Hartal

Author Topic: Hartal  (Read 3280 times)

Offline tamim_saif

  • Sr. Member
  • ****
  • Posts: 357
  • Test
    • View Profile
HIV Treatment Reduces Risk of Malaria Recurrence in Children
« on: November 29, 2012, 12:14:00 PM »
ScienceDaily (Nov. 28, 2012) —

A combination of anti-HIV drugs has been found to also reduce the risk of recurrent malaria by nearly half among HIV-positive children, according to researchers supported by the National Institutes of Health.

Offline tamim_saif

  • Sr. Member
  • ****
  • Posts: 357
  • Test
    • View Profile
Mathematics Used to Identify Contamination in Water Distribution Networks
« Reply #1 on: November 29, 2012, 12:32:36 PM »
ScienceDaily (Nov. 2012)

None of us want to experience events like the Camelford water pollution incident in Cornwall, England, in the late eighties, or more recently, the Crestwood, Illinois, water contamination episode in 2009 where accidental pollution of drinking water led to heart-wrenching consequences to consumers, including brain damage, high cancer risk, and even death. In the case of such catastrophes, it is important to have a method to identify and curtail contaminations immediately to minimize impact on the public. A paper published earlier this month in the SIAM Journal on Applied Mathematics considers the identification of contaminants in a water distribution network as an optimal control problem within a networked system.

Offline tamim_saif

  • Sr. Member
  • ****
  • Posts: 357
  • Test
    • View Profile
(Credit: Image courtesy of Polytechnic Institute of New York University)

ScienceDaily (Nov. 2012) — New research is illuminating the emerging field of ethorobotics -- the study of bioinspired robots interacting with animal counterparts. They studied how real-time feedback attracted or repelled live zebrafish. The fish were more attracted to robots with tail motions that mimicked the live fish. The researchers hope that robots eventually may steer live animal or marine groups from danger.

Offline Badshah Mamun

  • Global Moderator
  • Hero Member
  • *****
  • Posts: 1824
    • View Profile
    • Daffodil International University
শিশুর নাম কি হবে? জন্মগ্রহণের পরপরই শিশুর নাম রাখা নিয়ে শুরু হয় তোড়জোড়। শিশুর নাম রাখার ক্ষেত্রে অনেকেই এখন পছন্দের প্রযুক্তি পণ্য, প্রযুক্তি শব্দকেই বেছে নিচ্ছেন। সম্প্রতি টেলিগ্রাফ অনলাইন শিশুর নাম হিসেবে ব্যবহূত সেরা দশটি প্রযুক্তি সংশ্লিষ্ট শব্দের তালিকা প্রকাশ করেছে।
শিশুর নামের এ তালিকায় প্রথমে স্থান পেয়েছে ‘অ্যাপল’ শব্দটি। প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হিসেবেই অ্যাপলের পরিচিতি। তবে গায়িকা ও অভিনেত্রী গিনেথ প্যালট্রো তাঁর মেয়ের নাম রেখেছেন ‘অ্যাপল’। অ্যাপলের তৈরি প্রিয় এমপিথ্রি প্লেয়ারের নাম থেকেই প্যালট্রো তাঁর মেয়ের নাম রেখেছেন অ্যাপল।
সেরা নামের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ‘আর্চি’। আর্চি মূলত সার্চ ইঞ্জিনের নাম। কম্পিউটার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হিসেবে ‘ডেল’ সুপরিচিত। তবে এ ডেল নামটিই এখন অনেক শিশুর নামের ক্ষেত্রেই ব্যবহূত হচ্ছে। সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইট ‘ফেসবুক’। তবে ফেসবুক এখন আর কেবল সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইটই নয়; আরব বসন্তের পর মিশরের জামাল ইব্রাহিম তাঁর সন্তানের নাম রেখেছেন ‘ফেসবুক’। একই ভাবে ফেসবুক সংশ্লিষ্ট শব্দ ‘লাইক’ এখন অনেক শিশুর নাম হয়ে উঠেছে। ইসরায়েলের এক দম্পতি তাঁদের মেয়ের নাম রেখেছেন লাইক। যুক্তরাজ্যের প্রযুক্তি সংশ্লিষ্ট শব্দ হিসেবে শিশুর নামের তালিকায় আরও স্থান পেয়েছে ‘লিংক’, ‘লারা’, ‘পিক্সেল’, ‘মারিও’ ও ‘হাল’।
এদিকে প্রযুক্তি বিষয়ক ওয়েবসাইট পিসি ম্যাগ জানিয়েছে, ‘পার্ল’, ‘ম্যাক’, ‘রুবি’, ‘লিনাস’, ‘আডা’, ‘এলিস’, ‘জেসন’, ‘পেজ’, ‘পাসকল’ ও ‘পিসি’ নামটিও জনপ্রিয় নাম হতে পারে। নামের ক্ষেত্রে সম্প্রতি জনপ্রিয় আরও একটি প্রযুক্তি শব্দ হচ্ছে- ‘হ্যাসট্যাগ’।


Source: http://prothom-alo.com/detail/date/2012-11-29/news/309372
Md. Abdullah-Al-Mamun (Badshah)
Assistant Director, Daffodil International University
01811-458850
badshah@daffodilvarsity.edu.bd
www.daffodilvarsity.edu.bd

www.fb.com/badshahmamun.ju
www.linkedin.com/in/badshahmamun
www.twitter.com/badshahmamun

Offline shurid_1100

  • Newbie
  • *
  • Posts: 18
    • View Profile
Apni ki janen ?????
« Reply #4 on: November 30, 2012, 01:24:02 AM »
কিছু বড় বড় ওয়েবসাইটের মালিকের নাম, না জানলে জেনে নিন...

