মাথাব্যথা যখন ঝুঁকিপূর্ণ!

Author Topic: মাথাব্যথা যখন ঝুঁকিপূর্ণ!  (Read 470 times)

Offline taslima

  • Hero Member
  • *****
  • Posts: 506
    • View Profile
মাথাব্যথা খুব প্রচলিত সমস্যা। কোনো বড় ধরনের সমস্যা ছাড়াই অধিকাংশ সময় মাথাব্যথা ভালো হয়ে যায়। দীর্ঘমেয়াদি মাথাব্যথা, যেমন—মাইগ্রেন, ক্লাস্টার মাথাব্যথা এগুলোর চিকিৎসা করালে বা জীবনযাপনের ধরন পরিবর্তন করলে সমস্যা কমে আসে।


 
তবে আরো কিছু মাথাব্যথা রয়েছে, যেগুলো শরীরের জন্য বেশ ঝুঁকিপূর্ণ। স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট হেলথ লাইন জানিয়েছে কিছু লক্ষণের কথা। যেগুলো দেখলে দ্রুত চিকিৎসকের কাছে যান।

১. ক্ষণিকের তীক্ষ্ণ মাথাব্যথা

এই মাথাব্যথা বারবার আসতে থাকে। ৬০ সেকেন্ড বা এর কম সময় পরপর এটি হয়। মস্তিষ্কে রক্তপাত হলে এই সমস্যা হতে পারে। স্ট্রোক, অ্যানিওরিজম, অন্যান্য আহত হওয়ার কারণে এ ধরনের মাথাব্যথা হয়। যদি এ রকম হতে থাকে, তাহলে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

২. মাথায় আঘাত পাওয়ার পর মাথাব্যথা

যদি দুর্ঘটনা বা মাথায় কোনো ধরনের আঘাত পাওয়ার পর রক্তপাত হতে থাকে বা মাথাব্যথা করতে থাকে, তবে দ্রুত চিকিৎসকের কাছে যান। অন্যথায় জীবন ঝুঁকির মধ্যে পড়ে যেতে পারে।

৩. জ্বরের সময় মাথাব্যথা

জ্বরের সঙ্গে মাথাব্যথা হওয়া এবং ঘাড় শক্ত হয়ে যাওয়া, মস্তিষ্ক ঝিল্লির প্রদাহের লক্ষণ। এই রকম হলেও দ্রুত চিকিৎসকের কাছে যান।

৪. মাথাব্যথার সঙ্গে বমি, বমি বমি ভাব, আলো ও শব্দে স্পর্শকাতরতা

এই বিষয়গুলো মাইগ্রেনের ব্যথার লক্ষণ। তবে এটি জীবনঘাতী না হলেও খুব কষ্ট দেয়। এমন হলেও কিন্তু চিকিৎসকের কাছে যেতে দেরি করবেন না।

৫. অস্বাভাবিক মাথাব্যথা

এসব মাথাব্যথা ছাড়াও কিছু মাথাব্যথা রয়েছে, যেগুলো একটু অস্বাভাবিক। যদি মাথাব্যথার সঙ্গে চোখে দেখতে অসুবিধা হয় বা চোখ ঝাপসা হয়ে যায়, তখন সতর্ক হোন।

৬. কপাল বা চোখের চারপাশজুড়ে চাপ

কপাল বা চোখের চারপাশজুড়ে চাপ, বদ্ধতা, ব্যথা অনুভব হওয়া, ব্যথা কপাল থেকে মাথার পেছনের দিকে সরে যাওয়া এবং সকালে ব্যথা তীব্র হয়ে ওঠা সাইনাসের ব্যথার লক্ষণ। এ রকম হলেও দ্রুত চিকিৎসকের কাছে যাওয়া প্রয়োজন।


http://bangla.eibarta.com/6185/health/
Taslima Akter
Sr. Accounts Officer (F&A)
Daffodil International University
Email: taslima_diu@daffodilvarsity.edu.bd