Show Posts

This section allows you to view all posts made by this member. Note that you can only see posts made in areas you currently have access to.


Topics - akhishipu

Pages: 1 [2] 3
16


ল্যাপটপ কম্পিউটারের ব্যাটারি একসময় কার্যক্ষমতা হারিয়ে ফেলতে শুরু করে। নিচে ব্যাটারির কিছু সাধারণ যত্নের কথা তুলে ধরা হলো—

 ব্যাটারির চার্জ ২০ থেকে ৩০ শতাংশ অবশিষ্ট থাকলে তখনই এটি চার্জ করে নেওয়া ভালো। ল্যাপটপের চার্জের স্তর ১০০% হলে ব্যাটারি চার্জ নেওয়া বন্ধ করে সরাসরি বিদ্যুৎ থেকে শক্তি নিয়ে চলতে থাকে।
 ল্যাপটপের ব্যাটারি পুরো চার্জ করে কমপক্ষে ২ ঘণ্টা সময় দিয়ে ব্যাটারিকে ঠান্ডা করে নিন। দুই ঘণ্টা পর আবার ল্যাপটপ চালু করে ডেস্কটপের ডান পাশে নিচে ব্যাটারির আইকনে ডান ক্লিক করে Power Option চালু করুন। এখানে পাওয়ার প্ল্যান থেকে Balanced (recommended)-এর Change plan settings-এ ক্লিক করুন। আবার Change Advanced power settings-এ ক্লিক করে সেটি খুলুন। এবার Battery-তে ক্লিক করে Critical battery action-এর on battery-তে Hibernate নির্বাচন করে দিন। এটি আগে থেকেও করে দেওয়া থাকতে পারে। তখন নতুন করে আর করার দরকার নেই। Critical battery level-এর on battery এবং Plugged in-এ ৫% নির্ধারণ করে দিন।
 কম্পিউটার হাইবারনেটে চলে যাওয়ার আগেই অন্য যেকোনো কাজ করে ব্যাটারির চার্জকে নিঃশেষ করে নিন। হাইবারনেট বিশেষ পাওয়ার সংরক্ষণ সুবিধা আছে। কাজ শেষে কম্পিউটার বন্ধ হলে ঘণ্টা খানেক পর আবারও চার্জ করে ব্যবহার করুন।
 উইন্ডোজ ভিস্তা এবং ৭ অপারেটিং সিস্টেমের কিছু ছবিভিত্তিক আবহ ও থিম ব্যাটারির স্থায়িত্ব কমায়। তাই যাঁদের ল্যাপটপে চার্জ কম থাকে, তাঁরা Windows 7 Basic Theme থিম ব্যবহার করুন। এটি ডেস্কটপে ডান ক্লিক করে Personalize-এ পাওয়া যাবে।


17
মাইক্রো মোটএক সময় যে কম্পিউটারের আকার হতো পুরো ঘরের সমান কিন্তু সেই কম্পিউটারেরই আকার এখন ছোট হতে হতে একেবারে সুচের ডগায় এসে ঠেকেছে! কম্পিউটার এখন মাত্র এক মিলিমিটার ঘনকের সমান হয়ে দাঁড়িয়েছে। খবর প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট সিনেটের।

মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকেরা তৈরি করেছেন মাইক্রো মোট নামের স্বয়ংসম্পূর্ণ এই কম্পিউটার। প্রায় এক দশকেরও বেশি সময় ধরে মিশিগান কম্পিউটার সায়েন্স বিভাগ এই কম্পিউটার তৈরিতে কাজ করছে। বর্তমানে সব পণ্যের মধ্যেই ইন্টারনেট সংযোগ সুবিধা বা ইন্টারনেট অব থিংস (আইওটি) বিষয়টি যত বড় হচ্ছে মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার নির্মাণের সঙ্গে যুক্ত দলটি কম্পিউটারটির আকার তত ছোট করার কাজ করে যাচ্ছে। মাইক্রো মোট কম্পিউটারটি বিভিন্ন ধরনের চিকিৎসা সংক্রান্ত কাজ ও শিল্প খাতে ব্যবহার করা যাবে।

ক্যালিফোর্নিয়ার কম্পিউটার হিস্ট্রি মিউজিয়ামের জ্যেষ্ঠ কিউরেটর ড্যাগ স্পাইসার ইন্টারনেট অব থিংস সম্পর্কে বলেন, ‘আইওটি এমন একটি বিশ্ব সম্পর্কে ধারণা দেয় যখন প্রতিটি পরিচিত পণ্যের মধ্যে বুদ্ধিমত্তা থাকবে। প্রতিটি জিনিসের মধ্যে একদিন ইন্টিগ্রেটেড সার্কিট থাকবে যাতে একটি নেটওয়ার্কের মধ্যে জিনিসগুলো পরস্পর যোগাযোগ করতে পারবে।’

