মূসা এবং খিজির (আ) এর ঘটনা থেকে একটি শিক্ষা

Author Topic: মূসা এবং খিজির (আ) এর ঘটনা থেকে একটি শিক্ষা  (Read 239 times)

Offline Badshah Mamun

  • Administrator
  • Hero Member
  • *****
  • Posts: 1899
    • View Profile
    • Daffodil International University
মূসা এবং খিজির (আ) এর ঘটনা থেকে একটি শিক্ষা
------------ * --------------

আমি চাই আপনারা এভাবে চিন্তা করুন— বাস্তবতা হলো দুই রকম। একটা আপনি চোখে দেখতে পান আর অন্যটা চোখে দেখা যায় না। এই মুহুতে আমি আপনাদের দেখতে পাচ্ছি। আপনাদের দুই কাঁধের ফেরেশতাদের আমি দেখতে পাচ্ছি না। আমি উনাদের দেখতে পাচ্ছি না। বুঝতে পারছেন? কিন্তু, উনারা বাস্তব। উনারা এখানেই আছেন।

তাহলে এক ধরণের বাস্তবতা আমরা দেখতে পাই আর অন্য বাস্তবতা আমরা দেখতে পাই না।

লাইলাতুল কদরে আকাশের দিকে তাকালে আপনি শুধু আকাশই দেখতে পান। কিন্তু অদৃশ্য বাস্তবতা হলো— সমগ্র আকাশ অবতরণরত ফেরেশতাদের দ্বারা ছেয়ে থাকে।" تَنَزَّلُ الۡمَلٰٓئِکَۃُ وَ الرُّوۡحُ فِیۡهَا بِاِذۡنِ رَبِّهِمۡ ۚ مِنۡ کُلِّ اَمۡرٍ" - “সে রাতে ফেরেশতারা ও রূহ (জিবরাইল) তাদের রবের অনুমতিক্রমে সকল সিদ্ধান্ত নিয়ে অবতরণ করে।” (৯৭:৪) এটা হলো একটি অদৃশ্য বাস্তবতা। বুঝতে পারছেন? তাহলে বাস্তবতা দুই ধরণের। একটা হলো দৃশ্যমান বাস্তবতা এবং অপরটা হলো অদৃশ্যমান বাস্তবতা। 

এখন, এই জ্ঞান আমরা যা প্রতিনিয়ত দেখতে পাচ্ছি— আমাদের সকল মতামতগুলো, সকল অনুভূতিগুলো এবং সকল চিন্তা-ভাবনাগুলো সবসময় দৃশ্যমান বাস্তবতা দ্বারা প্রভাবিত হয়। কারণ আমাদের নিকট বাস্তবতা এটাই। খবরে যা দেখতে পান, নিজে যার অভিজ্ঞতা অর্জন করেন, যখন কেউ আপনাকে কিছু বলে, যখন কিছু অনুভব করেন এগুলো হলো আপনার জীবনের বাস্তবতা। 

কিন্তু, এই বাস্তবতার বাহিরেও আছে আরেক ধরণের বাস্তবতা। সোর্স কোডের মত। যেমন, আপনি শুধু অ্যাপের সামনের দিকটাই দেখতে পান, এর পেছনে যে প্রোগ্রামিং কোড রয়েছে তা দেখতে পান না। জগতের ঘটে যাওয়া ঘটনাবলীর মাঝেও আল্লাহ একটা পর্দা, একটা অন্তরাল রেখে দিয়েছেন। আল্লাহ আজ্জা ওয়া জাল্লা কিয়ামতের দিন সম্পর্কে বলেন—  فَکَشَفۡنَا عَنۡکَ غِطَآءَکَ فَبَصَرُکَ الۡیَوۡمَ حَدِیۡدٌ - "তোমার সামনে যে পর্দা ছিল তা আমি সরিয়ে দিয়েছি। (সে কারণে) তোমার দৃষ্টি আজ খুব তীক্ষ্ম।" (৫০:২২) তুমি খুব পরিষ্কারভাবে সব দেখতে পাচ্ছ। অন্য কথায়, আল্লাহ এখন পর্দা সরিয়ে ফেলেছেন। তাই, তুমি এখন অদৃশ্য বাস্তবতাও দেখতে পাচ্ছ।

