Show Posts

This section allows you to view all posts made by this member. Note that you can only see posts made in areas you currently have access to.


Topics - mahmud_eee

Pages: 1 2 [3] 4 5 ... 17
33
Please see the following link.............

http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article987617.bdnews

34

প্রচলিত ব্যাংকের কোনো রকমের সংশ্লিষ্টতা ছাড়াই ‘ব্যাংকিং’ সেবা দেওয়ার অভিনব উদ্যোগ নিয়ে মাঠে নেমেছে নতুন স্টার্টআপ প্রতিষ্ঠান অ্যাব্রা। প্রতিষ্ঠানটির তৈরি অ্যাপের মাধ্যমেই দৈনন্দিন জীবনের সব লেনদেন করা যাবে, প্রয়োজন হবে না কোনো ব্যাংক অ্যাকাউন্টের।

বলা হচ্ছে প্রচলিত ব্যাংকিং সেবার সবকিছুই অ্যাব্রার কাছ থেকে পাবেন একজন ব্যবহারকারী। কেবল অংশগ্রহন থাকবে না কোনো ব্যাংকের। ব্যাংকের অংশগ্রহণ না থাকায় পেপাল, ভেনমো এবং চেস পে’র মতো সেবাগুলোর থেকেও আলাদা করে দেখা হচ্ছে অ্যাব্রাকে। ওই প্রতিষ্ঠানগুলোর সেবা ব্যবহারের জন্য ব্যাংক অ্যাকাউন্টের প্রয়োজন হয় ব্যবহারকারীর।

এক প্রতিবেদনে সিএনএন জানিয়েছে, ‘ব্যাংকিং প্রক্রিয়া হবে টেক্সট মেসেজ পাঠানোর মতোই সহজ’- এমন চিন্তার উপর ভিত্তি করেই গড়ে উঠেছে অ্যাব্রার সেবা।

ছোট একটি উদাহরণ দিলেই প্রক্রিয়াটি ঠিক কীভাবে কাজ করবে তা পরিষ্কার হবে। ধরে নেওয়া যাক, অ্যাব্রা ব্যবহারকারীর নগদ অর্থ প্রয়োজন। তিনি অ্যাপ চালু করে জিপিএসের সাহায্যে নিকটস্থ একজন ব্যাংক ‘টেলার’ খুঁজে বের করবেন এবং দুজনের জন্যই সুবিধাজনক হবে এমন স্থানে দেখা করবেন।

দুজনের ফোনেই স্বয়ংক্রিয়ভাবে ভিন্ন ভিন্ন কিউআর কোড চলে আসবে। কিউআর কোড স্ক্যানের মাধ্যমে উভয়ই সত্যতা যাচাই করে লেনদেন সম্পন্ন করবেন। অর্থ জমা দেওয়ার ক্ষেত্রেও প্রক্রিয়া একই থাকবে, শুধু কাজগুলো বিপরীতভাবে করা হবে।

এক্ষেত্রে একজন সাধারণ মানুষও ব্যাংক ‘টেলারের’ ভূমিকা পালন করতে পারবেন। তবে সেক্ষেত্রে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে অ্যাব্রা আগে থেকেই খোঁজ নিয়ে রাখবে ওই ব্যক্তি সম্পর্কে।

প্রতি লেনদেনে ০.২৫ শতাংশ চার্জ করবে অ্যাব্রা। অন্যদিকে টেলার কী পরিমাণ চার্জ নেবেন, সে ব্যাপারে তিনিই সিদ্ধান্ত নেবেন। তবে প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে টেলারদেরকে ১.৫ শতাংশ চার্জ নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া শুধু ফোন নম্বর বাদে সেবা গ্রহণকারীদের অন্য কোনো ডেটা সংগ্রহ করা হবে না বলেও জানিয়েছে অ্যাব্রা। 

বেটা সংস্করণ দিয়ে আর কয়েক সপ্তাহের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র ও ফিলিপাইনে নিজেদের সেবা শুরু করবে অ্যাব্রা। প্রতিষ্ঠানটির প্রতিষ্ঠাতা বিল বারহাইট জানিয়েছেন, দেশগুলোতে ইতোমধ্যেই প্রচুর সংখ্যক ‘টেলার’ সাইন-আপ করেছেন এবং আগামী বছর নাগাদ এই সেবা বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দেওয়া হবে।