মাইক্রো মোট কম্পিউটার দেখতে ক্ষুদ্র হলে কী হবে এটি ছবি তুলতে পারে, তাপমাত্রা ও চাপ মাপতে পারে। এই ক্ষুদ্র কম্পিউটারটি মানুষের শরীরে ইনজেকশনের মাধ্যমে ঢুকিয়ে ইসিজি করা বা রক্তচাপ মাপার মতো কাজ করা যেতে পারে। এ ছাড়াও তেল শিল্পেও মাইক্রো মোট ব্যবহার করা যাবে। তেলকূপের মধ্যে এই কম্পিউটারের সাহায্যে নতুন তেলের উৎস বের করা সম্ভব হবে। এ ছাড়াও চাবি, ওয়ালেটের মতো যেসব জিনিস মাঝে মাঝে খুঁজে পাওয়া যায় না সেগুলোতে মাইক্রো মোট যুক্ত থাকলে তা খুঁজে বের করা যাবে।
গবেষকেরা জানিয়েছেন, মাইক্রো মোটকে আরও কার্যকর করে তুলতে এর ব্যাটারির আকার আরও ছোট করতে তাঁরা কাজ করছেন। এই কম্পিউটারটিতে অবশ্য কোনো কিবোর্ড, মাউস বা ডিসপ্লে নেই। এই কম্পিউটারটির প্রোগ্রামিং ও চার্জ পদ্ধতি আলোক নির্ভর। হাই ফ্রিকোয়েন্সির ফ্ল্যাশ ব্যবহার করে কম্পিউটারে তথ্য প্রেরণ করা হয়। মাইক্রো মোট সেই তথ্য প্রসেসিং করে রেডিও ফ্রিকোয়েন্সির মাধ্যমে সেন্ট্রাল কম্পিউটারে পাঠায়।

গবেষকেরা মাইক্রো মোটের আকার আরও ছোট করে স্মার্ট ডাস্ট নামে বাজারে আনার পরিকল্পনা করছেন।

18
ভিটামিনকে দেখা যায় না, গন্ধ নেওয়া যায়না এমনকি কোনো স্বাদও নেই৷ কিন্তু ভিটামিন রয়েছে বহু খাবারে আর তা সুস্থভাবে বেঁচে থাকার জন্য খুবই জরুরি৷ তবে শরীরে ভিটামিন কেন, কখন এবং কতটা প্রয়োজন তা জেনে নিন৷
ভিটামিন ‘এ’
সুস্থ অবস্থায় ভিটামিনের কথা তেমনটা না ভাবলেও অসুস্থ হলে ভিটামিনযুক্ত খাবারের প্রশ্ন ওঠে প্রায়ই৷ এ, বি, সি, ডি, ই –এই ভিটামিনগুলোর কথা মাথায় রেখে খাওয়া-দাওয়া করলে সুস্থ থাকা অনেক সহজ৷ ভিটামিন এ রয়েছে মাংসে যথেষ্ট পরিমাণে, বিশেষ করে কলিজাতে৷ তাছাড়া মাছ, দুধ, ডিমের কুসুম, পনির এবং গাজরেও রয়েছে৷ ভালো শুনতে পাওয়া, গন্ধ নেওয়া এবং চোখের জন্য দরকার ভিটামিন এ৷শরীরের হাড় ও ত্বকেও এই ভিটামিন প্রভাব ফেলে৷
ভিটামিন ‘বি’
লাল চাল অর্থাৎ মেশিনে ছাঁটা নয়, এবং ভুষি বা আঁশযুক্ত আটার রুটি পরিমাণ মতো খেলেই শরীরে ভিটামিন বি-এর অভাব পূরণ হয়৷ ভিটামিন বি রয়েছে মাছ, মাংস এবং সি-ফুডে৷ অনেক ভিটামিনের মতোই ভিটামিন বি শরীর নিজে উৎপাদন করেনা৷ তাই বিভিন্ন খাবার থেকে গ্রহণ করতে হয়, যা কার্ডিওভাসকুলার ও নার্ভ সিস্টেমের জন্য প্রয়োজন৷ সেল বা কোষ বৃদ্ধিতেও প্রভাব ফেলে৷ শরীরে বেশি ভিটামিন বি-এর দরকার হয়না বলে এর অভাব খুব কমই দেখা যায়৷
ভিটামিন ‘সি’
যে ভিটামিনের কথা মুখে মুখেই শোনা যায় তা হচ্ছে ভিটামিন সি৷ যা থাকে লেবুজাতীয় ফল ছাড়াও সবুজ চা, স্ট্রবেরি, টমেটো, ব্রকোলি, ফুলকপি, বিভিন্ন ফল ও সবজিতে৷ ভিটামিন সি-এর অভাবে মানুষ ক্লান্ত বোধ করে, ত্বকের সমস্যা হতে পারে৷ তাছাড়া ঠাণ্ডা লাগার মতো বিভিন্ন সংক্রমণ রোগের ঝুঁকি থাকে৷তবে বেশি সাপ্লিমেন্ট বা সিন্থেটিক ‘সি’ শরীরের জন্য ক্ষতিকর, এতে নষ্ট হতে পারে শরীরে অন্যান্য ভিটামিন ও খনিজ লবণের ভারসাম্য৷
ভিটামিন ‘ডি’
সূর্যতাপ সবার জন্যই যেমন প্রয়োজন আবার অতিরিক্ত সূর্যতাপ শরীরের জন্য ক্ষতিকর৷ তাই একজন সুস্থ মানুষের জন্য প্রতিদিন ২০ মিনিট মুখমণ্ডল এবং হাতে দিনের আলোই যথেষ্ট৷ হাড় এবং দাঁতের জন্য ভিটামিন ‘ডি’ প্রয়োজন, বিশেষ করে শিশুদের হাড় গঠনের জন্য আর বড়দের হাড় শক্ত রাখার জন্য৷ যে একদমই সূর্যের আলো থেকে দূরে থাকে বা পায় না, তার হাড় দিনদিন ক্ষয় হয়ে যেতে পারে৷
ভিটামিন ‘ই’
শাকপাতা ও শস্যদানার মতো অনেক খাবারেই ভিটামিন ‘ই’ রয়েছে৷এই ভিটামিনের অভাব হতে খুব কম দেখা যায় কারণ ভিটামিন ‘ই’ শরীরের অনেকদিন সঞ্চিত থাকতে পারে৷ এই ভিটামিন শরীরের কোষ এবং ধমনি ঠিক রাখতে ভূমিকা পালন করে৷ আঁশযুক্ত খাবার, উদ্ভিজ্জ তেল, বাদাম ইত্যাদিতে রয়েছে যথেষ্ট ভিটামিন ই৷

