এভাবেই আমরা আমাদের প্রশান্তি পাওয়ার পথগুলো বন্ধ করে রাখছি

Author Topic: এভাবেই আমরা আমাদের প্রশান্তি পাওয়ার পথগুলো বন্ধ করে রাখছি  (Read 69 times)

Offline Kakuly Akter

  • Newbie
  • *
  • Posts: 41
  • Test
    • View Profile
এভাবেই আমরা আমাদের প্রশান্তি পাওয়ার পথগুলো বন্ধ করে রাখছি

আমরা আসলে আমাদের জীবনে প্রশান্তি চাই, কিন্ত কোথায় সেই প্রশান্তি পাওয়া যাবে সেখানে আমরা ছুটছি না।

আমরা খেলার মাঠে আনন্দ খুজছি, কিন্ত সালাতের সময় হয়েছে আমরা যাচ্ছি না।
কারন আমরা খেলাধুলাকেই প্রশান্তি পাওয়ার চয়েস ধরে নিচ্ছি।

নেটফ্লিক্সে ডুবে আছি,মসজিদের মিনার থেকে আজানের সুর ভেসে আসছে, কিন্ত আমরা সালাতের জন্য যাচ্ছি না। হারামে আরাম খুঁজতেছি৷ 

একটু মন খারাপ হচ্ছে, হেডফোন কানে লাগিয়ে প্লে লিস্ট থেকে স্যাড সং বাজিয়ে মনকে প্রশান্ত করার চেষ্টা করছি। অথচ আল্লাহর রাসূল (সাঃ) মিউজিকের শব্দ শুনে কানে আনগুল গুঁজে দিয়েছেন হারাম থেকে বেচে থাকতে আর আমরা হারামে ডুবে যাচ্ছি।

আমাদের জীবন অসহ্যনীয় হয়ে পড়ছে, কারন খুঁজতে গেলে দেখা যাচ্ছে, আমার  সুদী ব্যাংকের টাকায় জীবন চলছে।জীবন দুর্বিষহ।

আমার দোয়া কবুলই হচ্ছে না।কারন খুঁজতে গেলে দেখা যাচ্ছে  হারাম খাবার খাচ্ছি। দোয়া কবুল হওয়ার পথ নিজেই বন্ধ করে রেখেছি।

ফ্রেন্ড সার্কেলের সাথে  অশ্লীল আলাপন, জাস্ট ফ্রেন্ডদের সাথে নুড টপিকে কথা বলে একটু আরাম খুঁজতেছি। অথচ দ্বীনি মজলিসে গিয়ে বসলে খুব সহজেই প্রশান্তি আসতো।

রাস্তাঘাটে চলার পথে বেগানা নারীর দিকে অপলক দৃষ্টিতে তাকিয়ে থাকছি, হৃদয় অশান্ত হচ্ছে । চাহিদা উতলে উঠছে। অথচ দৃষ্টি হেফাজত করার চেষ্টাই করছি না। সুখটা আসবে কি করে! 

রুমে একাকী বসে আছি শয়তান একটু হৃদয় মিনারে কড়া নাড়ছে, ওমনি করেই হারামের স্বাদ পেতে দুমড়ে পড়ছি। নীল দুনিয়ায় বিচরন করছি, অতঃপর শেষ পরিনতি যেখানে থামার কথা সেখানেই..
অথচ আল্লাহ সুবহানাহু ওয়াতাআ'লা আমাদেরকে যিনার ধারে কাছেও যেতে নিষেধ করেছেন। কারন আল্লাহ জানেন আমরা সেখান থেকে ফিরতে পারবো না। ফাঁদে পড়েই যাবো! 

প্রতিটি স্টেপ এ শয়তান সাকসেসফুল হচ্ছে। আমরা হেরে যাচ্ছি কামনা বাসনা চরিতার্থ করার কাছে। অন্তরে সাকিনাহ আসবে কই থেকে? 

এভাবেই আমরা আমাদের প্রশান্তি পাওয়ার পথগুলো বন্ধ করে রাখছি। আর বুলি আওড়াচ্ছি আল্লাহ তায়ালা আমাকে সুখ দেন না কেন!

মুলত অন্তরের প্রশান্তি পাওয়া যাবে দ্বীনি মজলিসে যেখানে আল্লাহ নামসমূহ স্মরণ করা হয়।প্রশান্তি আসবে হারাম থেকে বেচে থাকার মাধ্যমে। চক্ষু শীতলতা আসবে সালাতের মাধ্যমে। নজর হেফাজত করার মাধ্যমেই আসবে  ইবাদতে খুশুখুযু । কুরআনের সানিধ্যে আসলে জীবন ফুটে উঠবে সফলতায়। আখলাক পবিত্র করার মাধ্যমেই অর্জিত হবে সকল সফলতা।
দ্বীনি সার্কেলের সাথে জড়িত থাকার মাধ্যমে সহজ পথ। রাসূল (সাঃ) এর সুন্নাহ কে উজ্জীবিত করার মাধ্যমে জীবন হবে সুন্দর। তবেই ষোলআনা পরিপূর্ণতায় ভরে উঠবে গোটা জিন্দেগী।

আল্লাহ সুবহানাহু ওয়াতাআ'লা আমাদের সবাইকে তাওফিক দান করুন। আমিন।

Source: Social Media
Kakuly Akter
Student Associate,
Daffodil Islamic Center.