Health Tips > Less Food

এই ঈদে ঘরেই বানিয়ে ফেলন দারুণ সুস্বাদু ছানার কালোজাম !

(1/1)

mukul Hossain:
 মিষ্টি তৈরির জন্য প্রত্যেকটা ধাপই অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তাই ধাপে ধাপে পুরো প্রণালিটি পড়ে নিয়ে তবেই শুরু করুন মিষ্টি তৈরি। দারুণ মজাদার লোভনীয় মিষ্টি তৈরির বিস্তারিত রেসিপি দিচ্ছেন কানিজ ফাহমিদা।

উপকরণ- খামির তৈরির জন্য
ছানা- ১ কাপ
মাওয়া- ১/২ কাপ
ময়দা- ২ টেবিল চামচ
ঘি/বাটার- ১ টেবিল চামচ
চিনি- ১ টেবিল চামচ
খাওয়ার সোডা- ১ চিমটিরও কম/ খুব সামান্য
রেড ফুড কালার- কয়েক ফোঁটা
তেল- পরিমান মত

উপকরণ- সিরার জন্য
চিনি- ২ কাপ
পানি- সাড়ে ৩ কাপ
এলাচ- ২ টি
গোলাপ জল- কয়েক ফোঁটা

প্রনালি
-ছানা তৈরি করার জন্য প্রথমে ১ লিটার দুধ চুলায় দিয়ে বলক আসা পর্যন্ত অপেক্ষা করুন । বলক আসার পর চুলা বন্ধ করে দিন। ১৫-২০ সেকেন্ড পর ২ টেবিল চামচ সিরকা ও ২ টেবিল চামচ পানি একটি বাটিতে মিশিয়ে আস্তে আস্তে গরম দুধে ঢেলে নেড়ে দিন। একটু পরই সবুজ পানি বের হয়ে ছানা আলাদা হয়ে যাবে। এবার পরিস্কার কাপড়ে ঢেলে ছানা ভিতরে বাইরে পানি ঢেলে ধুয়ে নিন, যাতে সিরকার টক ভাবটা কেটে যায়। এবার খুব ভালভাবে ছানা থেকে পানি চেপে চেপে ফেলে দিন + পানি ঝরার জন্য কোথাও ঝুলিয়ে রাখুন। এর জন্য সর্বচ্চো ১ ঘণ্টাই যথেষ্ট। আর পানি ঝরে গেলেই আপনার ছানা রেডি।

    -মাওয়া তৈরির জন্য প্রথমে ১/২ লিটার দুধ জ্বাল দিয়ে অর্ধেকেরও কম করুন, এবার চুলার কাছ থেকে আর সরবেন না। চুলার আঁচ কমিয়ে শুধু নাড়তে থাকুন, খেয়াল রাখবেন যেন পুড়ে না যায়। একসময় দুধ শুকিয়ে আসবে, তখন আরো ঘন ঘন নেড়ে চুলা বন্ধ করে দিন। মনে রাখবেন, চুলায় থাকা অবস্থায় মাওয়াটা যাতে একটু নরম নরম থাকে। কারণ ঠাণ্ডা হলেই পেয়ে যাবেন পারফেক্ট মাওয়া।

    -এবার মাওয়ার সাথে ময়দা, ঘি/বাটার ও চিনি একসাথে মিশিয়ে ভালভাবে মাখাতে থাকুন মসৃণ না হওয়া পর্যন্ত। অন্যদিকে, পানি ঝরানো ছানা, খাওয়ার সোডা ও ফুড কালার একসাথে মিশিয়ে মাখাতে থাকুন মসৃণ না হওয়া পর্যন্ত। এবার ছানা ও মাওয়ার মিশ্রণ একসাথে নিয়ে পাটায় পিষার মতো করে খুব ভালভাবে মিশিয়ে নিন।
    -হয়ে গেলে এই ডো টিকে সমান ১২ টি ভাগে ভাগ করে নিন। কালোজামের আকার দিন, এ সময় যাতে মিষ্টি ফেটে ফেটে না থাকে

    -এবার ফ্রাই প্যানে তেল হালকা গরম করে সব গুলো মিষ্টি একবারে দিয়ে দিন। আঁচ কমিয়ে ডুবো তেলে আস্তে আস্তে ভাজতে থাকুন, এক সময় মিষ্টি তেলের উপর ভেসে উঠবে। তখন ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে আরো কিছুটা সময় ভেজে নিন, মিষ্টি ফুলতে থাকবে। খুব বেশি কালো করে ফেলবেন না কারণ সিরাতে দিলে আরো একটু কালো হবে। সময় নিয়ে ভালভাবে মিষ্টি ভাজা শেষ করুন।

    -মিষ্টি ভাজা যখন শেষ দিকে থাকবে তখন অন্য একটি হাঁড়িতে সিরা তৈরির সব উপকরণ এক সাথে নিয়ে অন্য একটি চুলায় দিয়ে দিন। সিরা যখন টগবগিয়ে ফুটতে থাকবে তখন পারফেক্টলি ভাজা গরম মিষ্টি গুলো সিরাতে দিয়ে দিন। মিষ্টি গুলো সিরাতে ১০ মিনিট জ্বাল করবেন। প্রথম ৫ মিনিট আঁচ বাড়িয়ে ও পরের ৫ মিনিট কিছুটা আঁচ কমিয়ে। চুলা বন্ধ করে দিন। সিরা একটু ঠাণ্ডা হলে মানে ১০-১৫ মিনিট পর মিষ্টি সিরা থেকে পাত্রে তুলে নিন, ৭-৮ ঘণ্টা পর মিষ্টি খাওয়ার উপযুক্ত হবে। রাতে করলে সকালে খেতে পারবেন। এ সময়টাতে মিষ্টি ভুলেও ফ্রিজে রাখবেন না।

টিপস
১। মাওয়াতে যাতে পোড়া গন্ধ না থাকে।
২। আমার পদ্ধতিতে মাওয়া তৈরি করতে না চাইলে কিনে আনুন/গুঁড়া দুধ দিয়ে করে নিন।
৩। সব উপকরণ মেশানোতেও মিষ্টির রেজাল্ট নির্ভর করে।
৪। ভাজার সময় তাড়াহুড়া করলে মিষ্টির কালার চলে আসবে কিন্তু ভিতরে কাঁচা থেকে যাবে।
৫। সিরার ফেনা গুলো মিষ্টি ফুলতে সাহায্য করে। সিরা যাতে ঘন না হয়ে যায় সেদিকে খেয়াল রাখবেন, যদিও বা হয় তো সামান্য সাধারণ পানি অ্যাড করুন।
৬। ভাজা ও সিরাতে দেবার জন্য অবশ্যই ছড়ানো হাঁড়ি ব্যবহার করবেন।

mostafiz.eee:
Nice post.

Anuz:
Nice post..........

Navigation

[0] Message Index

Go to full version