Show Posts

This section allows you to view all posts made by this member. Note that you can only see posts made in areas you currently have access to.


Messages - Raihana Zannat

Pages: [1] 2 3 ... 18
1
Faculty Sections / The FaceApp privacy scare
« on: July 24, 2019, 11:47:07 AM »
We already know that Facebook quizzes are harbingers of big chunks of our data, which they might use against each other to start a big data war in the near future. But, there’s a new cat in town and it makes you look old – it’s called FaceApp.
Russian company Wireless Lab created FaceApp and the app’s terms of condition are a long read. The summary of it is that you give FaceApp irrevocable and royalty-free access to your face. Fair play to them though since most apps do take your data, sometimes without even a notice going as far stealing it.

What’s spectacular about the FaceApp ordeal is that US senator Chuck Schumer has ordered the FBI and FTC to look into the app. So the US does see the app as a major security concern. FaceApp CEO Yaroslav Goncharov has come out and stated that they are not using the pictures for anything questionable. So more than anything, FaceApp’s terms of conditions came off as a cause of concern due to the multiple massive data breaches that have happened in recent time. Reports also point towards the fact that FaceApp isn’t accessing data beyond the single picture you use, with no signs of stealing other sensitive information.

Regardless, it’s best to be safe, especially with external apps like FaceApp. There are already some knockoff FaceApp type apps which do more than just stealing your pictures.
-collected

2
Accredited R We? / Bite-sized games which pack a punch
« on: July 24, 2019, 11:35:08 AM »
Bite-sized games which pack a punch
Here are a couple of games you can play to your heart’s content, without worrying about storage.

Mekorama

Platform: Android, iOS, Switch

Size: 4.7 MB

Price: Free

Mekorama is a puzzle game and it’s directly inspired from the gorgeous Monument Valley. It’s also free and with an infinitesimal number of user made levels, you can sink hours into this “2.5D” puzzle game. It’s a beautiful looking game and not to mention, it’s free.

Robot Wants Kitty

Platform: Android, iOS

Size: 8.9 MB

Price: Free

Robot Wants Kitty while only having six levels follows a robot which has to collect kitten each level in order to acquire powerups. If you’re a sucker for the classic Metroidvania formula and you’re looking for a way to kill some time, this game’s got you covered.

Hoppenhelm

Platform: Android

Size: 22 MB

Price: Free

Hoppenhelm is a great pick up and play game. An endless runner with an art style similar to action platformers you would find on the SNES or Sega Genesis, Hoppenhelm oozes a lot of charm. It also has a lot more depth than other similar endless runner type deals, with its character customisation features and randomly generated levels.

3
Thanks sir.

5
Software Engineering / Re: Top 20 Python libraries for Data Science
« on: July 16, 2019, 11:30:21 AM »
Informative post

6
New folder নামে একটি শর্টকাট ফোল্ডার দেখা যাচ্ছে?? ???

1.একটি ব্রাউজার  ওপেন করি । সার্চ বারে usb fix লিখুন এন্টার দেই বা
2.https://www.usbfix.net  এই লিঙ্ক থেকে usb fix ডাউনলোড করে ইনেস্টল করি ।
3.usb fix ওপেন করি  ‘স্কান ইউএসবি ডিস্ক‘ এ ক্লিক করি ।
4.পেনড্রাইভ  টির শর্টকাট ভাইরাস টি ডিটেক করবে ক্লিন করি ।
5.এখন পেনড্রাইভ ওপেন করি New folder নামে শর্টকাট ভাইরাস নেই।

7
খাবারে ক্যান্সার নিরোধী অণু খুঁজে বের করছে ড্রিমল্যাব নামের মোবাইল অ্যাপ। মোবাইল 'কাজহীন' বা অলস অলস থাকা অবস্থায় যে প্রসেসিং পাওয়ার কাজে লাগে না তা ব্যবহার করে শনাক্ত করা হবে এই অণু।
গবেষণায় দেখা গেছে গাঁজর, সেলেরি নামে এক থরনের শাক এবং কমলায় সবচেয়ে বেশি ক্যান্সার নিরোধী অণু রয়েছে-- খবর বিবিসি’র।

