Show Posts

This section allows you to view all posts made by this member. Note that you can only see posts made in areas you currently have access to.


Messages - sisyphus

Pages: 1 ... 24 25 [26] 27 28
376
২০১৫ সালের তৃতীয় প্রান্তিকে বিশ্বব্যাপী মোবাইল ফোন সরবরাহের পরিমাণ প্রায় ৪৭.৮ কোটি ইউনিটে পৌঁছেছে। আর শীর্ষ দশ হ্যান্ডসেট বিক্রয়কারী প্রতিষ্ঠানের তালিকায় আছে ভারতীয় মোবাইল ব্র্যান্ড মাইক্রোম্যাক্স। সম্প্রতি গবেষণা প্রতিষ্ঠার গার্টনার এক প্রতিবেদনে এ কথা জানিয়েছে।

২০১৫ সালের তৃতীয় প্রান্তিকে বিশ্বব্যাপী মোবাইল ফোন সরবরাহের পরিমাণ প্রায় ৪৭.৮ কোটি ইউনিটে পৌঁছেছে। আর শীর্ষ দশ হ্যান্ডসেট বিক্রয়কারী প্রতিষ্ঠানের তালিকায় আছে ভারতীয় মোবাইল ব্র্যান্ড মাইক্রোম্যাক্স। সম্প্রতি গবেষণা প্রতিষ্ঠার গার্টনার এক প্রতিবেদনে এ কথা জানিয়েছে।

গার্টনার প্রতিবেদনে জানায়, "২০১৫ সালের তৃতীয় প্রান্তিকেই বিশ্বব্যাপী মোবাইল বাজারজাতকরণ সর্বমোট ৪৭.৮ কোটি ইউনিটে উন্নীত হয়েছে। মোবাইল বাজারের এই উর্ধ্বগতি স্থানীয় ব্র্যান্ডেরও বিক্রি বাড়িয়ে দিয়েছে। যার ফলে মাইক্রোম্যাক্সও বিশ্বের শীর্ষ দশ মোবাইল বিক্রেতা প্রতিষ্ঠানের তালিকায় উঠে এসেছে।"  গবেষণা প্রতিষ্ঠানটি জানায়, ২০১৪ সালের তৃতীয় প্রান্তিকের মতোই এবারও বিক্রিত পরিমাণ ৩.৭ শতাংশ বেড়ে গিয়েছে। এর আগের বছর মাইক্রোম্যাক্সের বাজারে উর্ধ্বগতি ছিল ৫.৬ মিলিয়ন ইউনিট। যেখানে এ বছর তার পরিমাণ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১২.১৬ মিলিয়ন। প্রতি বছর উর্ধ্বগতি ৯ শতাংশ বাড়িয়ে বিশ্ব বাজারে আধিপত্য বিস্তারকারী স্যামসাং ১০২ মিলিয়ন ইউনিটে পৌঁছেছে। আর অ্যাপলের এ বছর উর্ধ্বগতি ২০.৬ শতাংশ বেড়ে ডিভাইস বিক্রি ৪৬ মিলিয়নে দাঁড়িয়েছে।

২০১৪ সালের তুলনায় মাইক্রোসফট ডিভাইসের বিক্রয় ৩০ শতাংশ পতন সত্ত্বেও ৩০.২৯ মিলিয়ন ডিভাইস বিক্রি করে মাইক্রোসফট মোবাইল ফোন বাজারে তৃতীয় অবস্থানে আছে। ২০১৪ সালের থেকে ২০১৫ সালে বিশ্বব্যাপী মোবাইল ফোনের বিক্রি ১৫.৫ শতাংশ বেড়েছে। গার্টনারের গবেষণা বিষয়ক পরিচালক আনশুল গুপ্ত বলেন, "স্মার্টফোনের সহজলভ্যতার কারণে ব্যবহারকারীরা এখন খুব দ্রুতই স্মার্টফোন কিনছে যা মোবাইল অর্থবাজারের উর্ধ্বগতির কারণ।" বাজারে স্মার্টফোন বিক্রির পরিমাণ ২০১৪ সালের তুলনায় এ বছর ১৮.৪ শতাংশ বেড়ে ২৫৯.৭ মিলিয়নে দাঁড়িয়েছে। গুপ্ত বলেন, একই সময়ে বাজারে বিক্রির পরিমাণ ৮.২ শতাংশ বেড়েছে।’ যেখানে স্যামসাং এবং অ্যাপল বিশ্বব্যাপী যথাক্রমে ৮৩.৫৮ ও ৪৬ মিলিয়ন ইউনিট বিক্রি করেছে সেখানে হুয়াওয়ে ৭১ শতাংশ উর্ধ্বগতি বাজারে ইউনিট বিক্রির উর্ধ্বগতির তালিকায় তৃতীয় অবস্থানে আছে। চীনা প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে স্মার্টফোন বিক্রিতে গত বছরের ১৫.৯৩ মিলিয়ন ভেঙ্গে ২০১৫ সালে রেকর্ড সর্বোচ্চ ২৭.২৬ মিলিয়ন ইউনিট বিক্রি করেছে।

সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া

377
 আগামী বছরের মে মাস থেকে হ্যান্ডসেটের আইএমইআই নম্বর (ইন্টারন্যাশনাল মোবাইল ইকুইপমেন্ট আইডইন্টিটি) নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু করবে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

 আগামী বছরের মে মাস থেকে হ্যান্ডসেটের আইএমইআই নম্বর (ইন্টারন্যাশনাল মোবাইল ইকুইপমেন্ট আইডইন্টিটি) নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু করবে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

মোবাইল সিমের নম্বর নিবন্ধনের শেষে প্রতিটি মোবাইল সেটের স্বতন্ত্র নম্বরও নিবন্ধনের ব্যবস্থা নিতে যাচ্ছে সরকার। আগামী বছরের এপ্রিলের পরপরই মোবাইল সেটের আইএমইআই নম্বর (ইন্টারন্যাশনাল মোবাইল ইকুইপমেন্ট আইডইন্টিটি) রেজিস্ট্রেশনের কাজ শুরু হবে বলে জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম।
তিনি বলেন, মানুষের নিরাপত্তা ও স্বস্তির বিষয়টি নিশ্চিত করতে সিম রেজিস্ট্রেশন ও সেটের আইএমইআই নম্বর রেজিস্ট্রশন জরুরি। সিম রেজিস্ট্রেশনের কাজটি একটি ভালো অবস্থায় আনা গেছে। এপ্রিলে সিম রেজিস্ট্রেশনের কাজ শেষ হবে। এরপর সেটের আইএমইআই নম্বর রেজিস্ট্রেশনের কাজ শুরু হবে। তা না হলে নিরাপত্তার দিকটি অসম্পূর্ণ থেকে যাবে।

গত ১৫ নভেম্বর থেকে চালু হওয়া পরীক্ষামূলক বায়োমেট্রিক (আঙ্গুলের ছাপ) পদ্ধতিতে মোবাইল সিম নিবন্ধনের কাজ শুরু করেছে মোবাইল অপারেটররা। আগামী ১৬ ডিসেম্বর থেকে শুরু হবে আনুষ্ঠানিক সিম নিবন্ধনের কার্যক্রম। চলবে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত। এরপর শুরু হবে হ্যান্ডসেট নিবন্ধনের কার্যক্রম।


তথ্যসূত্রঃ http://tech.priyo.com/news/2015/11/21/30070-%E0%A6%B8%E0%A6%BF%E0%A6%AE%E0%A7%87%E0%A6%B0-%E0%A6%AA%E0%A6%B0-%E0%A6%B9%E0%A7%8D%E0%A6%AF%E0%A6%BE%E0%A6%A8%E0%A7%8D%E0%A6%A1%E0%A6%B8%E0%A7%87%E0%A6%9F%E0%A6%93-%E0%A6%A8%E0%A6%BF%E0%A6%AC%E0%A6%A8%E0%A7%8D%E0%A6%A7%E0%A6%A8-%E0%A6%95%E0%A6%B0%E0%A6%A4%E0%A7%87-%E0%A6%B9%E0%A6%AC%E0%A7%87#sthash.kmKefUdu.dpuf

378
পুরাতন এল্যার্ম ঘড়িটা খুঁজে বের করতে হবে দেখছি  ::)

379
হালের স্মার্টফোনের বাজার দর জানতে চান? দেশের রাজনৈতিক অবস্থাই বা কী? অথবা ব্যস্ততাহীন সময়ে ওয়েব ব্রাউজিং করে মন্দ হয় না ভাবছেন? গুগল বা বিং সার্চ ইঞ্জিনের দ্বারস্থ হওয়ার আগে একটা ‘ঢু মেরে’ আসতে পারেন চরকি ডটকম-এ।