● Google - এর প্রতিষ্ঠাতা: Sergey Brin, Larry Page

● Facebook - এর প্রতিষ্ঠাতা: Mark Zuckerberg, Dustin Moskovitz, Chris Hughes, Eduardo Saverin

● Wikipedia - এর প্রতিষ্ঠাতা: Jimmy Wales, Larry Sanger

● Youtube - এর প্রতিষ্ঠাতা: Steve Chen, Chad Hurley, Jawed Karim

● Twitter - এর প্রতিষ্ঠাতা: Evan Williams, Biz Stone, Jack Dorsey

● eBay - এর প্রতিষ্ঠাতা: Pierre Omidyar

● Orkut - এর প্রতিষ্ঠাতা: Orkut Buyukkokten

● MySpace - এর প্রতিষ্ঠাতা: Tom Anderson, Chris DeWolfe

● Friendster - এর প্রতিষ্ঠাতা: Jonathan Abrams

● Yahoo - এর প্রতিষ্ঠাতা: David Filo, Jerry Yang

● Hotmail - এর প্রতিষ্ঠাতা: Sabeer Bhatia

● Wikileaks - এর প্রতিষ্ঠাতা: Julian Assange

Offline Md. Khairul Bashar

  • Full Member
  • ***
  • Posts: 203
  • Test
    • View Profile
Re: Apni ki janen ?????
« Reply #5 on: December 01, 2012, 09:43:45 AM »
nice post. i think some posts like this one make us curious to know something new. thanks for sharing .........

Offline Md. Khairul Bashar

  • Full Member
  • ***
  • Posts: 203
  • Test
    • View Profile
Dangerous picture in the packet of cigarette
« Reply #6 on: December 01, 2012, 03:47:04 PM »
ধূমপান বন্ধের অভিযানে আরো এক ধাপ এগোলো অস্ট্রেলিয়া। এখন থেকে দেশটির কোনো সিগারেট প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান তাদের মোড়কে প্রতিষ্ঠানের নাম, লোগো এমনকি কোনো রঙও ব্যবহার করতে পারবে না। বরং জলপাই রঙের প্যাকেটটিকে হতে হবে ভয়ংকর। ধূমপানের ফলে ক্ষতিগ্রস্ত প্রত্যঙ্গের ছবি থাকতে হবে মোড়কে। সেই সঙ্গে থাকবে বড়দের ধূমপানের ফলে অসুস্থ্ হয়ে পড়া শিশুদের ছবি। আজ শনিবার থেকেই অস্ট্রেলিয়ায় আইনটি বলবৎ করা হয়েছে।

আইনটি জারি হওয়ার ফলে সব সিগারেটের মোড়কই হবে একই রকম। কারণ কম্পানির নাম ও সিগারেটের ব্র্যান্ডের নাম মোড়কে দিতে হবে খুবই ছোট ফন্টে। প্যাকেটের গায়ে স্বাস্থ্য সতর্কীকরণ
বিজ্ঞপ্তি তো থাকবেই। বছর দুই আগে আইনটি প্রণয়নের কাজে হাত দেয় অস্ট্রেলিয়া। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও এমন নতুন আইন প্রণয়ন অনুমোদন করে। অনেকেই মনে করছেন অস্ট্রেলিয়ার এই আইন ধূমপানবিরোধী আন্দোলনে নতুন মাত্রা আনবে। এর আগে সিগারেটের প্যাকেটে ধূমপানের ক্ষতিকর দিক বর্ণনা থেকে শুরু করে ধূমপানের কারণে ক্ষতিগ্রস্তু হৃৎপিণ্ড, ফুসফুস ও মানবদেহের অন্যান্য অঙ্গ-প্রত্যঙ্গের ছবি দেওয়া ক্ষেত্রবিশেষে বাধ্যতামূলক করা হলেও রঙ, লোগো এমনকি ব্র্যান্ড পরিচয়হীন সিগারেটের মোড়ক তৈরির আইন বিশ্বে এই প্রথম।

অস্ট্রেলিয়ার ধূমপানের কারণে মৃত্যুর হার ১০ শতাংশের নিচে নামিয়ে নিয়ে আনার পরিকল্পনা রয়েছে। দেশটিতে প্রতিবছর প্রায় ১৫ হাজার মানুষ ধূমপানের কারণে বিভিন্ন রোগে ভুগে মৃত্যুবরণ করেন। এর আগে সিগারেট ও অন্যান্য তামাকজাত দ্রব্যের বিজ্ঞাপনের ওপর যে নিষেধাজ্ঞা অস্ট্রেলিয়া সরকার আরোপ করেছিল, তাতে ধূমপায়ীর সংখ্যা ১৯৮৮ সালের তুলনায় ২০০৭-এ নেমে এসেছিল প্রায় অর্ধেকে। যেখানে ১৯৮৮ সালে অস্ট্রেলিয়ায় ১৪ বছর বা তার বেশি বয়সী মোট ধূমপায়ীর সংখ্যা ছিল ৩০ শতাংশ, সেখানে ২০০৭ সালে তা কমে এসেছে ১৬ দশমিক ৬ শতাংশে। তবে ২০০৮ সালে অস্ট্রেলিয়ার তামাকশিল্প সরকারকে ৭৬০ কোটি ডলার রাজস্ব দিয়েছে।


সূত্রঃ http://www.kalerkantho.com/?view=details&type=gold&data=Loan&pub_no=1078&cat_id=1&menu_id=0&news_type_id=3&news_id=304019
« Last Edit: January 02, 2013, 10:25:16 AM by Md. Khairul Bashar »

Offline sadique

  • Sr. Member
  • ****
  • Posts: 304
  • hope to win.....struggle to win........
    • View Profile
University Ranking Bangladesh...... University Web Rankings 2012
« Reply #7 on: December 02, 2012, 01:56:26 PM »
University Ranking Bangladesh

University Web Rankings 2012

1. University of Dhaka Dhaka
2. American International University-Bangladesh Dhaka
3. Bangladesh University of Engineering and Technology- Dhaka
4. Jahangirnagar University  Savar
5. Rajshahi University Rajshahi

