ডায়েট চলাকালীন সঠিক প্রোটিন-কী খাবেন? কীভাবে খাবেন?

Author Topic: ডায়েট চলাকালীন সঠিক প্রোটিন-কী খাবেন? কীভাবে খাবেন?  (Read 734 times)

Offline sadia.ameen

  • Sr. Member
  • ****
  • Posts: 266
  • Test
    • View Profile


সবাই জানেন প্রোটিন আমাদের দেহের জন্য কতটা দরকারী। অনেকেই আছেন ওজন কমাবার জন্য ডায়েট থেকে প্রোটিন একেবারেই বাদ দিয়ে দেন। এই অভ্যাস শরীরের জন্যই মারাত্মক ক্ষতি করে। প্রোটিন যেমন অতিরিক্ত খাওয়া ভালো নয়, তেমনি না খাওয়াও একই রকমের ক্ষতিকর। কিন্তু ডায়েট করে ওজন কমাবার সময়ে যদি আপনি প্রোটিন খাওয়া বাদ দিয়ে দেন,তাহলে আপনার সৌন্দর্য যেমন হারিয়ে যাবে। অন্যদিকে আপনি হয়ে পড়বেন দুর্বল অসুস্থ, আবার ডায়েট ছেড়ে দিলেই হু হু করে ওজন বাড়তে শুরু করবে। তাই ডায়েট চলাকালীন সময়ে অবশ্যই খেতে হবে প্রোটিন। কিন্তু হ্যাঁ,সঠিক উপায়ে সঠিক প্রোটিন!

আসুন জেনে নেই প্রোটিনের উপকারিতা সম্পর্কে-

    - প্রোটিন আমাদের দেহের বৃদ্ধিতে সাহায্য করে ।
    - অ্যান্টিবডি তৈরিতে সাহায্য করে ।
    - প্রোটিন ছাড়া মাংস পেশীর সংকোচন সম্ভব না ।
    - প্রোটিন ছাড়া এনজাইম কাজ করতে পারে না ।
    - শরীরের এক অংশ থেকে আর এক অংশে নিউট্রিয়েণ্ট পৌঁছানোর জন্য প্রোটিন দরকারি ।

প্রোটিনের উপকারিতা তো জানলেন, এবার জেনে নিন ডায়েট করার সময় কী ধরনের প্রোটিন খাবেন।
প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবারের তো অভাব নেই। সব ধরনের মাছ,মাংস,ডিম,ডাল ও দুধে প্রচুর পরিমানে প্রোটিন থাকে। আমিষ জাতীয় খাবারে প্রোটিনের পরিমান অনেক বেশি থাকে তবে তার সাথে ফ্যাটের পরিমাণও বেশি থাকে, আর ফাইবার থাকে না বললেই চলে। তাই রেড মিট বেশি না খাওয়াই ভালো। সসেজ এবং বিফও কম খান।কারণ এতে প্রোটিন থাকলেও ফ্যাটের পরিমান অনেক বেশি থাকে, যা শরীরের জন্য ক্ষতির কারণ হয়।

এছাড়া বাকি সব খাবারই নিয়মিত খেতে পারেন। মনে রাখবেন, মুরগির মাংসের থেকে মাছ ও ডিম বেশি ভালো। মাছে আবার ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিডও থাকে। তবে মনে রাখতে হবে আমিষ জাতীয় খাবার হজম করতে সময় লাগে, তাই আমিষ ও নিরামিষের ব্যালেন্স ঠিক রাখতে হবে। যতটুকু আমিষ খাবেন তার চাইতে বেশি সবজি খাবেন, তাহলে হজমে সহায়তা হবে। এছাড়া সয়াবিনে প্রচুর পরিমান প্রোটিন থাকে, তাই খাবারের তালিকায় সয়াবিন রাখতে পারেন। তবে সয়াবিন বেশি খাওয়া চলবে না, কারণ অতিরিক্ত সয়াবিন খেলে ইস্ত্রজেন লেভেল বেড়ে যায়। দিনে একবার সয়াবিনের তরকারি খেতে পারেন। এছাড়া রুটির সাথে ডাল ও দিনে একবার টক দই খেতে পারেন। ডিমের সাদা অংশ দৈনিক খেলেও সম্পূর্ণ ডিম সপ্তাহে ৫টির বেশি খাবেন না।

একটা কথা মনে রাখবেন, মাছ মা মাংস তেল-মসলা দিয়ে রান্না করা খাওয়ার চাইতে গ্রিল বা সিদ্ধ করে খাওয়াতা ডায়েটের সময়ে অধিক উপকারী।