জাহান্নামের শাস্তি ভয়াবহ

Author Topic: জাহান্নামের শাস্তি ভয়াবহ  (Read 712 times)

Offline faruque

  • Hero Member
  • *****
  • Posts: 655
    • View Profile
জাহান্নামের শাস্তি ভয়াবহ

পৃথিবীতে মানুষ যে ধরনের কর্ম করবে আখেরাতে সে ধরনের ফল পাবে। কেউ ভালো কাজ করে থাকলে তার চূড়ান্ত পুরস্কার হবে স্বপ্নের জান্নাত। আর খারাপ কাজ যারা করবে তাদের শেষ পরিণতি হবে জাহান্নাম। জান্নাতের সৌন্দর্য সম্পর্কে অনেকেই আমরা জানি। জাহান্নামের ভয়াবহতা সম্পর্কে তেমন আলোচনা করি না। তাই জানি না। রসুল (সা.) সাহাবাদের জান্নাতের আলোচনার পাশাপাশি জাহান্নামের ভয়াবহতাও আলোচনা করতেন। হজরত নোমান বিন বশির (রা.) বলেন, রসুলুল্লাহ (সা.) ইরশাদ করেছেন, জাহান্নামিদের মধ্যে সবচেয়ে সহজ শাস্তি ওই ব্যক্তির হবে যাকে ফিতাসহ এক জোড়া আগুনের জুতা পরিয়ে দেওয়া হবে। এতে তার মগজ এমনভাবে টগবগ করতে থাকবে গরম পানির পাত্র যেমন টগবগ করতে থাকে। সে ধারণা করবে, তার থেকে কঠিন আজাব আর কেউই ভোগ করছে না। অথচ সেই হবে সবচেয়ে সহজ শাস্তিপ্রাপ্ত ব্যক্তি। বোখারি, মুসলিম। প্রিয় পাঠক, জাহান্নামের সবচেয়ে সহজ শাস্তি যদি হয় আগুনের জুতা তাহলে কঠিন শাস্তি কী হতে পারে তা আমাদের ভাবতে হবে। প্রতিদিন কত গুনাহ আমরা করে যাচ্ছি অহরহ। কখনো কি ভেবেছি এর শাস্তি আমাকে যদি দেওয়া হয় তাহলে কীভাবে সহ্য করব? মহান পরওয়ারদেগার যদি মাফ না করেন তাহলে আমাদের উপায় কী হবে? গুনাহগারদের মধ্যে গুনাহের তারতম্যের কারণে শাস্তিও বেশ কম হবে। এ বিষয়ে হজরত সামুরা ইবনে জুনদুব (রা.) বলেন, রসুল (সা.) ইরশাদ করেছেন, দোজখিদের মধ্যে কোনো কোনো লোক এমন থাকবে যে, দোজখের আগুন তার পায়ের টাখনু পর্যন্ত পৌঁছবে। তাদের মধ্যে কারও হাঁটু পর্যন্ত পৌঁছবে। কারও কোমর পর্যন্ত, আবার কারও গর্দান পর্যন্ত পৌঁছবে। মুসলিম। অর্থাৎ যার গুনাহ বেশি তার সাজা বেশি। যার গুনাহ কম তার শাস্তিও কম। দোজখের সাজা পৃথিবীর সাজা থেকে কোটি কোটি গুণ বেশি। যা আমরা কল্পনাও করতে পারি না। হজরত আবু সাইদ খুদরি (রা.) বলেন, রসুল (সা.) ইরশাদ করেছেন, দোজখিদের পুঁজের এক বালতি যদি দুনিয়ায় ঢেলে দেওয়া হয়, তাহলে তা সমগ্র দুনিয়াবাসীকে দুর্গন্ধযুক্ত করে দেবে। তিরমিজি। আরেকটি হাদিস বর্ণিত হয়েছে হজরত ইবনে আব্বাস (রা.) হতে। তিনি বলেন, একদিন রসুল (সা.) এই আয়াতখানি তেলাওয়াত করলেন- 'অর্থাৎ তোমরা আল্লাহকে যথাযথ ভয় কর এবং পূর্ণ মুসলমান না হয়ে মৃত্যুবরণ কর না।' তারপর রসুল (সা.) বললেন, যদি জাক্কুম গাছের একটা ফোঁটা এই দুনিয়ায় পড়ে, তাহলে দুনিয়াবাসীর জীবনধারণের উপকরণসমূহ বিনষ্ট হয়ে যাবে। এমতাবস্থায় ওই সব লোকের কেমন দুর্দশা হবে এটা যাদের খাদ্যে হবে। তিরমিজি। মহান আল্লাহ আমাদের জাহান্নাম থেকে হেফাজত করুন। আমিন।

লেখক : খতিব, বাইতুর রহমত জামে মসজিদ, গাজীপুরা, টঙ্গী।

- See more at: http://www.bd-pratidin.com/islam/2014/11/17/44041#sthash.4uaORkB1.dpuf