6. North South University  Dhaka
7. National University    Gazipur
8. Daffodil International University  Dhaka
9. Chittagong University Chittagong
10. East West University Dhaka

11. Ahsanullah University of Science and Technology  Dhaka
12. Shahjalal University of Science and Technology Sylhet
13. Islamic University of TechnologyGazipur
14. Khulna University Khulna
15. Independent University, Bangladesh  Dhaka ...
16. Khulna University of Engineering and Technology  Khulna
17. Chittagong University of Engineering and Technology  Chittagong
18. Bangladesh Agricultural University  Mymensingh
19. International Islamic University, Chittagong Chittagong ...
20. The University of Asia Pacific  Dhaka
21. Rajshahi University of Engineering and Technology  Rajshahi
22. BRAC University    Dhaka ...
23. International University of Business Agriculture and   Dhaka
24. Noakhali Science and Technology University  Noakhali
25. Presidency University Dhaka
26. Northern University of Bangladesh  Dhaka ...
27. Dhaka University of Engineering & Technology Gazipur
28. Southern University Bangladesh  Chittagong
29. Bangabandhu Sheikh Mujib Medical University Dhaka
30. Islamic University  Kushtia
31 ..Southeast University  Dhaka
32. Jagannath University Dhaka
33. Comilla University  Comilla
34. Begum Rokeya University  Rangpur
35. Mawlana Bhashani Science and Technology University  Tangail
36. Stamford University Bangladesh Dhaka
37. Bangladesh University of Professionals  Mirpur
38. Jatiya Kabi Kazi Nazrul Islam University  Mymensingh
39. Jessore Science and Technology University Jessore
40. Asian University of Bangladesh Dhanmondi ...
41. Eastern University  Dhaka
42. Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman Agricultural University  Gazipur
43. University of Liberal Arts Bangladesh  Dhaka
44. Atish Dipankar University of Science and Technology  Dhaka ...
45. Patuakhali Science and Technology University  Patuakhali ...
46. Sylhet Agricultural University  Sylhet ...
47. Primeasia University Dhaka
48. Hajee Mohammad Danesh Science and Technology University  Dinajpur
49. ASA University Bangladesh  Dhaka
50. University of Development Alternative Dhaka

51. Chittagong Veterinary and Animal Sciences University  Chittagong
52. Pabna Science & Technology University  Pabna
53. World University of Bangladesh  Dhaka
54. Manarat International University Dhaka
55. State University of Bangladesh  Dhaka

56. Victoria University of Bangladesh  Dhaka
57. Metropolitan University Sylhet
58. Leading University  Sylhet ...
59. Green University of Bangladesh  Dhaka ...
60. Sher-e-Bangla Agricultural UniversityDhaka
61. City University  Dhaka
62. Bangladesh University of Business and Technology Dhaka
63. Dhaka International University  Dhaka
64. University of Science and Technology Chittagong  Chittagong ...
65. Darul Ihsan University  Dhaka
66. Shanto Mariam University of Creative Technology  Dhaka

67. Premier University  Chittagong
68. United International University Dhaka
69. University of Information Technology and Sciences  Dhaka
70. Bangladesh Islami University Dhaka
71. Uttara University    Dhaka
72. Prime University   Dhaka
73. East Delta University Chittagong
74. Sylhet International University Sylhet
75. Gono Bishwabidyalay    Dhaka
76. The Millenium University  Dhaka
77. Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman Science and Technology University  Gopalganj
78. Begum Gulchemonara Trust University  Chittagong
79. Bangladesh University Dhaka
80. Royal University of Dhaka  Dhaka
81. Bangladesh University of Textiles  Dhaka
82. University of South Asia  Dhaka
83. IBAIS UniversityDhaka
84 The People's University of Bangladesh Dhaka ...

www.studentvisa4u.com
« Last Edit: December 02, 2012, 01:59:35 PM by sadique »
Md. Sadique Hasan Polash
Dept. of Journalism and Mass Communication
ID:111-24-227
E-mail:polash24-227@diu.edu.bd
Mobile:01723207250

Offline arefin

  • Hero Member
  • *****
  • Posts: 1173
  • Associate Professor, Dept. of ETE, FE
    • View Profile
ICT invention application challenge 2013
« Reply #8 on: December 02, 2012, 07:47:29 PM »


তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বা আইসিটি। আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে যার অবদান অনেক বেশি চোখে পড়ার মতো। ভবিষ্যতের অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতা অর্জনে গুরুত্বপূর্ণ নেয়ামক হিসেবে কাজ করতে পারবে এর নতুন উদ্ভাবনী দিকগুলো। এই ভাবনা থেকেই "আইসিটি ইনোভেশন অ্যাপ্লিকেশন চ্যালেঞ্জ ২০১৩" প্রতিযোগিতা আয়োজন করতে যাচ্ছে আন্তর্জাতিক টেলিকমিউনিকেশন ইউনিয়ন [আইটিইউ]।

শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণের জন্য আহ্বানের পথে প্রতিযোগীদের সমস্যার জবাব দিতে হবে কম্পিউটারের ভাষায়। তৈরি করতে হবে অ্যাপ্লিকেশন। যেগুলো কাজে লাগিয়ে মেলবন্ধন ঘটানো যাবে মোবাইল ও ইন্টারনেট সেবা। পাশাপাশি সাধারণ মানুষের অংশগ্রহণের মাধ্যমে পরিবর্তন আনা যাবে সামাজিক মাধ্যমগুলোতে। স্বচ্ছতা অক্ষুণ্ণ যথাযথ রেখেই কাজের দিক থেকে আদায় করা যাবে শতভাগ সুবিধা।