35

স্থলপথে বিশ্বে সবচেয়ে দ্রুতগতির যানের রেকর্ডটি এ বছর ভাঙতে পারছে না ‘দ্য ব্লাডহাউন্ড সুপার-সনিক কার’। কারিগরি ত্রুটির জন্য দশ সপ্তাহ পিছিয়ে গেছে কর্মসূচী। পরিকল্পনা অনুসারে, দক্ষিণ আফ্রিকার মরুভূমিতে নতুন রেকর্ড গড়ার কথা ছিল। কিন্তু দশ সপ্তাহ পরে গাড়িটি প্রস্তুত হলেও, তখন আফ্রিকায় বর্ষাকাল চলে আসবে। আর তাই এ বছর রেকর্ডটি ভাঙা সম্ভব হচ্ছে না।
এক প্রতিবেদনে সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, এখন ২০১৬ সালের এপ্রিল বা মে মাস পর্যন্ত অপেক্ষা করার নতুন পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। গাড়িটি সে সময় ঘন্টায় আটশ’ মাইল বেগে চালিয়ে, বর্তমানের ঘন্টায় সাতশ’ ৬৩ মাইল গতিবেগের রেকর্ডটি ভাঙার চেষ্টা করা হবে।

পরিকল্পনা অনুযায়ী, বেশ সাবলীল ভাবেই চলছিল ব্লাডহাইন্ডের নির্মাণ কাজ। হঠাৎ করেই গাড়িটির রকেট ও ইউরোফাইট জেট ইঞ্জিনের সংযোগে কারিগরি ত্রুটি ধরা পড়ে। এটি ছাড়া গাড়ির কাংখিত গতিবেগ তোলা সম্ভব নয়। আরও শক্তিশালী রকেট ও বেয়ারিংয়ের মাধ্যমে ত্রুটিটি খুব সহজেই সমাধান করা যেত। কিন্তু নরওয়েভিত্তিক রকেট মটর প্রস্তুতকারি প্রতিষ্ঠান ন্যামো’র গ্রীষ্মকালীন ছুটির কারণে ত্রুটিটি এ মূহূর্তে সমাধান করা সম্ভব হচ্ছে না।

ব্লাডহাইন্ডের প্রধান প্রকৌশলী মার্ক চ্যাপম্যান নির্ধারিত সময়ের তুলনায় পিছিয়ে যাওয়াতে হতাশ হলেও, সিদ্ধান্তটিকে সঠিক বলে মনে করছেন। চ্যাপম্যান এ প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, দক্ষিণ আফ্রিকায় গিয়ে মূল লক্ষ্য অর্জনে ব্যর্থ হবার চেয়ে সময় পেছানোটাই ভালো মনে করছেন তিনি।

ব্লাডহাউন্ডের মৌলিক নির্মাণ কাজগুলো আর কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই শেষ হয়ে যাবে। সেটি সম্পন্ন হলেই যুক্তরাজ্যের রানওয়েতে গাড়িটি ‘ধীর-গতি’-তে চালিয়ে পরীক্ষা করা হবে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

36

একেই কি বলে নিয়তির পরিহাস? স্মৃতিভ্রম বা হ্যাকারদের হাত থেকে পাসওয়ার্ড বাঁচাতে যে প্রতিষ্ঠানটি সেবা দিচ্ছিল সে-ই হয়েছে হ্যাকিংয়ের শিকার। প্রতিষ্ঠানটির নাম ‘লাস্টপাস’।

সিএনএন জানিয়েছে, সোমবার এক ঘোষণায় লাস্টপাসের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, হ্যাকাররা তাদের কম্পিউটার সিস্টেম হ্যাক করেছে এবং ব্যবহারকারীদের ইমেইল অ্যাড্রেস, পাসওয়ার্ড রিমাইন্ডার্স আর মাস্টার পাসওয়ার্ডের এনক্রিপটেড ভার্সন অ্যাকসেস করেছে।