প্রশ্ন আসতেই পারে কী এই চরকি ডটকম? এক কথায় বলা চলে বাংলাদেশি ডেভেলপারদের তৈরি বাংলাদেশভিত্তিক সার্চ ইঞ্জিন চরকি।

গুগল, বিং বা ইয়াহুর মতো বহুল ব্যবহৃত সার্চ ইঞ্জিনগুলোর কাজ করে বিশ্ব বাজার নিয়ে। ঠিক বাজারও নয়, বিশ্বের যাবতীয় বিষয় নিয়ে (বাজার তারই একটি অংশমাত্র)। আর চরকির মাথা যেন ‘চক্কর খাচ্ছে’ বাংলাদেশ নিয়েই। আরো পিনপয়েন্ট করে বললে দেশি পণ্য নিয়ে। বাংলাদেশের পণ্য আর কনটেন্ট-এর ব্যবহারকারীরা বাংলাদেশের বাজারে যা খোঁজেন এমন জিনিসের পাত্তা লাগানোই নতুন এই সার্চ ইঞ্জিন চরকির কাজ। “চরকি বিশ্ববাজারকে চিন্তা করে ডেভেলপ করা হয়নি। চরকি ডেভেলপ করা হয়েছে বাংলাদেশকে মাথায় রেখে।”—চরকি ডটকমের পেছনের মূল ভাবনা এভাবেই ব্যাখ্যা করলেন প্রতিষ্ঠানটির সিওও রাশেদ মোসলেম। স্থানীয় বাজারে চাহিদা, আচরণ, প্রয়োজন এসব হিসাব করেই চরকি কাজ করে বলে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানালেন তিনি। চরকির যাত্রা শুরু হয়েছে চলতি বছরের মার্চ মাস থেকে। শুরুতে ই-কমার্স প্লাটফর্ম বানাতে চেয়েছিলেন এর নির্মাতারা। আর ওই ই-কমার্স প্লাটফর্মের সাহায্যকারী টুল হিসেবে দরকার ছিল একটা সার্চ ইঞ্জিনের। শেষ অব্দি পরিকল্পনায় কিছু পরিবর্তন আর তারই ফলাফল পুরোদস্তুর সার্চ ইঞ্জিন চরকি।



সার্চ ইঞ্জিন হিসেবে চরকির সবচেয়ে বড় বৈশিষ্ট্য বলা যেতে পারে এর ‘ক্যাটেগরি সার্চ’ সুবিধা। চরকিতে আপাতত, ওয়েব, প্রোডাক্ট আর নিউজ এই তিন শ্রেণিতে সার্চ করতে পারবেন ব্যবহারকারী। ওয়েব ক্যাটেগরিতে সার্চ করলে দেশের বিভিন্ন ওয়েবসাইটের কনটেন্ট মিলবে। নিউজ ক্যাটেগরিতে মিলবে বিভিন্ন অনলাইন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনের লিংক। আর প্রোডাক্ট ক্যাটেগরিতে মিলবে বিভিন্ন পণ্যের সন্ধান। প্রোডাক্ট ক্যাটেগরির বেলায় চরকি আলাদা গুরুত্ব দিচ্ছে বলে মনে হল রাশেদের কথায়। বাংলাদেশের প্রায় ১৭৫টি ই-কমার্স সাইটের পণ্য চরকিতে সার্চএবল বলে দাবি করলেন তিনি। “আমাদের লক্ষ্যটা খুব সহজ আসলে। বাংলাদেশের বাজারে যত পণ্য থাকবে তার সবগুলোই যেন চরকিতে সার্চএবল হয় সেটাই আমাদের ‘আলটিমেট গোল’।”

অন্যদিকে নিউজডট চরকি ডটকম-এ মেলে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের শীর্ষ খবরগুলো। পাঠক যেন একই খবর নিয়ে বিভিন্ন মাধ্যমের শীর্ষ প্রতিবেদন এক সঙ্গে দেখতে পান সেটাই করার চেষ্টা করা হয়েছে নিউজডট চরকি ডটকমে। আর বিভিন্ন সাইটের প্রতিবেদর আপলোড বা আপডেট হওয়ার ১০ থেকে ১৫ মিনিটের মধ্যে আপডেট চরকিতেও চলে আসে বলে জানালেন রাশেদ। ব্যবহারকারীদের আগ্রহের কারণে খুব শিগগিরই চরকিতে ‘ফুড অ্যান্ড রেস্টুরেন্ট ক্যাটেগরি যোগ হচ্ছে বলে জানালেন রাশেদ। এতে বিভিন্ন রেস্টুরেন্টের তথ্য যেমন মিলবে, তেমনি খাবারের নাম বা ধরন লিখে সার্চ করেও প্রয়োজনীয় তথ্য মিলবে, থাকবে রেস্টুরেন্ট রিভিউ-ও।