চ্যালেঞ্জকে করতে হবে জয়:
প্রতিযোগিতার অংশগ্রহণ পর্ব শুরু হয়েছে ২২ নভেম্বর ২০১২ থেকে। যদিও আরব আমিরাতে দুবাইয়ে শহরে অনুষ্ঠিত হওয়া বিশ্ব টেলিযোগাযোগ মানদণ্ড সম্মেলন [ডব্লিউটিএসএ] ২০১২ থেকেই প্রচারে নামে আইটিইউ। নতুন উদ্ভাবনীমূলক মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন সার্ভিস [যেমন- মোবাইলে চিকিৎসা ব্যবস্থা, মোবাইল পেমেন্ট ইত্যাদি], ই-এডুকেশন, ই-গভর্নমেন্ট এবং চৌকস যোগাযোগ ব্যবস্থা। এই চারটি চ্যালেঞ্জিং বিভাগ থেকে প্রত্যেক প্রতিযোগীকে বেছে নিতে হবে যে কোনো একটি বিভাগ।

প্রতিযোগী হবেন যারা:
আইটিইউ সদস্যভুক্ত দেশগুলোর যেকোনো নাগরিক এতে অংশ নিতে পারবেন। দলগত কিংবা ব্যক্তিগত অথবা প্রাতিষ্ঠানিকভাবে- যেকোনো ভাবেই অংশ নিতে পারবেন প্রতিযোগিতারা। ব্যক্তিগত প্রতিযোগী হতে হলে আঠারো কিংবা তদূর্ধ্ব বয়সী হতে হবে। কয়েকজন মিলে দল গঠন করেও নামা যাবে প্রতিযোগিতায়। আবার প্রাতিষ্ঠানিক স্বীকৃতি আছে এরকম প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকেও প্রতিযোগিতার ময়দানে আসা যাবে।

যেভাবে হবেন প্রতিযোগী:
প্রকল্প প্রস্তাবনা জমা দেওয়ার আগেই অনলাইনে নিবন্ধন করতে হবে। আর অনলাইন নিবন্ধন চলবে ২২ জানুয়ারি ২০১৩ পর্যন্ত। অনলাইনে নিবন্ধন করার শুরুতেই বেছে নিতে হবে একক [ব্যক্তিগত], ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা অথবা কর্পোরেট [সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান] এ তিনটি ধরণের প্রতিযোগিতা পর্ব থেকে যে কোনো একটি। এককভাবে নিবন্ধনের জন্য যেতে হবে এই ঠিকানায় (http://www.itu.int/en/ITU-T/challenges/innovation/Pages/ictchallenge-ind.aspx)আবেদন পত্রের শুরুর অংশেই দিতে হবে ব্যক্তিগত যোগাযোগ তথ্য [নাম, ঠিকানা, ইমেইল আইডি এবং ফোন নাম্বার]। পরের অংশে থাকবে আপনার প্রকল্পের নাম ও ধারণা দেওয়া আলাদা দুটো বক্স। সঠিকভাবে পূরণ করার পর সাবমিট করতে হবে। আর ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা হিসেবে অংশ নিতে যেতে হবে এই ঠিকানায় (http://www.itu.int/en/ITU-T/challenges/innovation/Pages/ictchallenge-cor.aspx)এখানে আবেদন পত্রের সবকিছু একক আবেদন পত্রের সাথে মিল থাকলে বাড়তি হিসেবে চাওয়া হবে আপনার প্রতিষ্ঠানের তথ্য। কর্পোরেট প্রতিষ্ঠান হিসেবে বড় সরকারি প্রতিষ্ঠান হলে নিবন্ধনে যেতে হবে এই ঠিকানায় এবং মাঝারি মানের প্রতিষ্ঠান হলে এই লিংক সঠিকভাবে নিবন্ধন সম্পন্ন হলে প্রতিযোগীর ইমেইলে ঠিকানায় চলে আসবে একটি নিবন্ধন আইডি, ওয়ার্ক আইডি। পাশাপাশি আসবে একটি এফটিপি লিংক। যেখানে পরবর্তীতে জমা করতে হবে আপনার বানানোর অ্যাপ্লিকেশনের প্রয়োজনীয় নথি।

প্রতিযোগিতার আসল পর্ব:
অ্যাপ্লিকেশনের ফিচার এবং কাজের ধরণ উল্লেখপূর্বক প্রস্তাবনা তৈরি করতে হবে পিডিএফ অথবা পাওয়ার পয়েন্ট ফরমেটে। ডব্লিউএমভি ফরমেট আকারে সর্বোচ্চ ৫মিনিটের অ্যাপ্লিকেশন সম্পর্কে বক্তব্য দিয়ে তৈরি করতে হবে ভিডিও। কিভাবে উন্নয়নশীল দেশের মানুষের জীবন ধারায় উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে পারবে সে সম্পর্কে আপনার তৈরি করা অ্যাপ্লিকেশন সম্পর্কে তৈরি করতে হবে ধারণা পত্র বা কনসেপ্ট পেপার। যার শব্দের সীমা হবে সর্বোচ্চ তিন হাজার।

পুরস্কারের হাতছানি:
সেরা অ্যাপস [ব্যক্তিগত ও ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা প্রতিযোগি], সেরা কর্পোরেট অ্যাপস এবং উভয় পর্যায়ে সম্মাননা পুরস্কার। এগুলোর মধ্যে শুধুমাত্র সেরা অ্যাপসকে ৫ হাজার ডলার পরিমাণ নগদ অর্থ পুরস্কার দেওয়া হলেও প্রত্যেক বিভাগের বিজয়ীর জন্য সবচেয়ে বড় পুরস্কার ২০১৩ সালের ১৭ মে বিশ্ব তথ্য সভা দিবসে এসব প্রকল্প সমগ্র বিশ্বকে দেখানো সুযোগটি। এবং আইটিইউর সাথে কাজ করার সুযোগ।
« Last Edit: December 10, 2012, 02:12:27 PM by Badshah Mamun »
“Allahumma inni as'aluka 'Ilman naafi'an, wa rizqan tayyiban, wa 'amalan mutaqabbalan”

