটার যে সব পোর্টাল রয়েছে তা এখনো ততটা স্মার্ট হয়ে উঠতে পারেনি যতটা করছে দারাজ, পিকাবু বা আলী এক্সপ্রেস। মার্কেটে টিকে থাকতে হলে সার্ভিসে আরো ভাল হবার কোন বিকল্প নেই। আশা করছি তারা দ্রুত এ ব্যাপারগুলোর ব্যাপারে সচেতন হয়ে উঠবে।

20
There are few more to add, specially those are extra ordinarily special in this segment.

1. i-Robot
2. Chappie
3. Robocop 2014

and not miss the animated one wall-E.

21
Useful post. Thanks. Would have been great though if the download links for the apps could have been provided.

22
Common Forum/Request/Suggestions / Re: Common Sense - Series
« on: February 22, 2019, 09:55:16 AM »
We spit a lot on the road which looks really ugly and its unhealthy as well. I am pretty sure in the Western or European countries people do not do it at all. But we do it like we are supposed to do it, its normal. No, it is not. Please stop spitting on the road.

23
This is indeed a great news and achievement. Congratulation to our Honorable Chairman sir. We are proud of you.



News link: https://www.thedailystar.net/business/the-daily-star-ict-awards-2018-win-one-individual-4-it-firms-1661899

24
This is indeed a great news and achievement. Congratulation to our Honorable Chairman sir. We are proud of you.



News link: https://www.thedailystar.net/business/the-daily-star-ict-awards-2018-win-one-individual-4-it-firms-1661899

25
That is disappointing as well as expected. Because Facebook had already taken the entire platform. G+ couldn't add anything new that would stick people to it. However, mail and search engine are still the best.

26
IT Forum / Re: Microsoft Excel shortcut keys
« on: November 04, 2018, 11:05:44 AM »
Useful shortcuts.

However, Ctrl+F can be used now to bring up the search box. Only Ctrl+ can add a new row. Lots of things have been upgraded.

Still thanks for the useful post.

27
এসডি কার্ডে অনেক এপ ইনস্টল করা যায়না। সেক্ষেত্রে ফোন রূট করতে হয়। আর সি ক্লিনারের মত এপ গুলোও বেশ জায়গা নিয়ে ইনস্টল হয়। টিপসগুলো ভাল। ধন্যবাদ।

28
গরিলা গ্লাস ৬ উন্মোচন করেছে কর্নিং। আগের মডেলের চেয়ে এই গ্লাসটি বেশি টেকসই হবে বলে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।
নির্মাতা প্রতিষ্ঠান কর্নিংয়ের দাবি এক মিটার উচ্চতা থেকে ১৫ বার পড়লেও ভাঙবে না গরিলা গ্লাস ৬। আর এটি গরিলা গ্লাস ৫-এর চেয়ে “প্রায় দ্বিগুণ ভালো”, বলা হয়েছে প্রযুক্তি সাইট ভার্জের প্রতিবেদনে।

কর্নিং গরিলা গ্লাস ভাইস প্রেসিডেন্ট ও মহাব্যবস্থাপক জিন বেইন এক বিবৃতিতে বলেন, “বেশি উচ্চতা থেকে পড়লেও ভাঙবে না গরিলা গ্লাস ৬, যা গরিলা গ্লাস ৫ থেকে উন্নত, কিন্তু আরও গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো একধিকবার পড়লেও টিকে থাকবে এমনভাবে এটি তৈরি করা হয়েছে।”

ক্রমেই পাতলা করা হচ্ছে স্মার্টফোনের নকশা। আগের চেয়ে আরও পাতলা করা হচ্ছে কাঁচের পর্দা। এর আগে অনেক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে স্মার্টফোনের নকশা পাতলা করায় গরিলা গ্লাসের উন্নতি থেমে যাচ্ছে, কারণ পাতলা কাঁচ হলো দুর্বল কাঁচ, এমনকি এটিকে যদি শক্তিশালী করা হয় তারপরও দুর্বল।

অন্যদিকে কর্নিংয়ের দাবি এজ-টু-এজ পর্দা আসলে স্মার্টফোনকে আরও মজবুত করছে। আগের বছরের স্মার্টফোনগুলোতে কিছু সময় দেখা গেছে প্রথমে বেজেলে ফাটল দেখা দেয়, এরপর কাঁচ দুর্বল হয়।