সবমিলিয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে সংশ্লিস্ট যে কোনো কনটেন্ট বা তথ্যের জন্য সেরা সার্চ ইঞ্জিন হতে চাইছে চরকি। প্রতিষ্ঠানটির কর্মী সংখ্যা ১৯। এর অর্থায়নে আছে, ভিসি মাইন্ড ইনিশিয়েটিভ কোম্পানি। সাইটটির বেটা সংস্করণ চলছে এখন। “এর অ্যালগরিদম এমনভাবে ডিজাইন করা হয়েছে যে প্রতি সার্চ-এর সঙ্গেই ক্রমাগত আপডেট করে নেয় এর তথ্যভাণ্ডার।”- বললেন রাশেদ। আপাতত ছোট পরিসরে কাজ করলেও একটি দেশের যাবতীয় পণ্যের তথ্য যোগান দেওয়ার স্বপ্নকে সম্ভবত ছোট করে দেখার উপায় নেই।

তথ্যসূত্রঃ বিডিনিউজ২৪

380
সম্প্রতি এক প্রতিবেদনে উঠে এসেছে, শিশুদের মধ্যে প্রায় প্রতি দশজনের একজন বিশ্বাস করে সামজিক মাধ্যমের ওয়েবসাইট ও অ্যাপগুলোতে যে তথ্য পরিবেশন করা হয়, সেগুলো সবই সত্যি।

এক প্রতিবেদনে সংবাদমাধ্যম স্কাইনিউজ জানিয়েছে, শিশু ও অভিভাবকরা মিডিয়ার ব্যাপারে কী ধারণা পোষণ করেন, সে বিষয়ক এক প্রতিবেদনে তথ্যটি উঠে এসেছে। প্রতিবেদনটি সাজানোর দায়িত্ব পালন করেছে যোগাযোগ ওয়াচডগ অফকম প্রতিবেদনের তথ্য থেকে জানা গেছে, বর্তমানে শিশুরা অনলাইনে প্রতি সপ্তাহে গড়ে ১৫ ঘন্টা সময় ব্যয় করে থাকে। এ ছাড়াও বিগত দশকে আট থেকে ১৫ বছর বয়সী শিশুরা অনলাইনে যে সময় ব্যয় করত তা বর্তমানে দ্বিগুণ হয়েছে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, ১২ থেকে ১৫ বছর বয়সী ২০ শতাংশ শিশু বিশ্বাস করে সার্চ ইঞ্জিনে যে তথ্য দেওয়া হয় তা সত্যি। শুধু এক-তৃতীয়াংশ শিশু পেইড-ফর অ্যাডভার্টাইজিং চিহ্নিত করতে পেরেছে। ভিডিও ব্লগার বা ভ্লগাররা যে অর্থের বিনিময়ে ইউটিউবে কোনো পণ্য বা সেবার প্রচারণা চালাতে পারেন, সে বিষয়টি অধিকাংশ কিশোর বয়সীদেরই অজানা বলেই প্রতিবেদনে জানিয়েছে অফকম। ১২ থেকে ১৫ বছর বয়সীদের মধ্যে অবশ্য ৫২ শতাংশ জানেন যে ইউটিউবের অর্থ আয়ের মূল উৎস হচ্ছে বিজ্ঞাপন।

এ ছাড়াও আট শতাংশ শিশু জানিয়েছে, তারা ইউটিউবকে ‘সত্য এবং নির্ভুল’ সূত্র হিসেবে বিবেচনা করেন। ৩১ শতাংশ শিশু জানিয়েছে— তারা অনেকসময় ইন্টারনেটে অতিরিক্ত সময় ব্যয় করে থাকে, বিশেষ করে সামাজিক মাধ্যমে। আর প্রায় ১০ শতাংশ জানিয়েছেন, ইন্টারনেটে অতিরিক্ত সময় ব্যয় করাটা তারা পছন্দ করেন না। এ প্রসঙ্গে বিবিসি করেছে, ওয়েব অভিজ্ঞতার দিক থেকে আগের প্রজন্মের চেয়ে বর্তমান প্রজন্ম এগিয়ে থাকলেও, বাস্তব বুদ্ধির দিক থেকে এই প্রজন্ম অনেকটাই পিছিয়ে রয়েছে।

