Electricity

Author Topic: Electricity  (Read 1352 times)

Offline sohail

  • Newbie
  • *
  • Posts: 1
    • View Profile
Electricity
« on: September 16, 2012, 07:20:30 PM »
প্রতিদিন বাংলাদেশে বৈদ্যুতিক দুর্ঘটনার জন্য মানুষ মারা যাচ্ছে,পুড়ছে বাড়ি ঘর শিল্পপ্রতিস্থান স্কুল কলেজ। আর এর জন্য দায়ি বৈদ্যুতিক অবাবস্থাপনা,ন্যাশনাল ইলেক্ট্রিক কোড না মেনে স্থাপনা তৈরি করা।
মানব দেহে ইলেক্ট্রিক শক তিব্রতা যে সকল বিষয়য়ের ওপর নির্ভর করে তার মধ্যে দেহের মধ্যে প্রবাহিত কারেন্টের পরিমান , স্থায়িত্ব, বিদ্যুৎ প্রবাহের প্রকৃতি (AC/DC), সরবরাহের frequency এবং দেহের গঠন প্রকৃতি। পরিক্ষায় দেখা গেছে যদি এসি কারেন্টের frequency কম হয় তবে কোন বাক্তির শরীরের মধ্য দিয়ে ১ মিলি এম্পিয়ার থেকে ৪ মিলি এম্পিয়ার পর্যন্ত কারেন্ট প্রবাহিত হলে তা সহ্যসীমা অতিক্রম করেনা,কিন্তু কারেন্টের পরিমান এর চেয়ে বেশি হলে মৃত্যু হতে পারে। ইলেক্ট্রিক লাইনে frequency যত কম হয় ইলেক্ট্রিক শক মারাত্মক হয়ে দাড়ায়, সবচেয়ে বেশি শক পাওয়া যায় DC থেকে। দেহের মধ্যে দিয়ে যে কারেন্ট প্রবাহিত হবে তা নির্ভর করে দেহের Resistance ,লাইন voltage এর ওপর। শরীরের Resistance বলতে ত্বকের Resistance কেই  বুঝায়। শুঁকনো অবস্থায় মানব দেহের রোধ ০.১মেগা ওহম হতে ০.৫ মেগা ওহম হয়ে থাকে।

কিছু সাধারন তথ্যঃ
1.    Extra High Voltage – 132000 volt  or (132KV)  এর চেয়ে তদূর্ধ্ব voltage ব্যবহার করা হয় ১৫ মেগাওয়াটের চেয়ে বেশি পরিবহণের জন্য।
2.   High Voltage -  33000volt or (33KV) মানের লাইন Voltage ব্যবহার করা হয় ৫ মেগাওয়াট থেকে ১৫ মেগাওয়াট পরিবহণের জন্য।
3.   Medium Voltage – 11000 volt or (11KV) মানের লাইন voltage ব্যবহার করা হয় ৫০ কিলোওয়াটের ঊর্ধ্ব থেকে ৫ মেগাওয়াট পর্যন্ত, ৩ ফেজ, ৫০সি/সে, ৬৩৫০/১১০০ ভল্ট।
4.   Low Voltage- 230 মানের সরবরাহ voltage  ব্যবহার করা হয় ৭.৫ কিলোওয়াটের জন্য, এক ফেজ,৫০সি/সে। ৭.৫ কিলোওয়াট ঊর্ধ্ব হতে ৫০  কিলোওয়াট পর্যন্ত  ব্যবহার করা হয় ৪০০ ভল্ট voltage ,৩ ফেজ,৫০সি/সে।

Connected Load:
যে সব বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতির প্রস্তুতকারক দারা উল্লেখিত পাওয়ারের যোগফল কে connected Load বঝাবে।যদি  ক্ষমতা কেভিএ তে থাকে তাহলে সেটাকে পাওয়ার factor ০.৮ দিয়ে গুণ করে কিলোওয়াটে রুপান্তর করতে হবে।আর যদি অশ্বশক্তিতে থাকে তাহলে সেটাকে ০.৭৪৬ দারা গুণ করতে হবে এবং ০.৯ দারা ভাগ করে কিলোওয়াটে রুপান্তর করতে হবে।

ইলেক্ট্রিসিটি ব্যাবহারের ঝুঁকির বিপরীতে নিরাপত্তামূলক বাবস্থাঃ
•   সকল ধাতব বডি কে অবশ্যই আর্থ সংযোগ করতে হবে।
•   উপযুক্ত সাইজ ও মানের নিরাপত্তামূলক যন্ত্রপাতি ব্যাবহার করতে হবে
•   বাড়ির অয়ারিং ও যন্ত্রপাতি ইন্সুলেশন রোদ পরীক্ষা করতে হবে।
•   সমগ্র স্থাপনা কে সময় সময় পরীক্ষা করতে হবে।
•   আর্থ তারের রোধ পরীক্ষা করে দেখতে হবে তা সন্তোষ জনক মানে আছে কি না।
•   ভিজা হাতে বা শরিরে বা ভিজা স্থানে দাড়িয়ে কোন ইলেক্ট্রিক যন্ত্রপাতিতে হাত দেওয়া উচিত নয়।
•   ইলেক্ট্রনিক যন্ত্রপাতি ব্যাবহার করার পর সুইচ অফ করার সাথে সাথে পরিবহন কর্ড খুলে রাখতে হবে।
•   কাট আউটে সঠিক তারের মান নির্বাচন করতে হবে।
•   পাওয়ার হিসাব করে উপযোগী তার নির্বাচন করতে হবে। 






A.F.M Hasanuzzaman
Sec-Evening,EEE