O Allah! I ask You for knowledge that is of benefit, a good provision and deeds that will be accepted. [Ibne Majah & Others]
.............................
Taslim Arefin
Assistant Professor
Dept. of ETE, FE
DIU

Offline Mohammed Abu Faysal

  • Administrator
  • Full Member
  • *****
  • Posts: 230
    • View Profile
USA made electric Missile.
« Reply #9 on: December 03, 2012, 11:30:03 AM »
অফিসে কাজ করছেন। সবাই নিমগ্ন নিজ নিজ পিসিতে। রাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার সব গোপন তথ্য আপনারাই পাহারা দেন। বছরের ৩৬৫ দিন সার্ভার চালু যাতে থাকে সে ব্যবস্থা করা আছে। তাই এক দণ্ডের জন্য পিসি স্বয়ংক্রিয়ভাবে বন্ধ হওয়ার কোন জো নেই। কিন্তু এই অবিশ্বাস্য ঘটনাটিই আজ ঘটলো। ধাম করে আপনার কম্পিউটার বন্ধ হয়ে গেলো। আতঙ্কে আপনার চোখ তখন বিস্ফারিত। মুহূর্তেই গায়ের রক্তও হিম হয়ে যায় যখন দেখেন চারপাশের সব সহকর্মীর কম্পিউটারই কোন্‌ অর্দশ্য সুইচে বন্ধ হয়ে গেছে। আপনারা কেউ তখনো জানেন না অফিস ভবনের উপর দিয়ে উড়ে গেছে শত্রুদেশের চালকবিহীন বিমান বা ড্রোন। সেটির নিক্ষিপ্ত মাইক্রো্ওয়েভ মিসাইলে মুহূর্তেই ধ্বংস হয়ে গেছে আপনার রাষ্ট্রের প্রতিরক্ষাবিষয়ক সব গবেষণাতথ্য, উপাত্ত।

প্রথম পাঠে দৃশ্যটি বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনী মনে হলেও খবর হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র এই মাইক্রো্ওয়েভ মিসাইল ইতিমধ্যেই তৈরি করে ফেলেছে।আমেরিকার বিমাননির্মাতা প্রতিষ্ঠান ইতিমধ্যেই এই ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষা চালিয়েছে বলে আজ সোমবার খবর দিয়েছে স্কাইনিউজ অনলাইন। ইরান, উত্তর কোরিয়া, চীন, আল-কায়েদা, তালিবান থেকে শুরু করে বিশ্বের যে কারো জন্যই এটি এক ভয়ঙ্কর বার্তা। আশঙ্কা করা হচ্ছে, এ ধরনের অস্ত্রের ব্যবহার শুরু হলে প্রচলিত যুদ্ধের চেহারাটাই বদলে যাবে। কারণ যে কোন দেশ বা প্রতিষ্ঠানকেই এ সাইবার-অস্ত্রের সহজ লক্ষ্য করা যাবে।

স্কাইনিউজ জানায়, বোয়িং যে ক্ষেপণাস্ত্রটির পরীক্ষা চালিয়েছে সেটি বানাতে দুই কোটি ৪০ লাখ ডলার ব্যয় হয়। আর পরীক্ষাটি চালানো হয় যুক্তরাষ্ট্রের ইউটাহ অঙ্গরাজ্যের একটি মরুভূমিতে। কাউন্টার ইলেক্ট্রনিকস হাই-পাওয়ারড মাইক্রোওয়েভ অ্যাডভান্সড প্রজেক্ট (সিএইচএএমপি) নামের এক প্রকল্পের আওতায় একটি রকেট নিক্ষেপ করা হয় পূর্বনির্ধারিত পথ ধরে। সে পথের আশপাশেই ছিল একটি সেনাঘাঁটি। রকেট থেকে নিক্ষিপ্ত মাইক্রোওয়েভ সেই ঘাটিঁর গোটা কম্পিউটার ব্যবস্থাকেই বিকল করে দেয়। পরীক্ষার স্বার্থে যে ক্যামেরা সংযোজন করা হয়েছিল সেটিও এই
মাইক্রোওয়েভ মিসাইলের অদৃশ্য অস্ত্র থেকে রক্ষা পায়নি। বৈদ্যুতিক তরক্ষের ধাক্কায় মুহূর্তেই ক্যামেরাটি রেকর্ড করা বন্ধ করে দেয়।

বোয়িং ফ্যানটম ওয়ার্কসের সিএইচএএমপি প্রকল্পের সবাই এ সাফল্যে খুশি। প্রোগ্রামটির ব্যবস্থাপক কেইথ কোলম্যান বলেছেন, "এই প্রযুক্তিটি আধুনিক যুগের যুদ্ধব্যবস্থাকেই পালটে দেবে। অদূর ভবিষ্যতে এমনকি সশস্ত্রবাহিনী বা যুদ্ধবিমান পৌঁছার আগেই ব্যবহার করা হতে পারে এই মাইক্রোওয়েভ ক্ষেপণাস্ত্র।

বিমান নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোয়িং তাদের পরীক্ষার বিশদ বিবরণ প্রকাশ করলেও যথারীতি গোপন রেখেছে এই বৈদ্যুতিক ক্ষেপণাস্ত্র নিমার্ণের কৌশল। বিশেষজ্ঞদের ধারণা, এই ক্ষেপণাস্ত্রে আছে শক্তিশালী ইলিক্ট্রনিক পালস কামান।
আশঙ্কা করা হচ্ছে, যুক্তরাষ্ট্রের দেখানো পথ ধরে অন্যান্য অনেক দেশ ইলেক্ট্রনিক পালস অস্ত্র তৈরি করা শুরু করবে। রয়াল ইউনাইটেড সার্ভিস ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক ট্রেভর টেইলর বলেন, "অতীতে দেখা গেছে কোন একটি দেশ গুরুত্বপূর্ণ কোন একটি প্রযু্ক্তির বিকাশ ঘটালে অন্যরাও খুব স্বল্প সময়ে তা করতে সক্ষম হয়। সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের বেলায় কী হয়েছিল তা তো সবারই জানা।