তথ্যসূত্রঃ বিডিনিউজ২৪

381
নিয়মিত ব্যায়াম না করতে পারলে খেলাধুলা করাটাও বেশ কাজে দেয় মস্তিষ্ক সচল রাখার জন্য। ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে বলছি

382
Faculty Forum / Re: বদ অভ্যাসের ভালো গুণ!
« on: November 23, 2015, 10:50:41 AM »
ইন্টারেস্টিং! এভাবে ভাবিনাই আগে কোনোদিন

383
Be a Leader / Re: 10 ways to be happy
« on: November 23, 2015, 10:48:24 AM »
চমৎকার কার্যকরী সব টিপস! প্রতিটি পয়েন্টে শতভাগ সহমত

384
স্কিনপ্যাক ব্যবহারে আমার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা তেমন সুখকর না। পুরো সিস্টেম আনস্ট্যাবল হয়ে যায়  :(

385
এই সমস্যার সবচেয়ে সহজ সমাধান ব্রাউজারে ফ্ল্যাসব্লক এডওন/এক্সটেনশন ব্যবহার করা।

386
Use of PC / Re: Computer Refresh করুন হাত ছাড়া
« on: November 23, 2015, 10:42:53 AM »
উবুন্তু লিনাক্স ব্যবহারকারীদের কি হবে?  :o আমাদের তো রিফ্রেস বাটনই নাই  :P

387
কার্যকর টিপস। অসংখ্য ধন্যবাদ শেয়ার করার জন্য

388
রিমোট সাটডাউনের ব্যাপারটা জানতাম। আশা করছি এই টিপ্সটার কেউ অপব্যবহার করবেন না  :-\

389
বাংলাদেশের পুলিশ জানাচ্ছে, দেশটিতে সাইবার অপরাধীদের তৎপরতা গত এক বছরে দ্বিগুণ হয়েছে। অনেক ক্ষেত্রেই এসব অপরাধীদের দক্ষতার সঙ্গে কুলিয়ে উঠতে পুলিশকে গলদঘর্ম হতে হয়েছে। ঢাকা মহানগর পুলিশের উদ্যোগে আয়োজিত 'সাইবার ক্রাইম এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের প্রয়োগ' শীর্ষক এক কর্মশালায় বলা হয়, অনেক সময় সাইবার অপরাধের শিকার ব্যক্তিরা অভিযোগ না করায়, প্রতিকারমূলক ব্যবস্থা নিতে পারে না আইন প্রয়োগকারী সংস্থাটি। তবে পুলিশ বলছে তারা এক্ষেত্রে দ্রুত সক্ষমতা অর্জনের চেষ্টা চালাচ্ছে। কিন্তু বাংলাদেশ পুলিশের প্রশিক্ষণ এবং প্রযুক্তিগত সক্ষমতা কি সাইবার অপরাধ দমনে যথেষ্ট?

তথ্যসূত্রঃ বিবিসি (বাংলা)