19
কীভাবে চিনবেন নকল ডিম?

-কৃত্রিম ডিম অনেক বেশি ভঙ্গুর। এর খোসা অল্প চাপেই ভেঙে যায়।
-এই ডিম সিদ্ধ করলে কুসুম বর্ণহীন হয়ে যায়।
-ভাঙার পর আসল ডিমের মতো কুসুম এক জায়গায় না থেকে খানিকটা চারপাশে ছড়িয়ে পড়ে। অনেক সময় পুরো কুসুমটাই নষ্ট ডিমের মত ছড়ানো থাকে।
-কৃত্রিম ডিম আকারে আসল ডিমের তুলনায় সামান্য বড়
-এর খোলস খুব মসৃণ হয়। খোসায় প্রায়ই বিন্দু বিন্দু ফুটকি দাগ দেখা যায়।
-রান্না করার পর এই ডিমে অনেক সম্যেই বাজে গন্ধ হয়। কিংবা গন্ধ ছাড়া থাকে। আসল কুসুমের গন্ধ পাওয়া যায় না।
-নকল ডিমকে যদি আপনি সাবান বা অন্য কোন তীব্র গন্ধ যুক্ত বস্তুর সাথে রাখেন, ডিমের মাঝে সেই গন্ধ ঢুকে যায়। রান্নার পরেও ডিম থেকে সাবানের গন্ধই পেতে থাকবেন।
-নকল ডিমের আরেকটি উল্লেখ্য যোগ্য লক্ষণ হলো ডিম দিয়ে তৈরি খাবারে এটা ডিমের কাজ করে না। যেমন পুডিং বা কাবাবে ডিম দিলেন বাইনডার হিসাবে। কিন্তু রান্নার পর দেখবেন কাবাব ফেটে যাবে, পুডিং জমবে না।
-নকল ডিমের আকৃতি অন্য ডিমের তুলনায় তুলনামূলক লম্বাটে ধরণের হয়ে থাকে।
-নকল ডিমের কুসুমের চারপাশে রাসায়নিকের পর্দা থাকে বিধায় অক্ষত কুসুম পাওয়া গেলে সেই কুসুম কাঁচা কিংবা রান্না অবস্থাতে সহজে ভাঙতে চায় না।

20
Faculty Sections / গরমে সাজের আগে পরে
« on: April 08, 2015, 02:11:19 PM »
সানস্ক্রিন
রোদের অতিবেগুনি রশ্মির প্রভাবে ত্বক কালো হয়ে যায়। তাই গরমের দিনে খুবই প্রয়োজনীয় সানস্ক্রিন। বাইরে বের হতে হলে রোদ থেকে রক্ষা পেতে অবশ্যই সানস্ক্রিন লোশন ব্যবহার করবেন। বিশেষ করে চোখের নিচের নমনীয় ত্বকের জন্য মেডিকেটেড সানস্ক্রিন এবং তৈলাক্ত ত্বকের জন্য তেলবিহীন সানস্ক্রিনই ব্যবহার করতে হবে। বাজারে অনেক রকমের সানব্লক ও সানস্ক্রিন পাবেন। ক্রিম, জেল, লোশন, স্প্রে, পাউডার সব রকমই আছে। তবে ত্বক তৈলাক্ত হলে সানব্লক লোশন বেছে নিন কিংবা সানস্ক্রিন পাউডার। আর শুষ্ক ত্বকের জন্য ক্রিম। হাতে ও পায়ে সানস্ক্রিন জেল ব্যবহার করতে পারেন।