ইতোমধ্যেই অ্যাপটি ডাউনলোড হয়েছে ৮৩ হাজার বার। গ্রাহকের ঘুমের সময় এটি কাজ করে এবং ইতোধ্যেই এক কোটির বেশি গণনা শেষ করেছে।

এ বিষয়ে এক গবেষক বলেন, এর চিকিৎসা বের করতে এখনও অনেক কাজ বাকি।

ইতোমধ্যেই অ্যাপটি ডাউনলোড হয়েছে ৮৩ হাজার বার। গ্রাহকের ঘুমের সময় এটি কাজ করে এবং ইতোধ্যেই এক কোটির বেশি গণনা শেষ করেছে।

অ্যালগরিদমের মাধ্যমে অ্যাপটি একটি বিস্তৃত ডেটাবেইজের সঙ্গে আট হাজারের বেশি দৈনন্দিন খাবারের উপাদান পরিমাপ করে। ল্যাব পরীক্ষার কোষ বা প্রাণীর দেহে যে অণুগুলো সফলভাবে ক্যান্সার প্রতিহত করতে পেরেছে ডেটাবেইসটিতে সে উপাদানগুলো রাখা হয়েছে।

আঙ্গুর, জিরা এবং বাধাকপিতে ক্যান্সার নিরোধী অণূর পরিমাণ অনেক বেশি বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

বর্তমান অ্যান্টি-ডায়াবেটিক এবং অ্যান্টি-মাইক্রোবায়াল ওষুধও ক্যান্সারের চিকিৎসায় ব্যবহার করা যেতে পারে বলে পরামর্শ দিয়েছেন গবেষকরা।

অ্যাপটি নিয়ে প্রকাশিত পেপারের মূল লেখক ইম্পেরিয়াল কলেজ লন্ডনের সার্জারি ও ক্যান্সার বিভাগের ড. কিরিল ভেসেলভ বলেন, “এটা আমাদের জন্য যুগান্তকরী মূহুর্ত।”

“পরবর্তী পদক্ষেপ এআই প্রযুক্তি দিয়ে এটা বের করতে হবে যে, ব্যক্তি ভেদে ওষুধ এবং খাবারের অণুর সমন্বয় কেমন প্রভাব ফেলে।”

ক্যান্সার রিসার্চ ইউকে’র স্বাস্থ্য তথ্য কর্মকর্তা উইলিন উ বলেন, “এই গবেষণার মাধ্যমে আশা করা যাচ্ছে আমরা ক্যান্সারের নতুন চিকিৎসা খুঁজে পাব, আমাদের খাবার এবং পানীয়ের মধ্যে থাকা রাসায়নিকের মাধ্যমেই।”

“এই পদক্ষেপ থেকে ফলাফল এলেও ক্যান্সার চিকিৎসায় তা ব্যবহার করতে এখনও অনেক দেরি। একটি নির্দিষ্ট ধরনের খাবার খাওয়ায় চেয়ে সার্বিক খাদ্যাভ্যাস ক্যান্সারের ঝুঁকি কমাতে বেশি গুরুত্বপূর্ণ।”

“অনেক প্রমাণ আছে যে মাংস, বেশি ক্যালোরির খাবার এবং পানীয়ের চেয়ে ফল এবং শাক সবজির মতো ফাইবার জাতীয় খাবার খেলে ক্যান্সারের ঝুঁকি কমে।”

ড্রিমল্যাব নামের অ্যাপটি যৌথভাবে বানিয়েছে ইম্পেরিয়াল কলেজ লন্ডন এবং ভোডাফোন ফাউন্ডেশন। গবেষণাটি প্রকাশ করা হয়েছে নেচার সাময়িকীতে।

- বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম

9
স্বাস্থ্য নিয়ে আজকাল অনেক তথ্যই পাওয়া যায় ইন্টারনেটে। পুষ্টি, স্থূলতা, ক্যান্সার, উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস নিয়ে অনেক ধরণের তথ্য থাকে সেখানে। তবে এগুলোর মধ্যে কোনটা ভুল আর কোনটা সঠিক সেটা বোঝা মুশকিল। স্বাস্থ্য নিয়ে এমন কিছু তথ্য লোকের মুখে মুখে ফিরছে যে ঠিক না ভুল যাচাই হওয়ার আগেই তা প্রচলিত বিশ্বাসে পরিণত হয়েছে। যেমন-

১. ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে, হজমের উন্নতি ঘটাতে,শরীর সুস্থ রাখতে পানির গুরুত্ব অপরিসীম। তবে তাই বলে গুণে গুণে প্রতিদিন আট গ্লাস পানিই খেতে হবে এমন ধারণা ভুল। যখনই পিপাসা লাগবে, তখনই পানি খাবেন। পানির পরিবর্তে কখনও স্যুপ, রসালো ফল বা সবজিও খেতে পারেন। এতেও পানির পিপাসা মিটবে।

২. দিনে একটার বেশি ডিম খেলে হৃদযন্ত্রের ক্ষতি হয় এমন কথা প্রায়ই শোনা যায়।আবার এটাও প্রচলিত আছে,ডিমের কুসুম খাওয়া ঠিক নয়। শুধু সাদা অংশ খাওয়া ভাল। এটা ঠিক নয়। দিনে সর্বোচ্চ দুটি ডিম খাওয়া যায়। এটা সবার জন্যই পুষ্টিকর একটি খাবার।

৩. ঠাণ্ডা জায়গায় থাকলে সর্দি-কাশি বাড়ে, এটাও ভুল ধারণা। বরং হালকা ঠাণ্ডা আবহাওয়ায় যিনি থাকেন তিনি অন্যদের চেয়ে বেশি সুস্থ থাকেন। কারণ, হাড়কাঁপানো ঠাণ্ডা জায়গার বদলে হালকা ঠাণ্ডা জায়গায় থাকলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে। আর অসুস্থ হয়ে ঘরে বসে থাকলে মানুষ আরও অসুস্থ হয়ে পড়ে। কারণ বদ্ধ জায়গায় জীবাণু বেশি ছড়ায়।

৪. সুস্থ থাকতে নিয়মিত মাল্টি ভিটামিন খেতে হবে এমন ধারণা ঠিক নয়। সঠিক খাদ্যতালিকা বিশেষ করে সবজি, ফল, দানা শস্য বেশি করে খেলে এমনিতেই মাল্টি ভিটামিন পাওয়া যায়। এর জন্য আলাদা ওষুধ খেতে হবে না।

৫. আমরা জানি, সবুজ বা হলদে কফ মানেই জীবাণুর সংক্রমণ। অনেক সময় সাইনাস হলে বা সাধারণ সর্দি-কাশিতেও কফ হলুদ বা সবুজ হয়ে যেতে পারে।

৬. অনেকেই টয়েলেট সিট নোংরা দেখলেই কুকুড়ে যান। কিন্তু অনেকেই হয়তো জানে না, বাথরুমের দরজা, দরজার হাতল আর মেঝেতে টয়লেট সিটের চেয়ে বেশি জীবাণু থাকে।জীবাণুমুক্ত থাকতে বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে হ্যাণ্ডওয়াশ ব্যবহার করুন।

সূত্র : এনডিটিভি

10
Faculty Sections / Systemic lupus erythematosus
« on: June 27, 2019, 11:46:08 AM »
Systemic lupus erythematosus (SLE) is an autoimmune disease. In this disease, the immune system of the body mistakenly attacks healthy tissue. It can affect the skin, joints, kidneys, brain, and other organs.
Causes

The cause of SLE is not clearly known. It may be linked to the following factors:

    Genetic
    Environmental
    Hormonal
    Certain medicines

SLE is more common in women than men. It may occur at any age. However, it appears most often in people between the ages of 15 and 44. The disease affects African Americans and Asians more than people from other races.

