অপরিচিত জনের সাথে আলাপচারিতার ৭ টি কৌশলঃ যেভাবে নিজেকে বিশেষভাবে উপস্থাপন করবেন

Author Topic: অপরিচিত জনের সাথে আলাপচারিতার ৭ টি কৌশলঃ যেভাবে নিজেকে বিশেষভাবে উপস্থাপন করবেন  (Read 90 times)

Offline sanzid.swe

  • Jr. Member
  • **
  • Posts: 53
  • Hi, this is Sanzid, learning to learn!
    • View Profile
    • Sanzid's Cloud
আলাপচারিতা একটি শিল্প, যেমনটি আমরা শিল্প হিসেবে দেখি চিত্রকলা, আলোকচিত্র কিংবা চারুশিল্পকে। আপনি যখন নতুন কারোর সাথে পরিচিত হচ্ছেন, আলাপ শুরু করছেন, তাতে একটি বন্ধন তৈরী হচ্ছে। আর এই বন্ধন কতটুকু শক্ত বা মজবুত হবে সেটা অনেকটাই নির্ভর করে তার সাথে আপনার কথোপকথনের উপর। আলাপচারিতা একটি আকর্ষণ, এটি নিজেকে অন্যের কাছে উপস্থাপন করার একটি অনন্য কৌশল। আলাপচারিতাই পারে শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে, এই আলাপচারিতাই হতে পারে যুদ্ধের কারন।

চিন্তা করে দেখুন, আপনার চারপাশের প্রতিটি মানুষ আপনার পূর্ব-অপরিচিত, যতক্ষন পর্যন্ত না আপনি তাদের সাথে প্রথম কথোপকথন সম্পন্ন করেছেন। আপনার কাছের বন্ধু, বাড়ির পাশের মুদি দোকানদার, ট্যাক্সি-চালক এমনকি আপনার স্ত্রী এবং পিতা-মাতা! তাই আলাপচারিতা এবং প্রথম কথোপকথন অনেক গুরুত্ব বহন করে, এবং এটি হওয়া চাই একটু ভিন্নধর্মী ও চিন্তাপ্রসূত। চলুন দেখে নেই তা কিভাবে-

১. ছোট কিছু দিয়ে শুরু করুন
নতুন কারোর সাথে পরিচিত হওয়া, কথা বলা, অভিব্যক্তি প্রকাশ করা- এই সবকিছুই আপনাকে নতুন কিছু খুজে নেয়ার সুযোগ তৈরি করে দেয়। নতুন কারোর সাথে পরিচিত হতে যাচ্ছেন, এর মানে আপনি নতুন কোনো গল্প জানবেন, নতুন কিছু জ্ঞান আহরণ করবেন এমনকি পেয়ে যেতে পারেন আপনার জীবনের সবচেয়ে কাছের কোনো মানুষকে। এই নিয়ে অনেকের মধ্যে অনেক ভয় বা চিন্তা কাজ করে। তাই চিন্তা না করে কিছু একটা বলে ফেলুন, ছোট কিছু দিয়ে আপনিই শুরু করুন আলাপচারিতা।

ইংরেজিতে যেমন হাই/হ্যালো দিয়ে শুরু করাটা সুন্দর অভিব্যক্তি প্রকাশ পায়, তেমনি বাংলায়ও এরকম কিছু বলে কারোর সাথে কথা বলা শুরু করতে পারেন। মুসলিমরা অপর মুসলিমকে সালাম বিনিময় করে বা অন্য ধর্মের হলে তাদের ধর্মীয় সম্বোধন দ্বারা কথা বলা শুরু করাটা খারাপ না।

মনে রাখবেন, প্রথম দিকে আপনি যে কথাগুলো বলবেন তা অপরজনের কাছে আপনার গুরুত্ব তৈরি করবে এবং পরবর্তী কথোপকথনের আগ্রহকে প্রশস্ত করবে।

২. তার সম্পর্কে জিজ্ঞেস করুন
কেমন আছেন, কি অবস্থা..? এসব ছোটছোট প্রশ্ন জিজ্ঞেস করার পরপরই আপনার সাথেরজনকে তার ব্যাপারে আরও কিছু জিজ্ঞেস করতে পারেন। হতে পারে সেটা তার ব্যাক্তিগত কোনোকিছু সম্পর্কে। এক্ষেত্রে তার নাম শোনার পর, তার নামটি সম্পর্কে কিছু বলতে পারেন। জিজ্ঞেস করতে পারেন এই সুন্দর নামটি তার কে দিয়েছে, তার নামের অর্থ কি বা অন্য কোনো ডাক নাম আছে কিনা।