এর আগে কর্নিং স্বীকার করেছে যে কাঁচকে স্ক্র্যাচ নিরোধী করতে হলে কাঁচ ভাঙ্গার দিকে কিছুটা ছাড় দিতে হয়। আবার কাঁচ বেশি শক্ত করতে হলে স্ক্র্যাচ নিরোধীর দিক থেকে ছাড় দিতে হয়। এবার কর্নিং দাবি করেছে নতুন গরিলা গ্লাস ৬ আগের মতোই স্ক্র্যাচ নিরোধী হবে। তাই এটা ধারণা করা যাবে না যে, স্ক্র্যাচ নিরোধী হিসেবে গরিলা গ্লাস ৬ স্মার্টফোন আগের চেয়ে ভালো হবে।

ইতোমধ্যে গরিলা গ্লাস ৬-এর উৎপাদন শুরু করেছে কর্নিং। কয়েক মাসের মধ্যে এটি বাজারে আসবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সূত্রঃ ইন্টারনেট

29
Smartphone / এলো অ্যান্ড্রয়েড "পাই"
« on: August 08, 2018, 03:39:47 PM »
বাজার এসেছে গুগলের মোবাইল অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েডের সর্বশেষ সংস্করণ অ্যান্ড্রয়েড পাই।
নতুন এই সংস্করণে স্মার্টফোন বা ট্যাবলেটে অ্যাপের ব্যবহার কতটুকু হচ্ছে তা শনাক্ত করার নতুন উপায় আনা হয়েছে। সেইসঙ্গে এই ব্যবহারের মাত্রা নিয়ে সীমাও নির্ধারণ করে দেওয়ার সুযোগ রয়েছে। দিনের কোনো একটি নির্ধারিত সময়ে স্ক্রিনের রঙ সরিয়ে দেওয়া যাবে এতে।

অ্যান্ড্রয়েডের নবম এই সংস্করণে নোটিফিকেশন আগে চেয়ে আরও উন্নত করা হয়েছে আর ব্যাটারির চার্জ বেশিক্ষণ রাখার প্রতিশ্রুতিও দেওয়া হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে বিবিসি’র প্রতিবেদনে।

এদিকে এর আপডেট বিতরণ নিয়ে সমস্যা মোকাবেলা করেই যাচ্ছে গুগল। প্রতিষ্ঠানটির দেওয়া তথ্যমতে, বর্তমানে ব্যবহার করা হচ্ছে এমন অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসগুলোর মধ্যে মাত্র ১২ শতাংশে সর্বশেষ অ্যান্ড্রয়েড সংস্করণ অরিও ব্যবহার করা হচ্ছে।

বর্তমানে নতুন এই সংস্করণের আপডেট শুধু গুগল পিক্সেল ফোনেই পাওয়া যাবে।



মোবাইল ওএস-এর নামের জন্য গুগল সবসময়ই কোনো ডেজার্ট বা মিষ্টান্নের নাম বাছাই করে। আর এক্ষেত্রে প্রতিবার নামের প্রথম অক্ষর ইংরেজি বর্ণমালার ক্রমান্বয়ে আগায়। যেমন, জেলি বিন, কিট ক্যাট, ললিপপ এবং মার্শমেলো।

অরিও-এর পরের সংস্করণের নাম পিসতাচ্চিও আইস ক্রিম, পপ -টার্ট বা পাম্পকিন পাই রাখা হবে বলে ধারণা করা হয়েছিল। কিন্তু অ্যান্ড্রয়েডের লন্ডন প্রকৌশল দলের প্রধান জানান, এক্ষেত্রে সহজ কিছু নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। নামটি সহজ রাখতে গিয়েই শুধু ‘পাই’ বেছে নিয়েছে নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটি।

নিজেদের মোবাইল অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েডের সর্বশেষ সংস্করণ অ্যান্ড্রয়েড পাই এনেছে ওয়েব জায়ান্ট গুগল। এই নতুন সংস্করণে কী থাকছে? এ নিয়েই করা হয়েছে এই প্রতিবেদন।

ডিজিটাল ওয়েলবিইং কনট্রোল

গুগল এই সংস্করণের অন্যতম নতুন ফিচার হচ্ছে ডিজিটাল ওয়েলবিইং কনট্রোল। স্মার্ট ডিভাইসগুলো ব্যবহারকারীদের জন্য ‘আসক্তিমূলক’ আর তাদের ঘুমের অভ্যাস বিঘ্নকারী- এমন সমালোচনার জবাবে এই ফিচার আনা হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয় বিবিসি’র প্রতিবেদনে।
এই ফিচারের মাধ্যমে একটি ড্যাশবোর্ডে একজন ব্যবহারকারী তার ডিভাইস ব্যবহারে কতক্ষণ সময় ব্যয় করছেন তা দেখানো হবে। এক্ষেত্রে তাদের সবচেয়ে পছন্দের অ্যাপগুলোর কোনটিতে কত ঘণ্টা কত মিনিট খরচ হচ্ছে তা বিস্তারিত তুলে ধরা হবে।

