চাকরির সাক্ষাৎকারে কী করবেন, কী করবেন না

Author Topic: চাকরির সাক্ষাৎকারে কী করবেন, কী করবেন না  (Read 216 times)

Offline Sultan Mahmud Sujon

  • Administrator
  • Hero Member
  • *****
  • Posts: 2645
  • Sultan Mahmud Sujon,Admin Officer
    • View Profile
    • Higher Education
চাকরির জন্য আবেদনপ্রক্রিয়া থেকেই শুরু হয় কাঙ্ক্ষিত পদের জন্য নিজেকে যোগ্য প্রমাণ করার চেষ্টা। নিজের যোগ্যতা, দক্ষতা, কর্মনৈপুণ্য, সক্ষমতা ও অভিজ্ঞতার পরিচয় দিতে হয় প্রতিটি ধাপেই। জীবনবৃত্তান্ত আগে থেকে তৈরি করা থাকলেও কাঙ্ক্ষিত পদটির উপযোগী করেই তা হালনাগাদ করে নিতে হয়। কর্মনৈপুণ্যসংক্রান্ত জ্ঞান এবং সাধারণ জ্ঞান যেমন লিখিত পরীক্ষার জন্য জরুরি, তেমনি সাক্ষাৎকার পর্বেও এগুলো কাজে লাগতে পারে। সাক্ষাৎকার পর্বটি নিয়োগকর্তার সঙ্গে আপনার প্রথম আনুষ্ঠানিক আলাপের সুযোগ। তাই ভীষণ গুরুত্বপূর্ণও বটে। আর চাকরির মৌখিক সাক্ষাৎকারে আপনার পোশাক–আশাক থেকে শুরু করে আচার–আচরণ—সব বিষয়েই সচেতন থাকতে হয়। সাক্ষাৎকার পর্বে হতে হবে আত্মবিশ্বাসী। যে প্রতিষ্ঠানে আবেদন করেছেন, সেটি সম্পর্কে ধারণা নিয়ে নিন বিস্তারিতভাবে।

খেয়াল রাখুন

• আনুষ্ঠানিক পোশাক ও অনুষঙ্গ বেছে নিন চাকরির সাক্ষাৎকারের জন্য। ইস্তিরি করা, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন, পরিপাটি পোশাকে যাবেন। আপনার লুক যেন ‘আনুষ্ঠানিক’ হয়।

• সাক্ষাৎকারের নির্ধারিত সময়ের আগেই পৌঁছে প্রয়োজনে সেখানে পুনরায় সতেজ হয়ে নিন। জুতার উপরিভাগে রাস্তার কাদা ছিটে এলে মুছে ফেলুন।

• সাক্ষাৎকার দিতে বাসা থেকে বের হওয়ার সময় সঙ্গে রাখুন প্রয়োজনীয় সব কাগজপত্র। এ ছাড়া পানি, টিস্যু পেপার, চিরুনি রাখা ভালো। তবে সাক্ষাৎকার কক্ষে এসব নিয়ে গিয়ে বোঝা বাড়াবেন না।

সাক্ষাৎকার কক্ষে

• ডাক পড়লে অনুমতি নিয়ে ঢুকবেন।

• ভেতরে ঢুকে সবাইকে শুভেচ্ছা জানাবেন, সালাম দেবেন।

• ইতিবাচক দেহভঙ্গি বজায় রাখুন।

• ভদ্রতা বজায় রাখুন।

• অনুমতি নিয়ে ঋজু, সাবলীল ভঙ্গিতে বসবেন।

• সবার চোখে চোখ রেখে আত্মবিশ্বাসী ভঙ্গিতে কথা বলবেন। হালকা হাসিও থাকুক মুখে।

• সবশেষে ধন্যবাদ দিয়ে বের হয়ে আসবেন।

আলাপ-আলোচনায়

• প্রতিকূল পরিস্থিতিতে কাজের অভিজ্ঞতা কিংবা অভিজ্ঞতা না থাকলে ওই পরিস্থিতিতে আপনি কী করতেন, তা বলতে হতে পারে। বুদ্ধিমত্তার প্রকাশ চাই এসব ক্ষেত্রে।

• আগে কোথাও চাকরি না করলেও নিজেকে অনভিজ্ঞ হিসেবে উপস্থাপন করবেন না। ছাত্রাবস্থায় করা খণ্ডকালীন চাকরি, শিক্ষানবিশি, প্রশিক্ষণ কিংবা স্বেচ্ছাসেবামূলক কাজের অভিজ্ঞতা সামনে আনতে পারেন। এসব তথ্য জীবনবৃত্তান্তেও যোগ করে রাখুন আগেই।

• নিজের সম্পর্কে বলতে হলে পারিবারিক তথ্যে বেশি গুরুত্ব দেবেন না, বরং নিজের নাম বলার পরেই কর্মনৈপুণ্যসংক্রান্ত তথ্যে নিজেকে তুলে ধরুন। পেশাগত দক্ষতা, অভিজ্ঞতা ও শিক্ষাজীবন সম্পর্কে তথ্য দিতে পারেন।

• প্রশ্ন করার সুযোগ পেলে বুদ্ধিদীপ্ত প্রশ্ন করুন। সেখানে কাজ করলে কী ধরনের চ্যালেঞ্জ নিতে হতে পারে বা কত দিনের মধ্যে যোগ দিতে হতে পারে, সে বিষয়ে প্রশ্ন করতে পারেন। বেতন-ভাতা ও অন্যান্য সুবিধা নিয়েও (নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে বলা না থাকলে) প্রশ্ন করতে পারেন।

যা করবেন না

• খুব জাঁকজমক পোশাক পরবেন না।

• পোশাকের হাতা গুটিয়ে রাখবেন না।

• ঝুঁকে বা হেলান দিয়ে বসবেন না।

• মিথ্যা বা ভুল তথ্য দেবেন না।

• চিন্তিত বা ভয় পাওয়া ভাব প্রকাশ করবেন না।

(অনুলিখিত)


Source: https://www.prothomalo.com/feature/adhuna/%E0%A6%9A%E0%A6%BE%E0%A6%95%E0%A6%B0%E0%A6%BF%E0%A6%B0-%E0%A6%B8%E0%A6%BE%E0%A6%95%E0%A7%8D%E0%A6%B7%E0%A6%BE%E0%A7%8E%E0%A6%95%E0%A6%BE%E0%A6%B0%E0%A7%87-%E0%A6%95%E0%A7%80-%E0%A6%95%E0%A6%B0%E0%A6%AC%E0%A7%87%E0%A6%A8-%E0%A6%95%E0%A7%80-%E0%A6%95%E0%A6%B0%E0%A6%AC%E0%A7%87%E0%A6%A8-%E0%A6%A8%E0%A6%BE