ব্যাপারটা হলো, আমাদের জীবনের অধিকাংশ ক্ষেত্রে... আসলে আমাদের জীবনের প্রায় সকল ক্ষেত্রে আমরা কখনোই জানতে পারি না আল্লাহ যা যা করেন তা কেন করেন। আমরা জানি না। আমরা জানি না কেন আপনি গাড়ি এক্সিডেন্টের কবলে পড়লেন। আমরা জানি না। আমরা জানি না কেন আপনি চাকরি হারালেন। আমরা জানি না কেন আপনি অসুস্থ হয়ে পড়লেন। আমরা জানি না কেন এই সমস্যা ঘটলো, কেন ঐ সমস্যা দেখা দিলো। আমরা জানি না কেন আপনার ভাই স্কুলে ভালো রেজাল্ট করলো আর আপনি ফেল করলেন। আমরা জানি না। আমরা জানি না কেন আপনি বেঁটে আর আপনার সকল ভাই-বোনেরা যথেষ্ট লম্বা।

আপনি তখন ভাবতে শুরু করেন, আল্লাহ কেন এমনটা করলেন। তিনি কেন আমাকে বলেন না যে, তিনি আমার কাছ থেকে কী চান। কেন তিনি অদৃশ্যে জগতের পর্দা একটুখানি সরিয়ে দেন না যেন আমি দেখতে পারি আসল রহস্য কী। বড় পরিকল্পনাটি আসলে কী। আমি যদি জানতে পারতাম তাহলে হয়তো আমার অস্থিরতা দূর হত।

কারণ, যদি না জেনে থাকেন...যদি কোনো বিচারক আপনার সম্পর্কে কোনো রায় দিয়ে থাকে... ধরুন, বিচারক বলল, "আপনাকে এতো টাকা জরিমানা দিতে হবে।" আপনি তখন স্বাভাবিকভাবেই জিজ্ঞেস করবেন কেন আমাকে জরিমানা দিতে হবে? বিচারক উত্তরে বললেন— "সেটা অদৃশ্য জগতের জ্ঞান। আমি আপনাকে তা বলতে যাচ্ছি না।" 

কোনো বিচারক যখন আপনার সম্পর্কে কোনো রায় দিয়ে থাকে আর আপনি জানেন না কেন এই রায়। আপনি তখন অশান্ত হয়ে উঠেন। "আমি এটা মেনে নিতে পারি না। আমি এর একটা ব্যাখ্যা চাই। আপনি তো এর ব্যাখ্যা আমার কাছ থেকে গোপন রাখতে পারেন না।"

খিজির (আ) এর সাথে ঘটে যাওয়া ঘটনাগুলোর মাধ্যমে আল্লাহ মূসা (আ) কে দেখালেন সবকিছুর সবসময় ব্যাখ্যা আছে। কিন্তু আল্লাহ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন- وَ مَا کَانَ اللّٰهُ لِیُطۡلِعَکُمۡ عَلَی الۡغَیۡبِ - আর আল্লাহ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি তোমাদেরকে অদৃশ্য জগতের খবর জানাবেন না। (৩:১৭৯)  সকল দৃশ্যমান বিষয়ের পেছনে রয়েছে আরেকটি অদৃশ্য জগত। আর তিনি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আপনাদেরকে সেটা জানাবেন না।

কিন্তু, এই ঘটনায় আল্লাহ মূসা (আ) এর শিক্ষকের মাধ্যমে অদৃশ্য জগতের পর্দাটা সামান্য একটু তুলে ধরলেন যেন আমরা কিছুটা ধারণা পেতে পারি কী ঘটছে ঘটনার অন্তরালে। যেন আমরা বুঝতে পারি দৃশ্যমান ঘটনার পেছনে অদৃশ্য কারণও রয়েছে। কিন্তু, তিনি সেই পর্দা সবসময় উন্মোচন করেন না।

এটা বিশেষ ধরণের জ্ঞান যা খিজির (আ)-কে দেওয়া হয়েছে। যা তাঁর প্রতি বিশেষ ধরণের দয়া। আল্লাহ সেই জ্ঞান সবাইকে দান করেন না। তিনি এমনকি সেটা মূসা (আ)-কেও দান করেন নি। অর্থাৎ, এটা এমন এক বাস্তবতা যা এমনকি তিনি তাঁর রাসূলদের নিকটেও উন্মোচিত করেন না। আলাইহিমুস সালাতু ওয়াস সালাম।

— নোমান আলী খান

https://www.facebook.com/NAKBangla
Md. Abdullah-Al-Mamun (Badshah)
Assistant Director, Daffodil International University
01811-458850
cmoffice@daffodilvarsity.edu.bd
www.daffodilvarsity.edu.bd

www.fb.com/badshahmamun.ju
www.linkedin.com/in/badshahmamun
www.twitter.com/badshahmamun