তিন দিন থেকে তিন ঘণ্টা আগেই বন্যার পূর্বাভাস জানা যাবে

Author Topic: তিন দিন থেকে তিন ঘণ্টা আগেই বন্যার পূর্বাভাস জানা যাবে  (Read 135 times)

Offline Md. Sazzadur Ahamed

  • Hero Member
  • *****
  • Posts: 586
  • Test
    • View Profile
দেশে ডিজিটাল পদ্ধতিতে বন্যার পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ ব্যবস্থা চালু করা হলো। পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে আজ সোমবার রাজধানীর পান্থপথের পানি ভবনে এর উদ্বোধন করেন পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক।

অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী বলেন, এ কার্যক্রমের আওতায় বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের (বাপাউবো) বিদ্যমান পাঁচ দিনের আগাম বন্যা পূর্বাভাস উপাত্ত প্রক্রিয়াকরণ করা হবে। এতে প্লাবন মানচিত্রের সাহায্যে বন্যা শুরু হওয়ার তিন দিন থেকে তিন ঘণ্টা আগে স্থানীয় জনগোষ্ঠী পর্যায়ে তাৎক্ষণিকভাবে ইন্টারনেটের মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ বার্তা প্রদান করা সম্ভব হচ্ছে।’

পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের নেতৃত্বে এই প্রকল্পে সাহায্য করছে বাপাউবো, এটুআই, গুগল, বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি এবং ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন অব রেডক্রস অ্যান্ড রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটিজ।

বিজ্ঞাপন
গুগল ম্যাপস এবং গুগল আর্থের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট স্থানের বন্যা সতর্কতার ভিত্তিতে প্লাবনের দৃশ্যপট নিয়মিত হালনাগাদ করা হচ্ছে। সেই সঙ্গে প্রান্তিক জনসাধারণের কাছে সঠিক সময়ে পৌঁছাতে এসএমএসে পূর্বাভাস পাঠানোর বিষয়টি মোবাইল নেটওয়ার্ক অপারেটরদের সঙ্গে চলমান রয়েছে বলে জানানো হয় সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ, পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোহসীন এবং বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির মহাসচিব মো. ফিরোজ সালাহ্ উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব কবির বিন আনোয়ার।

আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ বলেন, ‘২০২০ সালে পরীক্ষামূলকভাবে অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের পুশ নোটিফিকেশনের মাধ্যমে পূর্বাভাস দেওয়া শুরু করা হয়েছিল। ২০২০ সালে ব্রহ্মপুত্র-যমুনা ও পদ্মা নদীতীরবর্তী ১৪টি জেলার ৩৮টি উপজেলায় এই কার্যক্রম পরীক্ষামূলকভাবে শুরু করা হয়। ২০২০ সালে ৩ লাখ অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনের মাধ্যমে ১০ লাখ স্মার্ট নোটিফিকেশন পাঠিয়ে বন্যাকবলিত এলাকার জনগণকে সেবা দেওয়া হয়। এর সফলতার ভিত্তিতে দেশজুড়ে ডিজিটাল পদ্ধতিতে বন্যার পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ ব্যবস্থা বাস্তবায়নের এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।’

পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মাহমুদুল হাসানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে এটুআইয়ের পলিসি অ্যাডভাইজার আনীর চৌধুরী এবং গুগলের ভাইস প্রেসিডেন্ট ইয়ুসি মাতিয়াছ বক্তব্য দেনন। এতে স্বাগত বক্তব্য দেন বাপাউবোর মহাপরিচালক ফজলুর রশিদ।

Md. Sazzadur Ahamed
Senior Lecturer
​B.Sc. Program Coordinator (CSE)
Dept. of Computer Science and Engineering
Daffodil International University
102, Shukrabad, Dhanmondi, Dhaka-1207