ওয়েট টিস্যু
মুখ মোছার জন্য বিশেষভাবে তৈরি করা হয় ওয়েট টিস্যু। এতে ল্যাভেন্ডার নামক সুগন্ধি থাকে, যা ব্যবহার করলে মুখ সতেজ ও সজীব থাকে। বাইরে সব সময় পানি দিয়ে মুখ ধোয়া সম্ভব নয় বলে ওয়েট টিস্যু বেশ কার্যকরী। ওয়েট টিস্যু সহজেই ত্বকের তেল, ময়লা মুছে ফেলে। সাধারণত সানস্ক্রিনের কার্যকারিতা ৩ থেকে ৪ ঘণ্টা পর শেষ হয়ে যায়। তাই এর চেয়ে বেশি সময় বাইরে থাকলে ওয়েট টিস্যু দিয়ে মুখ মুছে আবার সানস্ক্রিন লাগান।

ক্লিনজিং মিল্ক
ক্লিনজিং মিল্ক ব্যবহারে ত্বকের ধুলা ময়লা তেল উঠে আসে। এতে ত্বক পরিষ্কারের সঙ্গে ত্বকের আর্দ্রতাও বজায় থাকে। অল্প একটু তুলা নিয়ে তাতে ক্লিনজিং মিল্ক নিন। আলতো করে মুখ মুছে ফেলুন। এরপর প্রয়োজনমতো সানস্ক্রিন বা মেকআপ লাগান। শুষ্ক ও স্বাভাবিক ত্বক পরিষ্কার করতে ব্যবহার করুন ক্লিনজিং জেল। তৈলাক্ত ও মিশ্র ত্বকের জন্য ক্লিনজিং লোশন।

টোনার
ত্বকের অতিরিক্ত তেল, মরা কোষ, ধুলা-ময়লা, মেকআপ দূর করে টোনার। সঠিকভাবে টোনিং করলে লোমকূপের আকার স্বাভাবিক ও পরিষ্কার থাকে। ত্বকের সজীবতা বজায় রাখার পাশাপাশি মুখের ক্লান্ত ভাবও দূর হয় এতে। ত্বকের অতিরিক্ত তেল নিঃসরণও রোধ করে টোনার। ওয়েট টিস্যু দিয়ে মুখ মোছার পর তুলায় টোনার নিয়ে মুখ ভালোভাবে মুছে ফেলুন। টোনারের প্রধান উপাদান অ্যালকোহল। বেশি অ্যালকোহল ত্বক শুষ্ক করে দেয়। তাই শুষ্ক ত্বকের জন্য কম অ্যালকোহলযুক্ত টোনার বেছে নিন। স্পর্শকাতর ত্বকে টোনার ব্যবহার না করাই ভালো। এ ক্ষেত্রে গোলাপজল ব্যবহার করতে পারেন। তুলার বলে গোলাপজল নিয়ে পুরো মুখ মুছে ফেলুন। এটাও টোনার হিসেবে বেশ ভালো কাজ করে।

ব্লটিং পেপার
ত্বক তৈলাক্ত হলে মেকআপের কিছুক্ষণ পরই মুখের টি-জোন বা কপাল, নাক ও নাকের নিচে, ঠোঁটের নিচে থুতনির কাছে তেল জমে। এ সমস্যা থেকে বাঁচতে হাতব্যাগে ব্লটিং পেপার রাখুন। এটি অতিরিক্ত তেল শুষে নেয়। ত্বকের যে অংশে তেল জমেছে সেখানে ব্লটিং পেপার চেপে ধরুন। তারপর হালকাভাবে কমপ্যাক্ট পাউডার বুলিয়ে নিন। এতে দীর্ঘক্ষণ মেকআপ ভালো থাকবে।