শুধু তাই নয়, এর সঙ্গে নির্ধারিত প্রোগ্রামের জন্য আগে থেকেই সময় বেঁধে দেওয়ারও সুযোগ রয়েছে। এই সময়সীমা শেষ হওয়ার কিছু আগে ব্যবহারকারীকে সতর্ক করা হবে। সীমা শেষ হওয়ার সঙ্গে অ্যাপের আইকনটি ধূসর বর্ণ ধারণ করবে ও অ্যাপটি চালু হবে না। তবে, এই লকড অ্যাপ আবার খোলা যাবে।

উইন্ড ডাউন মোড

দিনশেষে দ্রুত ব্যবহারকারীকে স্মার্টফোন ছাড়তে সহায়তা করবে এই উইন্ড ডাউন মোড। আগে থেকে ঠিক করা সময়ে স্মার্টফোনের স্ক্রিন ধূসরের কাছাকাছি রঙ হয়ে যাবে। সঙ্গে সঙ্গে চালু হবে ডু নট ডিস্টার্ব মোড, সব ইনকামিং কলের অ্যালার্ট হয়ে যাবে সাইলেন্ট।

একই রকম লক্ষ্য নিয়ে আইওএস ১২-এ স্ক্রিন টাইম কনট্রোল নামের ফিচার আনছে টেক জায়ান্ট অ্যাপলও।

উন্নত হয়েছে নোটিফিকেশন

যে কোনো অ্যালার্ট দেওয়ার সঙ্গে পাইয়ে ছবিও দেখানো হবে। কোনো কলের নোটিফিকেশনের ক্ষেত্রে ব্যবহারকারীর সঙ্গে যিনি যোগাযোগ করেছেন তার একটি ছোট ছবি দেখানো হবে। কোনো কনটেন্ট শেয়ার করা হলে তার প্রিভিউ দেখা যাবে অ্যালার্টের সঙ্গে।

সেইসঙ্গে স্মার্ট রিপ্লাই ফিচারের মাধ্যমে নোটিফিকেশনগুলো থেকেই ব্যবহারকারীরা তাদের পাওয়া মেসেজের জবাব দিতে পারবেন। এক্ষেত্রে প্রত্যাশিত জবাবও দেখানো হবে, যা ব্যবহারকারীরা টাইপ না করেই পাঠিয়ে দিতে পারবেন।

ব্যাটারি আর চার্জের কী হলো?

অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসগুলোর চার্জ খুব দ্রুত শেষ হয়ে যায়- এমন অভিযোগের বিপরীতে দুইটি উপায় হাতে নেওয়া হয়েছে।

প্রথম ক্ষেত্রে ডিসপ্লে বন্ধ থাকলে ব্যাটারি ব্যবহার কমাতে আধুনিক মোবাইল প্রসেসরগুলোর একটি প্রচলিত ফিচারের সুবিধা কাজে লাগাতে চেষ্টা করেছে গুগল। মূল সিপিইউ চিপগুলো এখন ‘বিগ-লিটল’ আর্কিটেকচার ব্যবহার করে, যেখানে কিছু প্রসেসর গতির দিকে নজর দিলেও অন্যগুলো শক্তি ব্যবহারে আরও কার্যকরী হতে জোর দিচ্ছে।   

দ্বিতীয় ক্ষেত্রে যে সমস্যা ঠেকাতে কাজ করা হচ্ছে সেটিকে গুগল ‘ব্যাড ব্যাটারি ডেইজ’ হিসেবে আখ্যা দিয়েছে। এই ব্যবস্থা কোনো ব্যবহারকারী কখন কোনো অ্যাপ ব্যবহার করতে চান তা অনুমান করতে চেষ্টা করে। এটি সিপিইউ আর ব্যাটারি ব্যবহার করে নির্ধারিত অ্যাপগুলো চালু হওয়া ঠেকাবে, আর পরের বার চার্জ নেওয়ার আগ পর্যন্ত স্থগিত রাখবে।

ইতোমধ্যে হুয়াওয়ে তাদের কিছু ফোনে নিজস্ব মেশিন লার্নিং প্রযুক্তি ব্যবহার করে এই সেবা দিচ্ছে।

