স্ট্রোকের লক্ষণ-কারণ, যা করবেন

Author Topic: স্ট্রোকের লক্ষণ-কারণ, যা করবেন  (Read 655 times)

Offline Mrs.Anjuara Khanom

  • Sr. Member
  • ****
  • Posts: 478
  • Test
    • View Profile

প্রতি ৩ সেকেন্ডে বিশ্বে এক জনের স্ট্রোক হয়। এই রোগ এখন হানা দিচ্ছে অল্পবয়সীদের মধ্যেও।


বাংলাদেশে মৃত্যুর কারণের মধ্যে স্ট্রোক রয়েছে তৃতীয় স্থানে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার র‌্যাংকিং অনুযায়ী, স্ট্রোকের কারণে মৃত্যুহারের তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ৮৪। বিশ্বে প্রতিবছর ১৫ থেকে ৪৯ বছর বয়সীদের মধ্যে স্ট্রোক হয় ১৬ শতাংশ।
স্ট্রোকের লক্ষণ-

* হাঁটাচলায় সমস্যা
* ঢুলে পড়া
* মুখ ঝুঁকে পড়া
* কথায় জড়তা
* একদিকে অবশ
* ঝাপসা দৃষ্টি

কারণ-

নানা কারণে মস্তিষ্কের রক্তবাহী নালির পথ সরু হয়ে যায়। ভেতরে চর্বির স্তর জমে এর পথ বন্ধ হয়। এতে মগজের কোষগুলো রক্ত কম পায়। ফলে পুষ্টি ও অক্সিজেন না পাওয়ায় মগজ নিস্তেজ হয়ে যাওয়ায় স্ট্রোকের মতো ভয়ংকর ঘটনা ঘটে।

স্ট্রোকের ধরন-

ইসকেমিক স্ট্রোক : রক্ত চলাচল থেমে যায় আর এতে রক্ত না পেয়ে মগজ নিস্তেজ হয়ে যায়।

হেমরেজিক স্ট্রোক : মগজের ভেতর দুর্বল রক্তনালি ছিঁড়ে যায়।

মিনি স্ট্রোক : কিছুক্ষণের জন্য চর্বির ডেলা রক্তনালির পথ বন্ধ করে দেয়। এতে সাময়িকভাবে স্ট্রোক হয়। এ সময় চোখে অন্ধকার দেখে রোগী, একে বলে ব্ল্যাক আউট। মিনি স্ট্রোককে ঝড়ের সতর্কতা সংকেত হিসেবে চিহ্নিত করা যেতে পারে।

করণীয়-

* যাদের পরিবারে তরুণ বয়সে স্ট্রোক হয়েছে তাদের বেশি সতর্ক থাকতে হবে।
* নিয়মিত চেকআপ করাতে হবে। অনিয়ন্ত্রিত রক্তচাপ সামলে রাখতে হবে।
* দিনভর বসে কাজ করা যাবে না। হাঁটাচলা করতে হবে। সপ্তাহে পাঁচদিন দ্রুত পায়ে দিনে আধা ঘণ্টা হাঁটতে হবে।
* রক্তে কোলেস্টেরলের পরিমাণ কমাতে হবে।
* ফাস্ট ফুড, তেলে ভাজা ডিপ ফ্রাই খাবার খাদ্যতালিকা থেকে বাদ দিতে হবে।
* অতিরিক্ত লবণ, চর্বি আর সুগার খাওয়া বাদ দিতে হবে।
* তলপেটের মেদ কমিয়ে ওজন স্বাভাবিক রাখতে হবে।
* লাগাতার স্ট্রেস আর মানসিক চাপ নেওয়া যাবে না।
* ধূমপান ও মদ্যপানের অভ্যাস বাদ দিতে হবে।
* ডায়াবেটিস থাকলে নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। নিয়ম মেনে খাবার খাওয়ার পাশাপাশি নিয়মিত হাঁটতে হবে।
* সুষম খাদ্যতালিকায় রাখতে হবে প্রচুর ফল, সবজি, ডাল, বাদাম, হোল গ্রেন, অলিভ তেল, মাছ ও কচি মাংস। স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস স্ট্রোকের ঝুঁকি ৮০ শতাংশ কমায়।
* অতিরিক্ত লবণযুক্ত খাবার যেমন- আচার, ফাস্ট ফুড, নোনা ইলিশ, নোনতা বিস্কুট বাদ দিতে হবে।

চিকিৎসা-

স্ট্রোকের লক্ষণ দেখলে যত দ্রুত সম্ভব অ্যাম্বুল্যান্স ডাকুন। প্রথমে যেতে হবে ইমার্জেন্সিতে। নিউরোলজিস্টের পরামর্শ মেনে চলতে হবে।


Source:https://www.banglanews24.com/health/news/bd/1089925.details
Mrs, Anjuara Khanom
Library Assistant Officer,
Daffodil International University
DSC Campus
02224441833/34