Daffodil International University

Health Tips => Health Tips => Teeth => Topic started by: Mafruha Akter on March 21, 2018, 10:30:34 AM

Title: বেশি দাঁত মাজা ভালো না
Post by: Mafruha Akter on March 21, 2018, 10:30:34 AM
দাঁত পরিষ্কার ও সমস্যামুক্ত রাখতে দিনে অন্তত দু’বার দাঁত মাজা উচিত— এটি বেশ পুরাতন নিয়ম। তবে প্রয়োজনের অতিরিক্ত দাঁত মাজার কারণে উপকারের তুলনায় অপকারই বেশি হতে পারে।:

অনেকেই আছেন যারা মনে করেন প্রতিবার খাওয়ার পরই দাঁত মাজা উপকারী। তাদের ধারণা এতে দাঁত পরিষ্কার থাকবে। তবে অতিরিক্ত কোনো কিছুই ভালো নয়। প্রয়োজনের তুলনায় বেশিবার ব্রাশ করার ফলে দাঁতের ক্ষতি হওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যায়।

স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইটে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে অতিরিক্ত দাঁত মাজার ক্ষতিকর দিকগুলো তুলে ধরা হয়।

চা বা কফি পান করার পরপরই দাঁত মাজা বেশ ক্ষতিকর। একইভাবে কোমল বা কার্বোনেইটেড পানীয় পান করার পরপরই দাঁত ব্রাশ করা একদমই উচিত নয়। কারণ এ ধরনের পানীয় পান করার পরই ব্রাশ করা হলে এতে থাকা অ্যাসিড উপাদান দাঁতের এনামেল পুড়িয়ে ফেলতে পারে। আর ব্রাশ করার ফলে অ্যাসিড দাঁতের এনামেলের ভেতরে এঁটে যায়।

‘ইন্ডিয়ান ডেন্টাল অ্যাসোসিয়েশন’য়ের মহাব্যবস্থাপক ডা. বুশরা বলেন, “দিনে প্রতিবার খাবার খাওয়ার পর দাঁত মাজা মোটেও জরুরি নয়- দু’বারই যথেষ্ট। আর খাওয়ার পরই দাঁত মাজা কতটা জরুরি তা নির্ভর করে কী ধরনের খাবার খাওয়া হয়েছে তার উপর।”

তিনি আরও বলেন, “যদি অ্যাসিডিক খাবার- টক ফল বা কর্বোনেইটেড পানীয় পান করা হয়, তবে খাওয়ার পরপরই দাঁত মাজা উচিত নয়। কারণ এতে উপকারের তুলনায় ক্ষতিই হবে বেশি। তাছাড়া প্রয়োজনের তুলনায় বেশি ব্রাশের ফলে দাঁতের উপরের স্তর ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এতে ‘সেনসিটিভিটি’ বা দাঁত সিরসির করার সমস্যা দেখা দিতে পারে।”

নিউ দিল্লির ম্যাক্স সুপারস্পেশিয়ালিটি হাসপাতালের জ্যেষ্ঠ পরামর্শদাতা ডা. অনুরাগ সিং বলেন, “সকালে নাস্তা এবং রাতের খাবার খাওয়ার পর— এই দুবার দাঁত মাজা উচিত। তবে খাবার খাওয়া ও দাঁত মাজার মাঝে ৩০ মিনিটের বিরতি রাখতে হবে। এতে অ্যাসিডের মাত্রা কমে আসবে।”

অতিরিক্ত ব্রাশ করা এবং বেশি জোর দিয়ে ব্রাশ করার ফলে দাঁতের এনামেল এবং মাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। তাছাড়া টুথব্রাশের ব্রিসেলস যদি বেশি শক্ত হয় তাহলে তা দাঁত ও মাঢ়ির জন্য ক্ষতিকর।