21
Faculty Sections / ত্বকের জন্য তরমুজ
« on: April 08, 2015, 02:09:34 PM »
গরম পড়তে শুরু করেছে। সেই সঙ্গে বাজারে এসেছে সুস্বাদু সব তরমুজ। বেশির ভাগ লোকের ধারণা, তরমুজে কেবল পানি আর মিষ্টি ছাড়া কিছু নেই। কিন্তু আসলে এই ফলে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ও খনিজ উপাদানও আছে। পুষ্টিমানেও সমৃদ্ধ এটি। ত্বকের জন্য তরমুজ বিশেষ উপকারী। এই ফল আমাদের ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায়। এটির রসও ত্বকের সুরক্ষায় কার্যকর। বিষয়টির বিজ্ঞানভিত্তিক কারণও আছে। কেননা তরমুজে আছে প্রচুর ভিটামিন এ। আর এটি ত্বকের সুস্থতা রক্ষায় প্রয়োজনীয়। এ ছাড়া এটি ভিটামিন সি-এরও উৎস, যা ত্বকের কোলাজেন কলার নমনীয়তা বজায় রাখে। রোধ করে ত্বকের বুড়িয়ে যাওয়া। এক কাপ তরমুজকুচিতে আপনি পেয়ে যাবেন সারা দিনের চাহিদার ২১ শতাংশ ভিটামিন সি এবং ১৭ শতাংশ ভিটামিন এ। সবচেয়ে বড় কথা, এই গরমে ত্বকের আর্দ্রতা রক্ষা করা খুবই দরকার। আর তরমুজে ৯২ শতাংশই পানি। গরমে তরমুজ খেলে তাই ত্বকের আর্দ্রতা নষ্ট হবে না। সব মিলিয়ে বলা যায়, ত্বকের সুস্থতার জন্য তরমুজ মোটামুটি অপরিহার্য।

22
Faculty Sections / ঘর রাঙাতে
« on: April 08, 2015, 02:08:26 PM »
 কোন ঘরে কোন রং?
ঘরের দেয়ালে রং ব্যবহারের ক্ষেত্রে বাসিন্দাদের পছন্দ বা রুচি ও মনস্তাত্ত্বিক দিকগুলো প্রাধান্য পায়। সাধারণত বিভিন্ন ঘরের রং আলাদা হলেই ভালো হয়। তবে ঘরের তিন দেয়াল অফ-হোয়াইট কিংবা সাদা রেখে বাকি এক দিকের দেয়ালে রঙের ভিন্নতা আনলে সব দিক থেকেই ভালো।
রেডিয়েন্ট ইনস্টিটিউট অব ডিজাইনের চেয়ারপারসন গুলশান নাসরিন চৌধুরী বলেন, ড্রয়িংরুমের দেয়ালের রং হতে পারে লাল। রংটি চিত্তাকর্ষক এবং জমজমাট পরিবেশের সঙ্গে মানানসই। সবার আগে যেহেতু এ ঘরই বাইরের মানুষের চোখে পড়ে, রুচির পরিচয় অনেকখানি তুলে ধরা যায় অতিথিকক্ষের মাধ্যমে। খাবারঘরের দেয়ালটিতেও উজ্জ্বল রং (যেমন: কমলা) ব্যবহার করতে পারেন। এ ঘরে সাধারণত হই-হুল্লোড়, আড্ডা খুব বেশি হয়। তাই উজ্জ্বল রংগুলো সেখানে সুন্দর অনুষঙ্গ হিসেবে কাজ করে। ছোট শিশুদের ঘরের রং বাছাইয়ের ক্ষেত্রে ছেলেদের জন্য নীল আর মেয়েদের জন্য গোলাপি ধাঁচের রং ব্যবহার করা যেতে পারে। এ ছাড়া একরঙা দেয়ালের পরিবর্তে একটি ফিচার দেয়ালে বিভিন্ন রঙের বৈচিত্র্য রাখা যেতে পারে। শোবারঘরের জন্য বেগুনির মতো রং জুতসই। বয়স্ক মানুষেরা বেশি রঙের ব্যবহার অপছন্দ করলে তাঁদের ঘরের জন্য চার দেয়ালেই হালকা বা অফ-হোয়াইট ধরনের রং ব্যবহার করতে পারেন।
বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, বিভিন্ন রঙের মিশ্রণ বা ইলিউশন ব্যবহার করলে ফ্লোরাল কিংবা লতাপাতা নকশার ইলিউশনকে প্রাধান্য দেওয়া উচিত। পুরো বাড়ির ছাদ ও মেঝেতেও সাদার ব্যবহার থাকলে ভালো। এতে ঘরগুলোকে প্রশস্ত মনে হয়। অফ-হোয়াইট কিংবা সাদার পরিবর্তে চার দেয়ালজুড়ে একই রং ব্যবহার করলে হিজিবিজি ও আবদ্ধ পরিবেশ সৃষ্টি হয়।