স্লাইসেস

গুগল পাইয়ের অন্যান্য উদ্ভাবনগুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে স্লাইসেস, এটি ব্যবহারকারীর চালু করা ছাড়াই কোনো অ্যাপের ইউজার ইন্টারফেইস-এর কিছু অংশ সামনে নিয়ে আসে। যেমন, সার্চ বারে কোনো ট্যাক্সি অ্যাপের নাম দিলে হয়তো  ওই সেবার সবচেয়ে কাছের গাড়িটি কতদূরে আছে আর এর ব্যবহারকারীর গন্তব্যে পৌঁছাতে কত সময় লাগবে তা দেখানো হবে। তবে, এই সেবা পেতে চলতি বছরের শেষ অব্দি অপেক্ষা করতে হবে।

অ্যাপ অ্যাকশনস

গুগল ব্যবহারকারী তাদের স্মার্টফোনে পরবর্তী কোন কাজটি করবে তা অনুমান করবে এই ফিচার, যেমন, কোনো নির্দিষ্ট কনটাক্টে কল করা, কোনো নির্ধারিত নোট খোলা বা কোনো পছন্দের অ্যালবাম প্লে করা। এই কাজ অনুমানের পর ফিচারটি স্ক্রিনের একটি কোণায় এগুলো দেখাবে। ব্যবহারকারী একটি ট্যাপের মাধ্যমেই সেই কাজ করতে পারবেন।
এ ছাড়াও ব্যবহারকারীর পরিবেশ অনুয়ায়ী ডিসপ্লে ঠিক রাখা ও এক অ্যাপ থেকে অন্য অ্যাপে নড়াচড়ার মাধ্যমে যাওয়ার নতুন সুবিধা আনা হয়েছে অ্যান্ড্রয়েড পাইয়ে।

সূত্রঃ ইন্টারনেট

30
Story, Article & Poetry / ডলফিনের ‘সুখ’
« on: August 06, 2018, 11:24:31 AM »
প্যারিসের কাছে একটি মেরিন পার্কে গবেষকরা বন্দিদশায় ডলফিনদের সুখের অনুভূতি মাপার চেষ্টা করেছেন।

প্রাণিদের বন্দিদশা কেমন তা বোঝার জন্যই তারা এ প্রজেক্টে হাত দিয়েছেন। এর জন্য ডলফিনের প্রতিটি কার্যকলাপ পর্যবেক্ষণ করতে হচ্ছে।

বিবিসি ডটকম ওয়েবসাইটের বিজ্ঞান বিভাগের প্রতিনিধি ভিক্টোরিয়া গিলের সোমবারে প্রকাশিত এ প্রতিবেদনে, অ্যাপ্লায়েড অ্যানিম্যাল বিহেভিয়ার সায়েন্সের একটি জার্নাল অনুসারে, তিন বছর ধরে এটি নিয়ে গবেষণা করছেন গবেষকেরা। তারা জানিয়েছেন, সামুদ্রিক স্তন্যপায়ী প্রাণিরা পরিচিত মানুষের সাথে যোগাযোগ করতে চায়।     

গবেষণাটিকে পরিচালনা করেছেন ড. ইসাবেলা ক্লেগ যার নেতৃত্বে প্যারিস বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকেরা কাজ করেছেন। গবেষণাটি চলছে অ্যাস্টরেক্স পার্কে।   

ক্লেগ বলেন যে, ডলফিনেরা বন্দি অবস্থায় কেমন আচরণ বেশি পছন্দ করে সেটাই তারা জানতে চেয়েছেন।   

তিনটি কার্যকালাপের মাধ্যমে তারা ডলফিনের অনুভূতি জানার চেষ্টা করেছেন। প্রথমত, ট্রেইনারকে তাদের সাথে খেলতে দিয়েছেন। তারপরে পুলের বিভিন্ন খেলনা দিয়েছেন এবং সবশেষে তাদের একা থাকতে দেওয়া হয়েছে। 

এই গবেষণার পর ক্লেগ জানান, তারা একটি আকর্ষণীয় ফলাফল পেয়েছেন। ডলফিনেরা তাদের পরিচিতদের সাথে যোগাযোগ করতে গভীরভাবে অপেক্ষা করে। 

ডলফিনেরা পানির ঠিক নিচেই লুকিয়ে ভেসে থাকে এবং ট্রেইনার যেদিক থেকে আসে সেদিকেই তাকিয়ে থাকে। তারা পুলের কিনারেই বেশি সময় ধরে থাকে, যেন ট্রেইনার আসার সঙ্গে সঙ্গে দেখতে পায়। 

ক্লেগ আরও বলেন যে তারা চিড়িয়াখানা এবং ফার্মের অন্যান্য প্রাণির মাঝেও একই বিষয় লক্ষ্য করেছেন।