‘আপনার সব পাসওয়ার্ড ইন্টারনেটে এক জায়গায় জমা করে রাখার ধারণা সম্ভবত এখন আর নিরাপদ নয়।’- বলা হয়েছে সিএনএন-এর প্রতিবেদনে।

শুক্রবার প্রথম প্রতিষ্ঠানটি হ্যাকড হওয়ার ঘটনার বুঝতে পারে। প্রতিষ্ঠানটির দাবি অনুযায়ী, হ্যাকাররা তাদের হাতে সব মাস্টার পাসওয়ার্ডের প্লেইন টেক্সট ভার্সন নিতে সক্ষম হয় নি। কিন্তু, কারও মাস্টার পাসওয়ার্ড যদি অনেক বেশি সহজ হয় তবে তা হ্যাকারদের হাতে চলে যাওয়া অস্বাভাবিক নয়। হ্যাকাররা খুব সহজে কম্পিউটার সার্ভারগুলো খুঁজে বের করে অন্যান্য এনক্রিপটেড পাসওয়ার্ডের পাঠোদ্ধার করতে সক্ষম হবে।

এ ঘটনার পর হুমকির মুখে পড়তে পারে সামাজিক মাধ্যম, ব্যাংক, হাসপাতালের প্রতিষ্ঠানগুলোর গুরুত্বপূর্ণ তথ্য। এ কারণে এ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন সাইবারনিরাপত্তা বিশেষজ্ঞরা।

এক বিবৃতিতে লাস্টপাসের পক্ষ থেকে ব্যবহারকারীদের মাস্টার পাসওয়ার্ড খুব দ্রুত পরিবর্তনের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। আর অন্যান্য হ্যাক হওয়া প্রতিষ্ঠানের মতো তারাও বলেছে, “লাস্টপাসে নিরাপত্তা আর প্রাইভেসি আমাদের সবচেয়ে বড় উদ্বেগের কারণ”।

37

অভিনব এক ডকিং স্টেশনের ডিজাইন পেটেন্ট করিয়ে নেওয়ার জন্য আবেদন করেছে দক্ষিণ কোরিয়ান ইলেকট্রনিক্স জায়ান্ট স্যামসাং। অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমচালিত যে কোনো স্মার্টফোন বা ট্যাবলেটকে ওই ডকিং স্টেশনে জুড়ে দিলেই স্বয়ংক্রিভাবে উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমে চলা শুরু করবে ওই ডিভাইস।


প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট ম্যাশএবল এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ডকিং স্টেশনের পেটেন্টের জন্য মার্কিন পেটেন্টে অ্যান্ড ট্রেডমার্ক অফিসে আবেদন করেছে স্যামসাং। আলাদা কিবোর্ড আর স্ক্রিন থাকবে ওই ডকিং স্টেশনে।

প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট ম্যাশএবল জানিয়েছে, ওই ডকিং স্টেশন বাণিজ্যিক উৎপাদন করে ভালো সাড়া পেতে পারে স্যামসাং। স্মার্টফোন হিসেবে যেমন অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের জনপ্রিয়তা বেশি, তেমনি ল্যাপটপের ওএস হিসেবে অনেক ক্রেতার উইন্ডোজই বেশি পছন্দ। স্যামসাংয়ের ডকিং স্টেশনটির ব্যবহার করলে একই সঙ্গে স্মার্টফোন আর ল্যাপটপ বহন করার ঝক্কি থেকে রেহাই মিলতে পারে ব্যবহারকারীর।

এই প্রযুক্তি ব্যবহারের জন্য অ্যান্ড্রয়েড ও উইন্ডোজ, উভয় অপারেটিং সিস্টেমই থাকতে হবে ডিভাইসে। ডকিং স্টেশনে জুড়ে দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ডিভাইসটিকে উইন্ডোজ মোডে নিয়ে যাবে ওই ডকিং স্টেশন। ডকিং স্টেশনের স্ক্রিন আর কিবোর্ড দিয়ে সব কাজ সারতে পারবেন ব্যবহারকারী।