11
বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে কমবেশি সবারই স্ট্রোকের ঝুঁকি বাড়ে। বিশেষ করে কারও যদি পরিবার-পরিজন, ঘনিষ্ঠ আত্মীয়-স্বজনদের মধ্যে কারও স্ট্রোক হয়ে থাকে, তাহলে এই সম্ভাবনা আরও বেড়ে যায়।
বিশেষজ্ঞদের মতে, যেসব কারণে স্ট্রোকের ঝুঁকি বাড়ে সে সম্পর্কে যদি আগে থেকে জানা যায় তাহলে প্রতিরোধ করা সহজ হবে। স্ট্রোক এড়াতে যে বিষয়গুলো মেনে চলা জরুরি-

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখুন: উচ্চ রক্তচাপ থাকলে এখনই সাবধান হন। সঠিক সময়ে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে না রাখলে স্ট্রোকের আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়।

উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণের জন্য খাবারে কম পরিমাণে লবণ ব্যবহার করা উচিত। সেই সঙ্গে উচ্চ কোলেস্টরল যুক্ত খাবার যেমন -বার্গার, চিজ এবং আইসক্রিম ইত্যাদি বর্জন করুন। এছাড়া প্রতিদিন পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান করুন। সেই সঙ্গে নিয়মিত খাদ্যতালিকায় ফলমূল ও শাকসবজি রাখুন। দিনে অন্তত ৩০ মিনিট ব্যায়াম করুন, ধূমপান বর্জন করুন।

ওজন কমান: স্থূলতা শুধু অসময়ে স্ট্রোক নয়, বিভিন্ন ধরণের অসুখ-বিসুখও তৈরি করে। এ কারণে ওজন বেশি থাকলে অবশ্যই বাড়তি মেদ ঝরিয়ে ফেলুন। এতে স্ট্রোকের ঝুঁকি কমে যাবে।

বেশি করে শরীর-চর্চা করুন: নিয়মিত শরীর-চর্চা এবং ব্যায়াম করলে ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকে। রক্তচাপও নিয়ন্ত্রণে থাকে। আর স্ট্রোক হওয়ার আশঙ্কাও অনেকাংশে হ্রাস পায়।অল্প সময়ের জন্য হলেও সপ্তাহে অন্তত পাঁচ দিন শরীর-চর্চা করুন।

অ্যালকোহল এড়িয়ে চলুন : ধূমপানের মতো অতিরিক্ত অ্যালকোহল পানের কারণেও স্ট্রোকের ঝুঁকি বাড়ে।

আর্টারিয়াল ফাইব্রিলেশন: হৃৎপিণ্ড যদি অনিয়মিত গতিতে হয়, হৃৎপিণ্ডে ক্লট তৈরি হতে পারে। এই ক্লট মস্তিষ্কে পৌঁছে গেলে, স্ট্রোক ডেকে আনে। এক্ষেত্রে সতর্ক হওয়া অত্যন্ত জরুরি। কারও যদি অল্পতেই বুক ধড়ফড় করে বা শ্বাসকষ্ট হয় তাহলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখুন : ডায়াবেটিস থাকলে সতর্ক থাকুন। নিয়মিত চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী রক্তের শর্করা পরীক্ষা করুন। ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে প্রয়োজন ওষুধ খান, খাদ্যতালিকার দিকে নজর দিন।

ধূমপান বন্ধ করুন: একাধিকভাবে ধূমপান শরীরের ক্ষতি করে। এতে রক্ত গাঢ় হয়ে যায়, যার ফলে ধমনীতে প্লাক বিল্ড—আপ বেড়ে যায়, যা শরীরের পক্ষে অত্যন্ত ক্ষতিকর। এ কারণে ধুমপান পরিহারে নজর দিন।

