Daffodil International University

Faculties and Departments => Business & Entrepreneurship => Topic started by: maruppharm on February 23, 2014, 02:52:44 PM

Title: Increasing fish export. $13600bn trade
Post by: maruppharm on February 23, 2014, 02:52:44 PM
২০১৩ সালে বিশ্বে যত মাছ উৎপাদিত হয়েছে, এর ৩৭ শতাংশই রপ্তানি করেছে বিভিন্ন দেশ। মাছের এ বাণিজ্যের পরিমাণ ১৩ হাজার ৬০০ কোটি ডলার।
এমন তথ্য জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার (এফএও)। ২০১৩ সালে বিশ্বব্যাপী মাছের উৎপাদন ও বাণিজ্য নিয়ে সংগৃহীত তথ্য বিশ্লেষণ করে এমন চিত্র পেয়েছে সংস্থাটির মাছ বাণিজ্যবিষয়ক উপকমিটি।
আগামী সপ্তাহে নরওয়েতে অনুষ্ঠেয় উপকমিটির বৈঠক উপলক্ষে একটি প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে। এফএওর ওয়েবসাইট থেকে প্রতিবেদনটি পাওয়া গেছে।
প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিশ্বব্যাপী মাছ-বাণিজ্য দ্রুতগতিতে বাড়ছে। তাই খাতটিকে এখন বেশ অগ্রসরমাণ বলে মনে করা হচ্ছে। এফএও বলছে, এ অবস্থায় ছোট মৎস্য খামারিদের উৎসাহিত ও সহযোগিতা করা গেলে মাছ উৎপাদনকারী দেশগুলো মৎস্য-বাণিজ্য আরও দ্রুত এগিয়ে যাবে।
বিশ্বে প্রতিবছর মাছের উৎপাদন যেমন বাড়ছে, তেমনি বাড়ছে মাছের বাণিজ্যও। এফএও বলছে, ২০১৩ সালে বিশ্বে মাছ উৎপাদনের রেকর্ড হয়েছে। প্রাকৃতিক জলাশয় ও চাষ থেকে মাছ উৎপাদিত হয়েছে ১৬ কোটি টন মাছ। আগের বছর মাছ উৎপাদিত হয় ১৫ কোটি ৭০ লাখ টন। আর মাছ বেশি উৎপাদিত হলে তা রপ্তানি হবে এটাই স্বাভাবিক। সে কারণেই গত বছর বিশ্বব্যাপী ১৩ হাজার ৬০০ কোটি ডলারের মাছের বাণিজ্য হয়েছে।
এফএওর পণ্য, বাণিজ্য ও বিপণন বিভাগের প্রধান অডাম লেম বলেন, বিশ্বব্যাপী মাছ-বাণিজ্যের এ চিত্রই বলে দেয়, মাছ চাষ (অ্যাকুয়াকালচার) কী হারে বাড়ছে এবং এ থেকে চাষিরা কত বেশি লাভবান হচ্ছেন। বিশেষ করে স্যালমন আর চিংড়িচাষিরা বেশি লাভবান হচ্ছেন।
জাতিসংঘের এই সংস্থাটির হিসাবে, ২০১২ সালে বিশ্বে চাষ থেকে ছয় কোটি ৭০ লাখ টন মাছ উৎপাদিত হলেও গত বছর তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে সাত কোটি টনে। এটা বিশ্বব্যাপী উৎপাদিত মোট মাছের ৪৪ শতাংশ। আর মানুষ সরাসরি যত মাছ খায় তার ৪৯ শতাংশ।
অডাম লেমের মতে, মাছের বাণিজ্য যেভাবে বাড়ছে, তাতে মৎস্য খাত শিগগিরই বিশ্বের অন্যতম গতিশীল শিল্প খাতে পরিণত হবে।
বিশ্ববাজারে যত মাছ সরবরাহ করা হয়, এর ৬১ শতাংশই যায় উন্নয়নশীন দেশ থেকে। কিন্তু আন্তর্জাতিক এ বাণিজ্য ছোট মাছচাষিদের ভাগ্য পরিবর্তন করতে পারছে না। অথচ, বিশ্বব্যাপী মৎস্য খাতের সঙ্গে যুক্ত শ্রমজীবীর ৯০ শতাংশই এই ছোট মাছচাষি। সে কারণে তাঁদের দিকে মৎস্য উৎপাদনকারী দেশগুলোকে নজর দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছে এফএও।