কুর’আনের দৃষ্টিতে দেখা

Author Topic: কুর’আনের দৃষ্টিতে দেখা  (Read 560 times)

Offline Khan Ehsanul Hoque

  • Hero Member
  • *****
  • Posts: 549
  • Test
    • View Profile
|| কুর’আনের দৃষ্টিতে দেখা ||

আল্লাহ তা’আলা তাঁর সৃষ্টি নিয়ে তিনি চিন্তাভাবনা করতে বলেছেন। তিনি বলেন,
إِنَّ فِي خَلْقِ السَّمَاوَاتِ وَالأَرْضِ وَاخْتِلاَفِ اللَّيْلِ وَالنَّهَارِ وَالْفُلْكِ الَّتِي تَجْرِي فِي الْبَحْرِ بِمَا يَنفَعُ النَّاسَ وَمَا أَنزَلَ اللّهُ مِنَ السَّمَاء مِن مَّاء فَأَحْيَا بِهِ الأرْضَ بَعْدَ مَوْتِهَا وَبَثَّ فِيهَا مِن كُلِّ دَآبَّةٍ وَتَصْرِيفِ الرِّيَاحِ وَالسَّحَابِ الْمُسَخِّرِ بَيْنَ السَّمَاء وَالأَرْضِ لآيَاتٍ لِّقَوْمٍ يَعْقِلُونَ
﴾নিশ্চয়ই আসমান ও জমিনের সৃষ্টিতে, রাত ও দিনের আবর্তনে এবং নদীতে নৌকাসমূহের চলাচলে মানুষের জন্য কল্যাণ রয়েছে। আর আল্লাহ তা’আলা আকাশ থেকে বৃষ্টি নাযিল করেন যা দ্বারা এই মৃত যমীনকে জীবিত করে তুলেন। তিনি ভূমিতে যেসব পশু-প্রাণী ছড়িয়ে দিয়েছেন তাতে, বাতাসের দিক-পরিবর্তনে এবং আকাশ আর ভূমির মাঝে ভাসমান মেঘরাশিতে অবশ্যই জ্ঞানী লোকদের জন্য নিদর্শন রয়েছে।﴿ [সূরা বাকারা : ১৬৪]

আমার একটা বন্ধু ছিল যাকে আমি আমার পথ-প্রদর্শক (Guide) মনে করতাম। আমরা একবার নিউইয়র্ক শহরের ম্যানহাটেন রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিলাম। সে হঠাৎ করে আমার হাত ধরল। অবশ্য প্রায়ই সে এরকম অদ্ভুত কর্মকান্ড করে।
সে আমাকে বলল, “তোমার চারপাশটা দেখ।” আমি চারদিকে তাকালাম। এরপর বিভ্রান্ত মনে বললাম, “দেখলাম।”
সে বলল, “এইবার নিচে ঐটা দেখ।”
আমি দেখলাম এই ইট-পাথরের কংক্রিটের মাঝে একটা চারাগাছ বেরিয়ে এসেছে।
ও বলল, "জানো তুমি, আমাদের আশপাশে এখন যাকিছু আছে তার মাঝে এই একটিমাত্র জিনিসই প্রাকৃতিক। অথচ এই প্রাকৃতিক জিনিসকেই মনে হচ্ছে বেঠিক জায়গায় আছে। এই চারাগাছকেই এই জায়গায় সবচেয়ে অসামঞ্জস্য মনে হচ্ছে, তাই না?"
আমি বললাম, “হুম, ঠিক আছে। তো কী হয়েছে?”
সে বললো: "অথচ এটিই কেবল প্রাকৃতিক আর সবচেয়ে স্বাভাবিক ও বিশুদ্ধ জিনিস এখানে। এটা ঠিক মুসলিমদের মতো। ইসলামের মতো। আমরা মুসলিমরা হচ্ছি খুবই স্বাভাবিক। প্রাকৃতিক। ফিতরাতের মানুষ। এই কুর’আন, এর শিক্ষা সবই স্বাভাবিক আর প্রাকৃতিক। অথচ সমাজে আমাদেরকে সবচেয়ে অসামঞ্জস্য মনে করা হয়।"

আমি হতভম্ব হয়ে একটু পিছিয়ে গিয়ে বললাম, “ওওও, বন্ধু তুমি আসলেই গভীর চিন্তা করেছো, তুমি খুব চিন্তাশীল মানুষ।”
আমার ঐ বন্ধুর সবচেয়ে আশ্চর্য ব্যাপার কী জানেন? আমি যতবারই তাকে দেখেছি ততবারই তার হাতে কুর’আন দেখেছি। আমি যতবারই তার সাথে কোনো বিষয় নিয়ে কথা বলি, সে সাথে সাথে প্রতিউত্তর না দিয়ে একটু চিন্তা করে বলে, 'আচ্ছা কুর'আনে একটা আয়াত আছে এই ব্যাপারে।' এরপর সে কথা শুরু করে।
সে যেন কুর’আনের চশমা পরে আছে। সে যা-ই কিছু দেখে কুর’আনের দৃষ্টিতে দেখে আর চিন্তা করে। বিস্ময়কর! একেই বলে চিন্তা করা। আমাদেরও এরকম চিন্তাশীল হতে হবে। এইভাবে কুর’আনের চশমা পরলে সবকিছুতেই আপনি পথ-নির্দেশনা পাবেন।
~ উস্তাদ নোমান আলী খান

Source:
https://www.facebook.com/NAKBangla/
« Last Edit: October 23, 2022, 04:14:42 PM by Kakuly Akter »
Khan Ehsanul Hoque

Daffodil International University
01847334702
fd@daffodilvarsity.edu.bd
www.daffodilvarsity.edu.bd