আমার ক্ষেত্রে আমি জানার চেষ্টা করি তার বর্তমান জায়গা সম্পর্কে। সে এখানে কতদিন ধরে বসবাস করছে, কার সাথে থাকে, এসব। অথবা জিজ্ঞেস করতে পারেন তার এখানে আসার পেছনের কোনো গল্প সম্পর্কে।

আপনি এভাবে শুরু করুন, দেখবেন আপনার সাথে তার আলাপ বেড়েই যাচ্ছে। নতুন পরিচিত হওয়ার সময় অপরজন বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই আপনার কাছে প্রশ্ন আশা করবে, তাই তাকে প্রশ্ন করুন। কিছুক্ষণ পর দেখবেন সেও আপনাকে প্রশ্ন করা আরম্ভ করেছে।

৩. অন্যের ভাষ্যকে সম্মতি দিন
: আমার বাড়ি কুমিল্লা

: কুমিল্লা! কুমিল্লার লোকজন তো বেশিরভাগই ভালো হয় না।

দয়া করে এই টাইপের কথা বলবেন না। অন্যের সামনে কথা বলার সময় যতটা সম্ভব নেগেটিভিটি পরিহার করতে হবে। আপনি কোনো কিছু সম্পর্কে বলার আগে পজিটিভ কিছু খুজে বের করবেন এরপর সেটি তাকে বলবেন। এতে করে সে আপনাকে সহজে আপন ভাবতে পছন্দ করবে।

তার সাথে আপনার কিছু মিল খুজে বের করতে চেষ্টা করুন এবং সেটা তাকে বলুন। হতে পারে সে শীতকাল পছন্দ করে আর আপনিও, আপনার পুরান ঢাকার খাবার ভালো লাগে আর তারও।

তার কোনো ব্যাপারে আপনার বিরোধ থাকলে সেটির গঠনমূলক সমালোচনা করুন। আর প্রথম আলাপে যতটুকু সম্ভব তাকে সম্মতি দিতে চেষ্টা করুন। তার সবকিছুতে সংক্ষিপ্ত প্রসংশা করুন। এতে করে তার কাছে আপনার গ্রহণযোগ্যতা বেড়ে যাবে।

৪. ব্যতিক্রম কিছু বলে প্রশংসা করুন
মানুষ হয়তো ভুলে যাবে আপনি কি করেছেন, আপনি কি বলেছেন। কিন্তু ভুলবেনা আপনি তাকে কেমন অনুভব করিয়েছেন, যেটা সে ফীল করেছে। তাই তাকে ভিন্ন কিছু অনুভুতি পাওয়াতে চেষ্টা করুন।

ধরুন কোনো সুপার-ডুপার টিভি মডেল আপনার এলাকায় বেড়াতে এসেছেন। আপনি তাকে দেখে বললেনঃ ওয়াও! আপনি কত সুন্দর, আপনার সবগুলো অভিনয় আমি দেখেছি। কিন্তু বিনিময়ে তার কাছে তেমন কোনো প্রতিউত্তর আপনি পাবেন না।

কেন, জানেন? কারন সে সুন্দর, ভালো অভিনয়.. এইসকল কথা আর প্রশংসা হাজার বার শুনেছে এবং শুনতে শুনতে খুবই অভ্যস্ত। তাই এইসকল কথা তার মনে তেমন কোনো দোলা দেয়নি।

তাই একটু ভিন্নভাবে কারোর প্রশংসা করতে শিখুন। এরজন্য মিথ্যা বলতে হবে তা না। এটা হতে পারে এমন- আপনার হাসিটা সুন্দর, দেখলে মনে হয় আপনার চোখও হাসছে। আপনার কপালের দিকে তাকালেও মনেহয় হাস্যোজ্জল একটি অংশ। দেখবেন সে আপনার এই কথাটা পছন্দ করেছে এবং আপনাকে মনেও রেখেছে।

৫. অপরজনের মতামত শুনুন
প্রতিটি মানুষ তার কাছে কোনো ব্যাপারে পরামর্শ বা মতামত নেয়া হোক- এটা সে পছন্দ করে। তাই তাকে কোনো ব্যাপারে মতামত প্রকাশ করতে বলুন।

