ফেসবুকে সময় না কাটিয়ে চলুন ফেসবুকেই ইংরেজী শিখি

Author Topic: ফেসবুকে সময় না কাটিয়ে চলুন ফেসবুকেই ইংরেজী শিখি  (Read 778 times)

Offline Md. Mahmudul Hasan_IT

  • Newbie
  • *
  • Posts: 4
  • Assistant IT Officer
    • View Profile
    • Asst. IT Officer, Daffodil International University
বর্তমানে বিশ্বব্যাপী তুমুল জনপ্রিয় সামাজিক যোগযোগ মাধ্যম হল ফেসবুক। পৃথিবীর প্রায় এক তৃতীয়াংশ (২০০ কোটি) মানুষ ফেসবুকের সাথে প্রত্যক্ষভাবে সক্রিয়। যেহেতু ফেসবুকে প্রতিদিন-রাত প্রচুর মানুষ ভিজিট করছে, এই কারনে  পৃথিবীর উন্নত দেশগুলোতে কিছু মানুষ ফেসবুককে কাজে লাগিয়ে তাদের পন্য বা সেবার মার্কেটিং করছে, ব্যবসা করে লাভবান হচ্ছে। আর অধিকাংশ মানুষই তাদের ব্যক্তিগত ও পেশাগত উন্নয়ন, যোগাযোগ এবং সামাজিক উদ্যোগগুলোকে এগিয়ে নিতে ফেসবুককে ব্যবহার করছে।

কিন্তু দু:খজনকভাবে সত্য আমাদের মত উন্নয়নশীল দেশগুলোতে ৯৫% ক্ষেত্রে ফেসবুকে সময়, শ্রম ও মেধা নষ্ট করা ছাড়া কিছু হচ্ছে না। আমাদের তরুনরা অধিকাংশই ফেসবুকে স্ক্রল, রিঅ্যাকশন, চ্যাটিং, ট্রল ও ফালতু মন্তব্য করে, ভিডিও দেখে সময় নষ্ট করছে। এতে করে মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে তাদের পড়ালেখা। ধ্বংস হচ্ছে জাতির ভবিষ্যৎ।

অথচ ফেসবুকের মাধ্যমে ব্যবসা করে লাভবান হওয়া সম্ভব। আশার কথা হচ্ছে ইতোমধ্যে বাংলাদেশের অনেক ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা ফেসবুকে মার্কেটিং করে তাদের ব্যবসা দাঁড় করিয়েছে। অনেক স্বেচ্ছাসেবী রক্তদাতা সংস্থা মুমূর্ষ মানুষের জন্য ফেসবুকে রক্তের আবেদন জানিয়ে যাচ্ছে ২৪ ঘন্টায়। এছাড়াও বন্যার্ত, শীতার্থ, পথশিশুদের জন্য কাজ করছে এমন উদ্যোক্তারা ফেসবুকেই বেশি প্রচার চালিয়ে যাচ্ছে সাহায্যের জন্য।

তবে ফেসবুকে বাংলাদেশী উদ্যোগগুলোর মধ্যে আমার সবচেয়ে ভাল লেগেছে ফেসবুক গ্রুফে ইংরেজী চর্চা। ইংরেজী চর্চার জন্য আমার দেখা সবচেয়ে সক্রিয় ফেসবুক গ্রুফ হচ্ছে Search English (Link-https://www.facebook.com/groups/SearchEnglish/) মাত্র একবছর আগে চালু হওয়া ফেসবুকের এই গ্রুফটি এখন ৩ লক্ষ সক্রিয় সদস্যের মহীরুহে পরিনত হয়েছে। আর এই উদ্যোগের প্রানশক্তি হচ্ছেন জনাব রাজীব আহমেদ স্যার।

সার্চ ইংলিশে মূলত ইংরেজীতে লেখার চর্চা হয়। সাধারনত ফেসবুক ওয়ালে আমরা যেভাবে স্ট্যাটাস দিই, কমেন্ট করি সার্চ ইংলিশে ও একই নিয়ম। তবে লেখার মাধ্যম হতে হবে ইংরেজীতে। আপনি ইংরেজী না পারলেও সমস্যা নেই, ভুল হলেও লজ্জা পাওয়ার কিছু নাই। আপনি লিখতে থাকুন। বাংলায় প্রবাদ আছে- “ঘষতে ঘষতে ধার উঠে”, সার্চ ইংলিশেও ব্যাপারটা সে রকম। লিখতে লিখতে দক্ষতা আসবে, ভুল শুধরানো যাবে।

এই তো গেল লেখার দক্ষতার কথা। ইংরেজীতে কথা বলার দক্ষতার জন্যও সার্চ ইংলিশের আরেকটি উদ্যোগ হচ্ছে স্কাইপেতে প্রতিরাত ১০টা থেকে অডিও আড্ডা। অডিও আড্ডায় এক বা একাধিক মডারেটর থাকেন যারা ২ জন অংশগ্রহন কারীকে নির্দিস্ট সময়ের জন্য ইংরেজীতে আলাপচারিতার সুযোগ দেন। অন্য সেসময় শুধু ওই দুজনের কথোপকথন শুনে যাবেন এবং নিজের কম্পিউটার/মোবাইলের মাইক্রোফোন বন্ধ রাখবেন। এভাবে সার্চ ইংলিশের আড্ডার মাধ্যমে ইংরেজীতে বলা এবং শোনার দক্ষতা তৈরি হয়ে যাচ্ছে কিছুদিনের মধ্যে। আর পোস্ট এবং কমেন্টের মাধ্যমে তো ইংরেজী পড়া এবং লেখার দক্ষতা হচ্ছেই।

তবে ইংরেজীতে দক্ষতার জন্য লেগে থাকার কোন বিকল্প নাই। তবে কোচিং সেন্টারে ইংরেজী শেখার জন্য টাকা লাগে, সার্চ ইংলিশে কিন্তু তাও নেই। তাহলে আর দেরি কেন, চলুন আজই শুরু করে দিই ইংরেজী চর্চা।
« Last Edit: July 26, 2017, 01:01:13 PM by Md. Mahmudul Hasan_IT »