পেটেন্টে ও ট্রেডমার্ক অফিসে স্যামসাংয়ের আবেদন অনুযায়ী, বাড়তি ট্র্যাকপ্যাড ও জুড়ে দেওয়ার সুযোগ থাকবে ওই ডকিং স্টেশনে। উইন্ডোজ ছাড়াও ভিন্ন অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহারের সুযোগও রাখা হয়েছে পেটেন্টের আবেদনে।

স্যামসাং ডকিং স্টেশনটির প্রযুক্তির পেটেন্ট করিয়ে নেওয়ার জন্য আবেদন করলেও এর বাণিজ্যিক উৎপাদন করবে কি না তার কোনো নিশ্চয়তা নেই বলে জানিয়েছে ম্যাশএবল। বরং স্যামসাং কোন ধরনের প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে সেদিকেই ওই পেটেন্ট আবেদনটি ইঙ্গিত করে বলে জানিয়েছে সাইটটি।

38

চীনের জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের (ন্যাশনাল কলেজ এনট্রান্স এক্সাম) ভর্তি পরীক্ষাকে বলা হয়ে থাকে বিশ্বের সবচেয়ে কঠিন ভর্তি পরীক্ষা। আর এই পরীক্ষায় নকলকারীদের ধরতে এবার ড্রোন ব্যবহারের পরিকল্পনা করেছে কর্তৃপক্ষ।

চীনের জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের (ন্যাশনাল কলেজ এনট্রান্স এক্সাম) ভর্তি পরীক্ষাকে বলা হয়ে থাকে বিশ্বের সবচেয়ে কঠিন ভর্তি পরীক্ষা। আর এই পরীক্ষায় নকলকারীদের ধরতে এবার ড্রোন ব্যবহারের পরিকল্পনা করেছে কর্তৃপক্ষ।

প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট ম্যাশএবল এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, দুই দিনব্যাপী ভর্তি পরীক্ষা চলার সময় নতুন এই ‘অ্যান্টি-চিটিং’ ড্রোনগুলো ব্যবহার করা হবে। পুরো চীন থেকে প্রায় ১ কোটি শিক্ষার্থী এই পরীক্ষায় অংশ নেয় বলে জানিয়েছে সাইটটি।

বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগের জন্য চীনে শিক্ষার্থীদের অনেকেই অভিনব কায়দায় নকলের চেষ্টা করেছেন। চশমার সঙ্গে লুকানো ক্যামেরা, কলমের সঙ্গে ইন-ইয়ার রিসিভার, রেডিও ট্রান্সমিটার, টি-শার্টের মধ্যে সেলফোন লুকিয়ে রাখাসহ নানা উদ্ভাবনী কায়দায় নকল চেষ্টার রেকর্ড আছে চীনা শিক্ষার্থীদের।

এই নকলবাজদের চিহ্নিত করতে তৈরি ড্রোনগুলো পরীক্ষার হলের ১,৬৪০ ফিট উপরে উড়ে আশপাশের ৩১০ মাইলের মধ্যে রেডিও তরঙ্গ পর্যবেক্ষণ করবে। পরীক্ষার নিয়ন্ত্রক ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা কর্মচারীরা ড্রোনগুলো নিয়ন্ত্রণ করবেন তাদের হাতে থাকা ট্যাবলেট থেকে।

নকল করতে গিয়ে একবার ধরা পরলে পরবর্তী তিন বছর পরীক্ষা দেওয়ার অনুমতি পাবেন না ওই শিক্ষার্থী। আরও আইনী ব্যবস্থাও নেওয়া হতে পারে ওই নকলকারীর বিরুদ্ধে।

চীনসহ এশিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলেই বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় ইতিবাচক ফলাফলের জন্য চাপের মুখে পরতে হয় শিক্ষার্থীদের। ২০১৪ সালেই চীনে স্কুলের ভর্তি পরীক্ষা সংশ্লিষ্ট ৭৯টি আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছে ম্যাশএবল।

