থাইরয়েডজনিত নানা সমস্যা

Author Topic: থাইরয়েডজনিত নানা সমস্যা  (Read 414 times)

Offline AwratHossain

  • Newbie
  • *
  • Posts: 7
  • Test
    • View Profile
থাইরয়েডজনিত নানা সমস্যা :
বাংলাদেশে থাইরয়েড গ্রন্থি ও থাইরয়েড হরমোনজনিত সমস্যায় আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা বাড়ছে। থাইরয়েড গ্রন্থিতে সাধারণত দুই ধরনের সমস্যা দেখা যায়—গঠনগত ও কার্যগত। গঠনগত সমস্যায় থাইরয়েড গ্রন্থি ফুলে যায়। একে গলগণ্ড বা গয়টার বলা হয়। কার্যগত সমস্যা দুই রকমের—হাইপারথাইরয়েডিজম ও হাইপোথাইরয়েডিজম। হাইপারথাইরয়েডিজমে থাইরয়েড গ্রন্থি বেশি মাত্রায় সক্রিয় হয়ে পড়ে। হাইপোথাইরয়েডিজমে থাইরয়েড গ্রন্থি যথাযথ কাজ করে না। থাইরয়েড গ্রন্থির ক্যানসারও হতে পারে।
কারণ:
অকার্যকর থাইরয়েড বা হাইপোথাইরয়েডিজম মূলত তিনটি কারণে হতে পারে। নবজাতকের থাইরয়েড গ্রন্থি ঠিকমতো তৈরি না হলে তাকে কনজেনিটাল হাইপোথাইরয়েডিজম বলে। অটোইমিউন হাইপোথাইরয়েডিজমে থাইরয়েডের বিরুদ্ধে অ্যান্টিবডি সক্রিয় হয়ে থাইরয়েড কোষগুলোকে ধ্বংস করে। চিকিৎসাজনিত কারণেও এই অসুখ হতে পারে। যেমন অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে থাইরয়েড ফেলে দেওয়া কিংবা রেডিওথেরাপি চিকিৎসার পর।অপর দিকে অ্যান্টিবডি অতিরিক্ত মাত্রায় থাইরয়েডকে উদ্দীপনা দিয়ে হাইপারথাইরয়েডিজমের সমস্যাও করতে সক্ষম। ওষুধের মাত্রা সঠিকভাবে নিরূপণ না করা ও মাত্রা বেশি হলে থাইরয়েড গ্রন্থির প্রদাহ বা থাইরয়েডাইটিস হাইপারথাইরয়েডিজম হতে পারে। সংক্রমণে তাৎক্ষণিকভাবে থাইরয়েড কোষ থেকে প্রচুর হরমোন নিঃসৃত হয়। ফলে রক্তে থাইরয়েড হরমোনের মাত্রা বেড়ে যায়। যেসব অঞ্চলে আয়োডিনের অভাব রয়েছে, সেখানকার লোকজনের মধ্যে আয়োডিনের ঘাটতিজনিত কারণে হাইপোথাইরয়েডিজম দেখা যায়।
চিকিৎসা:
থাইরয়েডের সমস্যা নির্ণয় করতে রক্তে হরমোন পরীক্ষা করতে হয়। হাইপোথাইরয়েডিজমের চিকিৎসা ওষুধের মাধ্যমে করা হয়। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে ঘাটতি পূরণে সারা জীবন থাইরক্সিন হরমোন সেবন করতে হয়। হাইপারথাইরয়েডিজমের চিকিৎসায় ওষুধ দিয়েই চিকিৎসা সহজ। তবে ক্ষেত্রবিশেষে অস্ত্রোপচার বা রেডিওঅ্যাকটিভ আয়োডিন থেরাপির কথা ভাবা হয়।
ডা. শাহজাদা সেলিম, সহযোগী অধ্যাপক, এন্ডোক্রাইনোলজি বিভাগ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়