23
Faculty Sections / চৈত্রসংক্রান্তি
« on: April 08, 2015, 02:06:50 PM »
টক ডাল
উপকরণ: মসুর ডাল ২৫০ গ্রাম, গুটি আম পরিমাণমতো, কাঁচা মরিচ, সরিষার তেল ও লবণ পরিমাণমতো।
প্রণালি: আমগুলো ছিলে টুকরা করে পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। ডাল ভালো করে ধুয়ে কাঁচা মরিচ, লবণ ও সরিষার তেল দিয়ে সেদ্ধ বসিয়ে দিন। এবার পানিতে ভেজানো আমগুলোর কষ ছাড়াতে হালকা গরম পানিতে ভাপ দিয়ে নিন। সেদ্ধ ডালটুকু ভালো করে ঘুঁটে নিয়ে তাতে আমগুলো দিয়ে দিন। এবার কড়াইতে তেল গরম করে শুকনা মরিচ, তেজপাতা, সরিষা দিয়ে ডালটা সম্ভার দিয়ে নামিয়ে নিন।
শজনে ডাঁটার ঝালি
উপকরণ: শজনে ডাঁটা আধা কেজি, টমেটো ২টি, আলু ২টি, মাষকলাই ডালের বড়ি পরিমাণমতো। গোটা জিরা সামান্য। কাঁচা মরিচ ও তেজপাতা ৫-৬টি করে। সরিষার তেল, হলুদ, লবণ ও চিনি পরিমাণমতো।
প্রণালি: টমেটো আর আলু পাতলা করে কেটে নিন। কড়াইয়ে তেল গরম দিয়ে বড়িগুলো হালকা লাল করে ভেজে নামিয়ে নিন। কড়াইতে আবারও তেল দিয়ে গরম জিরা, তেজপাতা ফোড়ন দিয়ে সবজিগুলো ঢেলে দিন। হলুদ, লবণ, চিনি ও কাঁচা মরিচ দিয়ে কষিয়ে নিন। এবার বড়িগুলো আধা ভাঙা করে তরকারিতে দিয়ে আবারও কষিয়ে নিতে হবে। এরপর পানি দিয়ে নেড়ে ১৫ থেকে ২০ মিনিট ঢেকে রাখুন। ঝোল ঝোল হয়ে এলে ভাজা জিরার গুঁড়া দিয়ে নামিয়ে ফেলুন।

24
এক দিনে কত গ্লাস পানি পান?
পানি পান বিষয়টি শরীর থেকে অতিরিক্ত ঘাম বের হয়ে যাওয়ার ওপর নির্ভর করে। সাধারণত এই গরমে পানি খাওয়া বাড়াতে হবে সবার জন্য। সাধারণত দিনে সাত-আট গ্লাস পানি খাওয়ার কথা থাকলেও এ সময় ১০-১২ গ্লাস পানি খাওয়ার চেষ্টা করতে হবে। বাচ্চাদের জন্য বিশেষ করে সাত-আট বছরের বাচ্চাদের জন্য পাঁচ-ছয় গ্লাস পানি খাওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। পানির পাশাপাশি বাচ্চার জন্য ফলের রস এবং রসাল ধরনের ফল দেওয়া যেতে পারে।

দিন শেষে করণীয়
সারা দিন রোদে ঘুরে বাসায় এসেই ঠান্ডা পানি খাবেন না। কিছুক্ষণ বসে থাকার পর খাবেন, তাহলে সর্দি বা ঠান্ডা লাগার ভয় থাকবে না।
একটু চিনি-লবণ-লেবুর শরবত খেতে পারেন। একফাঁকে একটু চা খেয়ে নিতে পারেন।
বাইরে থেকে এসে বিভিন্ন ফলের জুস বা লেবুর শরবত খেতে পারেন। এতে শরীর থেকে ঘামের সঙ্গে বের হয়ে যাওয়া পানির ঘাটতি পূরণ হবে।
সারা দিনই ঘোরাফেরার ফলে শরীরে ব্যথা অনুভব হবে। তাই ফিরে গরম পানি দিয়ে গোসল করলে ব্যথা ও ক্লান্তি অনেকাংশে দূর হয়ে যাবে।

25
Faculty Sections / How to Be Self Motivated
« on: November 18, 2013, 11:40:38 AM »
1.Get positive. It's pretty hard to get anything done when we're stuck on thoughts like, "Ugh, life sucks and it's raining." Thoughts like those make us want to just curl up in our beds until someone physically drags us out. You can't do that! Positive thoughts are the only way you'll even find motivation in the first place.

    If you find yourself thinking negative thoughts, just stop. Don't finish it. Divert your attention elsewhere. Especially if you're thinking about your motivation! This task in front of you? It's totally doable and you have the abilities to do it. Any other thinking will keep you from even trying.
2.Get confident. Along with thinking positive about your world, you gotta think positive about you. If you think you're incapable, it'll seriously put a damper on the amount of effort you give this task. Why would you bother doing something you don't think you can do? Exactly. You won't.