39

আইওএস ডিভাইসের নিরাপত্তা বাড়াতে ৬ ডিজিটের পাসকোড সেবা চালু করছে অ্যাপল। সোমবারের ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ডেভেলপার্স কনফারেন্সে (ডব্লিউডব্লিউডিসি) ৪ ডিজিটের পাসকোডের নিরাপত্তা ব্যবস্থা ৬ ডিজিটের পাসকোড দিয়ে প্রতিস্থাপনের ঘোষণা দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট ম্যাশএবল এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, চলতি বছরেই আইওএস ৯-এর মাধ্যমে আইওএস ডিভাইস অভিষেক হবে ৬ ডিজিটযুক্ত পাসকোডের। আইওএসের নতুন সংস্করণ আইফোন ৪এস ও আইপ্যাড ২ থেকে শুরু করে উভয় ডিভাইসের পরের মডেলগুলোতে চলবে বলে জানিয়েছে সাইটটি।

ডিভাইসে টাচআইডি ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর থাকলে ওএস আপডেট করার পর নিরাপত্তা ব্যবস্থার পরিবর্তনগুলো ব্যবহারকারীদের খুব একটা চোখে পরবে না বলে জানিয়েছে ম্যাশএবল।

আর ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর নেই এমন ডিভাইসগুলোসহ আইওএস চালিত পুরনো মডেলগুলোতে ব্যবহারের জন্য আইওএসের নতুন সংস্করণটিতে বিশেষ নজর দিয়েছে অ্যাপল। আইওএসের নতুন সংস্করণটি এমনভাবে ডিজাইন করা হয়েছে যেন গতি ও ব্যাটারি লাইফ উভয়ই বাড়ে ডিভাইসগুলোর।

অন্যদিকে ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত ডেটার নিরাপত্তা ও ব্যবহার ইসুতে আরও শক্ত অবস্থান নিয়েছে অ্যাপল। অ্যাপল বিজ্ঞাপনের জন্য ব্যবহারকারীদের ডেটা সংগ্রহ করে বিক্রি করে না বলে ডব্লিউডব্লিউডিসিতে দেওয়া নিজের বক্তব্যে উপস্থিতদের মনে করিয়ে দেন অ্যাপল প্রধান টিম কুক।

40
রচারণার খাতিরে হলিউডি ব্লকবাস্টার সিনেমা অ্যাভেঞ্জার্স নির্মাতাদের সঙ্গে জোট বেঁধে মে মাসে গ্যালাক্সি এস৬ এজের আয়রন ম্যান এডিশন বাজারজাত করেছিল স্যামসাং। সেই আয়রন ম্যান এডিশনের একটি গ্যালাক্সি এস৬ এজ চীনের বাজারে নিলামে বিক্রি হয়েছে ৯১ হাজার ডলার দামে।

গ্যালাক্সি এস৬ এজের আয়রন ম্যান এডিশন বাজারজাত করা হয়েছিল সীমিত সংখ্যায়। প্রতিটি স্মার্টফোনের মূল ছিল ১,০৭৯ ডলার। আর চীনের বাজারে সেই হাজার ডলারের স্মার্টফোনই বিক্রি হয়েছে ৯০ গুণ বেশি দামে।

প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট ম্যাশএবল এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, গ্যালাক্সি এস৬ এজ আয়রন ম্যান এডিশনের প্রতিটি স্মার্টফোনেরই ছিল আলাদা সিরিয়াল নম্বর। চীনে নিলামে বিক্রি হওয়া স্মার্টফোনটির সিরিয়াল নম্বর ছিল ৬৬। চীনে ৬ সংখ্যাটি সৌভাগ্যের প্রতীক হিসেবে বিবেচনা করা হয়। সেখানে ৬৬ সংখ্যাটিকে বিবেচনা করা হচ্ছে ‘ডাবল লাকি’ হিসেবে।

অন্যদিকে গ্যালাক্সি এস৬ এজ আয়রন ম্যান এডিশনের কেসিংয়ে লাল আর সোনালি রঙের উপস্থিতিই বেশি। চীনে এই দুটি রঙকে বিলাসের প্রতীক হিসেবে বিবেচনা করা হয়। কেসিংয়ের রং আর ডিজাইন, সিরিয়াল নম্বর আর দুস্প্রাপ্যতা-- এই সব মিলিয়েই নিলামে ৯০ গুণ বেশি দাম উঠেছিল স্মার্টফোনটির।