390
বৃটেনে সাইবার ক্রাইম প্রতিরোধে দ্রুত এবং আরো কঠোর ব্যবস্থা নিতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বৃটিশ ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ। বৃটিশ ব্যবসার জন্য সাইবার ক্রাইম দিনের পর দিন বড় ধরনের হুমকি হয়ে উঠছে বলেও উল্লেখ করেন তারা। দ্যা ইনস্টিটিউট অব ডাইরেক্টরস নামে একটি কোম্পানী সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেছে, মাঝে মধ্যে সিরিয়াস কিছু ক্রাইম সংবাদ মাধ্যমের হেড লাইন হলেও বৃটেনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান হরহামেশাই সাইবার ক্রাইমের শিকার হয়। তাই সাইবার ক্রাইম প্রতিরোধে দ্রুত এবং কার্যকরী পদক্ষেপ নিতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। যদিও সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, সাইবার ক্রাইম প্রতিরোধে সরকার বদ্ধ পরিকর। উল্লেখ্য গুগল এবং ম্যাকফির মতে বিশ্বে প্রতিদিন প্রায় ২ হাজারের বেশি সাইবার আক্রমনের ঘটনা ঘটে। আর সাইবার আক্রমনের কারণে বিশ্ব অর্থনীতির প্রায় ৩শ বিলিয়ন পাউন্ড ব্যয় হয় প্রতি বছর।
সাইবার ক্রাইমের শিকার বৃটিশ কোম্পানী টক টকের কাছে মুক্তিপন চাওয়ার পর এ বিষয়টি নিয়ে সোচ্ছার হয়েছেন ব্যবসায়ীরা। টক টকের কাছে মুক্তিপন দাবীর পেছনে জড়িতদের ব্যাপারে তদন্ত চালিয়েছে পুলিশ। টেলিফোন এবং ইন্টারনেট সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান টকটক ওয়েব সাইটে গত বৃহস্পতিবার সাইবার আক্রমণের শিকার হয়েছে। এ আক্রমনের মাধ্যমে টক টকের প্রায় ৪ মিলিয়নের বেশি কাস্টমারের পার্সনাল এবং ব্যাংক একাউন্টে প্রবেশের সুযোগ পেতে পারে হ্যাকাররা। যদিও টকটক এখনো নিশ্চিত করতে পারেনি সর্বমোট কতজন কাস্টমারের তথ্য হ্যাক হয়েছে। হ্যাকিংয়ের কারণে কাস্টমাররা তাদের ব্যাংক একাউন্টে সন্দেহজনক লেনদেন পরিলক্ষিত করতে পারেন। তবে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত সাইবার ক্রাইমের কারনে টক টকের কোনো কাস্টমার প্রতারণার শিকার হয়েছেন বলে খবর পাওয়া যায়নি। যদিও সাইবার আক্রমনের পর টকটকের রেসপন্স নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন বিপুল সংখ্যক কাস্টমার। তবে হ্যাকাররা কিছু কিছু কাস্টমারের নাম ঠিকানা, জন্ম তারিখ, ইমেইল এড্রেস, টেলিফোন নাম্বার, টক টক একাউন্টের যাবতীয় তথ্য এবং ক্রেডিট কার্ড ও ব্যাংকের সব তথ্য পেয়ে যেতে পারে বলেও আশঙ্কা করছে টকটক। এক্ষেত্রে টকটকের পক্ষ থেকে কাস্টমারদের কিছু সতর্কতা অবলম্বনের আহ্বান জানানো হয়েছে। ব্যাংক একাউন্টে সন্দেহজনক কোনো গড় মিল দেখলে সঙ্গে সঙ্গে ০৩০০১২৩২০৪০ নাম্বারে ইউকের ন্যাশনাল ফ্রড অথবা ইন্টারনেট ক্রাইম রিপোর্টিংয়ে সেন্টার এ্যাকশন ফ্রডে রিপোর্ট করতে অনুরোধ জানানো হয়েছে। টকটক একাউন্টের পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করতে কাস্টমারদের পরামর্শ দিয়েছে টকটক। এছাড়াও ব্যাংকের তথ্য চেয়ে যদি কেউ টেলিফোন বা কল করে তবে সে ব্যাপারে সতর্ক থাকতে এবং কম্পিউটারে কোনো সফটওয়ার ডাউনলোড না করতে বা ব্যাংকের কোনো তথ্য সরবরাহ না করতেও কাস্টমারদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে টকটক।
উল্লেখ্য টেলিফোন এবং ব্রডব্যান্ড প্রোভাইডার কোম্পানি টকটক এ নিয়ে তৃতীয়বারের মতো হ্যাকারদের টার্গেটে পড়েছে। এর আগে গত আগষ্টে টকটক মোবাইল সেইলস সাইটকে লক্ষ্য করেছিল হ্যাকাররা। তারো আগে গত ফেব্রুয়ারীতে সন্দেহভাজন একটি স্ক্যামার সম্পর্কে সতর্ক করে করা হয়েছিল টকটক কাস্টমারদের।

তথ্যসূত্রঃ http://www.banglarmookh.com/%E0%A6%AC%E0%A7%83%E0%A6%9F%E0%A7%87%E0%A6%A8%E0%A7%87-%E0%A6%B8%E0%A6%BE%E0%A6%87%E0%A6%AC%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%95%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%BE%E0%A6%87%E0%A6%AE-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B0/

Pages: 1 ... 24 25 [26] 27 28