সাধারণত স্ট্রোক হলে কিছু লক্ষণ দেখা দেয়। যেমন-

১. শরীরের এক অংশ হঠাৎ দুর্বল হয়ে পড়ে

২. মুখ অসাড় হয়ে যায়

৩. অস্বাভাবিক এবং প্রচণ্ড মাথাব্যথা হয়

৪. দৃষ্টি ক্ষীণ হয়ে আসে

৫. দেহের অঙ্গ—প্রত্যঙ্গ অসাড় হয়ে যায়, কথা জড়িয়ে যায়

৬ .হাঁটার প্রকৃতি বদলে যায়।

শরীরে এসবে লক্ষণের কোনটি দেখা দিলে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন

সূত্রঃ সমকাল

13
Thanks for sharing.

14
Nice.Thanks for sharing.

15
তীব্র গরম আবার হুটহাট বৃষ্টি। কখনো গরমে অস্থির আবার কখনো বৃষ্টির কারণে গায়ে কাঁথা জড়িয়ে ঘুম। এদিকে ঘরে কিংবা অফিসে এসিতে থাকা আর বাইরে বের হলেই রোদের চোখ রাঙানি। সব মিলিয়ে গরম আর ঠান্ডায় নাজেহাল হচ্ছেন সবাই। এই সময়টা ঠান্ডা-সর্দি-কাশির খুব প্রিয়। কারণ তারা এই সময়টাতেই আসন গেড়ে বসতে পারে আমাদের শরীরে। খুসখুসে কাশি কিংবা ঘুসঘুসে জ্বর তাড়াতে চাইলে এই উপায়গুলো মেনে চলুন-

আদা
গরম পানিতে ইঞ্চিখানেক আদার টুকরা ফুটিয়ে নিন মিনিট দশেকের জন্য। আদাযুক্ত পানি জুড়াতে সময় দিন। হালকা গরম থাকা অবস্থায় আর লেবুর রস মিশিয়ে মিশ্রণটুকু খেয়ে নিন। দিনে বার তিনেক খেতে পারেন এই মিশ্রণ।

মধু
ঠান্ডা লাগা বা কাশি সারাতে মধু বেশ কার্যকর। রাতে শোওয়ার আগে মধু খেয়ে নিলে কাশির সমস্যা দূর হবে। দুধের সঙ্গে মধু মিশিয়েও খাওয়া যায়।

লবণ-পানি
এক গ্লাস হালকা গরম পানিতে আধা চা চামচ লবণ মিশিয়ে এই মিশ্রণটি দিয়ে গার্গল করুন। লবণ ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করতে সাহায্য করে। সেইসঙ্গে ফোলাভাব কমায় আর গলা পরিষ্কার রাখে। প্রতিদিন তিনঘণ্টা পরপর এই মিশ্রণ ব্যবহার করে দেখুন।

আপেল সাইডার ভিনিগার
গলার মিউকাস ভাঙতে এবং তা ব্যাকটেরিয়ামুক্ত রাখতে আপেল সাইডার ভিনিগার দারুণ কার্যকর। গলা ধরে যাচ্ছে বুঝতে পারলেই এককাপ পানিতে এক বা দুই চাচামচ অ্যাপেল সাইডার ভিনিগার মিশিয়ে গার্গল করুন, অল্প অল্প করে খেতেও পারেন। তবে এই মিশ্রণের আগে ও পরে প্রচুর পানি পান করবেন।

স্টিম
স্টিম আপনার পোস্ট নেজাল ড্রিপিং কমায়, ফলে কাশিও কমতে বাধ্য। প্রতিদিন সকালে ও বিকালে স্টিম নিলেই পার্থক্যটা বুঝতে পারবেন।

Pages: [1] 2 3 ... 18