খুদে উদ্যোক্তাদের মিলনমেলা

Author Topic: খুদে উদ্যোক্তাদের মিলনমেলা  (Read 71 times)

Offline Sultan Mahmud Sujon

  • Administrator
  • Hero Member
  • *****
  • Posts: 2600
  • Sultan Mahmud Sujon,Admin Officer
    • View Profile
    • Higher Education


‘চাকরি খুঁজব না, চাকরি দেব’ তরুণদের মধ্যে এ প্রতিপাদ্য ইদানীং বেশ জনপ্রিয় হলেও অনেকের মধ্যেই ক্যারিয়ার প্ল্যানিংয়ে উদ্যোক্তা হওয়ার প্রশ্নে সংশয় দেখা যায়। ব্যবসায় উদ্যোগের কণ্টকাকীর্ণ পথ মাড়ানোর ভয়ে অনেক তরুণই শেষ পর্যন্ত চাকরির সংক্ষিপ্ত পথই বেছে নেন। সাহস, ইচ্ছাশক্তি ও কর্মস্পৃহা নিয়ে ব্যবসা শুরু করা তরুণদের সংখ্যা প্রয়োজনের তুলনায় কম হলেও থেমে নেই অনেক স্বপ্নবাজ তরুণের নিভৃত পদযাত্রা।

এমনই একঝাঁক খুদে উদ্যোক্তার দেখা মিলল ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির নয়নাভিরাম ক্যাম্পাসে। ১১ ও ১২ ফেব্রুয়ারি বিশ্ববিদ্যালয়টির বিবিএ অনুষদের উদ্যোগে আশুলিয়ায় অবস্থিত স্থায়ী ক্যাম্পাসে খুদে উদ্যোক্তাদের সৃজনশীলতা প্রদর্শনের সুযোগ প্রদানের লক্ষ্যে অনুষ্ঠিত হয় ‘স্টার্টআপ এক্সপো ২০২০’।

দুই দিনব্যাপী এ অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন ড্যাফোডিল গ্রুপের চেয়ারম্যান ড. সবুর খান। এতে প্রায় ১৮টি দল তাদের ব্যবসার আইডিয়ার বিস্তারিত বিবরণ তুলে ধরে। স্টল ঘুরে দেখা যায়, শিক্ষার্থীরা প্রচলিত-অপ্রচলিত বিভিন্ন পণ্যসামগ্রী নিজস্ব কৌশলে ভোক্তার কাছে উপস্থাপন করছেন। চা, মুড়ি, তেহারি, পিঠার মতো সহজলভ্য জিনিসগুলো তাদের উপস্থাপন ও বিপণন কৌশলের জন্য ভিন্ন এক আবেদন তৈরি করে।

ওমর ফারুক পড়ালেখা শেষ করে উদ্যোক্তা হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন। প্রদর্শনীতে তিনি তার দলের সদস্যদের সঙ্গে তেহারি ও হাতে তৈরি তেঁতুলের চাটনি নিয়ে এসেছেন। এর মধ্যে ব্যতিক্রম কী আছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা তেহারিতে যে তেল ব্যবহার করছি, তা রাইসব্র্যান অয়েল। এটি কোলেস্টেরলমুক্ত তেল। তাই এ তেহারি অধিক স্বাস্থ্যকর। এছাড়া আমরা তেহারির সঙ্গে হাতে তৈরি তেঁতুলের চাটনি দিচ্ছি এবং কলাপাতায় খাবার পরিবেশন করছি। কলাপাতায় খাবার পরিবেশনের বিষয়টা একটি গ্রামীণ ও ট্র্যাডিশনাল ফ্লেভার নিয়ে এসেছে। এতে অনেক ভোক্তা আকৃষ্ট হচ্ছেন।

ফুল নিয়েও যে ভিন্নভাবে চিন্তা করা যায়, সেই আইডিয়া নিয়ে হাজির হয়েছেন আফরিন সুলতানা। তার স্টলে দেখা গেল হরেক রকম ফুলের সমাহার। ফুল বিক্রি করে সমৃদ্ধ ক্যারিয়ার গড়া সম্ভব কিনা জনতে চাইলে আফরিন জানান, ফুল একটি বহুল ব্যবহূত পণ্য। বর্তমানে যেকোনো অনুষ্ঠান ফুল ছাড়া কল্পনা করা যায় না। প্রতিদিন তাই প্রচুর পরিমাণ ফুলের চাহিদা রয়েছে আমাদের দেশে। এ চাহিদা পূরণে আমরা ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানিগুলোর সঙ্গে কোলাবোরেশনের মাধ্যমে অর্ডার নিয়ে ফুল সরবরাহ করতে চাচ্ছি।



প্রদর্শনীতে আরো ছিল হাতে তৈরি পিঠা, বিভিন্ন প্রকারের চা, মৃিশল্পের রকমারি শৌখিন সামগ্রী, ভিন্ন ধরনের গহনা, ছোট ছোট টবে ক্যাকটাস ও ফুলের গাছ, উপহার সামগ্রী ইত্যাদি।

অনুষ্ঠানের বিষয়ে ড্যাফোডিল গ্রুপের চেয়ারম্যান ড. সবুর খান বলেন, আমাদের দেশে নতুন উদ্যোক্তা তৈরি হওয়ার হার খুব কম। কিন্তু ব্যবসায় উদ্যোগ ছাড়া আমাদের দেশের বিপুল সংখ্যক শিক্ষিত বেকারের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা সম্ভব নয়। তাই আমরা চেষ্টা করছি শিক্ষার্থীদের মধ্যে উদ্যোক্তা হওয়ার উৎসাহ সৃষ্টি করতে। তরুণদের মধ্যে যারা ভালো আইডিয়া ও অদম্য ইচ্ছাশক্তি নিয়ে কাজ করবে, আমরা তাদের সার্বিকভাবে পৃষ্ঠপোষকতা করব।

প্রদর্শনীর আহ্বায়ক সৈয়দ মারুফ রেজা বলেন, শুধু পুঁথিগত বিদ্যা দিয়ে আসলে উদ্যোক্তা হওয়া সম্ভব নয়। এর জন্য প্রয়োজন মাঠে নেমে হাতে-কলমে অভিজ্ঞতা অর্জন। আমরা চেষ্টা করছি পড়াশোনা শেষ হওয়ার আগেই একজন শিক্ষার্থী যেন সেই অভিজ্ঞতাটা অর্জন করতে পারে। এর মাধ্যমে বছরে যদি চার-পাঁচজনও সফল উদ্যোক্তা বের হয়ে আসে, তাহলেই আমাদের প্রচেষ্টা সার্থক হবে।


Source: https://bonikbarta.net/home/news_description/221552/%E0%A6%96%E0%A7%81%E0%A6%A6%E0%A7%87-%E0%A6%89%E0%A6%A6%E0%A7%8D%E0%A6%AF%E0%A7%8B%E0%A6%95%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BE%E0%A6%A6%E0%A7%87%E0%A6%B0-%E0%A6%AE%E0%A6%BF%E0%A6%B2%E0%A6%A8%E0%A6%AE%E0%A7%87%E0%A6%B2%E0%A6%BE