Ref: http://www.kalerkantho.com/?view=details&type=gold&data=Wallpaper&pub_no=1080&cat_id=1&menu_id=0&news_type_id=3&news_id=304676
« Last Edit: December 13, 2012, 09:42:26 AM by Faysal230 »

Offline nmoon

  • Full Member
  • ***
  • Posts: 234
  • Test
    • View Profile
Regular hard drink and irregular heartbeat
« Reply #10 on: December 03, 2012, 01:09:45 PM »
হৃদরোগীরা নিয়মিত মদ্যপান করলে তাদের অনিয়মিত হৃদস্পন্দনের ঝুঁকি বাড়ে বলে সম্প্রতি এক জরিপে জানা গেছে। এমনকি পরিমিত পরিমাণে পান করলেও এ সমস্যা দেখা দিতে পারে বলে জানিয়েছেন গবেষকরা।

« Last Edit: December 10, 2012, 03:11:48 PM by Badshah Mamun »

Offline rumman

  • Hero Member
  • *****
  • Posts: 1020
  • DIU is the best
    • View Profile
Sunnah of Drinking water
« Reply #11 on: December 03, 2012, 01:47:30 PM »
Md. Abdur Rumman Khan
Senior Assistant Registrar

Offline sazirul

  • Full Member
  • ***
  • Posts: 136
  • Md Sazirul Islam | EEE 4th Batch
    • View Profile
    • Sazirul Islam
Re: Apni ki janen ?????
« Reply #12 on: December 03, 2012, 02:07:00 PM »
nice post. i think some posts like this one make us curious to know something new. thanks for sharing .........
And it's true that, An Idea Can Change Your Life.

Offline Muhammad Siddiqur Rahman

  • Administrator
  • Full Member
  • *****
  • Posts: 100
    • View Profile
    • Web Profile
Free Premium WordPress Themeforest Theme
« Reply #13 on: December 03, 2012, 03:15:11 PM »
Fringe Tech Premium WordPress Theme
Download: http://www.nowdownload.eu/dl/cc1hfpmb49mm2
Muhammad Siddiqur Rahman
IT Officer
Daffodil International University
102/ 1 Shukrabad, Mirpur Road,Dhaka, Bangladesh
Mobile: +8801811458828, +8801833102811
http://www.siddiqur.com

mahbub-web

  • Guest
Eight tips of increasing blog traffic without Google Search
« Reply #14 on: December 03, 2012, 04:19:47 PM »
গুগল সার্চ ছাড়া ব্লগের ট্রাফিক বাড়ানোর আট উৎস

এটি নিয়ে কোন সন্দেহ নেই যে ব্লগের ট্রাফিক বাড়ানোর ক্ষেত্রে গুগল সার্চ একটি অসাধারন উপায়। কারন এমন অনেক ওয়েবসাইট আছে যেগুলো হাজার হাজার ইউনিক ট্রাফিক পায় গুগল সার্চ থেকে। কিন্তু গুগল দিন দিন যে হারে কঠোর হচ্ছে তাতে গুগল থেকে ট্রাফিক আসা কমে যাচ্ছে । কিছুদিন আগেও গুগল এ পেজ রেঙ্ক পাওয়া তেমন কোন ব্যাপার ছিল না কিন্তু বর্তমানে গুগল পান্ডা এবং প্যাঙ্গুইন এর মত কিছু শক্তিশালী আপডেট এর কারনে এখন গুগল সার্চ এ ভাল অবস্থান পাওয়া বেশ কষ্টকর হয়ে পড়েছে। এক্ষেত্রে অপেশাদার ব্লগাররা সবচেয়ে বেশী ভুগছে। তবে পেশাদার সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজারদের কিন্তু তেমন কোন অসুবিধা হচ্ছে না বলা যাবে না। তারাও কম বেশী ভুগছেন। কারন একসময় তেমন মানসম্মত নয় এমন ওয়েবসাইটকেও খুব সহজে সার্চে ভাল অবস্থানে এনে দিতে পেরেছেন। কিন্তু এখন আর এটা তেমন সম্ভবপর নয়।
গুগল এর নতুন আপডেট এ “কন্টেন্ট ইজ কিং” নীতিকে প্রাধান্য দিয়েছে। কিন্তু অনেক ক্ষেত্রেই দেখা যায় কিছু ব্লগার এই নীতিকে ঠিকভাবে ফলো করতে পারছে না। তাছাড়া কন্টেন্ট রাজা হলেও সঠিক পরিচর্যার অভাবে সেটি যত মানসম্মতই হোক না কেন, ভাল অবস্থানে যেতে পারবেনা। উদাহরন স্বরুপ বলা যায় অক্সিজেন এবং হাইড্রোজেনকে ১০০ বছর ধরে একসাথে ফেলে রাখলেও পানি তৈরি হবে না, যদি না সঠিক প্রভাবক থাকে।ঠিক এমনই অবস্থা কন্টেন্ট এর। সঠিক ভাবে অপ্টিমাইজ করতে না পারলেও সার্চ এ ভাল অবস্থান পাবে না। আমি আসলে এটি বুঝাতে চেয়েছি যে কন্টেন্ট যত ভাল মানের ই হোক না কেন যদি সঠিকভাবে এসইও না করা হয় তবে কোন লাভ ই হবে না। আর সঠিক ভাবে এসইও করা এখন আর সহজ নয়(প্রফেশনালদের ব্যাতিত), একটু নড় চড় হলেই ত গুগলের পান্ডা আর প্যাঙ্গুইন মিলে আপনাকে ব্যান করে দিবে অর্থ্যাৎ ইউ আর আউট অফ গুগল সার্চ!!!