 প্রাণিরা বন্দিদশায় ভালো না খারাপ আছে এ নিয়ে ফ্রান্সে প্রচুর সমোলচনা চলে।

সম্প্রতি ফ্রান্সের সরকার অ্যাস্টেরিক্স পার্কের মত পার্কে ডলফিনের প্রজনন নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাখান করেছে।এরপর অ্যাস্টেরিক্স পার্কের ডলফিনেরিয়ামের পরিচালক বিরজিট মারসারা বলেন যে, ডলফিনদের জাত আলাদা রাখতে দেওয়াটা তাদের সুখী জীবনের জন্য খুবই প্রয়োজনীয়। কারণ তারা বন্যজীবন থেকে আলাদাভাবে বাঁচছে।

মারসারা মনে করেন, বন্য ডলফিনরা বনে সুখী এবং বন্দি ডলফিনেরা বন্দিদশায়। বন্দি ডলফিনেরা এখানেই জন্ম নিয়েছে এবং তাদের দেখাশোনা করাটাকে অগ্রাধিকার দেওয়া উচিত। 

মারসারা এবং অ্যাস্টোরিক্স পার্কের ট্রেইনারের সাথে কথা বলে জানা যায় যে, ডলফিনরা সুখী এবং সহজ জীবনযাপন করছে।

কিন্তু ম্যানচেস্টার বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. সুসান সুলেৎজ যিনি সামুদ্রিক স্তন্যপায়ী প্রাণিদের আচরণের ওপর পড়াশোনা করেছেন, তিনি বলেন যে, একটি গবেষণা কখনই বলতে পারবে না, ডলফিনরা বন্দি অবস্থায় সুখী না বন্য অবস্থায়।

তিনি আরও মনে করেন, এটি একটি মূল্যবান আবিষ্কার যে, বন্দিদশায় ডলফিনরা মানুষের সাথে যোগাযোগ করতে চাচ্ছে। এটি অন্য বুদ্ধিমান প্রজাতিদের সাথে আমাদের আচরণের ওপর প্রয়োগ করা যেতে পারে। কিন্তু একটি ডলফিনের কারো  যোগাযোগ করতে চাওয়াটার মানে এই নয় যে, তার দেওয়া জীবনযাপন পদ্ধতি ডলফিনটির পছন্দ। 

যুক্তরাজ্যের দাতব্য সংস্থা, হোয়েল অ্যান্ড ডলফিন কনজারভেশন অনুসারে বিশ্বের প্রায় ৫০ টি দেশে কমপক্ষে তিন হাজার 'দাঁতওয়ালা তিমি' প্রজাতির প্রাণি বন্দিদশায় রয়েছে। ডলফিনও এই প্রজাতিগুলির মধ্যে একটি। কিন্তু ড. ক্লেগ বলেন যে, এই সংখ্যা তিন নয় পাঁচ হাজার। এর চেয়ে বেশিও হতে পারে, যেগুলি নিবন্ধিত নয়। 

তিনি বলেন যে, দেড়শ বছর ধরে তিমি এবং ডলফিনদের বন্য অবস্থা থেকে অ্যাকোরিয়ামে আনা হচ্ছে। বিজ্ঞানীরা এ থেকে তাদের জীবনযাপন, আচরণ, বুদ্ধিমত্তা সম্পর্কে ভালোভাবে জানতে পারছেন।   

তিনি আরও জানান, বন্দিদশায় রাখা সঠিক না বেঠিক সেটার উত্তর দেওয়ার পরিবর্তে তিনি বলতে চাইবেন, এই আবিষ্কারের ফলে হাজারো ডলফিন যারা ডলফিনেরিয়ামে রয়েছে তাদের জীবনব্যবস্থার উন্নতি হবে।

তিনি এটাও বলেন যে, প্রাণিদের বন্দিদশায় রাখা উচিত কি না এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন এবং এটি এই মুহূর্তেই তুলে ধরা উচিত। এই প্রশ্নের দুটি ভাগ আছে। প্রথমত, সত্যিই কী প্রাণিরা ভালো আছে? তাদের উদ্দেশ্য কী? এর উত্তর জানতে তাদের আচরণ গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করতে হবে।

তিনি আরও যোগ করেন, যদি জানা যায় তারা সত্যিই ভালো আছে, তখন আরও কিছু গবেষণা করতে হবে। তারা কী আসলে মানুষের সাথে যোগাযোগে থাকছে এজন্য সুখী নাকি মানুষকে বিনোদন দিচ্ছে সেজন্য সুখী। যদি শুধুমাত্র তারা মানুষের বিনোদনের কারণে থেকে থাকে তাহলে এটা মোটেই ন্যায়সঙ্গত নয়।

সূত্রঃ ইন্টারনেট

Pages: 1 [2] 3 4