এমন না যে আপনি তাকে ইরাক-আফগানিস্তানের পারমাণবিক সম্পর্ক নিয়ে তার মতামত জিজ্ঞেস করবেন, যেটাতে সে বিব্রত হতে পারে বা জানা না থাকতে পারে। তাকে জিজ্ঞেস করতে পারেন সে সর্বশেষ কোন মুভিটা দেখেছে, সেটা কেমন ছিল, তার কাছে কেমন লেগেছে। এরকম টাইপ মতামত।

৬. অন্যমনষ্ক হবেন না
অপরজন যখন আপনাকে কিছু সম্পর্কে বলবে বা মতামত প্রকাশ করবে, তখন তার কথা মনযোগ দিয়ে শুনুন। অন্যমনষ্ক হয়ে কথা শুনবেন না বা কথা বলবেন না।

এমন যেন না হয় যে- আপনি ডেস্কে বসে কথা বলছেন, আপনার সামনে আপনার ল্যাপটপ আর আপনি সেটার দিকে তাকিয়ে আপনার পাশেরজনকে বললেন, “আপনি বলুন, আমি শুনছি”। প্রথম সাক্ষাৎে কাওকে এমন কখনো বলবেন না যে আপনি একসাথে অনেকগুলো কাজ করতে পারেন। বা আপনার ওয়াইফাই পাসওয়ার্ড কি?

তার প্রতিটি কথায় আপনি প্রত্যক্ষ উপস্থিত থাকুন, এবং চোখাচোখি করুন। মনে রাখবেন, আপনি শোনার জন্য শুনবেন, জবাব দেয়ার জন্য না।

৭. নাম, স্থান, পছন্দ সম্পর্কে ধারনা রাখুন
কারোর সাথে প্রথম সাক্ষাৎে যদি তার পছন্দের কিছু বিষয় জেনে নিতে পারেন এবং পরবর্তী সময়ে সেগুলো সম্পর্কে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন, সে স্বভাবতই খুশি হয়ে যায়। এমন কি অনেকদিন পর তার সাথে দেখা হওয়ার পর তার পোষা প্রাণিটির নাম বলে জিজ্ঞেস করলেন সে কেমন আছে, এভাবে তাকে তাক লাগিয়ে দিতে পারেন।

তার নাম, পছন্দের জায়গা, পোষা প্রাণি, পছন্দের খাবার বা অন্য কোনোকিছু মনে রাখার চেষ্টা করুন। পারলে প্রথম সাক্ষাতের আগে তার সম্পর্কে টুকিটাকি কিছু বিষয় জেনে যাবেন।

এভাবেই নতুন যে-কারোর সাথে শুরু করতে পারেন আলাপচারিতা। ডুবে যেতে পারেন গভীর কোনো কথার সাগরে।

খেয়াল করুন, আলাপচারিতা হলো একটি বইয়ের মতো। এর আছে আলাদা আলাদা পেইজ, চ্যাপ্টার এবং আপনি চাইলেই উল্টিয়ে পাল্টিয়ে দেখতে পারবেন, জানতে পারবেন অনেক কিছু।

নতুন নতুন মানুষের সাথে পরিচিত হচ্ছেন মানে আপনি একটি নতুন বই পড়ছেন, প্রতিটি মানুষ একেকটি বই। আর এই পৃথিবীটা হলো একটি সুন্দর, গোছানো বইয়ের লাইব্রেরী।

আমার ব্লগের মূল লেখাঃ https://blog.sanzidscloud.com/2019/08/07/7technics/
© কৌশলগুলো মালভিকা নামের একজন রেডিও জকি’র টেড-টক থেকে পয়েন্টিং করা।
_________
Md. Sanzidul Islam
Lecturer, Dept. of SWE
Daffodil International University
Cell: +880 1864007005
Portfolio: https://sanzidscloud.com
102, Shukrabad, Mirpur Road
Dhanmondi, Dhaka- 1207

Offline Md.Towhiduzzaman

  • Jr. Member
  • **
  • Posts: 71
  • Test
    • View Profile
Md. Towhiduzzaman
Asst. Coordination Officer
Department of CSE & English
E-Mail: towhiduzzaman@daffodilvarsity.edu.bd
Contact No: 01991195595

Offline sanzid.swe

  • Jr. Member
  • **
  • Posts: 53
  • Hi, this is Sanzid, learning to learn!
    • View Profile
    • Sanzid's Cloud
_________
Md. Sanzidul Islam
Lecturer, Dept. of SWE
Daffodil International University
Cell: +880 1864007005
Portfolio: https://sanzidscloud.com
102, Shukrabad, Mirpur Road
Dhanmondi, Dhaka- 1207