ব্রেট লি হতে চান ইবাদত

Author Topic: ব্রেট লি হতে চান ইবাদত  (Read 85 times)

Offline Md. Alamgir Hossan

  • Hero Member
  • *****
  • Posts: 928
  • Test
    • View Profile
ব্রেট লি হতে চান ইবাদত
« on: March 14, 2016, 10:16:08 AM »
ইবাদত হোসেন চৌধুরী যখন ট্রফিটা নিলেন, মঞ্চে তখন দাঁড়িয়ে রুবেল হোসেনও। বাংলাদেশ দলের পেসার পিঠ চাপড়ে দিলেন ইবাদতকে। যার অর্থ, ‘এগিয়ে যাও সামনে’। ইবাদতের মুখে তখন চওড়া হাসি। রবি ফাস্ট বোলার অন্বেষণ কর্মসূচিতে তিনি হয়েছেন সবচেয়ে দ্রুততম বোলার।
১১ বছর আগে পেসার হান্ট থেকে উঠে আসা রুবেলের কাছে থেকে অনুপ্রাণিত হতেই পারেন ইবাদত। তবে দেশের বোলারদের মধ্যে ইবাদতের প্রিয় মাশরাফি বিন মুর্তজা। মাশরাফিকে তাঁর ভালো লাগে মূলত অসাধারণ অধিনায়কত্ব ও উজ্জ্বল ব্যক্তিত্বের কারণে। ইবাদত আসলে হতে চার ব্রেট লির মতো গতিময় বোলার হতে।
চার মাস ধরে চলা মোবাইল সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান রবির এই পেসার অন্বেষণ কর্মসূচির পর্দা নেমেছে গতকাল রোববার। বিসিবির একাডেমি মাঠে কাল নির্বাচন করা হয় ১০ জন ছেলে একজন মেয়ে ও দুইজন শারীরিকভাবে অসমর্থ সেরা ফাস্ট বোলার। সবাইকে পুরস্কৃত করা হয় অর্থ, ট্রফি, ক্রেস্ট দিয়ে।
সবচেয়ে দ্রুত গতির বলের জন্য ‘স্পিড স্টার’ পুরস্কার পেয়েছেন ইবাদত। ধারাবাহিকভাবে লাইন-লেংথ ঠিক রাখার জন্য ‘মোস্ট কন্সিস্ট্যান্ট ফাস্ট বোলার’ হয়েছেন মুজিবর রহমান। বলের ধরন ও বৈচিত্র্যের জন্য ‘বেস্ট ভ্যারিয়েশন ফাস্ট বোলার’ হয়েছেন সুলতান হোসেন।
যেহেতু এটি ছিল দ্রুতগতির বোলার অন্বেষণ কর্মসূচি, ফলে ইবাদতকে রাখতে হবে সবচেয়ে এগিয়ে। মৌলভীবাজার থেকে উঠে আসা এই পেসারের জীবনবৃত্তান্তও বেশ বৈচিত্র্যপূর্ণ। বাড়ি মৌলভীবাজার হলেও তিনি নিবন্ধন করেছিলেন ফরিদপুর থেকে। চাকরি করেন বিমানবাহিনীতে। সাধারণত প্রতিরক্ষাবাহিনী থেকে ক্রিকেটার উঠে আসার দৃষ্টান্ত নেই বললেই চলে। নিঃসন্দেহে ইবাদত সে ক্ষেত্রে ব্যতিক্রম।
বিমানবাহিনীতে তিনি যোগ দিয়েছিলেন ভলিবল খেলোয়াড় হিসেবে। কিন্তু মন তাঁর সব সময়ই পড়ে থাকত ক্রিকেটে। কথা হচ্ছে, বিমানবাহিনী চাকরি করেও ক্রিকেটে সময় দিতে পারবেন তো? ইবাদত আশাবাদী, ‘সুযোগ করে দেওয়ার জন্য বিমানবাহিনীর প্রতি আমি ভীষণ কৃতজ্ঞ। ইমরান স্যার (সরওয়ার ইমরান) আছেন, এখন থেকে এইচপিতে (বিসিবির হাইপারফরম্যান্স কর্মসূচি) কাজ করার সুযোগ থাকবে। আমার মূল লক্ষ্য জাতীয় দলে খেলা।’
এই কর্মসূচিতে ইবাদতের বলের সর্বোচ্চ গতি ছিল ঘণ্টায় ১৩৯ কিলোমিটার। আজ চূড়ান্ত পর্বে অবশ্য গতি কিছুটা কম ছিল, ঘণ্টায় ১৩৫ কিলোমিটার। কিন্তু তাতে প্রথম হতে অবশ্য তাঁর কোনো অসুবিধা হয়নি।