41

আইফোন আর অন্যান্য স্মার্টফোনের সঙ্গে বাজারে পাল্লা দিতে বেশ বেগ পেতে হচ্ছে ব্ল্যাকবেরিকে। এবার ঘুরে দাঁড়ানোর লক্ষ্যে কিবোর্ডসহ অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন আনছে কানাডিয়ান প্রতিষ্ঠানটি।
 

চলতি বছর মার্চে স্পেনের বার্সালোনায় অনুষ্ঠিত মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে প্রথম এমন ডিভাইসের কথা জানায় ব্ল্যাকবেরি। রয়টার্সের বরাত দিয়ে বিলেতি দৈনিক গার্ডিয়ান জানিয়েছে, হ্যান্ডসেট বিক্রি বাড়ানো নয়, বরং সফটওয়্যার আর ডিভাইস ব্যবস্থাপনায় মনোযোগ বাড়াতেই এমন পদক্ষেপ নিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

২০১৩ সালে ব্ল্যাকবেরি ১০ অপারেটিং সিস্টেম চালিত ডিভাইস নিয়ে বাজারে খুব একটা ভালো অবস্থান রাখতে পারে নি ব্ল্যাকবেরি। এ বিষয়ে এক বিবৃতিতে প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে বলা হয়, “আমরা গুজব আর কোনো ভাবনা নিয়ে মন্তব্য করি না, কিন্তু আমরা ব্ল্যাকবেরি ১০ অপারেটিং সিস্টেম নিয়ে অঙ্গীকারবদ্ধ আছি।”

42

ঈদ-উল-ফিতরকে সামনে রেখে গ্রাহকদের জন্য নতুন অফার এনেছে স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশ। এই অফারে নির্দিষ্ট মডেলের স্যামসাং স্মার্টফোন কিনলে নিশ্চিত ১ হাজার টাকা ক্যাশব্যাকের সঙ্গে গ্রাহকরা পেতে পারেন ৩২ ইঞ্চি এলইডি টিভি।

স্যামসাংয়ের পক্ষ থেকে এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, স্যামসাং জেড১, গ্যালাক্সি গ্র্যান্ড প্রাইম, গ্যালাক্সি এইস নেক্সট আর গ্যালাক্সি এস ডুয়োস- এই স্মার্টফোনগুলো মাসব্যাপী এই অফারের আওতায় থাকবে। এই হ্যান্ডসেটগুলো কেনার সময় গ্রাহকরা পাবেন নিশ্চিত ১ হাজার টাকা ক্যাশব্যাক আর একটি সিরিয়াল নাম্বার। ওই সিরিয়াল নাম্বার ৬৯৬৯ নাম্বারে এসএমএস করলে ফিরতি এসএমএসে গ্রাহককে জানিয়ে দেওয়া হবে তিনি টিভি জিতেছেন কিনা।

প্রতিদিন তিনজন ভাগ্যবান পাবেন টিভি জেতার সুযোগ। বাংলাদেশের সব গ্রাহকের জন্য এই অফার প্রযোজ্য।

অফার সম্পর্কে স্যামসাং বাংলাদেশ এর হেড অফ মোবাইল হাসান মেহদী বলেন, "আমরা সবসময়ই আমাদের গ্রাহকদের নতুন কিছু নিয়ে আসার চেষ্টা করি।"

এই স্মার্টফোনগুলো দেশের সব কয়টি স্যামসাং স্টোরে পাওয়া যাবে। স্যামসাং জেড১-এর দাম ৬ হাজার ৯শ' টাকা, গ্যালাক্সি এইস নেক্সটের দাম ৭ হাজার ৯শ' ৯০ টাকা, গ্যালাক্সি এস ডুয়োস ৩-এর দাম ৯ হাজার ৯শ' ৯০ টাকা আর গ্যালাক্সি গ্র্যান্ড প্রাইমের দাম ১৯ হাজার ৯শ' টাকা

Pages: 1 2 [3] 4 5 ... 17