    To get started, count your successes. What do you have going for you? What have you done in the past that was awesome? What resources do you have at your disposal? Think of all the things you've achieved in the past. For what reason would you not be able to achieve what you want now?! You've done similar things before.
3.Get hungry. When Les Brown talks about motivation, he repeats over and over, "You gotta be hungry!" What he's saying here is that you have to actually want it. You can't imagine a life without it. Thinking something would be nice, being full of velleities won't get you anywhere. Want it. If you don't really, really want it, what are you doing trying to motivate yourself?

    Sometimes it involves a little twisting to convince yourself that you want it. Struggling getting to work? Well, is that a path to anything else? If you've been really hankering for a vacation to Hawaii, think about it like that. You really, really wanna get to Hawaii -- and working will get you there. It's a lot easier to do something you don't want to do when you have a purpose in mind -- a purpose that you're hungry for.


26
Faculty Sections / How to maintain straight hair
« on: November 17, 2013, 12:20:03 PM »
    Do not wet your hair for three days after the procedure. Yes, it means greasy hair and no swimming. The chemicals have to seep in and settle.
    Do not tie your hair or put it on the back of your ears. The hair will be in a state where it acquires a shape.
    When you sleep, make sure your hair is straight. You don’t want to wake up to weird shaped hair.
    Wash your hair with shampoo and conditioner after three days. Leave the conditioner on your hair for extra minutes.
    Avoid usage of any heating tools. That means no blow drying too. If you are in a need of drying hair, then use the cool blast of air option.
    Do not mess with your hair for at least six months – that means no hair coloring, no streaks, no highlighting. Your hair needs to relax after the high dose of straightening chemicals.
    Have your hair trimmed on a regular basis. This ensures your hair remains in top condition. Make sure there are no split ends. You don’t want it to travel up the length and deepen the damage.
    Use cold water to wash your hair. Hot water will rob it of its moisture.
    Make sure you wash away all the residue as anything left back will result in itching, hair fall and dandruff.
    Use a wide toothed hair comb to separate the strands. Remove any tangles with great care.  A wooden comb is preferable as plastic combs are known to create frizz due to static.
    If your hair is not really greasy or oily, stay away from shampooing every day. You can try alternate days or try co-washing which means using conditioner as a shampoo and just rinsing it away.
    Keep your hair safe from environmental factors – harsh sun rays, cold winds and the rains. Use a hat or an umbrella.
    Apply a hair serum regularly. This creates a barrier between your hair and the outside and helps protect it better.
    Use a leave in conditioner. This helps in retaining the moisture and keeps dryness and frizz away.
    Use hair masks frequently or get hair spas done. Your hair needs moisture and nutrition.
    In case you wet your hair due to rain, wash your hair like a regular wash as soon as possible. The salts and pollutants from rain water are highly damaging.
    Follow a nutritious diet. A good diet consists of nuts, cashews, almonds and lots of fruits and vegetables. These are known to promote healthy hair.

27
Faculty Sections / Tips for indoor plants
« on: November 17, 2013, 11:11:12 AM »
Houseplant Care Tip #1: Mist Your Plants
Ideally mist indoor plants with water once a day, but three times a day is even better. Although this can be time consuming, tropical houseplants benefit from the humidity. Alternatively, you can position houseplants near an indoor water feature, which will increase the humidity around the plants.

Houseplant Care Tip #2: Wipe Dust off Leaves and Stems
Accumulated dust on leaf surfaces can plug up pores, making it difficult for plants to "breathe." Wiping leaves routinely with a damp cloth will correct the problem.

Houseplant Care Tip #3: Give Plants Lots of Light
The angle of the sun changes considerably during the fall and winter, which means plants that once received lots of light during the spring and summer may be getting only half as much now. Move plants that require bright light to a new location for the next few months if needed. Remember to rotate your houseplants every week or two so they receive light evenly on all sides.

Houseplant Care Tip #4: Don't Fertilize
Because houseplants slow their growth processes in winter, withhold fertilizing them until next spring.

Houseplant Care Tip #5: Wait Until Spring to Repot Plants
Repotting will actually stimulate new growth.

28
Faculty Sections / Home decor tips
« on: November 17, 2013, 11:08:36 AM »
1
Consider glass-front cabinets. They provide great incentives for forcing you — and your family — to be organized. Any clutter or dishware put back in the wrong place will be visible. Try storing everyday dinnerware above the work surface, while hiding the clutter of pots and pans behind closed doors.
2
"Create your own kitchen island. Buy one of those stainless-steel wire mesh trolleys by Metro shelving and get a big slab of stone, or butcher block to put on top." —Birch Coffey
3
"Find attractive containers for all those items on the kitchen counter. I'm thinking white modern canisters for flour, sugar, pasta, with a matching tray for oils and vinegars." —Penny Drue Baird
4
Double everyday items as stylish storage. Bread baskets, water pitchers, and large mixing bowls are just some of the functional kitchen objects that can serve as convenient containers when not in use.
5
"Change out all your kitchen cabinetry hardware. I like the old-fashioned colored glass knobs at crowncityhardware.com or restorationhardware.com." —Kerry Joyce
6
Choose colorful appliances. "Buy a cherry red mixer from Williams-Sonoma and bake a cake. It's a very 1950s fantasy. Even if you never bake, it would cheer up your kitchen." —Stephen Shubel
7
Hang pots and pans. Hanging hardware is amazingly stylish and adaptable and allows you to efficiently store frequently used equipment and supplies right where they'll be used. Get more kitchen design ideas.
8
Use a hutch. It not only provides a hallmark centerpiece for a country kitchen, it also offers abundant exposed shelving to show off an assortment of plates, glasses, cups, and crockery. See more photos of designer kitchens.

