Daffodil International University

Health Tips => Health Tips => Skin => Topic started by: Mafruha Akter on October 30, 2017, 12:03:10 PM

Title: নারকেল দুধের গুণে
Post by: Mafruha Akter on October 30, 2017, 12:03:10 PM
নারকেলের দুধ অনেক বছর আগে থেকেই ত্বক ও চুলের পরিচর্যায় ব্যবহৃত হচ্ছে। ত্বকের বিভিন্ন সমস্যার সমাধানেই শুধু নয়, বরং চুলের সৌন্দর্য রক্ষায়ও সমানভাবে কাজ করে নারকেল দুধ।

হারমোনি স্পার রূপবিশেষজ্ঞ রাহিমা সুলতানা বলেন, নারকেল দুধে আছে ভিটামিন, মিনারেল, ইলেকট্রোলাইড, অ্যামিনো অ্যাসিড। এ ছাড়া আছে ছত্রাকরোধী (অ্যান্টি ফাঙ্গাল) উপাদান, অ্যান্টিবায়োটিক ও অ্যান্টিভাইরাল, যা ত্বকের সংক্রমণ দূর করে। এর মধ্যে আরও আছে ভিটামিন সি, বি-১, বি-৫, বি-৬, ই, আয়রন ও প্রাকৃতিক লবণ। তাই এক কথায় বলা যায় যে রূপচর্চায় নারকেল দুধের জুড়ি মেলা ভার।

ঘরেই বানিয়ে নিতে পারেন নারকেলের দুধ। প্রথমে নারকেল কুড়িয়ে নিন। এরপর কুসুম গরম পানি দিয়ে ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে ছেঁকে নিলেই পেয়ে যাবেন নারকেল দুধ।

হার্বস আয়ুর্বেদিক স্কিন অ্যান্ড হেয়ার কেয়ার ক্লিনিকের রূপবিশেষজ্ঞ আফরিন মৌসুমি জানান ত্বকের যত্নে নারকেল দুধের কিছু উপকারিতা।

l বাইরে থেকে এসে রোদে পোড়া জায়গায় নারকেল দুধ মালিশ করলে ত্বকের দাগ দূর হয় এবং উজ্জ্বলতা ফিরে আসে।

l খুব ভালো ময়েশ্চারাইজার হিসেবে কাজ করে।

l মাথার ত্বকে ব্যবহারে চুলের পুষ্টি জুগিয়ে চুলের বৃদ্ধি বাড়িয়ে তোলে।

নারকেল দুধ দিয়ে তৈরি দারুণ একটি স্ক্রাবারের কথাও জানালেন বিশেষজ্ঞরা—প্রথমে নারকেল পিষে দুধ বের করে নিন। আধা কাপ নারকেল দুধ ও ১ টেবিল চামচ কফির সঙ্গে বড় দানার দেশি চিনি ভালোভাবে পেস্ট করে নিন। এরপর পুরো শরীরে ঘষুন। যতক্ষণ না চিনি গলে যাচ্ছে, ততক্ষণ হালকা হাতে ঘষতে থাকুন। এরপর ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ২-৩ দিন নিয়মিত ব্যবহারে ত্বকের মরা কোষ ঝরে ত্বক মসৃণ ও কোমল হবে।

কার্যকর কিছু প্যাক
l যাদের ত্বক শুষ্ক কিন্তু ব্রণের সমস্যা আছে, তাদের জন্য এই প্যাকটি বেশ উপকারী। আধা কাপ নারকেল দুধে ১ ইঞ্চি পরিমাণ দারুচিনি ও ১০টি লবঙ্গ একসঙ্গে ভিজিয়ে রাখুন ৩০ মিনিট। এরপর মিশ্রণটি পেস্ট করে মুখে লাগান। ২৫ মিনিট পর কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত সপ্তাহে তিন দিন ব্যবহার করলে ব্রণ দূর হবে।
l ত্বকের কালো দাগ ও বলিরেখা দূর করার কার্যকর প্যাক এটি। ১ টেবিল চামচ যষ্টি মধুর গুঁড়া, ২ টেবিল চামচ নারকেল দুধ, হাফ চা-চামচ প্রাকৃতিক কর্পূর মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে রাখুন। ৩০ মিনিট পর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।
l ২ কাপ নারকেল দুধ, ২ টেবিল চামচ মেথি, ২ টেবিল চামচ মৌরি সারা রাত ভিজিয়ে রাখুন। সকালে মিশ্রণটি ভালো করে পেস্ট করে মাথার ত্বকে ও পুরো চুলে লাগান। এক ঘণ্টা পর শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে কমপক্ষে এক দিন ব্যবহারে খুশকি দূর হবে এবং চুল পড়া বন্ধ হবে।
রূপবিশেষজ্ঞ রাহিমা সুলতানা জানালেন, নারকেল দুধ ত্বকের শুষ্কতা কমায়, নানান ধরনের দাগ দূর করে এবং রোদে পোড়া ভাব কমায়।
আরও কয়েকটি প্যাক
l ২ টেবিল চামচ নারকেল দুধ গলানোর জন্য যতটুকু মুলতানি মাটি দরকার, ততটুকু নিয়ে একসঙ্গে মেশান। এরপর একটি ব্রাশ দিয়ে মুখে ও পুরো শরীরে লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত রেখে হালকা মালিশ করে তুলে ফেলুন। এরপর কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন।
l নারকেল দুধ, কাঠবাদাম বাটা ও ময়দা মিশিয়ে ২০ মিনিট রেখে দিন। এরপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।
l মেথির সঙ্গে নারকেল দুধ মিশিয়ে পেস্ট করে চুলে লাগালে ডিপ কন্ডিশনার হিসেবে অনেক ভালো কাজ করে এবং চুলের কিউটিকল ভালো রাখে।
l ১ কাপ নারকেল দুধে ২ টেবিল চামচ লেবুর রস মিশিয়ে সাড়া রাত ফ্রিজে রেখে দিন। আধা ঘণ্টা আগে বের করে রেখে এরপর চুলে লাগান। এক ঘণ্টা রেখে তুলে ফেলুন। এই প্যাক হেয়ার স্পা ক্রিমের মতো ব্যবহার করা যায়।
l আধা কাপ নারকেল দুধ, ১ টেবিল চামচ হরীতকী পাউডার, ১ টেবিল চামচ আমলকী পাউডার, ১টি ডিম ও আধা কাপ টক দই মিশিয়ে একটি প্যাক তৈরি করে নিন। পুরো চুলে লাগিয়ে এক ঘণ্টা পর পানি দিয়ে ধুয়ে এরপর শ্যাম্পু করুন।
এই প্যাক চুলের ডিপ কন্ডিশনার হিসেবে কাজ করে, রুক্ষতা কমায়, চুলের গোড়া মজবুত করে এবং নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে।
l ১ কাপ নারকেল দুধে ২ টেবিল চামচ মেথির গুঁড়া ভিজিয়ে রেখে সেই পেস্ট চুলে লাগান। এক ঘণ্টা পর ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাক পাতলা চুলে ফোলাভাব আনে।