বিছনাকান্দি ভ্রমনে খরচ কমাতে যেসব বিষয় খেয়াল রাখবেন

Author Topic: বিছনাকান্দি ভ্রমনে খরচ কমাতে যেসব বিষয় খেয়াল রাখবেন  (Read 59 times)

Offline Md. Azizul Hakim

  • Jr. Member
  • **
  • Posts: 83
  • Respect is everything.
    • View Profile
১০-১২ জনের গ্রুপে আসবেন সেক্ষেত্রে দুই সিএনজি, একটি নোহা অথবা লেগুনা নিয়ে যেতে পারবেন।
রিজার্ভ আপডাউন ভাড়া  সিএনজি ১০০০  নোহা ৩০০০ এবং লেগুনা ১৮০০ টাকা
সিএনজি আম্বরখানায়, লেগুনা বন্দর ওসমানী শিশু পার্কের সামনে এবং নোহা আলিয়া মাদ্রাসার সামনে পাবেন।
গাড়ি রিজার্ভের সময় হাদার পাড় কথাটা ভাল করে ড্রাইভার কে বললেন, হাদার পাড়েই যেন নিয়ে যায়।
গাড়ি যেখানে নামাবে আশেপাশের দোকানে এলাকার নাম দেখে নিন, ড্রাইভাররা আজকাল মিথ্যা বলে হাদার পাড়ের অনেক আগে নামিয়ে দেয়গাড়ি হাদারপারের কথা বলে নিছেন তাই কখনই অন্যকোন বাজারে ড্রাইভার নামাতে চাইলে নামবেন না।
হাদার পার যাওয়া যাবে না রাস্তা খুব ভাঙ্গা বললে বুঝে নিতে হবে সে যেখানে নামচ্ছে এই ঘাট থেকে কমিশন পায়।
হাদার পারে না যাবার জন্য অনেক বাহানা করবে তবুও থাকে যেতে বলবেন রাস্তা ভাঙ্গা হলে হেটে যাওয়া যাবে বলবেন। গাড়ি যাওয়ার মত যথেষ্ট ভালো রাস্তা হাদারপারের, নিশ্চিত থাকেন গাড়ি আটকে যাবে না।
পীরের বাজার ঘাটে নামা মানেই তিনগুন বেশি ভাড়ায় নৌকা নিতে হবে, গলাকাটা ভাড়া যথাক্রমে ১৫০০,১৮০০,২৫০০ যার কাছ থেকে যত নিতে পারে।
হাদারপার নেমে হেটে যাবেন আনফারের ভাঙ্গা।
গ্রুপের সবাইকে একটু দূরে রেখে নৌকা রিজার্ভ করতে যাবেন। মাঝিদের ভাড়া কত জিজ্ঞেস করবেন এবং ১৫০০ বা ১৮০০ টাকা চাইবে।
৫০০ টাকায় যাবেন কিনা বলে দিবেন কোন সংকোচ করবেন না এবং যেতে রাজি না হলে বলবেন আরো ১০০ দিব যাবেন, না গেলে আরো অনেক নৌকা আছে।
আনফারের ভাঙ্গায় এত নৌকা এখন যে পর্যটক দের নিয়ে কাড়াকাড়ি লেগে যায়, ৬০০ টাকায় কোন নৌকা না পাইলে ৭০০ টাকায় বাড়বেন এবং নৌকা পাবেন। হেটে হেটে এক নৌকা থেকে অন্য নৌকার দিকে যাবেন দামাদামি শুরু করবেন।
নৌকায় মাত্র ১৫-২০ মিনিট সময় লাগবে পৌছাইতে।
Lecturer,
Department of CSE
azizul.cse@diu.edu.bd