29
Faculty Sections / 14 Ways to Stress Less, Live More
« on: November 16, 2013, 01:57:39 PM »
1. Pray often, multiple times a day. I have found if we limit our relationship with God to a once- or twice-a-day experience, we miss out on a continual flow of His grace and blessing. Prayer is communication with God, a way to develop a relationship. If we only speak to Him once a day, how can we truly know Him?

2. Make your daily resting goal a minimum of seven hours of uninterrupted sleep. We don’t need studies to prove lack of sleep results in a less-than-desired effect on our health, work and relational habits. We must be refreshed to be refreshment to others.

3. Lay out clothing the night before. This is an excellent habit to teach your children. If you find yourself standing in front of your closet for more than two to three minutes deciding what to wear, you can benefit greatly by organizing your wardrobe. Match outfits ahead of time, even down to the jewelry you will wear with them, and hang all the clothes together. (This is a great tip from my friend Jill Swanson, an image coach.) Guys, you can do the same with ties, socks and shoes—never assume it’s only the girls spending time in front of the closet.

4. Say no more often. Burning the candle at both ends has become an acceptable pastime for all “good Christians.” But living a multiple-wick life leads to early burnout. Getting our priorities straight—God, family, job and other—will help in choosing which wicks to light. Just in case you’re asking, spending time at church every moment the doors are open does not fall under the “God” slot; it may be under your “job” slot if you’re a pastor or church secretary, but if not, it’s “other.”

5. Delegation makes others stronger. Sure, you can choose to make yourself solely responsible for every detail of life in your house—or you can delegate tasks to capable others; your strength is seen in your weakest link. Teach the kids to set and clear the table, fold laundry, water the garden—any chore appropriate for their age and ability. Most importantly, don't stress out if they don't do it exactly your way.

6. Simplify and downsize your life, office and closets. Keep, store or give away. Repeat every six months.

7. Stop using credit cards. It's easy to whip out a credit or debit card for all those little purchases in life, but the statements at the end of the month can be major stressors. Instead, designate a cash amount for your weekly quick-spends (maybe $30) and leave the credit/debit cards at home.

8. Plan for a rainy day. Here are some ideas: crossword puzzles, board games, favorite family movies. Plans change, but if we plan ahead for those unexpected changes, we can redirect hurt feelings or bouts of disappointment.

9. Oops items. Carry an extra car key in your wallet or purse, hide an extra house key, keep extra stamps in the car and make a photocopy of the credit cards you carry. Ask the family for ideas: "What do we always seem not to have at the time we need it? What would we hate to lose?" Making the list can be fun, and it will prevent stress-filled moments.

10. Do something just for fun at least once a week. Movies, fishing, time with the grandkids, garage sales, date night, the zoo, painting furniture—whatever works.

11. Incorporate at least 30 minutes of accumulated physical activity a day. I really believe stress can’t live in an active body. I don’t have scientific proof, unless you count my soon to be 97-year-old mother-in-law: cancer survivor, avid gardener (used a powerless push-mower for more than 50 years), walks one to two miles a day, and plays one mean piano for church, for her apartment complex and for family.

12. Journal your thoughts. Use a journal to reflect, share and recognize the positives God is doing daily in your life. Stress can consume our thoughts with what if’s and why not’s. If we make a conscious effort to pen the positives, we can loosen the grip of daily stress.

13. Laugh out loud. Four great ways to incorporate humor into your day: play with a puppy; run with your child; sit down in front of Lucy, Carol Burnett, or The Three Stooges; or record some at-home karaoke and play it back for friends.

14. Talk less; listen more. We have two ears, one mouth—there’s a reason.

30
Faculty Sections / 10 Strengths To Make A Happy Marriage
« on: November 16, 2013, 01:54:23 PM »
Top Ten Strengths of Happy Marriages:

    Partners are satisfied with communication
    Partners handle their differences creatively
    They feel very close to each other
    Spouses are not controlling
    Partners discuss their problems well
    They are satisfied with the affection they show and receive in the marriage
    There is a good balance of time alone and together
    Family and friends rarely interfere
    Partners agree on how to spend money
    Partners agree on spiritual beliefs

Pages: 1 [2] 3