তিনটি গুণ অর্জন করার মাধ্যমে ইমানের স্বাদ উপভোগ করা সম্ভব!

Author Topic: তিনটি গুণ অর্জন করার মাধ্যমে ইমানের স্বাদ উপভোগ করা সম্ভব!  (Read 303 times)

Offline faruque

  • Hero Member
  • *****
  • Posts: 655
    • View Profile
তিনটি গুণ অর্জন করার মাধ্যমে ইমানের স্বাদ উপভোগ করা সম্ভব!



আল্লাহ ও তার রাসুলকে হৃদয় উজাড় করে মহব্বত করা এবং পৃথিবীর সব বিষয়ের ঊর্ধ্বে আল্লাহ ও তার রাসুলকে স্থান দেয়া এবং তাদের সবচেয়ে বেশি ভালোবাসা। কারণ এই ভালোবাসা বা মহব্বত ছাড়া কোনো মানুষ মুমিন হতে পারবে না। এক কথায় আল্লাহ ও তার রাসুলকে ভালোবাসা ইমানের গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ। এ মর্মে আল্লাহ তায়ালা পবিত্র কোরানের সুরা তওবার ২৪ নম্বর আয়াতে ইরশাদ করেছেন, বল, তোমাদের পিতা, তোমাদের সন্তান, তোমাদের স্ত্রী, তোমাদের গোত্র, তোমাদের সে সম্পদ যা তোমরা অর্জন করেছ, আর সে ব্যবসা যার মন্দা হওয়ার আশঙ্কা তোমরা করছ এবং সে বাসস্থান, যা তোমরা পছন্দ করছ, যদি তোমাদের কাছে অধিক প্রিয় হয় আল্লাহ, তার রাসুল ও তার পথে জিহাদ করার চেয়ে, তবে তোমরা অপেক্ষা কর আল্লাহ তার নির্দেশ নিয়ে আসা পর্যন্ত। আর আল্লাহ ফাসিক সম্প্রদায়কে হিদায়েত করেন না। আলোচ্য আয়াতের মূল বক্তব্য হলো-একজন মুমিনের অন্তরে আল্লাহ ও তার রাসুলের প্রতি ভালোবাসা পৃথিবীর সব বিষয় ও বস্তুর তুলনায় বেশি থাকতে হবে এবং এটাই হবে একজন মুমিনের মুমিনত্বের প্রকৃত পরিচয়।

রাসুল [সা.] ইরশাদ করেছেন, তিনটি গুণ যার মধ্যে থাকবে সে ইমানের স্বাদ উপভোগ করতে পারবে। ১. আল্লাহ ও তার রাসুলকে অন্য সবকিছুর তুলনায় অধিক প্রিয় মনে করা। ২. একমাত্র আল্লাহর উদ্দেশ্যে কাউকে মহব্বত করা এবং ৩. ইমান আনার পর কুফরিতে ফিরে যাওয়াকে আগুনে নিক্ষিপ্ত হওয়ার মতো অপছন্দের মনে করা। স্পষ্ট ভাষায় রাসুল [সা.] এ ব্যাপারে আরো বলেছেন, তোমাদের কেউ মুমিন হতে পারবে না, তার মা-বাবা, সন্তান-সন্ততি এবং সকল মানুষ থেকে যতক্ষণ না আমি তার কাছে সবচেয়ে প্রিয় হব। [বোখারি ও মুসলিম]

সব জিনিসেরই কিছু না কিছু আলামত থাকে। আল্লাহ ও তার রাসুলকে মহব্বত করার আলামত রয়েছে। সেগুলো হলো-আল্লাহর রাসুলের অনুসরণ ও আনুগত্য প্রকাশ করা। রাসুলের আদর্শকে নিজের জীবনে বাস্তবায়িত করা এবং রাসুলের প্রতি বেশি বেশি দরুদ পাঠ করা। তার নির্দেশসমূহ মেনে চলা এবং যেসব বিষয় থেকে তিনি নিষেধ করেছেন তা বর্জন করা। সুখ-দুঃখ, সচ্ছলতা-অসচ্ছলতা সর্বাবস্থায় তার আদর্শকে সামনে রেখে চলা ইত্যাদি। কোনো ব্যক্তি কাউকে ভালোবাসলে সে তাকে প্রাধান্য দেয়; তার পছন্দ-অপছন্দকে প্রাধান্য দেয়। অন্যথায় মহব্বতের দাবিতে সে মিথ্যাবাদী বলে বিবেচিত হবে। তাই সত্যি সত্যি যে ব্যক্তি রাসুল [সা.] মহব্বত করে, অবশ্যই তার আচার-আচরণে সে মহব্বতের আলামতও প্রকাশ পাবে। আল্লাহ আমাদের সবাইকে আল্লাহ ও তার রাসুলকে সত্যি সত্যি ভালোবাসার তওফিক দান করুন। আমিন

মাওলানা মিরাজ রহমান