গুগলের রিসেন্ট আপডেটে দেখা গেছে বেশ কিছু ব্লগ/ওয়েবসাইট যেগুলোর অবস্থান খুবই ভাল ছিল, তাদের পেজ রেঙ্ক হারিয়েছে। তাই এটি সহজেই বোঝা যাচ্ছে গুগল সার্চ থেকে আসা ট্রাফিক এর উপর নির্ভর করাটা মোটেই বুদ্ধিমানের কাজ নয়। আর তাই আপনার ওয়েবসাইট/ব্লগের জন্য ট্রাফিক সোর্স হিসেবে সার্চ রেজাল্ট কে শুধু গুরুত্ব না দিয়ে অন্যান্য মাধ্যমগুলোকেও প্রাধান্য দেওয়া উচিত। তাছাড়া অনেক সময় দেখা যায় গুগল সার্চ এ ওয়েবসাইট ইন্ডেক্স না হওয়ার ফলে অনেকেই হতাশ হয়ে পরেন, এক্ষেত্রে নিচে বর্নিত ট্রাফিক সোর্স গুলোকে ফলো করলে আশা করি হতাশ হবেন না।
[বিঃদ্রঃ যাদের ওয়েবসাইট গুগল এ ভাল অবস্থানে আছে এবং যাদের এডসেন্স আছে তারা এগুলো না ফলো করলেও পারেন]

I : সোসিয়াল মিডিয়া : বর্তমানে অধিকাংশ মানুষই আধুনিক যোগাযোগ ব্যাবস্থার প্রতি ঝোকছেন। মানে ফেসবুক,টুইটার,মাইস্পেস,গুগল প্লাস,পিইন্টারেস্ট সহ বহু সোসিয়াল নেটওয়ার্কিং ওয়েবসাইটকে তাদের যোগাযোগ এর মাধ্যম হিসেবে বেছে নিয়েছেন। আর এই সুযোগে সোসিয়াল নেটওয়ার্কিং ওয়েবসাইট গুলোর মাধ্যমে বাড়িয়ে নিতে পারেন আপনার ব্লগের ট্রাফিক। আপনার সাইট গুগল এ ইন্ডেক্স হোক আর না হোক এই মাধ্যম থেকে আপনি পেতে পারেন বড় ধরনের ট্রফিক। তাছাড়া সোসিয়াল বুকমার্কিং ওয়েবসাইট গুলো হতে পারে আপনার ট্রাফিকের অন্যতম সোর্স। অনেকেই আছেন যারা স্টাম্বলআপন,ডিগ,রেড্ডিট,ফেসবুক,টুটার,গুগল প্লাস থেকে এত বেশী পরিমানে ট্রাফিক পান যা চোখ কপালে উঠার মতোই। তাছাড়া আপনার সাইট গুগল ব্ল্যাক লিস্ট এ চলে গেলেও ট্রাফিক এর ক্ষেত্রে এটিই হতে পারে অন্যতম সমাধান।
কিছু সোসিয়াল নেটওয়ার্কিং ওয়েবসাইটের লিস্ট
http://facebook.com
http://plus.google.com
http://linkedin.com
http://vk.com
http://myspace.com
http://bebo.com
http://hi5.com
এবং কিছু বুকমার্কিং ওয়েবসাইটের লিস্ট
http://digg.com
http://diigo.com
http://reddit.com
http://stumbleupon.com
http://blinklist.com




II : অতিথী ব্লগিং : অতিথী ব্লগিং হতে পারে আপনার ব্লগের ট্রাফিকের অন্যতম সোর্স। অতিথী হিসেবে ব্লগিং করা শুধুমাত্র আপনাকে জনপ্রিয় ই করবেনা আপনার ব্লগের ট্রাফিক ও নিশ্চিত করবে। অতিথী ব্লগিং করতে যেয়ে আপনার ব্লগের ফ্যান ও পেয়ে যেতে পারেন যে কিনা আপনার ব্লগের রেগুলার ভিজিটর হয়ে যেতে পারে!! অতিথী ব্লগিং করতে চাইলে বেছে নিন জনপ্রিয় প্লাটফর্ম গুলো কারন এর ফলে ভিজিটর পাবেন বেশী। তবে কম জনপ্রিয় ব্লগ গুলো বেছে নিতে পারেন অতিথী ব্লগিং এর জন্য কারন যখন ব্লগ টি জনপ্রিয় হবে তখন আপনি ই হয়ে যেতে পারেন ব্লগটির অন্যতম আকর্ষন , ফলে ভিজিটর ও পাবেন বেশী । কে জানে একসময় পেয়ে যেতে পারেন পেইড ব্লগার হওয়ার অফার। তখন রথ দেখা আর কলা বেচা একসাথেই কিন্তু হয়ে যাবে!!!!!

III: কমেন্টিং : ব্লগের ট্রাফিক বাড়ানোর ক্ষেত্রে কমেন্টিং ভাল ভুমিকা রাখতে পারে। বিভিন্ন ব্লগে কমেন্ট এ আপনার ওয়েবসাইট এর লিঙ্ক ব্যবহার করতে পারেন। তবে এটি অবশ্যই লক্ষনীয় যে আপনার কমেন্টটি যেন কখনো স্প্যামিংয়ের আওতায় না পড়ে। সবসময় রিলেটেড কমেন্ট করার চেষ্টা করাটাই বুদ্ধিমানের কাজ। কমেন্ট করার সময় ওয়েবসাইট ফিল্ডে আপনার ওয়েবসাইটের ইউআরএল টি ব্যবহার করুন, ফলে আপনার নামটি এঙ্কর টেক্সট হিসেবে কাজ করবে। তাছাড়া কমেন্টলাভ ইউজ করে এমনসব ব্লগে কমেন্ট এর মাধ্যমেও আপনি পেতে পারেন আশানুরুপ ট্রাফিক।

IV: ইউটিউব/ভিডিও ব্লগিং: একটু কৌশলের মাধ্যমে ইউটিউবও হতে পারে আপনার ব্লগের ট্রাফিকের অন্যতম সোর্স। ইউটিউব হচ্ছে বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং ওয়েবসাইট। ইউটিউব এ একটি চ্যানেল খুলে কোনমতে ভিডিও ভিউ বাড়াতে পারলেই কেল্লা ফতে। কারন আপনার চ্যানেল একবার জনপ্রিয় হয়ে গেলে ভিডিওর মধ্যে আপনার ওয়েবসাইটের লিঙ্কটি ব্যবহার করে পেতে পারেন আশানুরুপ ফল। তবে অনেকেই এটা মেনে নিতে নারাজ যে ইউটিউব থেকে আসলেই ভাল ট্রাফিক পাওয়া যায়। কিন্তু আমি এ মনে করি যে ইউটিউব থেকে আসলেই ভাল ট্রাফিক পাওয়া যায়। ইউটিউব এ আপনি কোন বিষয়ে দিতে পারেন কমপ্লিট টিউটরিয়াল। আর টিউটরিয়াল এ আপনার ব্লগের লিঙ্ক দিয়ে লিখতে পারেন “আরও জানতে উদাহরন.কম ভিজিট করুন” অথবা ভিডিউ স্টার্টিং এবং ইন্ডিং টাইম এ ১০/১৫ সেকেন্ড ধরে আপনার ব্লগের লিঙ্কটি দেখাতে পারেন, আশা করা যায় বেশ ভাল ট্রাফিক আপনি পেতে পারেন।
কিছু ভিডিও শেয়ারিং ওয়েবসাইট লিস্টঃ
http://youtube.com
http://blip.tv
http://vimeo.com
http://veob.com
http://viddler.com




V: ফোরাম মার্কেটিং : ফোরাম এ সচরাচর দেখা যায় কোন টপিক নিয়ে আলোচনা করা হয়। আর সেই আলোচনায় জয়েন করে ও পেতে পারেন ভাল মানের ট্রাফিক। ফোরাম এ আপনার সাইন এ আপনার ব্লগের লিঙ্কটি ব্যবহার করুন। ফোরাম এ আপনি যেসব ব্যাপারে ভাল জানেন সেসব টপিক গুলোতে মন্তব্য করার চেষ্টা করুন। রিলেটেড এবং ইউনিক মন্ত্যব যেমন আপনার রেপুটেশন বাড়াবে তেমনি আপনার ব্লগ ট্রাফিক ও বাড়বে।
কিছু ফোরাম ওয়েবসাইট এর লিঙ্ক
http://forums.digitalpoint.com
http://sitepoint.com/forums
http://warriorforum.com
http://forum.triphp.com

VI: লিঙ্ক আদান-প্রদান : আপনার ব্লগের সমমানের ব্লগিং ওয়েবসাইট বা ভাল কোন ব্লগিং ওয়েবসাইটের সাথে যোগাযোগ করুন লিঙ্ক আদান-প্রদান এর জন্য। কারন লিঙ্ক আদান প্রদান করার মাধ্যমেও পেতে পারেন ভাল ট্রাফিক। তবে লিঙ্ক আদান-প্রদান এর ক্ষেত্রে অবশ্যই লক্ষ্য রাখবেন ব্লগের ডেইলি ইউনিক ভিজিটর কেমন,পেজ রেঙ্ক আছে কিনা, আপনার লিঙ্কটি কিভাবে কোন অবস্থানে রাখবে ইত্যাদি ব্যাপারে।




VII: আপনার ব্লগটিকে ডুফলো করে দিন : ডুফলো করার ব্যাপারটি হয়তবা অনেকেই মেনে নিতে পারবেন না । কিন্তু আপনি যদি আপনার ভিজিটরদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করতে চান তবে আপনার উচিত আপনার ব্লগটিকে ডুফলো করে দেয়া কারন ভিজিটররা আপনার ব্লগে আসে বলেই হয়তবা আপনি দু/চারটে পয়সা কামাতে পারছেন অথবা আলেক্সাতে ভাল অবস্থানে আছেন বলে চিন্তা করছেন ফ্লিপাতে ওয়েবসাইটটি বিক্রি করার চেষ্টা করবেন। তাই আপনার লাভের পাশাপাশি ভিজিটরের লাভের চিন্তা করে আপনার ব্লগটি ডুফলো করে দিতে পারেন। এর ফলে আপনার ব্লগে আরো ভিজিটর বাড়বে। বিভিন্ন ওয়েবসাইটে হয়ত আপনার ব্লগটিকে ডুফলো ব্লগ লিস্টের তালিকায় ডুকিয়ে দিতে পারে। ফলাফল আরো বেশী ট্রাফিক। অনেকে বলতে পারেন স্প্যামিং বেড়ে যেতে পারে কিন্তু কমেন্ট মডারেশন ত আপনার হাতে, রিলেটেড কমেন্ট না হলে এপ্রোভ করছে কে!!

VIII: প্রতিযোগীতার আয়োজন : আপনি যদি ব্লগের ট্রাফিক বাড়াতে ইচ্ছুক তাহলে আপনার উচিত হবে মাঝে মাঝে ছোট-খাট প্রতিযোগীতার আয়োজন করা। যেমন অতিথী ব্লগিং প্রতিযোগীতা,কমেন্টিং প্রতিযোগীতা ইত্যাদি। প্রতিযোগীতার পুরষ্কার হিসেবে ইন্টারেস্টিং কিছু রাখতে পারেন। তাছাড়া খরচ কমাতে চাইলে একজন স্পন্সর খুজে নিতে পারেন।



Ref: http://bdrong.com/gmshovo/internet/4159
« Last Edit: December 05, 2012, 06:38:04 PM by Badshah Mamun »